শনিবার, ২ মার্চ 2024 বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   সিলেট -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
কপাল পুড়লো সিলেটীদের, বন্ধ হলো ব্রিটেনে কেয়ার ভিসা

সিলেট ব্যুরো:

যুক্তরাজ্য সরকারের মতে, ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দেশটিতে এক লাখ কেয়ারকর্মী এবং তাদের পরিবারের এক লাখ ২০ হাজার সদস্য এসেছেন। ওই ভিসা নীতির চালুর পর থেকে পরিসংখ্যান বিহীন কয়েক লাখ মানুষ সিলেট ছেড়ে যুক্তরাজ্য পাড়ি জামিয়েছে স্বপরিবারে।

বৃহত্তর সিলেট মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ জেলা শহর তথা বিভিন্ন উপজেলা, ইউনিয়ন থেকে অনেক পরিবারের ৪-৫ জন পরিবারের সদস্য কেয়ার ভিসার নীতিমালা অনুসারে যুক্তরাজ্যে গিয়েছেন। অনেকে সেখানে গিয়ে ভালো টাকাও উপর্জন করছেন, অসহায় পরিবারের মুখে হাসি ফুটেছে। অন্যান্য পরিবার ও আত্মীয় স্বজনদের নেওয়ার জন্য প্রায় প্রস্তুতি সম্পন্ন করছেন বলে জানা গেছে।

কিন্তু চলতি বছরের ১১ মার্চ থেকে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ব্রিটেনে কেয়ার ভিসার অভিবাসীদের পরিবার নেওয়ার নিয়ম বাতিল করেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। এ খবর সিলেটবাসী শুনার পর মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়েছে। অনেক পরিবারের সদস্য হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন।

ব্রিটিশ সরকার বলেছে, এই পদক্ষেপ সরকারের অভিবাসনের হার কমানোর পরিকল্পনার অংশ। যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেমস ক্লেভারলি গত সোমবার ব্রিটিশ পার্লামেন্টে অভিবাসন নিয়ে এ সংক্রান্ত পরিবর্তনের ঘোষণা দেন। তবে তিনি নীতিটি প্রথমবারের মতো ঘোষণা করেছিলেন ২০২৩ সালের ডিসেম্বর মাসে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে দেওয়া এক বার্তায় তিনি বলেন, ‘‘এই পদক্ষেপটি ব্রিটিশ অভিবাসনের সংখ্যা হ্রাস করার পরিকল্পনার অংশ।’’

অভিবাসী খবরা খবর (ইন ফোমাই গ্রেন্টস) প্রকাশিত সংবাদ সূত্রে জানা যায়, আগের নিয়ম অনুযায়ী, যুক্তরাজ্যে পরিচর্যাকর্মীর ভিসায় যাওয়া ব্যক্তিরা তাদের স্বামী কিংবা স্ত্রী এবং সন্তানকে নিয়ে আসতে পারতেন। তবে চলতি ২০২৪ সালের ১১ মার্চ থেকে পরিবারের সদস্যদের স্পন্সর করতে বেশ কিছু অতিরিক্ত আয়সহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা যুক্ত করা হবে। যা পূরণ করা অভিবাসীদের জন্য কার্যত অসম্ভব হবে।

নতুন পরিবর্তন গুলো প্রবর্তনের পেছনে যুক্তরাজ্য সরকার জানায়, বর্তমানে ব্রিটেনে অভিবাসনের হার অনেক বেশি। অভিবাসন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী, আশ্রয় প্রার্থী এবং বিভিন্ন মানবিক প্রকল্প ছাড়াও সাম্প্রতিক সময়ে অভিবাসীদের সামগ্রিক সংখ্যা বৃদ্ধিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছে কেয়ার ভিসায় যাওয়া ব্যক্তি এবং তাদের পরিবারের সদস্যরা।
অন্যদিকে, অভিবাসী সহায় তাকারী এনজিও এবং দাতব্য সংস্থাগুলো বলেছে, বিদেশি পরিচর্যা কর্মীদের পরিবারের সদস্যদের তাদের সঙ্গে যোগদান করতে বাধা দেওয়াা ‘অমানবিক’ এবং এর ফলে কর্মীরা মানসিক ভাবে নিঃস্ব হয়ে পড়বে। সরকারের এই পরিবর্তন ঘোষণার পর ওয়ার্ক রাইটস সেন্টারের প্রধান ডোরা-অলিভিয়া ভিকোল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিজমকে বলেন, অভিবাসী শ্রমিকরা ইতিমধ্যে অনিশ্চিত পরিস্থিতিতে বাস করছে। নতুন উদ্যোগের অর্জন হবে পরিবার ভেঙে দেওয়া, কর্মীদের ভয়ে রাখা এবং পারষ্পরিক বিশ্বাস নষ্ট করা।

চলতি সপ্তাহে যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টে বিরোধীরা বলেছেন, এই পদক্ষেপ ব্রিটিশ অর্থনীতির ক্ষতি করতে পারে। কেয়ার সেক্টও গুলো কর্মী ঘাটতিতে ভুগছে। বেশ কয়েক জন মন্ত্রী বলেছেন, নতুন নিষেধাজ্ঞাটি সংকটে থাকা খাতে প্রযোজনীয় অভিবাসী শ্রমিকদের আসতে বাধা দেবে।

এদিকে নতুন আইন পরিবর্তনের অর্থ হল যারা চলতি বছরের ১১ মার্চ থেকে আসবেন তারা তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে আসতে পারবেবেন না। নতুন আইনের আওতায় প্রভাবিত পেশার কোড হল এসওসি ৬১৪৫ এবং ৬১৪৬। এ সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে ব্রিটিশ সরকারের ওয়েবসাইটে।

নতুন নিষেধাজ্ঞা ইতিমধ্যে যুক্তরাজ্যে বসবাসরত পরিচর্যা কর্মীদের ও তাদের পরিবারের জন্য প্রযোজ্য হবে না। এই ভিসায় কর্মী আনতে শুধুমাত্র সেসব কোম্পানি স্পন্সর করতে পারবেন যারা ব্রিটিশ কেয়ার কোয়ালিটি কমিশনে নিবন্ধিত। সম্প্রতি স্কিলড ওয়ার্কার ভিসার পরিবর্তিত বেতন কাঠামোর শর্তগুলো এই স্বাস্থ্য এবং কেয়ার ভিসার জন্য প্রযোজ্য হবে না। বিস্তারিত ব্রিটিশ স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বা এনএইচএস সংশ্লিষ্ট নিয়োগকর্তাদের জন্য নিবেদিত ওয়েব সাইটে দেখা যাবে বলে জানা গেছে।

কপাল পুড়লো সিলেটীদের, বন্ধ হলো ব্রিটেনে কেয়ার ভিসা
                                  

সিলেট ব্যুরো:

যুক্তরাজ্য সরকারের মতে, ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দেশটিতে এক লাখ কেয়ারকর্মী এবং তাদের পরিবারের এক লাখ ২০ হাজার সদস্য এসেছেন। ওই ভিসা নীতির চালুর পর থেকে পরিসংখ্যান বিহীন কয়েক লাখ মানুষ সিলেট ছেড়ে যুক্তরাজ্য পাড়ি জামিয়েছে স্বপরিবারে।

বৃহত্তর সিলেট মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ জেলা শহর তথা বিভিন্ন উপজেলা, ইউনিয়ন থেকে অনেক পরিবারের ৪-৫ জন পরিবারের সদস্য কেয়ার ভিসার নীতিমালা অনুসারে যুক্তরাজ্যে গিয়েছেন। অনেকে সেখানে গিয়ে ভালো টাকাও উপর্জন করছেন, অসহায় পরিবারের মুখে হাসি ফুটেছে। অন্যান্য পরিবার ও আত্মীয় স্বজনদের নেওয়ার জন্য প্রায় প্রস্তুতি সম্পন্ন করছেন বলে জানা গেছে।

কিন্তু চলতি বছরের ১১ মার্চ থেকে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ব্রিটেনে কেয়ার ভিসার অভিবাসীদের পরিবার নেওয়ার নিয়ম বাতিল করেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। এ খবর সিলেটবাসী শুনার পর মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়েছে। অনেক পরিবারের সদস্য হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন।

ব্রিটিশ সরকার বলেছে, এই পদক্ষেপ সরকারের অভিবাসনের হার কমানোর পরিকল্পনার অংশ। যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেমস ক্লেভারলি গত সোমবার ব্রিটিশ পার্লামেন্টে অভিবাসন নিয়ে এ সংক্রান্ত পরিবর্তনের ঘোষণা দেন। তবে তিনি নীতিটি প্রথমবারের মতো ঘোষণা করেছিলেন ২০২৩ সালের ডিসেম্বর মাসে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে দেওয়া এক বার্তায় তিনি বলেন, ‘‘এই পদক্ষেপটি ব্রিটিশ অভিবাসনের সংখ্যা হ্রাস করার পরিকল্পনার অংশ।’’

অভিবাসী খবরা খবর (ইন ফোমাই গ্রেন্টস) প্রকাশিত সংবাদ সূত্রে জানা যায়, আগের নিয়ম অনুযায়ী, যুক্তরাজ্যে পরিচর্যাকর্মীর ভিসায় যাওয়া ব্যক্তিরা তাদের স্বামী কিংবা স্ত্রী এবং সন্তানকে নিয়ে আসতে পারতেন। তবে চলতি ২০২৪ সালের ১১ মার্চ থেকে পরিবারের সদস্যদের স্পন্সর করতে বেশ কিছু অতিরিক্ত আয়সহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা যুক্ত করা হবে। যা পূরণ করা অভিবাসীদের জন্য কার্যত অসম্ভব হবে।

নতুন পরিবর্তন গুলো প্রবর্তনের পেছনে যুক্তরাজ্য সরকার জানায়, বর্তমানে ব্রিটেনে অভিবাসনের হার অনেক বেশি। অভিবাসন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী, আশ্রয় প্রার্থী এবং বিভিন্ন মানবিক প্রকল্প ছাড়াও সাম্প্রতিক সময়ে অভিবাসীদের সামগ্রিক সংখ্যা বৃদ্ধিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছে কেয়ার ভিসায় যাওয়া ব্যক্তি এবং তাদের পরিবারের সদস্যরা।
অন্যদিকে, অভিবাসী সহায় তাকারী এনজিও এবং দাতব্য সংস্থাগুলো বলেছে, বিদেশি পরিচর্যা কর্মীদের পরিবারের সদস্যদের তাদের সঙ্গে যোগদান করতে বাধা দেওয়াা ‘অমানবিক’ এবং এর ফলে কর্মীরা মানসিক ভাবে নিঃস্ব হয়ে পড়বে। সরকারের এই পরিবর্তন ঘোষণার পর ওয়ার্ক রাইটস সেন্টারের প্রধান ডোরা-অলিভিয়া ভিকোল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিজমকে বলেন, অভিবাসী শ্রমিকরা ইতিমধ্যে অনিশ্চিত পরিস্থিতিতে বাস করছে। নতুন উদ্যোগের অর্জন হবে পরিবার ভেঙে দেওয়া, কর্মীদের ভয়ে রাখা এবং পারষ্পরিক বিশ্বাস নষ্ট করা।

চলতি সপ্তাহে যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টে বিরোধীরা বলেছেন, এই পদক্ষেপ ব্রিটিশ অর্থনীতির ক্ষতি করতে পারে। কেয়ার সেক্টও গুলো কর্মী ঘাটতিতে ভুগছে। বেশ কয়েক জন মন্ত্রী বলেছেন, নতুন নিষেধাজ্ঞাটি সংকটে থাকা খাতে প্রযোজনীয় অভিবাসী শ্রমিকদের আসতে বাধা দেবে।

এদিকে নতুন আইন পরিবর্তনের অর্থ হল যারা চলতি বছরের ১১ মার্চ থেকে আসবেন তারা তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে আসতে পারবেবেন না। নতুন আইনের আওতায় প্রভাবিত পেশার কোড হল এসওসি ৬১৪৫ এবং ৬১৪৬। এ সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে ব্রিটিশ সরকারের ওয়েবসাইটে।

নতুন নিষেধাজ্ঞা ইতিমধ্যে যুক্তরাজ্যে বসবাসরত পরিচর্যা কর্মীদের ও তাদের পরিবারের জন্য প্রযোজ্য হবে না। এই ভিসায় কর্মী আনতে শুধুমাত্র সেসব কোম্পানি স্পন্সর করতে পারবেন যারা ব্রিটিশ কেয়ার কোয়ালিটি কমিশনে নিবন্ধিত। সম্প্রতি স্কিলড ওয়ার্কার ভিসার পরিবর্তিত বেতন কাঠামোর শর্তগুলো এই স্বাস্থ্য এবং কেয়ার ভিসার জন্য প্রযোজ্য হবে না। বিস্তারিত ব্রিটিশ স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বা এনএইচএস সংশ্লিষ্ট নিয়োগকর্তাদের জন্য নিবেদিত ওয়েব সাইটে দেখা যাবে বলে জানা গেছে।

মৌলভীবাজারের সম্ভাবনাময় পর্যটন স্পট ‘কোদালিছড়া’
                                  

জিতু তালুকদার, মৌলভীবাজার:

মৌলভীবাজার শহরের কোদালিছড়া খালের কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে। দুই তীরের পাঁচ কিলোমিটার এলাকার সৌন্দর্যবর্ধনের কাজ চলছে। এরই মধ্যে শেষ হয়েছে ওয়াকওয়ে, গাইড ওয়াল নির্মাণ, লাইটিংয়ের কাজ ও খালের তলায় ব্লক ফেলাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের কাজ। পুরো কাজ সম্পন্ন হলে কোদালিছড়া পরিণত হবে দৃষ্টিনন্দন আকর্ষণীয় একটি পর্যটনের স্থান হিসেবে।

জানা যায়, প্রায় ২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে করা হচ্ছে মৌলভীবাজার শহরের কোদালিছড়া খালের দুই তীরের পাঁচ কিলোমিটার কাজ।

কোদালিছড়া খাল একসময় মৌলভীবাজার জেলা শহরের অভিশাপ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। দীর্ঘদিনের দখল দূষণে এবং ময়লা আবর্জনায় এ খালটি ক্ষীণ ও ভরাট হয়ে পড়ায় শহরের পানি নিষ্কাশনে বাঁধা হয়েছিল। সামান্য বৃষ্টিতে রাস্তাঘাট, বাসাবাড়ি তলিয়ে চরম জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হতো। তবে ১ কোটি ৮৯ লাখ ৩০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১৮ সালে পৌরসভাসহ প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় শহর থেকে হাওর পর্যন্ত ১৪ কিলোমিটার খাল পূনঃখনন ও দখলমুক্ত হওয়াতে শহর জলাবদ্ধতার অভিশাপ থেকে মুক্ত হয়।

মৌলভীবাজার পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী সৈয়দ নকিবুর রহমান জানান, পৌরসভার নজরদারিতে গুণগতমান বজায় রেখেই কোদালিছড়া খালে সৌন্দর্যবর্ধনের কাজ চলছে।

মৌলভীবাজার পৌর মেয়র আলহাজ মোঃ ফজলুর রহমান বলেন, পৌরবাসীর অভিশাপ কোদালিছড়া এরইমধ্যে সংস্কারে পানি নিষ্কাশনসহ অনেক ধরণের সুবিধার সৃষ্টি হয়েছে। এখন সৌন্দর্যবর্ধনে যে কাজ হচ্ছে তা বাস্তবায়িত হলে, পৌর বাসীর বেড়ানোর জন্য এই কোদালিছড়া দৃষ্টিনন্দন পর্যটক স্পট হিসাবে হবে।

দিরাইয়ে দোকান পু ড়ে ১০ ব্যবসায়ী নিঃস্ব, রাস্তার বেহাল দশার কারণে যেতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস
                                  

দিরাই প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলা রফিনগর ইউনিয়নের বাংলাবাজারে চারটি দোকানের ১০টি ব্যবসায়ীর দোকানে আগুন লেগে মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ৮ঘটিকায় বাংলাবাজার কৃষি ব্যাংকের পাশে এ অগ্নিকাণ্ড ঘটে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রাত সাড়ে ৮টার দিকে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে একটি দোকানে আগুন লাগলে স্থানীয় লোকজন আগুন নিয়ন্ত্রণ আনতে চেষ্টা চলায়। মুহূর্তে মধ্যে পাশে থাকা আরও তিনটি দোকানে আগুন ছড়িয়ে পড়লে কয়েকটি গ্যাসসিলিন্ডার ফেটে যায়। এসময় স্থানীয়রা দিরাই ফায়ার সার্ভিসে খবর দেন।

ভারপ্রাপ্ত ষ্টেশন কর্মকর্তা মো. আবুল কালাম বলেন, অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে আমরা একটি ইউনিট ছুটে যাই। কিন্তু রাস্তার বেহাল অবস্থার কারণে আমরা পৌঁছাতে পারিনি।

রফিনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শৈলেন্দ্র কুমার তালুকদার জানান, খবর পেয়ে ঘটনার স্থলে যাই, স্থানীয়দের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসলেও ততক্ষণে ক্ষতিগ্রস্তদের সব পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে চারটি দোকানে দশজন ব্যবসায়ী ছিল, তারা হলেন মাষ্টার আলী, বিমল তালুকদার, তজুল হক, বদরুল আলম, নোমান মিয়া, নাজমুল, জাবেল, হাবিব, রফিক মিয়া,দিলীপ দাস। এরমধ্যে সার, বীজ, দুইটি গ্যাসর সিলেন্ডার দোকান, ভুসিমাল, দুইটি সিলভারের হাঁড়িপাতিলের দোকান, চাউলের দোকান, স্বর্ণের দোকান, ইলেকট্রনিক দোকান, কম্পিউটার ও ফ্লেক্সিলোড দোকান ছিল। তিনি আরও বলেন, বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হতেপারে বলে ধারণা করা যায়। এতে তাদের প্রায় কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে বলে জানিয়েছেন শৈলেন্দ্র কুমার তালুকদার।

দিরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহমুদুর রহমান খোন্দকার ও সহকারী ভূমি কর্মকর্তা জনি রায় খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে ছুটে জান, নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে এবং যথাসাধ্য ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের পাশে থাকার আশ্বাস দেন তিনি।

কানাইঘাটে পরিবহন ধ র্ম ঘ টে র হু ম কি
                                  

মুফিজুর রহমান নাহিদ, স্টাফ রিপোর্টার:

কানাইঘাটের আলোচিত সিএনজি চালক আলমগীর হোসেন হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত খু নী দের দ্রুত গ্রেফতার না করলে আগামী রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারী) থেকে কানাইঘাটে লাগাতার পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন উপজেলা যৌথ পরিবহন সংগ্রাম পরিষদ এর নেতৃবৃন্দ।

সোমবার বিকেল ৪টায় কানাইঘাট প্রেসক্লাব কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন পরিবহন শ্রমিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। উপজেলা যৌথ পরিবহন সংগ্রাম পরিষদের পক্ষে সংবাদ সম্মেলনে যুগ্ম আহ্বায়ক শ্রমিক নেতা জুনেদ হাসান জীবান বলেন, গত ৭ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে কানাইঘাট গাছবাড়ী বাজার পল্লীবিদ্যুৎ মোড়ে মোটরসাইকেলের সাথে সিএনজি গাড়ীর ধাক্কা লাগাকে কেন্দ্র করে সিএনজি চালক স্থানীয় তিনচটি নারাইনপুর গ্রামের আলমগীর হোসেনকে অত্যন্ত নির্মমভাবে পৈশাচিক কায়দায় কুপিয়ে ঘটনাস্থলেই হত্যা করা হয়। এ হত্যাকান্ডের নেতৃত্ব দেয় নিজ দলইকান্দি আকুনি গ্রামের মৃত শাহাব উদ্দিনের পুত্র গাছবাড়ী এলাকার কুখ্যাত সন্ত্রাসী বিভিন্ন মামলার আসামী ও অপরাধমূলক কর্মকান্ডের হুতা সাদিক আহমদ, বাবলু ও তার ভাই কয়েছ আহমদ সম্রাট, তাদের চাচাতো ভাই সুলতান ও সহযোগী মাহফুজ আহমদ আরো কয়েকজন সহযোগী। মামলার আসামী খুনীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবীতে পরিবহন শ্রমিক ও গাছবাড়ী এলাকার সর্বস্তরের জনসাধারণ ধারাবাহিকভাবে মানববন্ধন, সভা-সমাবেশ করে আসলেও হত্যাকান্ডের ১৩দিন পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত সরাসরি জড়িত কুখ্যাত সন্ত্রাসী সাদিক, কয়েছ, মাহফুজ সহ তাদের সহযোগীদের রহস্যজনক কারনে গ্রেফতার করতে পারেনি কানাইঘাট থানা পুলিশ ও অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। যার কারনে সর্বস্তরের পরিবহন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, শ্রমিক এবং এলাকাবাসীর মধ্যে তীব্র উত্তেজনা ও ক্ষোভ বিরাজ করছে।

সংবাদ সম্মেলনে জুনেদ হাসান জীবন আরো বলেন, আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারী শনিবার এর মধ্যে পুলিশ প্রশাসন সিএনজি চালক আলমগীর হোসেনের হত্যাকারীদের গ্রেফতারে ব্যর্থ হলে ২৫ ফেব্রুয়ারী রবিবার থেকে কানাইঘাট উপজেলা যৌথ পরিবহন সংগ্রাম পরিষদ অনির্দিষ্টকালের জন্য কানাইঘাট উপজেলায় পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দিবে বলে সংবাদ সম্মেলনে হুশিয়ার উচ্চারণ করা হয়। থানা থেকে এ হত্যা মামলার তদন্ত ভার পরিবর্তন করা হলে পরিবহন শ্রমিকদের পক্ষ থেকে কঠোর কর্মসূচীর ডাক দেয়া হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরো বলা হয়, সিএনজি চালক আলমগীর হোসেনের হত্যাকারী সাদিক ও তার ভাই কয়েছ এর নেতৃত্বে দীর্ঘদিন থেকে গাছবাড়ী সহ কানাইঘাটের বিভিন্ন এলাকায় সন্ত্রাসী ও অপরাধ চক্র গড়ে তুলে রাস্তা-ঘাটে পরিবহন থেকে মালামাল লুটপাট, লোকজনদের তুলে নিয়ে মারধর করে মুক্তিপণ আদায়, মহিলাদের দিয়ে অশ্লীল ভিডিও বানিয়ে বিভিন্ন ব্যক্তিদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা আদায় টর্চার সেল গঠন করে, লোকজনদের তুলে নিয়ে মারধর করে টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেয়া সহ মদ, ইয়াবা অন্যান্য নেশাজাত দ্রব্য বিক্রি সহ পুলিশের উপর হামলা এবং গাছবাড়ী এলাকায় জনমনে ভীতির সৃষ্টি করে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম সহ পূর্বে আরো কয়েকজনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করার মতো ঘটনার সাথে জড়িত থাকলেও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তাদের বিরুদ্ধে কোন ধরনের ব্যবস্থা না নেওয়ার কারনে বেপরোয়া হয়ে তারা। সর্বশেষ এই চক্রটি সিএনজি চালক আলমগীর হোসেনকে নির্মমভাবে হত্যা করার মতো সাহস পেয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার শ্রমিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা যৌথ পরিবহন সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক শ্রমিকনেতা হাজী আতাউর রহমান, গাছবাড়ী উপ-পরিষদ ৭০৭ এর সাবেক সভাপতি জামাল আহমদ, শ্রমিকনেতা খসরুজ্জামান, কয়ছর আহমদ, আনোয়ার হোসেন, আফতাব উদ্দিন, জয়নাল আবেদীন, আলমাছ উদ্দিন, সালেহ আহম, বদরুল ইসলাম, নাজিম উদ্দিন সহ অর্ধশতাধিক শ্রমিক নেতৃবৃন্দ।

সিলেটে এহছানে এলাহীকে নাগরিক সংবর্ধনা
                                  

মুফিজুর রহমান নাহিদ, স্টাফ রিপোর্টার : বৃহত্তর সিলেটের কৃতি সন্তান কানাইঘাট উপজেলার প্রথম সচিব মো: এহছানে এলাহীকে (পিআরএল) নাগরিক সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। সিলেট মহানগরে বসবাসরত কানাইঘাট উপজেলাবাসীর পক্ষে এ সংধর্বনা দেওয়া হয়।

বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় সিলেটের রেজিস্ট্রার এ কে এম ফজলুর রহমান এর পরিচলনায় লন্ডন প্রবাসী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয় উপ-কমিটির সম্মানিত সদস্য, কানাইঘাট উপজেলা প্রতিষ্টাতা চেয়ারম্যান মরহুম এম, এ রকিব উদ্দিন সাহেবের সু-যোগ্য সন্তান, বিশিষ্ট শিল্পপতী বাহার জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- কানাইঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল মোমিন চৌধুরী, কানাইঘাট সরকারি কলেজের প্রিন্সিপাল সাব্বির আহমেদ, কানাইঘাট সরকারি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা প্রিন্সিপাল বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।

সংবর্ধিত অথিতির বক্তব্যে বৃহত্তর সিলেটের কৃতি সন্তান ও কানাইঘাটের রত্নগর্ভা সন্তান কানাইঘাট উপজেলার প্রথম সচিব মো: এহছানে এলাহী বলেন, সরকারি চাকরি একজন কর্মচারীকে দেয় সামাজিক মর্যাদা, চাকরি জীবনে এবং চাকরি-উত্তর অবসর জীবনে দেয় অর্থনৈতিক নিরাপত্তা। সরকারি কর্মচারীর ওপর অর্পিত দায়িত্ব হল তার ওপর অর্পিত আমানত। প্রত্যেক ব্যক্তিই দায়িত্বশীল এবং প্রত্যেককে তার দায়িত্বের ব্যাপারে জবাবদিহি করতে হবে।

তিনি বলেন, যদি কেউ তার কর্মে ফাঁকি দেন, অবহেলা করেন, অন্যকে হেয় করেন, হয়রানি করেন, ইনটেনশনালী ন্যায়বিচার করতে ব্যর্থ হন, তাহলে তিনি আমানতের খেয়ানত করেন। এ ধরণের কাজ হারাম কাজ। হারাম খেয়ে ইবাদাত করলে ইবাদাত কবুল হয় না।এরপরই ঘটে নজিরবিহীন ঘটনা।

তিনি তার বক্তৃতার মধ্যেই বললেন, আমি এখন এমন একটি কাজ করব, যে কাজ করতে আমি কোনোদিন কাউকে দেখিনি, আপনারাও হয়ত কোনোদিন দেখেননি।
আমার নিজের আবেদনের প্রেক্ষিতে সরকারের সাথে চুক্তির মেয়াদ বাতিল করে অবসর আদেশ, পিআরএল এবং লাম্পগ্র্যাান্ট মঞ্জুরের আদেশ দেন তিনি। তার এ মঞ্জুর আদেশটি ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

আবেগাপ্লুত এহছানে এলাহী বলেন, আমি আমার ৩৩ বছর চাকরি জীবনে কোনো গাফিলতি করিনি।মানুষের উপকার করার ক্ষমতা আল্লাহ আমাকে দিয়েছেন। বাকি জীবন যেন তিনি ইবাদত বন্দেগী করতে পারেন, এই দোয়া চেয়ে সিলেটে মহানগর বসবাসরত কানাইঘাট উপজেলা বাসী নাগরিকদের নিকট কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠান সমাপ্তি করেন ।

বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিম লোক উৎসব শুরু
                                  

দিপংকর বনিক দিপু, দিরাই প্রতিনিধি:

বাউল সম্রাট শাহ আবদুল করিমের ১০৯তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে সুনামগঞ্জের দিরাই উজান ধল মাঠে শুরু হলো দুই দিন ব্যাপী ‘শাহ আবদুল করিম লোক উৎসব ২০২৪’। উপজেলার কালনী নদীর তীরের এই মাঠে কালোজয়ী লোক গানের স্রষ্টা একুশে পদক প্রাপ্ত বাউল সম্রাট শাহ আবদুল করিমকে গানে গানে শ্রদ্ধায় স্মরণ করবেন তার ভক্ত-অনুসারীরা।

শাহ আবদুল করিম পরিষদ আয়োজিত লোকউৎসব এবারও দেশের সবচেয়ে বড় মোবাইল আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বিকাশের সহযোগিতায় করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার(১৫ ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় লোকউৎসব শুভ উদ্বোধন করেন সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক রাশেদ ইকবাল চৌধুরী। বাউল সম্রাট পুত্র শাহ নূর জালাল এর সভাপতিত্বে ও দিরাই তথ্য সেবা কর্মকর্তা পারমিতা দাসের সঞ্চালনায়, অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, শাহ আব্দুল করিম স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক দ্রুপদ চৌধুরী নূপুর।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দিরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহমুদুর রহমান খোন্দকার, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জনি রায়, ইউপি চেয়ারম্যান একরার হোসেন, আলী আহমেদ, বিকাশ কোম্পানি ভাইস প্রেসিডেন্ট এন্ড হেড অফ ডিপার্টমেন্টের হুমায়ুন কবির, সুনামগঞ্জ জেলার প্রথম আলোর স্টাফ রিপোর্টার খলিলুর রহমান, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল হক, ভাটি বাংলা শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক পরিষদের সদস্য আবদাল আলম চৌধুরী প্রমুখ।

এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক রাশেদ ইকবাল চৌধুরী বলেন, বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিমের সৃষ্টি ও তার কর্মকে বাঁচিয়ে রাখতে উজানধলে শাহ আব্দুল করিম সাংস্কৃতিক কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে। বাংলাদেশ সরকারের সাংস্কৃতিক মন্ত্রণালয় কেন্দ্রটি প্রতিষ্ঠা করবে। এছাড়া সাংস্কৃতিক মন্ত্রণালয় হাসান রাজা, রাধারমণ দত্ত ও দুর্বিন শাহের স্মৃতি ধরে রাখতে সাংস্কৃতিক কেন্দ্র গড়ে তুলবে। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও বাউল সম্রাট আব্দুল করিম স্মৃতি সংসদ দুদিনব্যাপী লোক উৎসবের আয়োজন করেছে। জেলা প্রশাসন এই আয়োজনে সহযোগিতা করে যাচ্ছে এবং আগামীতেও সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

‘আগে কি সুন্দর দিন কাটাইতাম’ সমবেত সঙ্গীতের মাধ্যমে শুরু হয় দুদিনব্যাপী শাহ আব্দুল করিম লোক উৎসব। বিগত ১৫ বছর ধরে আয়োজিত এ উৎসবে এবারও বাউলসম্রাটের ভক্ত-অনুরাগীরা তাঁর সৃষ্টিকে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে পৌঁছে দিতে, তাঁর গান দিয়ে তাঁকেই স্মরণ করবেন। বসন্তের মাতাল হাওয়া আর ভক্তিতে পূর্ণ হয়ে উজানধল গ্রামের আনাচেকানাচে বেজে উঠবে আবদুল করিমের সুর। স্থানীয় মানুষের পাশপাশি দেশের বিভিন্ন অঞ্চল ও দেশের বাইরে থেকেও আসা ভক্ত-সুধীজনেরা অংশগ্রহনে মুখোড়িত হয়ে উঠে এই লোকউৎসব।

গোয়াইনঘাটে সড়কে ঝরল ২ প্রাণ, হাসপাতালে ৫
                                  

তানজিল হোসেন, গোয়াইনঘাট:

সিলেটের সারি-গোয়াইন সড়কের পূর্ণানগর এলাকার কালভার্টে দুর্গা-সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া শিশুসহ আরো পাঁচজন আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

নিহতরা হলেন, উপজেলার কর্ণি গ্রামের ইসমাইলের পুত্র নজরুল (৫০) ও লেঙ্গুড়া গ্রামের মৃত আরফান আলীর পুত্র জসির উদ্দিন (৬৫)। এছাড়া আহত অন্যরা হলেন, আলিম উদ্দিন (৪০), মারজাহান আহমদ (৩০), জসিম উদ্দিন (২৮), রহমত উল্লাহ (৩০) ও রায়হান (১০)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে গোয়াইনঘাট থেকে আসা দ্রুতগামী বেপরোয়া গতির দুর্গা গাড়ির মুখোমুখি ভয়াবহ সংঘর্ষের কবলে পড়ে অপরদিক থেকে আসা সিএনজি চালিত অটোরিকশা। মুখোমুখি সংঘর্ষে গুরুতর আহত হন সিএনজির ড্রাইভারসহ সাতজন যাত্রী। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে গোয়াইনঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসকগণ তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করে আশঙ্কাজনক হওয়ায় সাতজনকেই সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টিএইচও ডা. কিশলয় সাহা সাংবাদিকদের জানান, আমরা আহতদের বাঁচানোর জন্য স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সরকারি দুটি এম্বুলেন্স ব্যবহার করেছি। আমার ব্যক্তিগত ড্রাইভার দিয়ে রিজার্ভে থাকা অপর এম্বুলেন্সটিও তাৎক্ষণিক ভাবে কাজে লাগিয়েছি। কারণ জীবন আগে।

দুর্ঘটনার পর গোয়াইনঘাট থানার সেকেন্ড অফিসার জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টীম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এ ব্যাপারে স্থানীয়রা সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, অবৈধ চোরাচালান বহনকারী ডিআই গাড়ির বেপরোয়া গতির কারণে সড়ক দুর্ঘটনা দিন দিন বেড়েই চলছে। সড়কের আশপাশে স্কুল, মাদ্রাসা ও মসজিদ রয়েছে। ছোট শিশুদের নিয়ে আমরা শঙ্কায় রয়েছি। তারা জানান, সড়কে লাইসেন্সবিহীন অদক্ষ ড্রাইভাররা বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালাচ্ছেন। এগুলো বন্ধ করতে হবে। পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ তিনটি স্থানে স্পীড ব্রেকার স্থাপন করতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের প্রতি তাৎক্ষণিক ভাবে দাবি জানিয়েছেন তারা।

ভালোবাসা দিবসে গোয়াইনঘাটে ওয়ার্ল্ড ভিশনের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ
                                  

তানজিল হোসেন, গোয়াইনঘাট(সিলেট):

বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ, গোয়াইনঘাট এপির উদ্যোগে সমাজের বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন প্রতিবন্ধী শিশু ও তাদের পরিবারের সাথে ভালোবাসা বিনিময় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০ ঘটিকায় উপজেলা পরিষদের অডিটোরিয়ামে ওয়ার্ল্ড ভিশন গোয়াইনঘাট এপির ম্যানেজার সেবাস্টিন আরেং এর সভাপতিত্বে ও প্রোগ্রাম মডারেটর দিপঙ্কর যেত্রার সঞ্চালনায় ভালোবাসা বিনিময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফারুক আহমদ।

গোয়াইনঘাট এপির প্রোগ্রাম অফিসার শহিদুল ইসলামের স্বাগত বক্তব্যে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রোগ্রাম অফিসার চিত্ত রঞ্জন বালা, ঝলমল মারিয়া ও সংবাদকর্মী তানজিল হোসেন।

এ সময় সভাপতির বক্তব্যে ওয়ার্ল্ড ভিশন গোয়াইনঘাট এপির ম্যানেজার সেবাস্টিন আরেং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফারুক আহমদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, গোয়াইনঘাটের বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য একটি স্কুল প্রতিষ্ঠা করতে পারলে তারা আর পিছিয়ে থাকবে না। তিনি এসব প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য একটি স্কুল প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ গ্রহণ করতে উপজেলা চেয়ারম্যানের প্রতি অনুরোধ জানান।

ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে গোয়াইনঘাটের বিভিন্ন ইউনিয়নের ৩২ জন প্রতিবন্ধী শিশুদের মাঝে একটি করে উন্নতমানের বেডশিট ও চারশত টাকা করে যাতায়াত ভাড়া প্রদান করা হয়।

সিলেটে ‘মাউন্ট এডোরা হাসপাতালে’ ভুল চিকিৎসায় শাবিপ্রবি কর্মকর্তার মৃত্যু
                                  

সিলেট ব্যুরো:

সিলেট নগরীর মাউন্ট এডোরা নামে একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় প্রাণ হারিয়েছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের(শাবিপ্রবি) নিরাপত্তা শাখার প্রশাসনিক কর্মকর্তা। নিহত ব্যক্তির নাম সাহেদ আহমদ(৪০)। হাসপাতালে ভুল চিকিৎসার অভিযোগ করছেন বিশ^বিদ্যালয়ের কর্মকর্তারা।

মঙ্গলবার (১৩ ফ্রেব্রুয়ারি) দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকার ল্যাব এইড হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন সাহেদ আহমদ।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত ডিসেম্বরে সিলেটের আখালিয়ার মাউন্ট এডোরা হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে যান সাহেদ আহমদ। সেখানে নাক-কান-গলা রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. শাহ কামাল কর্তৃক সাহেদের নাকে এন্ডোসকপিক সাইনাস অপারেশন করানো হয়। এর আগে একইদিন সার্জারি বিশেষজ্ঞ ডা. খালেদ মাহমুদ সাহেদকে সিস্টের অপারেশন করেন। অপারেশনের পরদিন পেটে তীব্র ব্যথা অনুভব করলে তাকে আলট্রাসনো ও স্লিপেস টেস্ট করানো হয়। পরে হাসপাতালের এমডি অধ্যাপক ডা. আক্তারুজ্জামান সাহেদের প্যানক্রিয়াটাইটিস লিক হয়ে গেছে বলে নিশ্চিত করেন।

তবে একই সময় সাইনাস ও সিস্টের অপারেশনের ফলে সাহেদের একটি চোখ নষ্ট হয়ে যায়, প্যানক্রিয়াটাইটিস লিক হয়ে যায় এবং অগ্নাশয়ের জটিল সমস্যায় পড়েন বলে অভিযোগ ওঠে। পরে সাহেদের চিকিৎসা মাউন্ট এডোরা হাসপাতালের আয়ত্বের বাইরে চলে গেলে গত ৬ ডিসেম্বর তাকে ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর মেডিকেল স্থানান্তর করে চিকিৎসা দেওয়া হয়। এরপর ঢাকার ল্যাব এইড হাসপাতালসহ কয়েকটি হাসপাতালে তার চিকিৎসা দেওয়া হয় বলে জানা গেছে।

সাহেদকে চিকিৎসা দেওয়ার বিষয়ে মাউন্ট এডোরা হাসপাতালের সার্জারি বিশেষজ্ঞ ডা. খালেদ মাহমুদ বলেন, গত ডিসেম্বরে রোগীর অনুমতিক্রমে আমি সিস্টের অপারেশন করিয়েছিলাম। শুনেছি এরপর উনার শরীরে অন্যান্য সমস্যা দেখা দেয়। তবে আমার অপারেশনের সঙ্গে উনার পরবর্তী সমস্যাগুলোর (রোগের) কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই।

চিকিৎসা দেওয়া মাউন্ট এডোরা হাসপাতালের নাক-কান-গলা রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. শাহ কামালের কাছে জানতে চাইলে তিনি মিটিংয়ে আছেন জানিয়ে ফোন কেটে দেন।

সহকর্মীর মৃত্যুতে সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে শাবি অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক অশোক বর্মন অসীম বলেন, মাউন্ট এডোরা হাসপাতালের চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসার জন্য আমাদের সহকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। মাউন্ট এডোরা কর্তৃপক্ষের কারণে আমাদের সহকর্মীর যে সমস্যা হয়েছে তাতে তার চিকিৎসায় সহায়তা চেয়েছি, তাদের কাছে কোনো ক্ষতিপূরণ চাইনি। তবে তারা আশ্বাস দিয়ে কালক্ষেপণ করেছে, কোনো সদুত্তর দেয়নি, তারা আমাদের সঙ্গে সম্পূর্ণ ব্যবসায়িক আচরণ করেছে। তাতেই আমাদের সহকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। আমরা মাউন্ট এডোরা কর্তৃপক্ষের বিচার এবং এই মৃত্যুর কারণ উদঘাটন করে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

আলমগীর হ/ত্যার প্রতিবাদ এবং খু/নিদের ফাঁসির দাবিতে সমাবেশের ডাক
                                  

মুফিজুর রহমান নাহিদ স্টাফ রিপোর্টার:

সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার গাছবাড়ী বাজার স্ট্যান্ডে ৭০৭ শাখার পরিচিত সিএনজি ড্রাইভার আলমগীর হত্যার প্রতিবাদে এবং খু/নিদের ফাঁসির দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন স্থানীয় জনতা। বর্বর এ হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে সমাবেশের ও গণমিছিলের ডাক দিয়েছেন এলাকাবাসী।

রোববার বেলা ২টায় স্থানীয় গাছবাড়ি বাজারে হবে বিশাল সমাবেশ ও গণমিছিল করা হবে। কানাইঘাট উপজেলার সর্বস্তরের জনগণ এবং কানাইঘাট উপজেলা সিএনজি শ্রমিক ঐক্য পরিষদের ডাকে এই সমাবেশ ও গণমিছিল অনুষ্ঠিত হবে।

বিভিন্ন গ্রাম ও এলাকা থেকে যারা মিছিল নিয়ে আসবেন, তারা নিজ নিজ ‘গ্রামবাসী’ অথবা নিজ নিজ গ্রামের সমিতির ব্যানারে মিছিল নিয়ে আসবেন। তিনচটি থেকে যে মিছিল আসবে সেখানে পাত্রমাটি, ঝিংগাবাড়ী ইত্যাদি গ্রামের লোকজন মহিলা মাদ্রাসার সামনে আসবেন এবং নয়াগ্রাম, দর্জিমাটি, ভাড়ামাটি, চলিতাবাড়ী, ও রাজপুরের লোকজন রাস্তায় মিছিলে যোগ দেবেন। সফল হোক রবিবারের গণমিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ।কানাইঘাটের গাছবাড়ী বাজারে মোটর সাইকেলে ধাক্কা লাগায় আলমগীর হোসেন নামে এক সিএনজি অটোরিক্সা চালককে ধারালো চাকু দিয়ে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আলমগীর হত্যাকাণ্ডের পর তার ছোট ভাই সালমান আহমদ বাদী হয়ে কানাইঘাট থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার এজহারভুক্ত আসামিরা হলেন নিজ দলইকান্দি আকুনি গ্রামের মৃত মো: শাহাব উদ্দিনের ছেলে সাদিক আহমদ(২২) ও কয়েছ আহমদ(২৬), একই গ্রামের হাফিজ কুতুব উদ্দিনের ছেলে সুলতান(৩২) ও লামার তালুক গ্রামের মাহফুজ আহমদ(২৫) অজ্ঞাতনামা আরো ২/৩ জন। এ ঘটনায় একজন গ্রেপ্তার হলেও মূল আসামিরা ধরা-ছোঁয়ার বাইরে।

উল্লেখ্য, গত বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার গাছবাড়ী বাজারে পল্লীবিদ্যুৎ মোড়ে অবস্থিত সিএনজি স্ট্যান্ডে উপরোক্ত আসামিরা সিএনজি চালক আলমগীরকে ছুরিকাঘাতে খুন করে।

মামলার এজহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঝিঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের তিনচটি গ্রামের মৃত আলী আহমদ মিস্ত্রীর বড় ছেলে অটোরিক্সা সিএনজি চালক আলমগীর হোসেন (৩২) এর সিএনজি গাড়ীর সাথে একই ইউনিয়নের আকুনি গ্রামের শাহাব উদ্দিনের ছেলে সাদিক আহমদের মোটর সাইকেলে ধাক্কা লাগে। এ নিয়ে মোটর সাইকেল চালক সাদিক আহমদ ও তার সাথে থাকা আরো এক যুবক উত্তেজিত হয়ে তাদের সাথে থাকা ধারালো চাকু দিয়ে অটোরিক্সা চালক আলমগীরকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে তাকে হত্যা করা হয়।

ঘটনার সময় আশপাশ থেকে লোকজন এগিয়ে আসতে দেখে ঘাতকরা মোটরসাইকেল রেখেই পালিয়ে গেলে উত্তেজিন জনতা তাদের মোটরসাইকেলটি পুড়িয়ে দেন।

এ ঘটনায় বুধবার গভীর রাতে চতুল এলাকা থেকে সুলতান নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়। অন্য আসামিরা পলাতক রয়েছেন।

জগন্নাথপুরে নলুয়ার হাওরে সেই প্রকল্পের কাজ শুরু
                                  

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার সবচেয়ে বড় নলুয়ার হাওরসহ অন্যান্য হাওরে আবাদকৃত আগাম বোরো ফসল অকাল বন্যার কবল থেকে রক্ষায় প্রতি বছরের মতো এবারো বেড়িবাঁধ নির্মাণ ও মেরামত কাজ করা হচ্ছে। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধীনে ৪ কোটি ৪২ লাখ টাকা ব্যয়ে ৩৩টি প্রকল্পের মাধ্যমে কাজ চলছে। যা গত ডিসেম্ববরে শুরু হয়ে আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে শেষ হওয়ার কথা। এর মধ্যে অধিকাংশ প্রকল্পের মাটি কাটার কাজ শেষপ্রান্তে রয়েছ। তবুও যথা সময়ে কাজ শেষ করতে কঠোর তদারকি করছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

৭ ফেব্রুয়ারি বুধবার দেখা যায়, নলুয়ার হাওরের পশ্চিমপ্রান্তে অবস্থিত ১১নং প্রকল্পে ফের কাজ শুরু হয়েছে। এ প্রকল্প সভাপতি স্থানীয় ইউপি সদস্য মফিজুর রহমান চৌধুরী বলেন, আমার প্রকল্পের অধিকাংশ মাটি কাটার কাজ আগেই হয়েছে। এর মধ্যে গাড়ি সংকটে কয়েকদিন কাজ বন্ধ ছিল। এখন আবার শুরু করেছি। আশা করছি, আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই শেষ হয়ে যাবে।

এদিকে ১০নং প্রকল্পের কাজ প্রায় শেষপ্রান্তে রয়েছে। এ প্রকল্প সভাপতি সাব্বির আহমদ বলেন, আমার প্রকল্পের মাটিকাটার কাজ প্রায় শেষপ্রান্তে রয়েছে। আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই শেষ হবে।

সিলেটে দিনদিন অবিবাহিতের হার বাড়ছে
                                  

সিলেট ব্যুরো:

বিয়ে ধর্ম এবং সামাজিক দিক থেকে গুরুত্ব বিষয়। কিন্তু পুরো সিলেট জুড়ে দিনদিন অবিবাহিতের হার বাড়ছে। সময় গড়িয়ে যাচ্ছে অনেকেই বিয়ের পিড়িতে বসছেন না। যার অন্যতম কারণ হচ্ছে প্রবাশমুখিতা। অনেকে আবার ক্যারিয়ার গতে পারছে না বিধায় ভবিষ্যত পরিকল্পনা নিয়ে ব্যস্ত।

বর্তমানে দেশের প্রাপ্ত বয়স্ক নারী-পুরুষের ৬৩ দশমিক ৯ শতাংশ বিবাহিত। বিপরীতে দেশে ২৮ দশমিক ৭ শতাংশ মানুষ বিয়ের বয়স হওয়ার পরও বিয়ে করেননি। এর মধ্যে সিলেট বিভাগে অবিবাহিত মানুষের হার সবচেয়ে বেশি। এ বিভাগের প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে ৫৭ দশমিক ৮৩ শতাংশ পুরুষ ও ৪৪ দশমিক ৯১ শতাংশ নারী এখনও বিয়ে করেননি।

আর পুরুষদের মধ্যে অবিবাহিত থাকার অনুপাত সবচেয়ে কম রাজশাহী বিভাগে, ৪৩.০১ শতাংশ। সামগ্রিক ভাবে দেখা গেছে, কখনোই বিয়ে করেননি এমন পুরুষ জনসংখ্যার অনুপাত ৪৮.৪৯ শতাংশ এবং নারীদের ক্ষেত্রে তা ৩৬.৪২ শতাংশ।

প্রতিবেদনে দেখা যায়, দেশের বিবাহিত মানুষের হার এক বছরের তুলনায় বেড়েছে। ২০২২ সালে যে হার ৬৩ দশমিক ৯ শতাংশে দাঁড়িয়েছে, অথচ ২০২১ সালেও এ হার ছিল ৬২ দশমিক ৫ শতাংশ। তবে অবিবাহিত মানুষের হার আগের বছরের চেয়ে কিছুটা কমে ২৮ দশমিক ৭ শতাংশ হয়েছে, আগের বছর যা ছিল ৩০ দশমিক ৬ শতাংশ।

অবিবাহিত মানুষদের বিভাগ ভিত্তিক হিসেবে দেখা যায়, বয়স হওয়ার পরও বিয়ে না করার ক্ষেত্রে দ্বিতীয় অবস্থানে চট্টগ্রাম বিভাগ। এ বিভাগের ৫৫ শতাংশ প্রাপ্ত বয়স্ক এখনও বিয়ে করেননি।

গোয়াইনঘাটে ফুট ব্রীজ রক্ষার দাবিতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন
                                  

তানজিল হোসেন, গোয়াইনঘাট:

সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার ডৌবাড়ী ইউনিয়নে হাকুর বাজার-মানিকগঞ্জ রাস্তার কাঁপনা নদীর উপর মানিকগঞ্জ ফুট ব্রীজ রক্ষা ও অবৈধ চোরাচালান বহনকারী ভারী যানবাহন বন্ধের দাবিতে ডৌবাড়ী ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনসাধারণের উদ্যোগে বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯ টায় উপজেলার মানিকগঞ্জ বাজারের ফুট ব্রীজে বিশিষ্ট সালিশ ব্যক্তিত্ব রিয়াজ উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও ছাত্রনেতা আসাদ হোসাইন সাকিলের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য দেন তৌফিকে রাব্বি জুবের, ফয়সাল আহমদ মোস্তফা, আনোয়ার হোসেন, জমির উদ্দিন, মাওলানা শরিফ উদ্দীন ও ছাত্রনেতা সাদিকুর রহমান।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, আমাদের এই সরু রাস্তা ও মানিকগঞ্জ ফুট ব্রীজ দীর্ঘদিনের আন্দোলনের ফসল। এই ব্রীজ দিয়ে প্রতিদিন অবৈধ চোরাচালান বহনকারী ভারী যানবাহন বেপরোয়া গতিতে চলাচলের ফলে ব্রিজটির রেলিং ভাঙন ও রাস্তার পাশের বাড়িগুলোর বড় ধরনের ক্ষতিসহ আমরা আমাদের স্কুল-মাদ্রাসায় পড়ুয়া কোমলমতি শিশুদের নিয়ে আতঙ্কে রয়েছি। এ সময় বক্তারা অবিলম্বে চোরাচালানের পণ্য বহনকারী বেপরোয়া গতির ভারী যানবাহন বন্ধের দাবি জানান।

দিরাইয়ে স্বামী বিবেকানন্দের জন্মতিথিতে শীতবস্ত্র বিতরণ
                                  

দিরাই উপজেলা প্রতিনিধি:

সুনাগঞ্জের দিরাইয়ে বিশ্বখ্যাত মনীষী ও প্রাচ্যের নবজাগরণের যুগনায়ক স্বামী বিবেকানন্দের ১৬২তম জন্মতিথি উৎসব উপলক্ষে আলোচনাসভা, শীতবস্ত্র বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এ উপলক্ষে শুক্রবার (২ ফেব্রুয়ারী) দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার আয়োজন হয়।

এদিন সকাল সাড়ে সাতটায় পৌরশহরের বিভিন্ন সড়কে জন্মতিথির মঙ্গল শোভাযাত্রার মাধ্যমে দিবসের কর্মসূচির সূচনা হয়। বিকেল সাড়ে ৪টায় দিরাই রামকৃষ্ণ সেবাশ্রম প্রাঙ্গণে স্বামী বিবেকানন্দ যুব পরিষদ দিরাই উপজেলার উদ্যোগে ‘স্বামী বিবেকানন্দ ও বিশ্বমানবতাবাদ’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। এতে স্বামী বিবেকানন্দ যুব পরিষদের সভাপতি অধ্যক্ষ পংকজ কান্তি রায়ের সভাপতিত্বে ও আশীষ তালুকদার সঞ্চালনায় প্রধান আলোচকের বক্তব্য দেন, দিরাই মজলিশপুর রামকৃষ্ণ সেবাশ্রমের সাধারণ সম্পাদক স্বামী ইষ্টানন্দজী মহারাজ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য প্রয়াস গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক শিক্ষানুরাগী প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রামকৃষ্ণ সেবাশ্রমের সভাপতি প্রসেনজিৎ তালুকদার, সারদা সংঘের সভাপতি অনিন্দিতা রায় চৌধুরী, নিহার রঞ্জন তালুকদার, নন্দন রায় প্রমূখ।

সভা শেষে জন্মতিথি উৎসব উপলক্ষে আয়োজিত অসহায় শীতার্তদের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। এর পূর্বে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করেন স্থানীয় শিল্পীরা। এরপর রাত সাড়ে ৭টায় শ্রীশ্রী কালী মন্দির অসহায় শীতার্তদের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন দিরাই উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রঞ্জন কুমার রায়, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মাসুক আহমদ সরদার, কালী মন্দিরের সভাপতি কবীন্দ্র রায়, সাধারণ সম্পাদক বেনুভূষন রায়, ধীমান চৌধুরী,অনিন্দিতা রায় চৌধুরী, মৃদুল কান্তি রায় অসীম রায় চৌধুরী, বকুল চন্দ্র রায়, শ্যামল দেব, ভানু চক্রবর্তী প্রমূখ।

সেতুর সংযোগ সড়কের অভাবে দুর্ভোগ
                                  

হাবিবুর রহমান রিয়াদ, আজমিরীগঞ্জ (হবিগঞ্জ):

হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জের শিবপাশা ইউনিয়নের পশ্চিমভাগ গ্রামের কদমতারা মহল্লার ভাগুলিপাড়া (পুবের বাড়ি) এলাকার প্রায় শতাধিক পরিবারের কয়েকশ স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থী সহ জনসাধারণের যাতায়াতের দুর্ভোগ কমাতে প্রায় আট বছর আগে কদমতারা এলাকার মূল সড়ক থেকে ভাগুলি পাড়ায় যাওয়ার জন্য ধুলিয়া খাল এর উপর দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের অর্থায়নে আট মিটার (২৮ ফিট) লম্বা একটি সেতু নির্মাণ করা হয়। কিন্তু নির্মাণের সাত বছর পেড়িয়ে গেলেও সেতুর সংযোগ সড়ক নির্মাণ না হওয়ায় সেই সেতুতে দুর্ভোগ কমার বদলে বরং এলাকাবাসীর জন্য বেড়েছে দুর্ভোগ।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা বলছেন, কয়েক মাসে পুর্বে যোগদান করায় বিষয়টি সম্পর্কে তিনি অবগত ছিলেন না। তবে তিনি খোঁজ নিয়ে জেনেছেন সেতুটি নির্মাণের পর বিভিন্ন জঠিলতায় সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হয়নি এখনো।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের অর্থায়নে পশ্চিমভাগ কদমতারা গ্রামের ধুলিয়া খালের উপর ২৩ লক্ষ ৮৩ হাজার টাকা ব্যায়ে সেতুটি নির্মাণ করা হয়। নির্মাণের পর কেটে গেছে প্রায় আট বছর। এই দীর্ঘ সময় পেড়িয়ে গেলেও সেতুর উভয় পাশে করা হয়নি কোন সংযোগ সড়ক। আর এতে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এলাকার সর্বস্তরের মানুষের।

স্থানীয় ভুক্তভোগীদের সঙ্গে আলাপকালে পশ্চিমভাগ কদমতারা গ্রামের সস্তু মিয়া বলেন, দীর্ঘদিন আগে সেতুটি নির্মাণ করা হলেও সংযোগ সড়ক না থাকায় সেতুটি এলাকাবাসীর দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাড়িয়েছে। কোন কাজেই আসছেনা সেতুটি।

এলাকার বয়োবৃদ্ধ বাবুল মিয়া জানান, সেতুটির সংযোগ সড়ক না থাকায় শীতকালে মাটির বস্তা ফেলে কোন রকমের চলাচল করা গেলেও বর্ষায় কাঁদা পানি মাড়িয়ে মুল সড়কে যেতে হয়। বিশেষ করে বয়োবৃদ্ধ, মহিলা ও স্কুলগামী ছোট বাচ্চাদের দুর্ভোগ পোহাতে হয় বেশী।

সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মুহিবুর হাসান দুলু জানান, সেতুটি এলাকাবাসীর চলাচলের দুর্ভোগ কমাতে নির্মাণ করা হলেও সংযোগ সড়কের অভাবে এটি তেমন কাজে আসছে না।

শিবপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নলীউর রহমান তালুকদার বলেন, নির্মাণের পর সংযোগ সড়কের অংশে ব্যাক্তি মালিকানাধীন ভূমি জঠিলতায় আজ অবদি সংযোগ সড়ক নির্মাণ সম্ভব হয়নি।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সুবোধ মন্ডল বলেন, কয়েকমাস পুর্বে আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় যোগদান করেছি। খোঁজ নিয়ে জানতে পেরেছি কিছু জঠিলতায় সংযোগ সড়কটি নির্মাণ করা সম্ভব হয়নি। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সিলেটে রমজান মাসকে টার্গেট করে বাড়ছে নিত্যপণ্যের দাম
                                  

সিলেট ব্যুরো:

আসছে মুসলমানদের সিয়াম সাধনার মাস রমজান। সুযোগকে কাজে লাগাতে দেশের অসাধু ব্যবসায়ীদের মতো সিলেটের অসাধু ব্যবসায়ীরা তৎপর হয়েছে। রমজান মাসকে টার্গেট করে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে নিত্য পন্যের দাম। বাজারে এখন ছোলা, ডাল, ভোজ্যতেল, চিনি, আদা, রসুন ও পেঁয়াজের দাম বাড়ছে। শনিবার (২৭ জানুয়ারী) বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে এমন চিত্র।

২০২৩ সালের পুরোটা সময় নিত্যপণ্যের দাম ছিল লাগাম ছাড়া। ২০২৪ সালের শুরুতেও বাজারজুড়ে ক্রেতাদের কাছে একই অস্বস্তি। দিন-দিন বাড়তে থাকা পণ্যের দাম ইঙ্গিত দিচ্ছে নতুন শঙ্কার। সেই শঙ্কা বলছে-রমজান মাসে বেশি প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম হতে পারে লাগামহীন। যদিও রোজায় মূল্যের ঊর্ধ্বগতি ঠেকাতে সরকার এরই মধ্যে নিচ্ছে নানা পদক্ষেপ। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের চিঠির প্রেক্ষিতে ভোজ্যতেল, চিনি ও খেজুরের ওপর শুল্ক-কর কমাতে কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম।

বাজারে চালসহ সব ধরনের সবজি ও অন্যান্য বেশ কিছু খাদ্যপণ্যও বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে। নির্বাচনের পরে প্রতি কেজি চালের দাম ৬ টাকা পর্যন্ত বেড়েছিল। এখনো সে দাম স্বাভাবিক হয়নি। কিছু দোকানে ২ থেকে ৩ টাকা কমতে দেখা গেছে। তবে বেশির ভাগ দোকানে বিক্রি হচ্ছে আগের দামেই।

সিলেটের পাইকারি কালিঘাট বাজার ঘুরে জানা গেছে, সবচেয়ে বেশি ডাল বেড়েছে মসুর ডালের দাম। গত ১০ থেকে ১৫ দিনের ব্যবধানে এ ডালের দাম কেজি প্রতি ৩০ থেকে ৪০ টাকার মতো বেড়েছে। দেশি বলে যে ডাল বিক্রি হচ্ছে, তার সর্বনিম্ন মূল্য দেখা গেছে কেজি প্রতি ১৫০ টাকা। বেড়েছে ছোলার দামও। গত এক মাস আগেও প্রতি কেজি ছোলা মানভেদে বিক্রি হয়েছে ৭৫ থেকে ৮০ টাকায়। এখন ওই ছোলার দাম ১০০ থেকে ১১০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

একইভাবে বেড়েছে অ্যাঙ্কর ডালের দামও। এ ডাল দিয়ে মূলত বেসন তৈরি করা হয়। রোজার সময় বেসন খুব দরকারি পণ্য হয়ে ওঠে। বর্তমানে এর দাম কেজি প্রতি ৭৫ টাকা।

বিক্রেতারা জানান, বোতলজাত ভোজ্যতেলের দাম গত সপ্তাহে প্রতি লিটারে তিন থেকে চার টাকা বাড়ানো হয়েছে। এরপর থেকে খোলা সয়াবিন ও পাম তেলের দাম বাড়ছে। প্রতি লিটার খোলা সয়াবিন বিক্রি হচ্ছে ১৫৫ থেকে ১৬০ টাকা এবং পাম তেল ১৩০ থেকে ১৩৫ টাকায়, গত সপ্তাহের তুলনায় যা পাঁচ টাকা বেশি।
এ ছাড়া প্রতি কেজি খোলা চিনি এলাকা ভেদে ১৪৫ থেকে ১৫০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে, যা এ যাবৎকালের সবোর্চ্চ। অন্য দিকে, অধিকাংশ খেজুরের কেজি প্রতি দাম ১০ টাকা বা তার বেশি বাড়ছে। আদা ও রসুন প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ২১০ থেকে ২৫০ টাকা পর্যন্ত, যা গত সপ্তাহের চেয়ে ১০ থেকে ১০ টাকা বেশি। এ ছাড়া ৮০ টাকা দরে বিক্রি হওয়া পেঁয়াজ এখন ৯০ থেকে ১০০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

বাজারে ব্রয়লার মুরগির দাম কেজিতে ১৯০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এ ছাড়া সোনালি ৩০০ টাকা কেজি বিক্রি করতে দেখা গেছে। বিক্রেতারা বলেন, একেক পণ্যের দাম একেক অজুহাতে বেড়েছে। কিন্তু কোনো কিছুর দাম কমেনি। এদেশে আর কিছু কমে না, শুধু বাড়ে।

সূত্র জানায়, রমজানকে ঘিরে সরকারের একাধিক সংস্থা তিন মাস আগেই বাজার তদারকিতে নেমেছে। তারা মোকাম থেকে পাইকারি ও খুচরা পর্যায়ে তদারকি করছে।

ক্রেতারা বলছেন, রমজানকে সামনে রেখে অসাধু ব্যবসায়ীচক্র পুরোনো ছক কাজে লাগাচ্ছে। রমজান নির্ভর পণ্যের দাম তারা আগেই বাড়িয়ে নিচ্ছে। তাতে রমজানে নতুন করে দাম বাড়ানোর প্রয়োজন হয় না। একই সঙ্গে দীর্ঘ সময় ভোক্তার পকেট কেটে অতিরিক্ত মুনাফা করা যায়। এ অবস্থায় রমজানে নিত্যপণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে থাকবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু। তিনি বলেন, দেশের আমদানিকারক ও উৎপাদনকারীদের সঙ্গে বৈঠক করেছি। চিনি, তেল ও খেজুরের শুল্ক বেশি ছিল। সেই শুল্ক যাতে আমরা যৌক্তিক পর্যায়ে নিয়ে আসতে পারি, সে বিষয়ে এনবিআরে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে।


   Page 1 of 119
     সিলেট
কপাল পুড়লো সিলেটীদের, বন্ধ হলো ব্রিটেনে কেয়ার ভিসা
.............................................................................................
মৌলভীবাজারের সম্ভাবনাময় পর্যটন স্পট ‘কোদালিছড়া’
.............................................................................................
দিরাইয়ে দোকান পু ড়ে ১০ ব্যবসায়ী নিঃস্ব, রাস্তার বেহাল দশার কারণে যেতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস
.............................................................................................
কানাইঘাটে পরিবহন ধ র্ম ঘ টে র হু ম কি
.............................................................................................
সিলেটে এহছানে এলাহীকে নাগরিক সংবর্ধনা
.............................................................................................
বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিম লোক উৎসব শুরু
.............................................................................................
গোয়াইনঘাটে সড়কে ঝরল ২ প্রাণ, হাসপাতালে ৫
.............................................................................................
ভালোবাসা দিবসে গোয়াইনঘাটে ওয়ার্ল্ড ভিশনের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ
.............................................................................................
সিলেটে ‘মাউন্ট এডোরা হাসপাতালে’ ভুল চিকিৎসায় শাবিপ্রবি কর্মকর্তার মৃত্যু
.............................................................................................
আলমগীর হ/ত্যার প্রতিবাদ এবং খু/নিদের ফাঁসির দাবিতে সমাবেশের ডাক
.............................................................................................
জগন্নাথপুরে নলুয়ার হাওরে সেই প্রকল্পের কাজ শুরু
.............................................................................................
সিলেটে দিনদিন অবিবাহিতের হার বাড়ছে
.............................................................................................
গোয়াইনঘাটে ফুট ব্রীজ রক্ষার দাবিতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন
.............................................................................................
দিরাইয়ে স্বামী বিবেকানন্দের জন্মতিথিতে শীতবস্ত্র বিতরণ
.............................................................................................
সেতুর সংযোগ সড়কের অভাবে দুর্ভোগ
.............................................................................................
সিলেটে রমজান মাসকে টার্গেট করে বাড়ছে নিত্যপণ্যের দাম
.............................................................................................
সিলেটে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে যুবলীগের দু’গ্রুপের সংঘ*র্ষ
.............................................................................................
প্রচণ্ড শীতে কাঁপছে দেশ, পর্যটকশুন্য সিলেট
.............................................................................................
সততার সাথে দায়িত্ব পালন করতে চাই: প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী
.............................................................................................
সুনামগঞ্জের ৪টিতে নৌকা, একটিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী
.............................................................................................
দেড় লাখ ভোটের ব্যবধানে জয়ী ব্যারিস্টার সুমন
.............................................................................................
পাত্তাই পেলেন না তৃণমূল বিএনপির শমসের মবিন
.............................................................................................
সিলেট-৫ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মাওলানা হুছামুদ্দীন বিজয়ী
.............................................................................................
৬ প্রার্থীর বর্জনের মধ্যদিয়ে সিলেটে ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা
.............................................................................................
সিলেটের পাঠানটুলায় কেন্দ্র দখলের চেষ্টা, পুলিশের ৯টি সাউন্ড গ্রেনেড নিক্ষেপ
.............................................................................................
দিরাই-শাল্লায় যোগ্য প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে চান ভোটাররা
.............................................................................................
স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে সরকার দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ : শ্রম সচিব
.............................................................................................
আ.লীগ নেতা এনায়েত আহমদের ইন্তেকাল, সিলেট মহানগর আ.লীগের শোক
.............................................................................................
দিরাইয়ে বিএনপি নেতা মিজান গ্রেফতার
.............................................................................................
সুনামগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদেরকে সংবর্ধনা প্রদান
.............................................................................................
মহান বিজয় দিবসে সিলেট মহানগর আ.লীগের শ্রদ্ধা নিবেদন
.............................................................................................
দুবাইয়ে ২ দেশের জাতীয় দিবস উপলক্ষে জৈন্তাপুর প্রবাসী গ্রুপের আলোচনা সভা
.............................................................................................
গোয়াইনঘাটে শিক্ষকের বেত্রাঘাতে হাসপাতালে শিক্ষার্থী
.............................................................................................
মৃত ব্যক্তির স্বাক্ষর দেওয়া প্রার্থী রহিম শহিদের আপীল নামঞ্জুর
.............................................................................................
কোম্পানীগঞ্জে পেয়াজের দামে ডাবল সেঞ্চুরি
.............................................................................................
জৈন্তাপুরে রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি’র চিকিৎসা বিষয়ক প্রশিক্ষণ সমাপ্ত
.............................................................................................
সিলেটের দক্ষিণ সুরমায় যাত্রীবাহী বাসে আ*গু*ন
.............................................................................................
কানাইঘাটে চাঁদা দাবীর অভিযোগে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা
.............................................................................................
মৌলভীবাজার-৩ আসনে মনোনয়ন বৈধ হল যাদের
.............................................................................................
৩ মাসেও শেষ হয়নি ক্বীনব্রিজের সংস্কার কাজ
.............................................................................................
কমলগঞ্জে ওয়ার্ড মাস্টার কম্পিটিশন পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
কানাইঘাটে কৃষকদের মাঝে বীজ-সার বিতরণ
.............................................................................................
সিলেট-৫ আসনে নৌকার মাঝি হতে চান যারা
.............................................................................................
সিলেটে উপবন এক্সপ্রেস ট্রেনে আ-গু-ন
.............................................................................................
সিলেট-৪ আসনে আ.লীগের মনোনয়ন জমা দিলেন ৮ জন
.............................................................................................
হরতাল-অবরোধে পর্যটকশূন্য মৌলভীবাজার
.............................................................................................
সিলেটে বাসীর প্রতি অধ্যাপক জাকিরের খোলাচিঠি
.............................................................................................
দিরাইয়ে মনোনয়নপ্রত্যাশী প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদারের শোডাউন
.............................................................................................
মিধিলি’র প্রভাবে মাধবপুরের মানুষ ঘরবন্দী
.............................................................................................
তফশিলকে স্বাগত জানিয়ে মিছিল ব্রিজ ভেঙে খাদে, আহত অনেকে
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT