মঙ্গলবার, ২৫ জুন 2024 বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   চট্রগ্রাম -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
প্রতিপক্ষের গু লি তে ২ ইউপিডিএফ সদস্য নি হ ত

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি:

রাঙ্গামাটির লংগদুতে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের হামলায় প্রসীত গ্রুপের কালেক্টরসহ দুইজন নি হ ত হয়েছে।

শনিবার (১৮ মে) সকালে লংগদু সদরের বড় হারিহাবা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। নিহত একজনের নাম বিদ্যাধন চাকমা তিলক, অন্যজন ধন্যমনি চাকমা। বিদ্যাধন লংগদু উপজেলার কুকিছড়ার কাট্টলী এলাকার সমমনি চাকমার ছেলে এবং ধন্যমনি ধুধুকছড়ার বড় হাড়িকাবা গ্রামের লেংগ্যা চাকমার ছেলে।

ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ)-এর রাঙামাটি জেলা ইউনিটের সংগঠক সচল চাকমা এই ঘটনায় জনসংহতি সমিতিকে দায়ি করে বলেন, সকাল সাড়ে আটটায় লংগদুর বড়হাড়িহাবার ভালেদি ঘাট এর পার্শ্ববর্তী স্থানে জেএসএস গ্রুপের ৭ জনের একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী এসে সেখানে সাংগঠনিক কাজে নিয়োজিত ইউপিডিএফ কর্মীদের ওপর হামলা চালায়। এ হামলায় ঘটনাস্থলে ইউপিডিএফ সদস্য বিদ্যা ধন চাকমা ওরফে তিলক (৪৫) ও ধন্য মনি চাকমা (৩৫) নিহত হন।

এলাকাবাসী জানায়, গতকাল শুক্রবারে রাতে ইউপিডিএফের দুই কালেক্টর মনপুতি বাজার এলাকায় একটি বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে বলে খবর পেয়ে প্রতিপক্ষের সশস্ত্র দলের সদস্যরা সেখানে হানা দেয়। আজ ভোরে তারা গুলি করে দুজনকে হত্যা করে পালিয়ে যায়।

রাঙামাটির পুলিশ সুপার মীর আবু তৌহিদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দুইজন নিহত হওয়ার বিষয়টি আমরা নিশ্চিত হয়েছি। এলাকাটি অনেক দুর্গম হওয়ায় পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছাতে সময় লাগবে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ফিরলে বিস্তারিত জানা যাবে।

প্রতিপক্ষের গু লি তে ২ ইউপিডিএফ সদস্য নি হ ত
                                  

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি:

রাঙ্গামাটির লংগদুতে সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের হামলায় প্রসীত গ্রুপের কালেক্টরসহ দুইজন নি হ ত হয়েছে।

শনিবার (১৮ মে) সকালে লংগদু সদরের বড় হারিহাবা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। নিহত একজনের নাম বিদ্যাধন চাকমা তিলক, অন্যজন ধন্যমনি চাকমা। বিদ্যাধন লংগদু উপজেলার কুকিছড়ার কাট্টলী এলাকার সমমনি চাকমার ছেলে এবং ধন্যমনি ধুধুকছড়ার বড় হাড়িকাবা গ্রামের লেংগ্যা চাকমার ছেলে।

ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ)-এর রাঙামাটি জেলা ইউনিটের সংগঠক সচল চাকমা এই ঘটনায় জনসংহতি সমিতিকে দায়ি করে বলেন, সকাল সাড়ে আটটায় লংগদুর বড়হাড়িহাবার ভালেদি ঘাট এর পার্শ্ববর্তী স্থানে জেএসএস গ্রুপের ৭ জনের একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী এসে সেখানে সাংগঠনিক কাজে নিয়োজিত ইউপিডিএফ কর্মীদের ওপর হামলা চালায়। এ হামলায় ঘটনাস্থলে ইউপিডিএফ সদস্য বিদ্যা ধন চাকমা ওরফে তিলক (৪৫) ও ধন্য মনি চাকমা (৩৫) নিহত হন।

এলাকাবাসী জানায়, গতকাল শুক্রবারে রাতে ইউপিডিএফের দুই কালেক্টর মনপুতি বাজার এলাকায় একটি বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে বলে খবর পেয়ে প্রতিপক্ষের সশস্ত্র দলের সদস্যরা সেখানে হানা দেয়। আজ ভোরে তারা গুলি করে দুজনকে হত্যা করে পালিয়ে যায়।

রাঙামাটির পুলিশ সুপার মীর আবু তৌহিদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দুইজন নিহত হওয়ার বিষয়টি আমরা নিশ্চিত হয়েছি। এলাকাটি অনেক দুর্গম হওয়ায় পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছাতে সময় লাগবে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ফিরলে বিস্তারিত জানা যাবে।

বিমানবন্দরে ময়লার ঝুড়িতে ৭০ লাখ টাকার সোনা!
                                  

স্বাধীন বাংলা প্রতিবেদন:

চট্টগ্রাম শাহ্ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সিগারেটের প্যাকেট থেকে ৮১৬ গ্রাম ওজনের ৭টি স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার করা এসব স্বর্ণের বাজারমূল্য ৭০ লাখ টাকা।

শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে আন্তর্জাতিক আগমনী ১ নম্বর কনভেয়ার বেল্টের পাশের ওয়াশরুমের কমোডের ময়লার ঝুড়ি থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় এসব স্বর্ণ পাওয়া যায়।

বিমানবন্দর সূত্র জানিয়েছে, সোনার বারগুলো ওয়াশরুমের ভেতরে থাকা ময়লার ঝুড়ির ভেতর একটি সিগারেটের প্যাকেটে লুকায়িত ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, সোনার বারগুলো এয়ার এরাবিয়া এয়ারলাইন্সের জি৯-৫২০-এ করে বিমানবন্দরে কোনো যাত্রী এনে থাকতে পারে। প্রতিটি বারের ওজন ১০ ভরি দুই গ্রাম। প্রতিটির মূল্য প্রায় ১০ লাখ টাকা করে।

চট্টগ্রাম শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের রাজস্ব কর্মকর্তা আল আমিন প্রধান গণমাধ্যমকে বলেন, গোয়েন্দা সংস্থা এনএসআই এবং শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর যৌথভাবে অভিযান পরিচালনা করে সাতটি সোনার বার উদ্ধার করেছে। পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা এসব সোনার ওজন ৮১৬ গ্রাম। যার বাজারমূল্য প্রায় ৭০ লাখ টাকা।

কাপ্তাই হ্রদে ফুল ভাসিয়ে শুরু হলো বৈসাবি উৎসব
                                  

পিংকি আক্তার, রাঙ্গামাটি:

আনন্দ, উচ্ছ্বাস ও সম্প্রীতির বার্তা নিয়ে রাঙামাটির কাপ্তাই হ্রদে ফুল ভাসানোর মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী পাহাড়ি জনগোষ্ঠীর সবচেয়ে বড় সামাজিক অনুষ্ঠান বৈসাবির মূল আনুষ্ঠানিকতা।

শুক্রবার সকালে ভোরে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে ফুলবিজু উপলক্ষে শহরের রাজবনবিহার ঘাট, গর্জনতলী মধ্যদ্বীপ, কেরাণী পাহাড়সহ বিভিন্ন স্থানে বৈসু, বিষু, বিহু, চাংক্রান-২০২৪ উদযাপন কমিটি ও ব্যক্তিগত উদ্যেগে পানিতে ফুল ভাসানো হয়।

ফুল বিজু উপলক্ষে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে নৃ-গোষ্ঠীর নানা বয়সী তরুণ-তরুণী থেকে বৃদ্ধ সকলে বন থেকে ফুল সংগ্রহ করে পুরানো বছরের সকল গ্লানি কাটিয়ে নতুন বছরের শুভ কামনায় এবং দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় গঙ্গা দেবীর উদ্দেশ্যে কাপ্তাই হ্রদের জলে ফুল ভাসিয়ে দেন। পরে বাড়ি ফিরে ফুল ও নিমপাতা দিয়ে ঘর সাজানো হয় এবং বয়োবৃদ্ধদের পা ধুয়ে দিয়ে নতুন কাপড় উপহার দেওয়া হয়।

রাঙামাটির স্থানীয় সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার বলেন, ফুল ভাসানোর মাধ্যমে সম্প্রীতি ও কল্যাণের বার্তা পৌঁছে দেওয়া হয়। সামনের বছর যাতে সকলের ভালো কাটে, সুস্থভাবে কাটে এই প্রার্থনায় ফুল ভাসানো হয়।

পানিতে ফুল ভাসিয়ে পুরনো দিনের বেদনা ভুলে নতুন দিনের প্রত্যয়ের কথা জানায় ফুল ভাসাতে আসা পাহাড়ি তরুণ-তরুণীরা। ফুল ভাসিয়ে জিনিয়া চাকমা বলেন, ফুল বিজুর দিনে গঙ্গাদেবীর উদ্দেশ্যে ফুল নিবেদন আমাদের ঐতিহ্য। পাশাপাশি আজকে থেকেই বর্ষবরণের মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। আগামীকাল মূল বিজু এবং পরশু পহেলা বৈশাখ পালন করব। ফুল ভাসিয়ে আমরা গঙ্গাদেবীর কাছে সুখ ও সমৃদ্ধি প্রার্থনা করি।

পার্বত্য চট্টগ্রামের ১২টি জনগোষ্ঠীর মধ্যে বাংলা বর্ষকে বিদায় জানানোর এ অনুষ্ঠান তাদের প্রধান সামাজিক উৎসব হিসেবে বিবেচিত। এই উৎসব চাকমা জনগোষ্ঠী বিজু নামে, ত্রিপুরা জনগোষ্ঠী মানুষ সাংগ্রাই, মারমা জনগোষ্ঠী মানুষ বৈসুক, তঞ্চঙ্গ্যা জনগোষ্ঠী বিষু, কোনো কোনো জনগোষ্ঠী বিহু নামে পালন করে থাকে। বৈসুকের ‘বৈ’ সাংগ্রাইয়ের ‘সা’ ও বিজু, বিষু ও বিহুর ‘বি’ নিয়ে উৎসবটিকে সংক্ষেপে ‘বৈসাবি’ নামে পালন করা হয়।

কাপ্তাই হ্রদে পানি সংকটে বিদ্যুৎ উৎপাদনে ধ্বস
                                  

পিংকি আক্তার, রাঙ্গামাটি:

দেশের অন্যতম কৃত্রিম হ্রদ কাপ্তাইয়ে পানি সংকট দেখা দিয়েছে। পানি সংকটে ব্যহত হচ্ছে বিদ্যুৎ উৎপাদন। একইসাথে লেকের ওপর নির্ভরশীল মানুষের দুর্ভোগ দিন দিন বাড়ছে। জলবিদ্যুৎকেন্দ্র, মৎস্য উৎপাদন ও বাঁশ, গাছ ও কাঁচামাল পরিবহনের সঙ্গে জড়িত ছোট-বড় ব্যবসায়ী আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন। বিশেষ করে পাঁচটি উপজেলার সঙ্গে নৌ যোগাযোগ বিঘ্নিত হচ্ছে। এ ছাড়া কাপ্তাই হ্রদের বেশ কিছু অংশে পলি ভরাটের কারণে নাব্যতা সংকট দেখা দিয়েছে।

কাপ্তাইয়ের জেটঘাটের বাঁশ ব্যবসায়ী আব্দুল মান্নান জানান, লেকের পানি দ্রুত কমে যাওয়ায় ব্যবসায় ধস নেমেছে। মাইনি, মারিশ্যা, লংগাডু, বিলাইছড়ি ও হরিণ ছড়া থেকে নৌপথে গাছ ও বাঁশ পরিবহন বন্ধ রয়েছে।

কাপ্তাই কাঠ ব্যবসায়ী সমিতির সহ-সভাপতি লোকমান আহমেদ ও সেক্রেটারি ফজল হক জানান, লেকের পানি কমে যাওয়ায় জাহাজ চলাচলে ব্যাপক সমস্যা হচ্ছে। বিভিন্ন স্থান থেকে কাঠ পরিবহনের স্বাভাবিক মাধ্যম ব্যাহত হওয়ায় লোকসানের মুখে পড়ছেন ব্যবসায়ীরা।

পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে রয়েছে ৫টি ইউনিট। যেই ৫টি ইউনিট একযোগে সচল থাকলে ২৪০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা সম্ভব হয় উক্ত কেন্দ্রে। কাপ্তাই জলবিদ্যুৎ কেন্দ্রের সূত্র মতে ৫টি ইউনিটের মধ্যে মাত্র ১টি ইউনিট দিয়ে ৩০ মেগাওয়া বিদ্যুৎ উৎপাদন করা সম্ভব হচ্ছে। হ্রদে বর্তমানে পানি রয়েছে ৮০.২৪ এমএসএল, এই সময় পানি থাকার কথা ৮৮.৬৮ এমএসএল। কাপ্তাই বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৫টি ইউনিট বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য সক্ষম হলেও বর্তমানে পানির অভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যহত হচ্ছে।

এ বিষয়ে কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক এটিএম আব্দুজ্জাহের জানান, দীর্ঘদিনের অনাবৃষ্টির ফলে কাপ্তাই হ্রদের পানির স্তর কমেছে। এতে বর্তমানে ২৩০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের স্থলে বর্তমানে সর্বোচ্চ ৩০ থেকে ৪০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে। তবে সামনে বৃষ্টিপাত হলে এবং কাপ্তাই হ্রদের পানির পরিমাণ বাড়লে সমস্যার সমাধান হতে পারে বলে জানান তিনি।

হা ম লা র দায়ে যুবলীগ নেতা আ ট ক
                                  

জেলা প্রতিনিধি, চট্টগ্রাম:

গত শনিবার চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এ নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থীর সমর্থকদের বাড়িঘরে হামলার ঘটনায় উপজেলা যুবলীগরে যুগ্ম আহ্বায়ক মো. সেলিম উদ্দিন চৌধুরীকে আটক করেছে পুলিশ। রোববার (১০ মার্চ) সন্ধ্যায় তাকে নিজ বাড়ি থেকে আটক করা হয়।

বাহারছড়া ইউপির নির্বাচনে রেজাউল করিম নামে এক প্রার্থী জয়ী হন। পরাজিত প্রার্থী জসিম উদ্দিন চৌধুরী খোকনের সমর্থক জালাল উদ্দিন চৌধুরীর বাড়িতে হামলা চালায় জয়ী প্রার্থীর সমর্থক সেলিম উদ্দিন চৌধুরী। রোববার সকালে সেলিম জালালের বাড়িতে গিয়ে তার স্ত্রী ও সন্তানকে মারধর করে। এসময় দেশিয় অস্ত্র হাতে প্রকাশ্যে জসিমের সমর্থকদের বাড়িঘরে হামলা চালানো হয়।

বাঁশখালী থানার ওসি তোফায়েল আহমদ বলেন, সেলিম নামের একজনকে আটক করা হয়েছে। বিষয়টি আমরা দেখছি।

হামলার শিকার জালাল উদ্দিন বলেন, যুবলীগ নেতা সেলিম উদ্দিন, মোরশেদুল আলমসহ ২০-৫০ জন দেশিয় অস্ত্র হাতে আমার বাড়িতে ভাংচুর চালায়। বাইরে আমার বড় ছেলে হাসনাইন খেলা করার সময় তাকে লাথি মেরে এগিয়ে যায়। আমার স্ত্রী ফারহানা সুলতানা (প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক) ঘরে ঢুকতে বাধা দিলে তারা তাকে লাথি ও কিলঘুষি মেরে ঘরে ঢুকে পড়ে। এ সময় ঘরের আলমারিতে রক্ষিত স্বর্ণ ও মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

চট্টগ্রামে পুলিশ-বিএনপি সংঘ*র্ষ
                                  

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:

চট্টগ্রামে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘ*র্ষের ঘটনা ঘটেছে। নগরীর চান্দগাঁও এলাকায় আজ রোববার ভোটগ্রহণের দিন সকালে এ ঘটনা ঘটে।

সকালে ভোট শুরুর পর সোয়া ৯টার দিকে ন চান্দগাঁও থানার শরাফত উল্লাহ পেট্রোল পাম্পের সামনে সংঘ*র্ষ হয়।

নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) পঙ্কজ দত্ত বলেন, শরাফত উল্লাহ পেট্রোল পাম্পের সামনে কিছু লোক রাস্তায় আগুন লাগিয়ে সড়ক অবরোধ করে। পুলিশ গিয়ে তাদের ধাওয়া করলে তারা ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি নিক্ষেপ করে। তারা থেমে থেমে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করছে।

এমপি জাফর আলমকে আ.লীগ থেকে অব্যাহতি
                                  

কক্সবাজার প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের আলোচিত-সমালোচিত এমপি জাফর আলমকে আওয়ামী লীগ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তিনি কক্সবাজার-১(চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের বর্তমান এমপি। তিনি চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্বও পালন করছিলেন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটাক্ষমূলক বক্তব্য প্রদান করেছেন।

গতকাল বুধবার (২০ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমানের সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

এমপি জাফর আলমের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে ধরে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা সম্পর্কে অসৌজন্যমূলক বক্তব্য রাখেন তিনি। এজন্য তাকে সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হলো। কেন তাকে দল থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে না, তা আগামী সাত দিনের মধ্যে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ বরাবর কারণ দর্শানোর জন্য (শোকজ) নির্দেশ দেওয়া হলো। ৭ দিনের মধ্যে জবাব না দিলে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের জন্য কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ বরাবর সুপারিশ করা হবে।

জানা গেছে, এবারের নির্বাচনে দলের মনোনয়ন পাননি কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য জাফর আলম। দলীয় মনোনয়ন না দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী অন্যায় করেছেন দাবি করে মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে কঠোর ভাষায় বক্তব্য রাখেন।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার বিকাল ৩টায় পেকুয়ায় আয়োজিত এক সভায় বক্তব্য দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশে জাফর আলম বলেন, ‘আমি একবার মনোনয়ন পেয়েছি। কিন্তু আমি শতবার মৃত্যুর মুখে আপনার জন্য গিয়েছি। আমি আপনার জন্য আমার জীবনে সবকিছু উজাড় করে দিয়েছি। আমি কক্সবাজারে এক মিটিংয়ে ১ কোটি ২৫ লাখ টাকা খরচ করেছি। আপনাদের থ্রি স্টার হোটেলে রেখেছি। মাতারবাড়িতে ৪০ হাজার মানুষকে একদিনের খাবার দিয়ে এক হাজার ট্রাক গাড়ি দিয়ে আমি জনসভাকে সফল করেছি। আর আপনি (শেখ হাসিনা) সেখানে ঘোষণা করলেন আশেক উল্লাহ রফিক এমপি প্রার্থী।’

তিনি বলেন, ‘শোনেন নেত্রী, আল্লাহ ওপরে। আমি দোষ করলে আল্লাহ আমার বিচার করবে। কিন্তু আমি মনে করেছি এটা আমার প্রতি অবিচার হয়েছে। আমার মতো একজন সহজ-সরল কর্মীকে, আমাকে বারবার ঠকিয়ে আরেকজনের কাঁধে নৌকা দিয়ে আমার কাছ থেকে নৌকা কেড়ে নিয়েছিলেন। সেদিনও আমি হাসিমুখে মেনে নিয়েছি। জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে গিয়েছিলাম। সেখানে আমাকে ভোট দিতে না পেরে নেতাকর্মীরা চোখের জল ফেলে চলে গেছে। সেদিনও আমি আপনার কথা শুনেছি।’

এমপি জাফর আলম বলেন, ‘সুতরাং এখন আপনি বলেছেন- সংসদ সদস্য স্বতন্ত্র ভোট করতে পারবেন। আমি স্বতন্ত্র ভোট করছি। এখানে যদি আমি কারও কোনো ধরনের অশুভ পাঁয়তারা দেখি... আমরা চকরিয়ার মানুষ, শহিদ আব্দুল হামিদের চকরিয়া, আবুল কালামের চকরিয়া-পেকুয়া, এটা বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চকরিয়া। এখানে কোনো অন্যায় আমরা বরদাশত করব না, করব না, করব না।’

এমপি জাফর আলমের বিরুদ্ধে দলের ত্যাগী নেতাকর্মীদেরকে হেনস্থার অভিযোগ ইতোপূর্বে বিভিন্ন গণমাধ্যমে এসেছে। তার নিজের মতের বিরুদ্ধ মনোভাবের নেতাকর্মীদের বিভিন্নভাবে নাজেহাল করেন। এমনকি বিভিন্নভাবে মামলা দিয়েও ঘরছাড়া করার অভিযোগ রয়েছে।

আনোয়ারায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে কিশোরের মৃত্যু, শোকে স্তব্ধ গ্রাম
                                  

আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : প্রতিদিনের ন্যায় পাশের বাড়ীতে কাজ করতে যায় ইলেক্ট্রিক মেকানিক মো.মাসুদ(২১)। কাজ প্রায় শেষও হয়েছিল, হঠাৎ অসাবধানতা বশত ঘরের বৈদ্যুতিক তারের শট লেগে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে সে।

শনিবার সন্ধ্যা ৬ টার দিকে চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার বারশত ইউনিয়নের গুন্দ্বীপ গ্রামের তোতাগাজীর বাড়ীতে মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহত মাসুদ গুন্দ্বীপ গ্রামের তোতাগাজী বাড়ীর আবদুল মাবুদের জৈষ্ট পুত্র। চট্টগ্রাম শহরের রিয়াজুদ্দিন বাজারের মুরগী দোকানের কর্মাচরী মাবুদের
অভাব অনটনের সংসারে ৩ ছেলে, তার মধ্যে মাসুদ ছিল সবার বড়।

বাবার উপার্জনে সংসার চালানো কষ্টসাধ্য হওয়ায় বাবার পাশে দাঁড়াতে কিশোর বয়সে ইলেক্ট্রিকের কাজ শিখে মাসুদ, গ্রামের বিভিন্ন বাড়ীতে ইলেক্ট্রিক ওয়্যারিংয়ের কাজ করত সে।

কিশোর মাসুদের এই অনাকাঙ্খিত মৃত্যুতে তার সহপাঠীসহ পুরো গ্রামে শোকের ছায়া নেমে আসে। তার পরিবারের বুক ফাটা আহাজারিতে ভারী হয়ে উঠে এলাকার আকাশ বাতাস।

আনোয়ারায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে বিজয় দিবস উদযাপন
                                  

আনোয়ারা(চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:

চট্টগ্রামের আনোয়ারায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে উদ্যাপন করা হয়েছে মহান বিজয় দিবস। আজ ভোর সাড়ে ৬টায় উপজেলা কেন্দ্রীয় স্মৃতিসৌধে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে বীর শহীদদের প্রতি পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় দিবসটির বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালা।

এরপর থেকে একে একে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, উপজেলা আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

এর পর সকাল ১০টা থেকে আনোয়ারা সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে শুরু হয় আনোয়ারা উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে কুচকাওয়াজ ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান।

দুপুর ১টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয় মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ অনুষ্টান । সবশেষে শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।

এ সব অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আনোয়ারা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান তৌহিদুল হক চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইশতিয়াক ইমন, আনোয়ারা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মো. সোহানুর রহমান সোহাগ, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল্লাহ আল মোমিন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রমজান আলী, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা সমরঞ্জন বড়ুয়া, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা রাশেদুল হক, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফেরদৌস হোসেন, আনোয়ারা থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) মহিউদ্দীন আহমেদসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ।

খাগড়াছড়িতে অপহৃত ৩ ইউপিডিএফ সদস্য উদ্ধার
                                  

জেলা প্রতিনিধি, খাগড়াছড়ি:

অবশেষে উদ্ধার করা হয়েছে খাগড়াছড়ি থেকে অপহৃত ৩ যুবককে। জেলার পানছড়ি এলাকা থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত ৩ ইউপিডিএফ সদস্য হলেন- হরি কমল ত্রিপুরা, প্রকাশ ত্রিপুরা ও নীতি দত্ত চাকমা।

গতকাল বৃহস্পতিবার গভীর রাতে সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে পানছড়ি থানার লতিবান ইউনিয়নের তারানছড়া এলাকা থেকে তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। উদ্ধার অভিযানে নেতৃত্ব দেন সেনাবাহিনীর খাগড়াছড়ি সদর জোনের অধিনায়ক লে. কর্নেল আবুল হাসনাত।

কর্নেল আবুল হাসনাত বলেন, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে আমরা অভিযান চালিয়ে লতিবান ইউনিয়নের তারাবনছড়া এলাকা থেকে তাদের উদ্ধার করেছি। দেড় ঘন্টার অভিযানে সব বাহিনীর সদস্য ছিল। রাত সাড়ে ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত অভিযান চলে। এ সময় পাহাড়ের ওপর একটি জুমঘর থেকে হাত এবং চোখ বাঁধা অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাদের থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। তারা সুস্থ আছে ।

উদ্বারকৃতদের পুলিশ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

আনোয়ারায় হঠাৎ সক্রিয় বিএনপি, সং*ঘ*র্ষে ওসিসহ ২ পুলিশ সদস্য আ*হ*ত
                                  

আনোয়ারা(চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:

চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় দির্ঘদিন নিষ্ক্রিয় থাকার পর নিজেদের অবস্থান জানান দিল বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের কর্মীরা। অ ব রো ধ চলাকালে পুলিশ বাধা দিলে স*ং*ঘ*র্ষ বেধে যায়। এ সময় আনোয়ারা থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি)সহ আরও দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। ওসি মারাত্মক আহত হয়েছেন।

বুধবার (১৩ ডিসেম্বর) দুপুর একটার দিকে উপজেলার চাতরী চৌমুহনী বাজারের উত্তর পাশে বিএনপি ও যুবদল কর্মীদের সাথে পুলিশের স*ং*ঘ*র্ষের ঘটনাটি ঘটে।

ঘটনাস্থল থেকে এক যুবদল কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ৮ রাউন্ড গুলিও ছুঁড়ে।

পুলিশ জানায়, আজ বুধবার দুপুরের দিকে চাতরী চৌমুহনী এলাকায় বিএনপি ও যুবদলের নেতা-কর্মীরা সড়ক অবরোধ করে মিছিল ও গাড়ি ভাঙচুর চালাচ্ছিল। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে নেতাকর্মীদের বাঁধা দিলে উল্টো পুলিশের ওপর ইটপাটকেল ছুঁড়ে হামলা চালায় তাঁরা। এ সময় ওসিসহ আহত হন পুলিশের বেশ কয়েকজন সদস্য।

আনোয়ারা থানার ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বলেন, চাতরী চৌমুহনীর উত্তর পাশে দুপুরের দিকে বিএনপির ব্যানার ও পতাকা হাতে একটি মিছিল থেকে ইটপাটকেল ও লাঠি নিয়ে আমাদের ওপরে অতর্কিত হামলা চালানো হয়। এতে আমাদের ওসি স্যারসহ দুইজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান চালছে।

তিনি আরও বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ৮ রাউন্ড গুলি ছুঁড়ে। আহত ওসি স্যারকে উদ্ধার করে আনোয়ারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তিনি ডান চোখে মারাত্মক আঘাত পেয়েছেন।

আনোয়ারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক মামুনুর রশীদ বলেন, দুপুরে গুরুতর আহত অবস্থায় থানার ওসিকে হাসপাতালে আনা হলে আমরা দ্রুত প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করি।

আধিপত্য বিস্তার নিয়ে গু*লিতে ৪ ইউপিডিএফ কর্মী নি*হ*ত
                                  

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে খাগড়াছড়িতে প্রতিপক্ষের গুলিতে বিপুল চাকমাসহ চারজন নিহত হয়েছেন। নিহতরা সবাই পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তি বিরোধী ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) নেতাকর্মী। গতকাল সোমবার রাতে পানছড়ির লোগাঙ ইউনিয়নের ৯নম্বর ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন পিসিপির সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি বিপুল চাকমা, সহ-সভাপতি সুনীল ত্রিপুরা, যুব ফোরামের নেতা লিটন চাকমা ও ইউপিডিএফের সদস্য রুহিন ত্রিপুরা।

নিহতদের মধ্যে বিপুল চাকমা চেঙ্গী ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের করল্যাছড়ি বুদ্ধধন পাড়া, সুনীল ত্রিপুরা মাটিরাঙ্গা উপজেলার বড়নাল ইউনিয়নের সুরেন্দ্র রোয়াজা হেডম্যান পাড়া, লিটন চাকমা খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার ভাইবোনছড়া ইউনিয়নের দ্রোনচার্য্য কার্বারি পাড়া এবং রুহিন বিকাশ ত্রিপুরা পানছড়ির উপল্টাছড়ি ইনিয়নের পদ্মিনী পাড়ার বাসিন্দা।

এছাড়া এ ঘটনায় ইউপিডিএফের নেতা হরি কমল চাকমা ও নীতিদত্ত চাকমাসহ তিনজন নিখোঁজ রয়েছেন বলে দাবি করা হয়েছে।

জানতে চাইলে ইউপিডিএফের জেলা সংগঠক অংগ্য মারমা বলেন, আজ ওই এলাকায় গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের উদ্যোগে যুব সম্মেলন হওয়ার কথা ছিল। সম্মেলনে যোগ দিতে ওই চার নেতাকর্মী সেখানে অবস্থান করছিলেন। রাতে বাড়িতে ঢুকে তাদের হত্যা করা হয়েছে। তিনি এ হত্যাকণ্ডের জন্য গণতান্ত্রিক ইউপিডিএফকে দায়ি করেছেন।

তবে ঘটনার সঙ্গে নিজেদের জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন গণতান্ত্রিক ইউপিডিএফের সভাপতি শ্যামল চাকমা।

পানছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিউল আজম বলেন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি চারজন নিহত হওয়ার ঘটনা আমাকে জানিয়েছেন।

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ‘আধিপত্য বিস্তার’ নিয়ে একদিনে ৪ খু*ন
                                  

জেলা প্রতিনিধি, কক্সবাজার:

অশান্ত হয়ে উঠেছে কক্সবাজার জেলার উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প। মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে উখিয়ার ১৭ নম্বর মধুর ছড়া ও জামতলির ১৫ নম্বর ক্যাম্পে ৪ টি হ*ত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশের দাবী ক্যাম্পে ‘আধিপত্য বিস্তারকে’ কেন্দ্র করে এঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, ১৫নম্বর ক্যাম্পের মো. জোবাইর (১৮), আনোয়ার সাদিক (১৭), ১৭ নম্বর ক্যাম্পের কাশিম (৩৪)। এছাড়া সোমবার বিকেলে ৪নং ক্যাম্পে একজনকে গুলি করে হ*ত্যা করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছে উখিয়া থানার ওসি শামীম হোসাইন জানান, আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (আরসা) সন্ত্রাসীরা ১৫নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৪ জনকে তুলে নিয়ে গিয়ে ক্যাম্পের ব্লক জি৩ ও ব্লক৭ এর খালি জায়গায় গুলি করে ও এলোপাতাড়ি কুপিয়ে চলে যায়, এতে ২ জন নিহত হয় ও ২ গুরুতর আহত হয়। একইদিন রাতে ১৭নং ক্যাম্পে পৃথক আরেকটি ঘটনায় এজন রোহিঙ্গাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

এর আগে সোমবার বিকেলে ৪ নং ক্যাম্পে এক যুবককে গুলি করে হত্যার ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে এক দিনে ৪ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটলো আশ্রয় শিবিরে।

নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। জড়িতদের ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানান ওসি।

আনোয়ারায় বন্য হাতির বিরামহীন অত্যাচার, খাদ্য সঙ্কটের আশঙ্কায় কৃষক
                                  

আনোয়ারা(চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:

আজ এই পাড়ায় তো কাল ওই পাড়ায়। আজ এই বিলে তো কাল ওই বিলে। এভাবে পালা করে প্রায় প্রতিরাতেই ভয়ংকরভাবে হানা দিচ্ছে বন্য হাতির দল। গত ছয় বছরে প্রাণ কেড়ে নিয়েছে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের অন্তত ৭ জন মানুষের, ভেঙ্গে দিয়েছে অনেক বসত বাড়ী, নষ্ট করেছে অনেক ফল গাছ আর গরীব কৃষকের স্বপ্নে বোনা ফসলের মাঠ।

চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার বৈরাগ, পশ্চিমচাল, চাঁপাতলী, ছিরাবটতলী ও বটতলীসহ বেশ কয়েকটি গ্রামের মানুষের নির্ঘুম রাত কাটে হাতি আতঙ্ক নিয়ে। বিগত ৬ বছর যাবত দেয়াং পাহাড়ে অবস্থান নেয়া হাতির দলটি প্রায় প্রতিরাতেই কোন না কোন গ্রামে হানা দিচ্ছে। খেয়েদেয়ে নষ্ট করছে কৃষকের অতিকষ্টে বোনা ধান আর সব্জির ক্ষেত।

এ বিষয়ে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে বারবার ধর্না দিলেও রহস্যজনক নীরবতা পালন করছেন জনপ্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। এভাবে চলতে থাকলে খাদ্য সঙ্কটের আশঙ্কায় ভুগছেন উল্লেখিত গ্রামের সাধারণ কৃষকরা।

সরেজমিনে দেখা যায়, এই হাতির লাগাতার অত্যাচারে চাঁপাতলী গ্রামের বাইন্না ভিটা নামক প্রায় ১০ একরের একটি বিলে ফসলের চাষ করা প্রায় ছেড়েই দিয়েছে স্থানীয় কৃষকেরা, ফলে অতি আবাদ যোগ্য ফসলের এই মাঠটি আজ দীর্ঘদিন যাবৎ পড়ে আছে অনাবাদি হয়েই।

এ প্রসঙ্গে স্থানীয় একাধিক কৃষকের সাথে আলাপকালে তাঁরা জানান, চাষ করে লাভ কি, যদি সে ফসল ঘরেই তুলতে না পারি?

তাঁরা বলেন, এই হাতির দল আমাদের মুখের গ্রাস কেড়ে নিচ্ছে, আমাদের বাড়ীঘর নষ্ট করে দিচ্ছে, আমাদের জানমালেরও ক্ষতি করছে, এখন আমরা নিরুপায়, আমরা অসহায়। কারণ এ বিষয়ে আমরা দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সংশ্লিষ্ট মহলের কাছে আমাদের আকুতি জানিয়ে আসছি, কিন্তু কোন কাজ হচ্ছেনা, আমাদের এই দুর্দশা থেকে পরিত্রাণে কেউই কোন উদ্যোগ নিচ্ছেনা।

এভাবে চলতে থাকলে পরিবার পরিজনের খাদ্য জোগাড় এবং শান্তিতে বসবাস করা দুঃসাধ্য হয়ে পড়বে বলেও আশঙ্কা করছেন তারা।

দেড় মাস পর ভেসে উঠল কাপ্তাই হ্রদের ঝুলন্ত সেতু
                                  

পিংকি আক্তার (রাঙ্গামাটি):

কাপ্তাই হ্রদের পানি কমতে থাকায় দেড় মাস পর ভেসে উঠেছে ডুবে থাকা ঝুলন্ত সেতুটি। অবশেষে ৪৫ দিন পর সিম্বল অব রাঙামাটি পর্যটন ঝুলন্ত সেতুর পাটাতন থেকে পানি কমে গেছে। এতে সেতুটি এখন পুরোপুরি দৃশ্যমান হয়েছে এবং পর্যটকরাও দীর্ঘ সময় পর সেতুতে স্বাভাবিকভাবেই হাঁটাচলা করতে পারছে। উজান থেকে নেমে আসা পানি বাড়ায় রাঙামাটির সবচেয়ে আকর্ষণীয় স্থাপনা ঝুলন্ত সেতুটি দীর্ঘ প্রায় ৪৫ দিন ধরে ডুবে ছিলো।

সরেজমিনে দেখা যায়, গত বেশ কিছুদিন বৃষ্টিপাত না হওয়ার ফলে কমতে শুরু করেছে কাপ্তাই হ্রদের পানি। এতে প্রায় দীর্ঘ ৪৫ দিন পর জেগে উঠছে রাঙামাটির মনোরম ঝুলন্ত সেতু। বর্ষায় কাপ্তাই হ্রদের পানি বাড়ায় এতদিন সেতুটি পানিতে ডুবে ছিল। ইতোমধ্যে পানি সরে যাওয়ায় সেতু পরিষ্কার এবং রংয়ের কাজ করছে পর্যটক করপোরেশন।

সেতুটি পানির নিচে তলিয়ে থাকায় রাঙামাটিতে বেড়াতে আসা পর্যটকরা হাতাশা প্রকাশ করেন। এতে আবারও ক্ষতির মুখে পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা। সেতুতে পানি থাকায় রাঙামাটিতে পর্যটকের সংখ্যা কিছু কমেছে বলে জানান করপোরেশনের ব্যবস্থাপক। একই সাথে তাদের আয়ও অনেকাংশে কমেছে।

চট্টগ্রাম থেকে বেড়াতে আসা মোঃ রায়হান বলেন, রাঙামাটি আসার পর শুনেছিলাম ঝুলন্ত সেতু পানিতে ডুবে গেছে। তাও দেখতে এসছিলাম। এসে দেখি ভেসে উঠেছে। যাক অবশেষে হাঁটতে পেরেছি ঝুলন্ত সেতুতে।

ট্যুরিস্ট বোট মালিক সমিতির সহ-সভাপতি মো. রমজান আলী বলেন, রাঙামাটি যারাই বেড়াতে আসেন তাদের প্রথম আকর্ষণ থাকে ঝুলন্ত সেতু দেখতে আসা। সেতু ডুবে যাওয়ার একদম পর্যটক শূন্য হয়ে পড়ে। যেহেতু হ্রদের পানি কমেছে। আশা করছি আবারও পর্যটক আসবে রাঙামাটিতে। আমাদের দীর্ঘ ৪৫ দিনের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারবো।

রাঙামাটি পর্যটন করপোরেশনের ব্যবস্থাপক আলোক বিকাশ চাকমা বলেন, কাপ্তাই হ্রদের পানি কমে আসায় ভেসে উঠেছে ঝুলন্ত সেতু। কিছু সংস্কার কাজ চলছে। সেতুতে পর্যটক চলাচলে যে নিষেধাজ্ঞা ছিলো তাও প্রত্যাহার করা হয়েছে। তিনি বলেন, সেতু ডুবে থাকায় রাঙামাটি পর্যটন করপোরেশনের প্রায় ১০-১২ লাখ টাকা আর্থিক ক্ষতি হয়েছে। আশা করছি পর্যটক আসলে সেই ক্ষতি পুষিয়ে নেয়া যাবে।

প্রতি বছর বর্ষা মৌসুমে ঝুলন্ত ব্রিজটি কাপ্তাই হ্রদের পানিতে তলিয়ে যায়। কিন্তু ঝুলন্ত ব্রিজটি পানিতে তলিয়ে যাওয়ার সমস্যার স্থায়ী কোনো সমাধান করা হয়নি। তাই এই ঝুলন্ত ব্রিজটি প্রতিবছর যাতে কাপ্তাই হ্রদের পানিতে তলিয়ে না যায় এর জন্য নতুন করে সংস্কারের দাবী জানিয়েছে পর্যটক প্রেমিকরা। আর শীত মৌসুমে পর্যটকদের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠবে রাঙামাটি তেমনটাই প্রত্যাশা সংশ্লিষ্টদের।

চট্টগ্রামে জামায়াত-পুলিশ সংঘর্ষ
                                  

চট্টগ্রাম ব্যুরো :

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় আমৃত্যু কারাদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর গায়েবানা জানাজাকে কেন্দ্র করে জামায়াত-শিবিরের সঙ্গে পুলিশের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে।  

মঙ্গলবার (১৫ আগস্ট) বিকেলে ৪ টার দিকে নগরের আলমাস সিনেমা হলের সামনে থেকে এই সংঘর্ষ শুরু হয়। পরে কাজীর দেউড়ি মোড়, ওয়াসার মোড়, জিইসি মোড় ও লালখান বাজারসহ নগরের বিভিন্ন স্থানে তা ছড়িয়ে পড়ে।  

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ কমিশনার (দক্ষিণ) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, জানাজার অনুমতি ছাড়া জমিয়তুল ফালাহ মসজিদের আশপাশে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা বিকেল থেকে জড়ো হতে থাকে। তারা অতর্কিত পুলিশের ওপর হামলা চালায়। আমাদের পূর্বপ্রস্তুতি থাকায় তাৎক্ষণিকভাবে সেটা প্রতিরোধ করেছি। পুলিশের একাধিক সদস্য আহত হয়েছে। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক।  

কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদুল কবির বলেন, জামায়াত-শিবিরের ৩০ জনের বেশি নেতাকর্মীকে কোতোয়ালী থানা পুলিশ গ্রেফতার করেছে। আশপাশে থানা পুলিশও কিছু গ্রেফতার করতে পারে। মোট সংখ্যা এখন জানানো সম্ভব নয়।

এর আগে যে কোনো ঘটনা এড়াতে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছিল। সোমবার (১৪ আগস্ট) রাতে সাঈদীর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার পর চট্টগ্রাম জেলা ও বন্দর নগরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।


   Page 1 of 37
     চট্রগ্রাম
প্রতিপক্ষের গু লি তে ২ ইউপিডিএফ সদস্য নি হ ত
.............................................................................................
বিমানবন্দরে ময়লার ঝুড়িতে ৭০ লাখ টাকার সোনা!
.............................................................................................
কাপ্তাই হ্রদে ফুল ভাসিয়ে শুরু হলো বৈসাবি উৎসব
.............................................................................................
কাপ্তাই হ্রদে পানি সংকটে বিদ্যুৎ উৎপাদনে ধ্বস
.............................................................................................
হা ম লা র দায়ে যুবলীগ নেতা আ ট ক
.............................................................................................
চট্টগ্রামে পুলিশ-বিএনপি সংঘ*র্ষ
.............................................................................................
এমপি জাফর আলমকে আ.লীগ থেকে অব্যাহতি
.............................................................................................
আনোয়ারায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে কিশোরের মৃত্যু, শোকে স্তব্ধ গ্রাম
.............................................................................................
আনোয়ারায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে বিজয় দিবস উদযাপন
.............................................................................................
খাগড়াছড়িতে অপহৃত ৩ ইউপিডিএফ সদস্য উদ্ধার
.............................................................................................
আনোয়ারায় হঠাৎ সক্রিয় বিএনপি, সং*ঘ*র্ষে ওসিসহ ২ পুলিশ সদস্য আ*হ*ত
.............................................................................................
আধিপত্য বিস্তার নিয়ে গু*লিতে ৪ ইউপিডিএফ কর্মী নি*হ*ত
.............................................................................................
উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ‘আধিপত্য বিস্তার’ নিয়ে একদিনে ৪ খু*ন
.............................................................................................
আনোয়ারায় বন্য হাতির বিরামহীন অত্যাচার, খাদ্য সঙ্কটের আশঙ্কায় কৃষক
.............................................................................................
দেড় মাস পর ভেসে উঠল কাপ্তাই হ্রদের ঝুলন্ত সেতু
.............................................................................................
চট্টগ্রামে জামায়াত-পুলিশ সংঘর্ষ
.............................................................................................
চট্টগ্রাম মহানগরীর সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মঙ্গলবার বন্ধ
.............................................................................................
জামায়াতের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ, আটক ১২
.............................................................................................
ইউএনও সংকটে গুইমারা উপজেলা, প্রশাসনিক কার্যক্রমে স্থবিরতা, ভাড়া বাড়ীতে চলছে দাপ্তরিক কার্যক্রম
.............................................................................................
চট্টগ্রামে আ.লীগ ও বিএনপির পৃথক সামবেশ
.............................................................................................
চট্টগ্রামে সমাবেশ করতে চায় জামায়াত: অনুমতি নিতে সিএমপি কার্যালয়ে প্রতিনিধি দল
.............................................................................................
চাকরি দেওয়ার প্রলোভনে লাখ লাখ টাকা আত্মসাৎ
.............................................................................................
চট্টগ্রাম-১০ উপনির্বাচন: ২ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল
.............................................................................................
মানবতাবিরোধী অপরাধ : ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি গ্রেপ্তার
.............................................................................................
বিজ্ঞানভিত্তিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা চায় চসিক
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি, যুবক গ্রেফতার
.............................................................................................
ঈদের আগে জাল টাকার ছড়াছড়ি, আটক ১
.............................................................................................
মশা নিধনে বিমানবাহিনী থেকে ওষুধ এনেছে চসিক
.............................................................................................
কমনওয়েলথ ওয়ার সিমেট্রি পরিদর্শনে ভারতীয় হাইকমিশনার
.............................................................................................
চসিকের ১৮৮৭ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা
.............................................................................................
চট্টগ্রামে শুভেচ্ছা সফরে ভারতীয় নৌবাহিনীর জাহাজ
.............................................................................................
মঙ্গলবার থেকে শুরু হচ্ছে মোহ্ছেন আউলিয়ার ওরশ, বাড়ছে ভক্তদের ভীড়
.............................................................................................
নাশকতার দুই মামলায় গ্রেফতার ২৪
.............................................................................................
চট্টগ্রামের চকবাজারে ছাত্রলীগ-বিএনপি সংঘর্ষ
.............................................................................................
জ*বাই করে হ*ত্যা পর লা*শ চেয়ারে বসিয়ে রেখে গেল দুর্বৃত্তরা
.............................................................................................
রাঙ্গামাটিতে অটোরিক্সায় পুড়িয়ে দিল সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা
.............................................................................................
মিতু হত্যার চার্জশিটভুক্ত আসামি কালু গ্রেপ্তার
.............................................................................................
প্রকাশ্যে পিস্তল হাতে মিছিলে এমপি, ঘটনা খতিয়ে দেখছে পুলিশ
.............................................................................................
চট্টগ্রাম বন্দরের সব কার্যক্রম বন্ধ
.............................................................................................
চট্টগ্রামে টায়ারের গুদামে ভয়াবহ আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৯ টি ইউনিট
.............................................................................................
বোয়ালখালীতে বাসচাপায় অটোরিকশার ৪ যাত্রী নিহত
.............................................................................................
জগন্নাথপুরে ভর্তুকি দিয়ে কৃষি যন্ত্রপাতি বিতরণ
.............................................................................................
ময়লার স্তূপে চাপা দেওয়া ভুসি বিক্রির চেষ্টা, গ্রেপ্তার ৫
.............................................................................................
রাঙামাটিতে মিনিট্রাক-সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত ৪
.............................................................................................
চট্টগ্রামে পাহাড় ধসে নি*হত ১
.............................................................................................
পেকুয়ায় ফিড দ্যা ফিউচার নিউট্রিশন অ্যাক্টিভিটি বিষয়ক মতবিনিমিয় সভা অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
সার্জেন্ট আনোয়ারকে অপহরণের প্রতিবাদে রাঙামাটিতে বিক্ষোভ
.............................................................................................
আদালতে মামলার পর ডোবায় মিলল নিখোঁজ শিশুর লাশ
.............................................................................................
শাহ আমানতে ৩২টি স্বর্ণের বারসহ দুবাইফেরত যাত্রী আটক
.............................................................................................
বাঙালি শিক্ষার্থীদের সাথে বৈষম্যের প্রতিবাদে রাঙামাটিতে মানববন্ধন
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT