রবিবার, ৩১ মে 2020 | বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   জাতীয়
  ‘টক অব দ্য কান্ট্রি’ সড়ক আইন
  4, November, 2019, 12:11:50:PM

নিজস্ব প্রতিবেদক : সড়ক পথে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনায় অকাতরে প্রাণহাণী এবং চরম নৈরাজ্য শৃঙ্খলায় আনতে ১ নভেম্বর থেকে চালু হওয়া সড়ক আইন এখন টক অব দ্য কান্ট্রি। গ্রাম থেকে নগর, সাধারণ নাগরিক থেকে বিদগ্ধজন- সকলের আলোচনায় এখন নতুন সড়ক আইন। দেশের উচ্ছৃঙ্খল পরিবহন সেক্টর এ আইনে কতটা শৃঙ্খলায় আসবে বা যাত্রী সাধারণের জন্য কতটা স্বস্তিদায়ক হবে তা নিয়েই সরব আলোচনা দেশজুড়ে।

আইনটিকে ইতিবাচক হিসেবে দেখা হলেও এর প্রয়োগের প্রক্রিয়া নিয়ে বিতর্ক উঠেছে ইতিমধ্যে। আইন চালুর আগে আগে কোনো ধরনের প্রচার-প্রচারণা ও সতর্কতা করা হয়নি। একই সঙ্গে জরিমানার পরিমাণকে বেশি বলছেন পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা। আর পথচারীদের যত্রতত্র রাস্তা পারাপারের যে পরিমাণ জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে তাকে অস্বাভাবিক বলছেন অনেকে। কোনো ধরনের সচেতনতা কিংবা প্রচারণা ছাড়াই আইন প্রয়োগ করতে গেলে হিতে বিপরীত হওয়ার আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। তাতে আইন যথাযথ কার্যকর করাও অসম্ভব হয়ে পড়বে।

তবে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকর করা হলেও এখনই শাস্তি প্রয়োগ হচ্ছে না। সারা দেশ সচেতনতামূলক প্রচারণার চালানোর জন্য আগামী এক সপ্তাহ নতুন আইনে কোনো মামলা হবে না। শ্রমিকদের বিরুদ্ধে শাস্তি বাড়ানোর বিরোধিতা করে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকরী সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী শাজাহান খান নতুন এই আইন নমনীয় করার দাবি জানিয়েছেন। গত বছরের ২৯ জুলাই রাজধানীর কুর্মিটোলা শহীদ রমিজউদ্দিন কলেজের দুই শিক্ষার্থী বাসচাপায় নিহত হওয়ার ঘটনায় নিরাপদ সড়কের দাবিতে মাঠে নামে শিক্ষার্থীরা। এ আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে ১৯ সেপ্টেম্বর সড়ক পরিবহন আইন পাস করে সরকার। এর ১৪ মাস পর সেটা কার্যকর করা হলো।

নতুন সড়ক আইন নিয়ে রাজধানীসহ সারাদেশে মানুষের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। কেউ কেউ বিষয়টিতে সাধুবাদ জানালেও অনেকেই বলছেন, পরিবহন সেক্টরে দুর্নীতি না কমিয়ে কঠোর আইনের প্রয়োগে লাভের চেয়ে ক্ষতির সম্ভাবনাই বেশি। পথচারীদের মতে, আগের চেয়ে কঠোর এই আইন বাস্তবায়নের জন্য আরও বেশি প্রচার-প্রচারণা চালাতে হবে। কারণ, সড়ক-মহাসড়কের অনিয়ম বহু বছর ধরে চলে আসছে। এটা রাতারাতি বন্ধ করা সম্ভব নয়। আইনটি টেকসই করতে হলে কর্তৃপক্ষকেই আরও দায়িত্বশীল হতে হবে।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারে নাজমুল হাসান নামে এক পথচারী বলেন, অনেক জায়গায় জেব্রা ক্রসিংয়ের চিহ্ন মুছে গেছে। অনেক জায়গায় ফুটওভার ব্রিজ নেই। আবার কিছু জায়গায় মেট্রোরেলের কাজ চলায় অবস্থা আরও করুণ। তাই সামগ্রিক বাস্তবতায় এই আইন বাস্তবায়ন করতে গিয়ে হিমশিম খেতে হবে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে। অবকাঠামোগত ক্রটিগুলো সমাধান করা না হলে সাধারণ মানুষকে আইন মানাতে কষ্ট হবে। আর এটি প্রয়োগের আগে অবশ্যই আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে আরও বেশি নিয়ন্ত্রণের মধ্যে আনতে হবে। নাহলে নিরীহ জনগণের ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা থেকেই যায়। তবে, আমরাও চাই এই আইনের যথাযথ প্রয়োগ হোক। কেননা একটি সুন্দর ঢাকা আমাদের সবারই কাম্য।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিতর্ক থাকলেও এ রকম একটি কঠোর আইনের দরকার ছিল। তবে আইনটি সম্পর্কে দেশবাসীকে ভালোভাবে না জানানোয় মিশ্র প্রতিক্রিয়া আছে আইনজ্ঞ, পথচারী, চালক ও যাত্রীসেবা নিয়ে কাজ করা সংগঠনের নেতাদের মধ্যে। আর আইনে সড়ক মনিটরিং সেলে শ্রমিক ও মালিকপক্ষের লোকদের রাখা নিয়েও আছে আপত্তি।

দুর্ঘটনা রোধে নতুন আইন শক্তভাবে প্রয়োগের ওপর গুরুত্ব দিয়ে ল অ্যান্ড লাইফ ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিষদের সভাপতি ব্যারিস্টার হুমায়ুন কবির পল্লব বলেন, তাহলে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরে আসতে পারে। সড়ক মনিটরিং সেলে যারা কাজ করছেন সেখানে শ্রমিকপক্ষের লোকদের রাখা উচিত হয়নি। সাবেক নৌমন্ত্রী শাজাহান খান ও সাবেক এলজিইডি প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গাকে সড়ক মনিটরিং সেলে রেখে সড়কে পথচারীদের পক্ষে আইনের প্রয়োগ হবে না বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন ব্যারিস্টার হুমায়ুন। তিনি বলেন, তারা পরিবহন শ্রমিক ও মালিক সংগঠনের প্রধান নেতা। তাদের কাছে বিচার দিলে শাস্তি ও ক্ষতিপূরণ পথচারী ও যাত্রীর বিপক্ষে যাবে। এটা এই আইনের একটি বড় গলদ বলে মনে করেন তিনি।

জানতে চাইলে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার আশরাফুল ইসলাম বলেন, সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে শক্তভাবে আইন প্রয়োগের বিকল্প নেই। আর সিস্টেম উন্নত করতে হবে। সড়কে বিআরটিএর ভ্রাম্যমাণ টিম থাকতে হবে।
শিক্ষার্থীদের জন্য ভাড়ায় ছাড়ের মত দিয়ে ব্যারিস্টার আশরাফুল বলেন, এটি নিয়ন্ত্রণ করবে বিআরটিএ। এ বিষয়ে বিআরটিএ আর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে যৌথ যোগাযোগ থাকতে হবে। যাতে করে কেউ এই ভাড়া নিয়ে ঝামেলা না করতে পারে।

সড়কে যাত্রী ও পথচারীদের নিয়ে কাজ করা সংগঠন নিরাপদ সড়ক চাই (নিশচা)-এর চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন মনে করেন, নতুন আইনটি যথাযথভাবে প্রয়োগ করা হলে যাত্রী ও পথচারী উপকৃত হবে। তার দৃষ্টিতে আগের আইনের চেয়ে নতুন আইনটি ভালো হয়েছে।

নতুন আইনটি সড়কের জন্য কতটুকু কার্যকর হবে- এমন প্রশ্নের জবাবে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি জয়নুল আবেদীন বলেন, এক লাফে এত ওপরে ওঠা যায় না। তবে আইনটি ভালো হয়েছে। এখন এটি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কতটুকু বাস্তবায়ন করতে পারবে সেটিই দেখার বিষয়। যেকোনো আইন কার্যকর করার জন্য  ধীরে ধীরে পরীক্ষা করে আগাতে হয়। এক লাফে এত দূরে আগানো যায় না। আইন প্রয়োগে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরবে কি না সেটি সময়ই বলে দেবে- এমন মন্তব্য করে যাত্রীকল্যাণ পরিষদের সভাপতি মোজাম্মেল হোসেন বলেন, তবে এ রকম একটি আইনের প্রয়োজন ছিল। ঘাটতি পূরণ হয়েছে, এটা ইতিবাচক দিক।’ চালকদের শিক্ষাগত যোগ্যতা ও নারীদের জন্য সংরক্ষিত আসনের বিষয়টি ইতিবাচক বলেও মন্তব্য করেন তিনি। তবে যারা অশিক্ষিত পুরোনো ড্রাইভার তাদের কর্মের কী হবে, সেটাও ভাবতে হবে।

আইনটি সম্পর্কে সব মহলে প্রচারণা না হওয়া একটা বড় দুর্বলতা বলে মন্তব্য করেন মোজাম্মেল হোসেন। তিনি বলেন, না জানিয়েই আইনটি কার্যকরের উদ্যোগ নেওয়াটা ঠিক হয়নি। অনেক ট্রাফিক পুলিশ, সাধারণ মানুষ, চালক পথচারী আছেন যারা এ আইন সম্পর্কে কিছুই জানেন না। এ জন্য আইনটি প্রয়োগ নিয়ে শঙ্কায় আছি।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) ও পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ বলছে, নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকর হলেও আপাতত প্রয়োগ হবে পুরনো আইনই। পর্যায়ক্রমে সহনীয় মাত্রায় নতুন আইনের প্রয়োগ শুরু হবে। তার আগে প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যদের আইনটি সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা ও বিশেষ করে যাদের জন্য আইন অর্থাৎ পথচারী, চালক ও হেলপারদের অনুপ্রাণিত করা হবে। তাছাড়া নতুন আইনটির সফল প্রয়োগের ক্ষেত্রে পথচারী, পরিবহন চালক-হেলপারসহ সব অংশীজনের সহযোগিতা প্রয়োজন।

নতুন আইনের উল্লেখযোগ্য ১৪টি বিধান-
১. সড়কে গাড়ি চালিয়ে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে হত্যা করলে ৩০২ ধারা অনুযায়ী মৃত্যুদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে। ২. সড়কে বেপরোয়াভাবে গাড়ি চালালে বা প্রতিযোগিতা করার ফলে দুর্ঘটনা ঘটলে তিন বছরের কারাদণ্ড অথবা তিন লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে। ৩. মোটরযান দুর্ঘটনায় কোনো ব্যক্তি গুরুতর আহত বা প্রাণহানি হলে চালকের শাস্তি   সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের জেল ও সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা। ৪. ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া মোটরযান বা গণপরিবহন চালানোর দায়ে ছয় মাসের জেল বা ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ড।

৫. নিবন্ধন ছাড়া মোটরযান চালালে ছয় মাসের কারাদণ্ড এবং ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা। ৬. ভুয়া রেজিস্ট্রেশন নম্বর ব্যবহার এবং প্রদর্শন করলে ছয় মাস থেকে দুই বছরের কারাদ- অথবা এক লাখ থেকে পাঁচ লাখ টাকা অর্থদণ্ড। ৭. ফিটনেসবিহীন ঝুঁকিপূর্ণ মোটরযান চালালে ছয় মাসের কারাদণ্ড বা ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ড। ৮. ট্রাফিক সংকেত অমান্য করলে এক মাসের কারাদণ্ড বা ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ড। ৯. সঠিক স্থানে মোটরযান পার্কিং না করলে বা নির্ধারিত স্থানে যাত্রী বা পণ্য ওঠানামা না করলে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা।

১০. গাড়ি চালানোর সময় মোবাইল ফোনে কথা বললে এক মাসের কারাদণ্ড এবং ২৫ হাজার টাকা জরিমানা। ১১. একজন চালক প্রতিবার আইন অমান্য করলে তার পয়েন্ট বিয়োগ হবে এবং এক পর্যায়ে লাইসেন্স বাতিল হয়ে যাবে। ১২. গণপরিবহনে নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে অতিরিক্ত ভাড়া দাবি বা আদায় করলে এক মাসের কারাদ- বা ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ড। ১৩. আইন অনুযায়ী ড্রাইভিং লাইসেন্স পেতে হলে চালককে অষ্টম শ্রেণি পাস এবং চালকের সহকারীকে পঞ্চম শ্রেণি পাস হতে হবে (আগে শিক্ষাগত যোগ্যতার কোনো প্রয়োজন ছিল না)। ১৪. গাড়ি চালানোর জন্য বয়স অন্তত ১৮ বছর হতে হবে। (এই বিধান আগেও ছিল।) এ ছাড়া সংরক্ষিত আসনে অন্য কোনো যাত্রী বসলে এক মাসের কারাদণ্ড, অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে নতুন আইনে।



সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : 289        
   শেয়ার করুন
Share Button
   আপনার মতামত দিন
     জাতীয়
শঙ্কার মধ্যেই খুলেছে অফিস
.............................................................................................
করোনায় শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটির চেয়ারম্যানের মৃত্যু
.............................................................................................
৩০তম স্প্যানে দৃশ্যমান পদ্মাসেতুর সাড়ে ৪ কিলোমিটার
.............................................................................................
সাধারণ ছুটির মধ্যেই রেকর্ড ভাঙ্গার হিড়িক
.............................................................................................
১০ জুন শুরু হচ্ছে বাজেট অধিবেশন
.............................................................................................
শান্তিরক্ষী পরিবহনে নাম লেখালো বাংলাদেশ বিমান
.............................................................................................
পিসিআর পরীক্ষায়ও ডা. জাফরুল্লাহর করোনা পজিটিভ
.............................................................................................
করোনায় আরও এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু
.............................................................................................
অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট চালু ১ জুন
.............................................................................................
অফিসে যেতে হবে মাস্ক পরে
.............................................................................................
২৪ ঘন্টায় রেকর্ড ২০২৯ জন শনাক্ত, মৃত্যু আরও ১৫
.............................................................................................
৩১ মে থেকে চলবে বাস-ট্রেন-লঞ্চ
.............................................................................................
আগামী ৩ দিন ঝড়-বৃষ্টি, জলোচ্ছ্বাসের শঙ্কা
.............................................................................................
করোনায় বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তার মৃত্যু
.............................................................................................
সব হাসপাতালকে করোনা চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশ
.............................................................................................
দেশে নতুন শনাক্ত ১৫৪১ জন, মৃত্যু বেড়ে ৫৪৪
.............................................................................................
গণস্বাস্থ্যের করোনা শনাক্ত কার্যক্রম আটকে দিল ওষুধ প্রশাসন
.............................................................................................
করোনায় মারা গেলেন মঞ্জুর এলাহীর স্ত্রী নিলুফার
.............................................................................................
শেখ হাসিনাকে ফোন করে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন মোদি
.............................................................................................
হাঁটুপানিতে ঈদের জামাত, ভিডিও ভাইরাল
.............................................................................................
দৈনিক আমার সংবাদ পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ
.............................................................................................
দেশে মৃত্যুযাত্রায় যোগ হলেন আরও ২৮ জন
.............................................................................................
ঈদুল ফিতরে বায়তুল মোকাররমে ৫ জামাতরে সময়সূচি
.............................................................................................
বাংলাদেশের আকাশে চাঁদা দেখা যায়নি, ঈদ সোমবার
.............................................................................................
কাল থেকে করোনা পরীক্ষা করবে গণস্বাস্থ্য!
.............................................................................................
সর্বোচ্চ পরীক্ষার দিনে রেকর্ড ১৮৭৩ জন শনাক্ত, মৃত্যু আরও ২০
.............................................................................................
আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল ঈদ, সন্ধ্যায় বসছে চাঁদ দেখা কমিটি
.............................................................................................
ঈদুল ফিতরে বায়তুল মোকাররমে জামায়াত হবে ৫টি
.............................................................................................
করোনায় অতিরিক্ত সচিব তৌফিকুল আলমের মৃত্যু
.............................................................................................
দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর মিছিল, ২৪ ঘন্টায় ২৪ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
মমতাকে ফোন করলেন শেখ হাসিনা
.............................................................................................
৩১ মে এসএসসি ও সমমানের ফল
.............................................................................................
সুন্দরবনের ক্ষয়ক্ষতি নির্ধারণে কমিটি গঠন করা হয়েছে: পরিবেশ মন্ত্রী
.............................................................................................
দেশে ২৪ ঘন্টায় সর্বোচ্চ ১৭৭৩ জন শনাক্ত, মৃত্যু ২২
.............................................................................................
সিলেটে আইসোলেশনে ভর্তির কিছুক্ষণ পরেই মৃত্যু
.............................................................................................
আম্পানে উপকূলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি
.............................................................................................
স্থল নিম্নচাপে পরিণত আম্পান, কমল সতর্ক সংকেত
.............................................................................................
প্রবল বেগে বাংলাদেশ উপকূলে হানা দিয়েছে ‘আম্পান’
.............................................................................................
দেশে নতুন শনাক্ত ১৬১৭ জন, মৃত্যু আরও ১৬
.............................................................................................
সড়ক দুর্ঘটনা : অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেলেন পরিকল্পনামন্ত্রী
.............................................................................................
চট্টগ্রাম-কক্সবাজারে ৯ নম্বর মহাবিপদ সংকেত
.............................................................................................
জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে যেসব এলাকা
.............................................................................................
ঘুণিঝড় আম্পান: বাড়ছে জোয়রের পানি, ১০ নম্বর ‘মহাবিপদ সংকেত’ জারি
.............................................................................................
মোংলা-পায়রায় ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত, ১৫ ফুট জলোচ্ছ্বাসের শঙ্কা
.............................................................................................
কাছাকাছি চলে এসেছে ‘আম্পান’, উদ্ধার তৎপরতায় ৮ যুদ্ধ জাহাজ প্রস্তুত
.............................................................................................
দেশে নতুন শনাক্ত ১২৫১ জন, মৃত্যু ২১
.............................................................................................
২ লাখ ৫ হাজার কোটি টাকার এডিপি অনুমোদন
.............................................................................................
উপকূলজুড়ে ‘আম্পান’ থেকে রক্ষার প্রস্তুতি
.............................................................................................
২৫০ কি.মি. গতিতে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’, ৪-৫ ফুট উচ্চতায় জলোচ্ছ্বাস হতে পারে
.............................................................................................
এবার কওমি মাদরাসায় প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Nytasoft