বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   শিল্প সাহিত্য
  পড়ালেখার উদ্দেশ্য কি চাকুরী জোগাড় মাত্র?
  25, September, 2020, 12:33:30:PM

পত্রিকার খবরে চোখ বুলুতেই দেখলাম বেশ বড় করে হেডলাইন ছাঁপা হয়েছে- রাবি শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা। পুরো ঘটনা শেষ করে বুঝতে পারলাম রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাব বিজ্ঞানের মনিরুল ইসলাম নামের এক শিক্ষার্থীর গত জানুয়ারিতে সরকারি চাকুরির বয়স শেষ হয়ে যায়। এরপর থেকেই প্রচন্ড হতাশায় ভুগতিছিলেন তিনি।  অতঃপর সেই দীর্ঘকায় হতাশা থেকেই আত্মহত্যা।

শিক্ষাকে বলা হয় মানবজীবনের এক অমূল্য সম্পদ। কেননা, সামগ্রিকভাবে একজন মানুষের বিকশিত হতে যেসব অপরিহার্য উপকরণ প্রয়োজন, তন্মধ্যে শিক্ষার স্থান সর্বাগ্রে। শিক্ষা মানুষের অন্তর্নিহিত সুপ্ত প্রতিভাকে উন্মোচিত করে আনার এক অনিবার্য উপায়। দার্শনিক কান্ট বলেছেন- আদর্শ মনুষ্যত্ব অজর্নই শিক্ষা। হাবার্ট রিড বলেছেন- মানুষকে মানুষ করাই হল শিক্ষ। বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া পঞ্চাশ জনেরও অধিক শিক্ষার্থীকে আমি জিজ্ঞেস করেছিলাম- এই যে দীর্ঘ এক যুগেরও বেশি সময় ধরে আপনি বই এর পাতা চুকালেন তাতে আপনার ও আপনার জাতির মধ্যে আশা-আকাঙ্ক্ষার কতটুকু প্রতিফলন ঘটল, কি আপনার প্রাপ্তি , কেনই বা করছেন পড়ালেখা?  দুঃখজনক হলেও সত্য- কেউ ভবিষ্যৎ এ ভালো থাকতে চায়, কেউ বিসিএস ক্যাডার হতে চায়, কেউ নামিদামি একটি চাকুরী করে সমাজে লোকের কাছে সম্মান পেতে চায়। অথচ একজনও আমাকে বলল না, আমি মানুষের মতো মানুষ হতে চাই, সুনাগরিক হতে চাই। তাহলে আমরা দীর্ঘ এক যুগেরও বেশি সময় ধরে নামিদামি কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষাপাঠ চুকিয়ে গ্রাজুয়েট হয়ে কি এমন শিক্ষা অর্জন করছি যা আমাদের ভালো রেজাল্ট কিংবা সরকারি চাকুরীর পিছনে ছুঁটতে বাধ্য করে?

আজ আমাদের শিক্ষা অর্জন শুধুমাত্র ভালো রেজাল্ট কিংবা চাকুরী ভিত্তিক হয়ে গেছে। হবেই বা না কেন? আমাদের সমাজ ও শিক্ষাব্যবস্থা আমাদের শিক্ষাকে ভালো রেজাল্ট ও চাকুরীভিত্তিক করে দিয়েছে। আমাদের সমাজ ও শিক্ষাব্যবস্থা আজ তাকেই মূল্যায়ন করে যে শিক্ষার্থী পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পায় কিংবা যে একটি ভাল চাকুরী করে। যে শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ কিংবা ভাল একটি চাকুরী পায় না তাকে আমরা কখনো মূল্যায়ন করতে চাই না। তার ভীতরের অন্তর্নিহিত সুপ্ত প্রতিভা বিকাশের সুযোগ দিতে চাই না। তাই একজন শিক্ষার্থী মনেপ্রাণে ধারণ ও লালন করে আমি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ ও একটি ভাল চাকুরীর জন্যই পড়ালেখা করছি।

আমাদের শিক্ষাব্যবস্থা যে এখনো সৃজনশীলতার আঁড়ালে গৎবাধা মুখস্থভিত্তিক বা পুস্তকভিত্তিক তাত্ত্বিক শিক্ষাপদ্ধতি রয়ে গেছে তার একটি উৎকৃষ্ট উদাহরণ হলো- মাধ্যমিক পর্যায়ে যখন একটি শিক্ষার্থীকে ‘তোমার জীবনের লক্ষ কি’? রচনা লিখতে বলা হয়; তখন যথারীতি পরীক্ষার খাতায় সবাই পুস্তকের পাতার সেই  বাণীগুলো লিখে যে- কেউ ডাক্তার হতে চায়, কেউ ইঞ্জিনিয়ার হতে চায়, কেউ পুলিশ হতে চায়, কেউ শিক্ষক হতে চায় এবং কেউ পাইলট হতে চায়। কিন্তু বাস্তবে কতজন ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, পুলিশ, শিক্ষক বা পাইলট হতে পারছে ? এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়, যেটি নিত্য নতুন জ্ঞান অর্জন ও গবেষণা দ্বারা নতুনত্ব উদ্ভাবনীর একটি প্লাটফর্ম সেখানেও যুগের পর যুগ ধরে ভাল সিজিপিএ’র টানে ও ভাল একটি চাকুরীর আশায় আমরা পুস্তকের পাতা মুখস্থ করে চলছি। এটা কি সৃজনশীলতার ধ্বংসস্তূপ নয় মাত্র?

ইউজিসির ওয়েবসাইট অনুযায়ী- বর্তমানে দেশে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ৪৬ টি, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ১০৬ এবং আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয় ০৩ টি। সরকারি পর্যায়ে মেডিকেল কলেজ ৩০ টি, বেসরকারি পর্যায়ে আছে ৬৫ টি। এই পরিসংখ্যান থেকে খুব সহজেই শিক্ষাক্ষেত্রের দৃশ্যমান অগ্রগতি সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যায়। কিন্তু শিক্ষাক্ষেত্রের এই অগ্রগতি কি আদৌ সুনাগরিকতা এবং দক্ষতাসম্পন্ন জনশক্তির আওতাভুক্ত হচ্ছে? শিক্ষাব্যবস্থার ভালো রেজাল্ট কি আদৌ তাদের কর্মসংস্থান দিতে পারছে? শিক্ষাব্যবস্থার এই দৃঢ়মান অগ্রগতি দিয়ে আজ কি হবে; যেখানে নৈতিক ও মূল্যবোধের শিক্ষা না পেয়ে বড় বড় নামকরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একজন শিক্ষার্থী গ্রাজুয়েট চুকিয়ে কর্মজীবনে আকাশচুম্বী দুর্নীতিতে লিপ্ত থাকে। পৃথিবীতে যত সুশৃঙ্খল ও উন্নত জাতি রয়েছে তারা শিক্ষার মাধ্যমেই এতদূর এসেছে। কিন্তু যে শিক্ষা সুশিক্ষা, মনুষ্যত্ব, নিষ্ঠা,  মানুষের মতো মানুষ হওয়া ও সুনাগরিকতার শিক্ষা না দিয়ে জিপিএ-৫ ও চাকুরীভিত্তিক শিক্ষা দিচ্ছে, কাগজেকলমে সে শিক্ষার কি দরকার?

আমাদের শিক্ষাব্যবস্থার লক্ষ যদি হয় একজন সুনাগরিক তৈরি করা, একজন সুশিক্ষিত মানুষ গড়ে তোলা তবে এ সমাজ ও অভিভাবকবৃন্দ জানবে তাদের সন্তান জিপিএ-৫ কিংবা চাকুরীর জন্য নয় বরং মানুষের মতো মানুষ ও সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠার জন্য শিক্ষা গ্রহণ করছে। একজন শিক্ষক জানবে, সে ছাত্রদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার নৈতিক দায়িত্ব পালন করছে। আমাদের জাতীয় লক্ষ হতে হবে- তথাকথিত শিক্ষিত গড়ে না তুলে রাষ্ট্র পরিচালনায় দক্ষতাসম্পন্ন জনবল তৈরি করা। শিক্ষার মানদন্ড- জিপিএ-৫, ভালো সিজিপিএ কিংবা চাকুরী নয় বরং সততা, নিষ্ঠা, আদর্শ, ন্যায়পরায়ণ ও দেশপ্রেমের সমন্বয়ে শিক্ষার্থীদের দক্ষ জনশক্তিতে রূপান্তর এবং সুনাগরিকতার শিক্ষায় তাদের কর্মসংস্থান নিশ্চিত করতে জাতীয় উন্নয়ন হোক এদেশের শিক্ষাব্যবস্থার  প্রধান লক্ষ-উদ্দেশ্য । দেশের স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়কে এই জাতীয় লক্ষ-উদ্দেশ্য হাসিলের প্রশিক্ষণকেন্দ্র রূপে গড়ে তুলতে হবে। তবেই এদেশ থেকে তথাকথিত শিক্ষিত’র বিলুপ্তি ঘটে দক্ষতা ও মনুষ্যত্ববোধ সম্পন্ন মানুষ তৈরিসহ দেশের টেকসই উন্নতি ও আত্মমর্যাদার সাথে  বিশ্বের দরবারে আমাদের মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে শিখাবে।

লেখক- মোহম্মদ শাহিন
শিক্ষার্থী, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।



   শেয়ার করুন
   আপনার মতামত দিন
     শিল্প সাহিত্য
পড়ালেখার উদ্দেশ্য কি চাকুরী জোগাড় মাত্র?
.............................................................................................
গল্পের মধ্যে গল্প
.............................................................................................
গল্প : সুখ
.............................................................................................
আজ আমার রাতের খাবার নেই
.............................................................................................
পথশিশুর স্বপ্ন
.............................................................................................
বাংলা ভাষা প্রতিষ্ঠায় মুসলমানদের অবদান
.............................................................................................
কবি নয়, কবিতা হতে চাই
.............................................................................................
হায়রে বাঙালি
.............................................................................................
চিবুকের কালো তিল
.............................................................................................
মা দিবসে কবি আলম হােসেনের অসাধারণ কবিতা
.............................................................................................
বল্টু
.............................................................................................
দানেই সুখ!
.............................................................................................
অতি চালাকের গলায় দড়ি
.............................................................................................
কোভিড-১৯ ও একটি মধ্যবিত্ত পরিবারের ভাঙন
.............................................................................................
জসিম উদ্দিনের ‘কবর’ কবিতাটি করোনা ভার্সনে রূপান্তর!
.............................................................................................
ঘুমহীন হৃদয়
.............................................................................................
অনুশোচনা
.............................................................................................
জাতীয় কবি নজরুলের প্রয়াণ দিবস আজ
.............................................................................................
একাকিত্বে বহুত্ব
.............................................................................................
কাপালিকের দেশে
.............................................................................................
চলতি বছরের নোবেল সাহিত্য পুরস্কার স্থগিত
.............................................................................................
ময়মনসিংহে সাহিত্য উৎসব অনুষ্ঠিত, পুরস্কৃত হলেন ৪ গুণীজন
.............................................................................................
প্রথম মৃত্যু
.............................................................................................
শুভংকরের ফাঁকি
.............................................................................................
বউ যেভাবে ঘরে আসে
.............................................................................................
মধ্যরাতের কথা
.............................................................................................
বাঙালির রক্তের বন্ধন ও জাতি-পরিচয়
.............................................................................................
মোহময়ী পিরামিড
.............................................................................................
৮২তম জন্মদিনে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত কবি আল মাহমুদ
.............................................................................................
পাবনা বইমেলা সাহিত্যকে সম্মৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে
.............................................................................................
প্রসঙ্গ: ঐতিহাসিক জ্বীনের মসজিদ
.............................................................................................
তেহরানে প্রথম বিশ্বের স্বাধীনতাকামী আন্দোলন
.............................................................................................
একলা মানুষ
.............................................................................................
নৈশভোজে আসছিস্ তো
.............................................................................................
স্বপ্ন ছিলো
.............................................................................................
ফেরা
.............................................................................................
ডি.লিট ডিগ্রি পাচ্ছেন হাসান আজিজুল হক ও সেলিনা হোসেন
.............................................................................................
বিশ্ববিখ্যাত ১০ নারীর জীবনীগ্রন্থ
.............................................................................................
কবি রফিক আজাদ আর নেই
.............................................................................................
পরপারে চলে গেলেন একুশে পদকপ্রাপ্ত কবি রফিক আজাদ
.............................................................................................
অমর একুশে গ্রন্থমেলায় শামস সাইদ এর দুটি কিশোর উপন্যাস
.............................................................................................
ঘুম আছে স্বপ্ন নেই
.............................................................................................
নীলফামারীতে পাল আমলের নিদর্শন পাওয়া গেছে
.............................................................................................
কবি শামসুর রাহমানের ৮৭তম জন্মদিন
.............................................................................................
ম্যান বুকার পেলেন জ্যামাইকার মারলন জেমস
.............................................................................................
১৪ অক্টোবর সরদার ফজলুল করিম দর্শন পদক
.............................................................................................
স্মরণ : ছোটোলোকের বাবা ॥ মোঃ আতিকুর রহমান ॥
.............................................................................................
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর: জীবন, সাহিত্য ও দর্শন
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
যুগ্ম সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT