বুধবার, 16 অক্টোবর ২০১৯ | বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   জাতীয়
  রোহিঙ্গা সংকট : জাতিসংঘে ৪ প্রস্তাব দেবেন প্রধানমন্ত্রী
  25, September, 2019, 11:57:15:AM

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট : বিশ্ব সম্প্রদায়কে রোহিঙ্গা সংকটের স্থায়ী সমাধান খোঁজার তাগিদ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, রোহিঙ্গাদের অবশ্যই তাদের মাতৃভূমি মিয়ানমারে ফিরে যেতে হবে। আর এ সঙ্কটের সমাধানে সুনির্দিষ্ট চারটি প্রস্তাব তিনি জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনে উপস্থাপন করবেন বলে জানিয়েছেন।  

মঙ্গলবার জাতিসংঘ সদর দপ্তরে ইসলামী দেশগুলোর সংগঠন ওআইসি এবং জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন আয়োজিত ‘রোহিঙ্গা ক্রাইসিস: এ ওয়ে ফরোয়ার্ড’ শীর্ষক এক উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে ওই চার প্রস্তাবের কথা জানান শেখ হাসিনা।

আগামী শুক্রবার জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনে ভাষণ দেবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। সেখানে তিনি এই চার প্রস্তাব তুলে ধরবেন বিশ্বনেতাদের সামনে।

রোহিঙ্গা বিষয়ক এ অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা বলেন, জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭২তম অধিবেশনে আমি পাঁচটি প্রস্তাব দিয়েছিলাম। যেখানে কফি আনান কমিশনের সুপারিশগুলোর সম্পূর্ণ বাস্তবায়ন, রাখাইন রাজ্যে আলাদা ‘বেসামরিক পর্যবেক্ষিত সেইফ জোন’ প্রতিষ্ঠার কথা অন্তর্ভুক্ত ছিল। এবার আমি নিম্নলিখিত বিষয়গুলো জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে (ইউএনজিএ) উপস্থাপন করব।

১. রোহিঙ্গাদের টেকসই প্রত্যাবর্তন বিষয়ে মিয়ানমারকে অবশ্যই তাদের রাজনৈতিক ইচ্ছে পরিষ্কার করতে হবে। এজন্য রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ কী করছে সেটাও সুস্পষ্টভাবে বলতে হবে।

২. বৈষম্যমূলক আইন ও চর্চা পরিত্যাগ করতে হবে এবং রোহিঙ্গা প্রতিনিধিদের উত্তর রাখাইন রাজ্যে ‘যাও এবং দেখ’ এই নীতিতে পরিদর্শনের অনুমতি দিয়ে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষকে অবশ্যই তাদের মধ্যে আস্থা তৈরি করতে হবে।

৩. রাখাইন রাজ্যে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের বেসামরিক পর্যবেক্ষক মোতায়েন করে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষকে অবশ্যই রোহিঙ্গাসহ সবার নিরাপত্তা ও সুরক্ষার নিশ্চয়তা (গ্যারান্টি) দিতে হবে।
 
৪. আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে অবশ্যই রোহিঙ্গা সংকটের মূল কারণগুলো বিবেচনায় নিতে হবে এবং রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সংঘটিত নৃশংসতার জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে।

বক্তব্যের শুরুতেই শেখ হাসিনা বলেন, আরও একটি বছর পেরিয়ে গেল, অথচ রোহিঙ্গ সঙ্কটের কোনো সমাধান পাওয়া গেল না, এটা হতাশাজনক।

বর্তমানে ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়ে আছেন, যাদের মধ্যে সাড়ে সাত লাখ রোহিঙ্গা এসেছেন ২০১৭ সালের অগাস্টে রাখাইনে নতুন করে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর দমন-পীড়ন শুরু হওয়ার পর। জাতিসংঘ ওই অভিযানকে ‘জাতিগত নির্মূল’ অভিযান হিসেবে বর্ণনা করে আসছে। মিয়ানমার উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি করতে ব্যর্থ হওয়ায় দুই দফা চেষ্টার পরও রোহিঙ্গাদের কাউকে তাদের ভিটেমাটিতে ফেরত পাঠানো যায়নি।

শেখ হাসিনা বলেন, মানবিক কারণে এই রোহিঙ্গাদের জন্য সীমান্ত খুলে দিয়েছিল বাংলাদেশ। তাদের জন্য খাবার, আশ্রয়, স্বাস্থ্যসেবা, সুপেয় পানি ও পয়ঃনিষ্কাশনের ব্যবস্থা বাংলাদেশ করে যাচ্ছে। নিজেদের দেশে ফেরার অপেক্ষায় থাকা এই মানুষগুলোর মৌলিক চাহিদা পূরণে যা যা দরকার তা পূরণের চেষ্টা বাংলাদেশ অব্যাহত রাখবে।

তিনি বলেন, আমি আবারও বলছি, রোহিঙ্গা সঙ্কটের সৃষ্টি হয়েছে মিয়ানমারে এবং এর সমাধানও সেখানে খুঁজে বের করতে হবে। মানবিক সহায়তা ও অন্যান্য সহযোগিতার মাধ্যমে তাদের তাৎক্ষণিক প্রয়োজনগুলো মেটানো গেলেও সঙ্কটের অবসানে মিয়ানমারে এর একটি স্থায়ী সমাধানে পৌঁছানো গুরুত্বপূর্ণ। শত শত বছর ধরে এই রোহিঙ্গারা যেখানে বসবাস করে আসছে, তাদের অবশ্যই সেখানে ফিরে যাওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।

রোহিঙ্গা সঙ্কটকে একটি ‘রাজনৈতিক সমস্যা’ হিসেবে বর্ণনা করে শেখ হাসিনা বলেন, এ সমস্যার মূল মিয়ানমারে গভীরে প্রেথিত। সুতরাং এ সঙ্কটের সমাধান মিয়ানমারের ভেতরেই পাওয়া যাবে।

রোহিঙ্গাদের টেকসই, নিরাপদ ও স্বেচ্ছা প্রত্যাবর্তন নিশ্চিত করতে রাখাইনে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনাগুলোর জন্য জবাবদিহিতা নিশ্চিত করাও গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করেন শেখ হাসিনা।

“এক্ষেত্রে বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের চলমান কার্যক্রম অনুসরণ করছে। আমরা বিশ্বাস করি, এ বিষয়ে জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে ওআইসি অ্যাড-হক মন্ত্রিপরিষদ গ্রুপের মাধ্যমে বড় ভূমিকা রাখতে পারে।”

রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিতে গিয়ে কক্সবাজারের পরিবেশ ও প্রতিবেশের ওপর যে প্রভাব পড়েছে, সে কথা তুলে ধরে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বৈঠকে বলেন, রোহিঙ্গারা ৮০০ একরের বেশি বনভূমিতে আশ্রয় নিয়েছে যাতে বাস্তুসংস্থান ও পরিবেশের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

রোহিঙ্গাদের জন্য ভাসানচরে অধিকতর উন্নত আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণ প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অধিক ঘনবসতির সমস্যা সমাধান এবং মানবিক সেবার সুবিধার্থে সুরক্ষার সমস্ত বিধান রেখে রোহিঙ্গাদের জন্য আমরা ভাসানচরের উন্নয়ন করেছি। মিয়ানমারে ফিরে না যাওয়া পর্যন্ত রোহিঙ্গাদের জন্য ভাসানচরে উন্নত আবাসন এবং জীবিকার সুযোগও থাকবে।
 
অনুষ্ঠানে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ রোহিঙ্গা নিধনের বর্ণনা দিতে গিয়ে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় কুখ্যাত কনসেন্ট্রেশন ক্যাম্পে হত্যা এবং পরে কম্বোডিয়ায় গণহত্যার সঙ্গে এর তুলনা করেন।

মাহাথির মোহাম্মদ বলেন, রাখাইনে বহু রোহিঙ্গা অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত হয়েছে। বিশ্ব যখন এটাকে অতীতের সেই কুখ্যাত কনসেন্ট্রেশন ক্যাম্পের সঙ্গে তুলনা করে, তখন মিয়ানমার তা অস্বীকার করে।

তিনি বলেন, মিয়ানমার বলতে চায়, তারা সন্ত্রাসীদের হুমকি মোকাবেলায় অভিযান চালিয়েছে। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, সেখান থেকে লাখ লাখ আতঙ্কিত মানুষ বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়েছে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের কারণে।

মাহাথির বলেন, কক্সবাজারের ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের বসবাসের সময় যত দীর্ঘ হবে, তারা তত বেশি মরিয়া হয়ে উঠবে। আর মিয়ানমার এখনও রোহিঙ্গাদের ফেরার উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি করতে পারেনি। এ সমস্যার সমাধানে মিয়ানমার যদি আন্তরিক হয়ে থাকে, সেটা তাদের দেখাতে হবে।

এক্ষেত্রে মালয়েশিয়া সরকারের অবস্থান তুলে ধরে মাহাথির বলেন, রোহিঙ্গারা যাতে নিরাপদে, স্বেচ্ছায় এবং মর্যাদার সঙ্গে ফিরতে পারেম সেই প্রস্তুতি নিতে হবে আগে। আর রোহিঙ্গাদের পুরোপুরি নাগরিকত্বের অধিকার দিলেই কেবল সেটা সম্ভব।

তিনি বলেন, এটা স্পষ্ট যে মিয়ানমার সরকার সেখানে জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হয়েছে। আর নিপীড়ন-নির্যাতনে দায়ী ব্যক্তিরা যদি প্রশাসনযন্ত্রে সক্রিয় থাকে, তাহলে এ সঙ্কটের সমাধান কীভাবে সম্ভব?

তিনি আরও বলেন, ২০১৭ সালের কোনো ঘটনার বিচার হয়নি। এমনকি ইন দিন গ্রামের ঘটনায় মিয়ানমার যাদের দোষী সাব্যস্ত করেছিল, তাদের দশ বছরের সাজা দেওয়ার পর এক বছরের মাথায় মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী বলেন, এটা স্পষ্ট যে সঙ্কটের সমাধানে কার্যকর কোনো উদ্যোগ নিতে মিয়ানমার রাজি নয়। সুতরাং কিছু করার দায়িত্ব এখন আমাদের- আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের ওপর বর্তায়। আর সেই দায়িত্ব পালনের শুরুটা জাতিসংঘের মাধ্যমেই হওয়া উচিৎ বলে মন্তব্য করেন মাহাথির মোহাম্মদ।  

উচ্চ পর্যায়ের এ বৈঠকে ওআইসির মহাসচিবসহ ইসলামী বিভিন্ন দেশের মন্ত্রী ও প্রতিনিধিরা অংশ নেন। এর বাইরে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, জার্মানি, বেলজিয়াম, সুইডেন, সিঙ্গাপুরসহ বিভিন্ন দেশের মন্ত্রী ও প্রতিনিধীরাও উপস্থিত ছিলেন বৈঠকে।

অন্যদের মধ্যে ন্যাশনাল অ্যাডভাইজারি কাউন্সিল অব নিউরো ডেভেলপমেন্ট ডিজঅর্ডার অ্যান্ড অটিজম অব বাংলাদেশের চেয়ারপার্সন সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।



সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : 62        
   শেয়ার করুন
Share Button
   আপনার মতামত দিন
     জাতীয়
দুদক চেয়ারম্যানের পদত্যাগ করা উচিৎ: তাপস
.............................................................................................
গণভবনে আবরারের বাবা-মা
.............................................................................................
খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী বলে বক্তব্য দেয়া সেই অধ্যক্ষ বরখাস্ত
.............................................................................................
‘শিবির সন্দেহে আবরারকে হত্যা’
.............................................................................................
পুলিশের ওপর হামলা : দুই জঙ্গি গ্রেপ্তার
.............................................................................................
ভিসির পদত্যাগ চায় বুয়েট শিক্ষক সমিতি
.............................................................................................
ভূমি সেবা প্রদান ও দুর্নীতি প্রতিরোধই হটলাইনের উদ্দেশ্য: ভূমিমন্ত্রী
.............................................................................................
সরকারি হিসাবে ডেঙ্গুতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৯৩
.............................................................................................
আবরার হত্যা : ছাত্রলীগ নেতা অমিত সাহা আটক
.............................................................................................
সম্রাটের শারীরিক অবস্থা ভালো: চিকিৎসক
.............................................................................................
বাংলাদেশ-ভারত সাত চুক্তি
.............................................................................................
যুবলীগ নেতা সম্রাট আটক
.............................................................................................
সৌদি আরবে ধরপাকড় : দু’দিনে দেশে ফিরলেন ২৫০ শ্রমিক
.............................................................................................
হায়দ্রাবাদ হাউজে হাসিনা-মোদীর বৈঠক চলছে
.............................................................................................
‘অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং হাইটেক পার্কে বিনিয়োগ করুন’
.............................................................................................
শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসান দুবাইয়ে আটক, দেশে আনার প্রক্রিয়া চলছে
.............................................................................................
চার দিনের সফরে ভারত গেলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের বাণিজ্যিক কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
থানার বাইরে গায়ে আগুন দেয়া সেই কলেজছাত্রী মারা গেছেন
.............................................................................................
দেশের পথে প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
রোহিঙ্গা সংকট আঞ্চলিক নিরাপত্তার হুমকি
.............................................................................................
দুর্নীতিবাজ নিজের দলের হলেও ছাড় পাবে না : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
সম্রাট গ্রেফতার হয়েছে কি না শিগগির জানা যাবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
মহালয়ার মধ্য দিয়ে দুর্গাপূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু
.............................................................................................
ওয়ার্ল্ড স্ট্যান্ডার্ড-সেটার্স কনফারেন্সে যোগ দিতে লন্ডনে যাচ্ছেন বিএইচবিএফসি’র চেয়ারম্যান
.............................................................................................
শেখ হাসিনার ৭৩তম জন্মদিন আজ
.............................................................................................
রোহিঙ্গা সংকট আঞ্চলিক নিরাপত্তার হুমকি : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
লোকমানকে নিয়ে মুখ খুলেছেন পাপন
.............................................................................................
ইউরোপের দুয়ার খুলছে বাংলাদেশিদের জন্য
.............................................................................................
আরও ১০ দিনের রিমান্ডে ‘ক্যাসিনো খালেদ’
.............................................................................................
জামালপুরের সেই ডিসি বরখাস্ত
.............................................................................................
রেলের প্রকল্প বাস্তবায়নে গতি নেই
.............................................................................................
ক্যাসিনো : নেপালিদের পালাতে সহায়তা করায় ২ পুলিশ সদস্য বরখাস্ত
.............................................................................................
সরকারি চাকরি আইন কার্যকর হচ্ছে ১ অক্টোবর
.............................................................................................
ক্যাসিনো : অস্ট্রেলিয়ার দুই ব্যাংকে লোকমানের ৪১ কোটি টাকা
.............................................................................................
পর্যটন খাতে বিনিয়োগ করার আহ্বান প্রতিমন্ত্রীর
.............................................................................................
রোহিঙ্গা সংকটের কারণে বাংলাদেশের উন্নয়ন চ্যালেঞ্জের মুখে : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
রোহিঙ্গা সংকট : জাতিসংঘে ৪ প্রস্তাব দেবেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
‘ভ্যাকসিন হিরো’ পুরস্কারে ভূষিত প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
তেজগাঁও ফুয়াং ক্লাবে ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান চলছে
.............................................................................................
ঢাবিতে ছাত্রলীগের হামলায় ১৫ ছাত্রদল কর্মী আহত
.............................................................................................
চুনোপুঁটি-রাঘববোয়াল বুঝি না, অপরাধীরা ধরা পড়বেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
চুনোপুঁটি-রাঘববোয়াল বুঝি না, অপরাধীরা ধরা পড়বেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
বিশ্ব নদী দিবস আজ
.............................................................................................
গ্রামে মিলছে না ভোক্তার সুফল
.............................................................................................
নূর চৌধুরীকে নিয়ে কানাডার আদালতে বাংলাদেশের পক্ষে রায়
.............................................................................................
নার্সিং হলো সবচেয়ে সম্মানজনক পেশা : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
বিকেলে রাজহংস উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
রাজশাহী পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
কারাগারে বসেই মাদক ব্যবসা
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Nytasoft