বৃহস্পতিবার, ৬ মে 2021 বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   আইন - অপরাধ -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ধর্মান্তরিত হয়ে বিয়ে; কিশোরীকে শিকলে বেঁধে পাশবিক নির্যাতন

রাজৈর প্রতিনিধি :
মাদারীপুরের রাজৈরে মুসলিম ধর্মের ছেলের সাথে প্রেম করে পালিয়ে বিয়ে করার অপরাধে এক কিশোরীকে শিকল দিয়ে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে তার পরিবারের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার খালিয়া ইউনিয়নের পাল পাড়া এলাকায়।

এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়, ওই এলাকার সনাতন ধর্মাবলম্বী এক কিশোরীর(১৭) সাথে প্রতিবেশী ইসলাম ধর্মাবলম্বী আবু সাঈদের(২৩) প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। আবু সাঈদ একই এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল জলিল শেখের ছেলে। গত ৬ মাস আগে আবু সাঈদের সাথে ঐ কিশোরী বাড়ী থেকে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় কিশোরীর পরিবারের পক্ষ থেকে রাজৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল। অভিযোগের প্রেক্ষিতে রাজৈর থানা পুলিশ তাদেরকে ৪ দিন পর উদ্ধার করে। পরে কিশোরীকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর এবং আবু সাঈদকে কারাগারে প্রেরণ করেছিল।

পরে পারিবারিক ও সামাজিক সমঝোতার কারণে কিশোরীর বাবা আবু সাঈদকে জামিনে বেরিয়ে আসতে সহায়তা করেছিল। এরপর কিশোরীর বাবা তাকে (কিশোরীকে) সিলেটে নিয়ে যায়। কিন্তু সেখান থেকেও দুজনে আবার পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা সিলেট মামলা দায়ের করেছিল। পালানোর প্রায় ১ মাস পর ঢাকার আশুলিয়া থেকে পুলিশ তাদেরকে আটক করে নিয়ে আসে। কিশোরীর বয়স ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়ায় তাকে পরিবারের হাতে এবং আবু সাঈদকে আবার কারাগারে প্রেরণ করে। এখন পর্যন্ত সে কারাগারেই রয়েছে। এরই মধ্যে ওই কিশোরী একাই আবার আবু সাঈদের বাড়ি চলে যায়। পরে স্বজনরা তাকে নিয়ে ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার রাজেশ্বরদী গ্রামে আবু সাঈদের বোনের বাড়ীতে রেখে একটি মহিলা মাদ্রসায় ভর্তি করে দেয়। কিশোরীর পরিবারের অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ আবার তাকে উদ্ধার করে বাড়ী পৌঁছে দেয়। বাড়ীতে আনার পর প্রায় ১০ দিন তাকে পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখে এবং শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন চালায় পরিবারের সদস্যরা। পরে সাংবাদিকদের উপস্থিতি টের পেয়ে পরিবারের সদস্যরা তার পায়ের শিকল খুলে দিলেও বর্তমানে তাকে একা একটা রুমের মধ্যে তালাবদ্ধ করে রেখেছে।

নির্যাতিতা কিশোরী জানায়, আবু সাঈদের সাথে আমার প্রায় সাড়ে তিন বছরের সম্পর্ক। আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে তাকে বিয়ে করেছি। আমাকে পরিবারের লোকজন ধরে এনে দুই পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখে এবং শারিরীকভাবে নির্যাতন করে। আমি তার কাছে যেতে চাই।
কিশোরীর মা জানায়, মান-সম্মানের ভয়ে আমরা মেয়েকে শাসনে রেখেছি। এ ঘটনায় সমাজ আমাদের এক ঘরে করে রেখেছে। লজ্জায় মুখ দেখাতে পারিনা।

আবু সাঈদের বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল জলিল শেখ জানান, আমার ছেলের মুক্তি চাই এবং যাতে নিরাপদে থাকতে পারে সে ব্যবস্থা করা দরকার।

রাজৈর মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মাহমুদা আক্তার কনা জানান, একজন নাবালিকা নির্যাতন মানবাধিকার লংঘনের সামিল। যদি এরকম ঘটনা ঘটে থাকে, তাহলে আমরা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

মাদারীপুর জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন জানান, রাজৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সমাজ সেবা কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে গিয়েছিলো। মেয়ের সাথে কথা বলেছে। তারা আমাকে জানিয়েছে মেয়ে নাকি তার বাবার বাড়িতেই থাকার জন্য ইচ্ছে প্রসন্ন করেছে।

ধর্মান্তরিত হয়ে বিয়ে; কিশোরীকে শিকলে বেঁধে পাশবিক নির্যাতন
                                  

রাজৈর প্রতিনিধি :
মাদারীপুরের রাজৈরে মুসলিম ধর্মের ছেলের সাথে প্রেম করে পালিয়ে বিয়ে করার অপরাধে এক কিশোরীকে শিকল দিয়ে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে তার পরিবারের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার খালিয়া ইউনিয়নের পাল পাড়া এলাকায়।

এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়, ওই এলাকার সনাতন ধর্মাবলম্বী এক কিশোরীর(১৭) সাথে প্রতিবেশী ইসলাম ধর্মাবলম্বী আবু সাঈদের(২৩) প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। আবু সাঈদ একই এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল জলিল শেখের ছেলে। গত ৬ মাস আগে আবু সাঈদের সাথে ঐ কিশোরী বাড়ী থেকে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় কিশোরীর পরিবারের পক্ষ থেকে রাজৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল। অভিযোগের প্রেক্ষিতে রাজৈর থানা পুলিশ তাদেরকে ৪ দিন পর উদ্ধার করে। পরে কিশোরীকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর এবং আবু সাঈদকে কারাগারে প্রেরণ করেছিল।

পরে পারিবারিক ও সামাজিক সমঝোতার কারণে কিশোরীর বাবা আবু সাঈদকে জামিনে বেরিয়ে আসতে সহায়তা করেছিল। এরপর কিশোরীর বাবা তাকে (কিশোরীকে) সিলেটে নিয়ে যায়। কিন্তু সেখান থেকেও দুজনে আবার পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা সিলেট মামলা দায়ের করেছিল। পালানোর প্রায় ১ মাস পর ঢাকার আশুলিয়া থেকে পুলিশ তাদেরকে আটক করে নিয়ে আসে। কিশোরীর বয়স ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়ায় তাকে পরিবারের হাতে এবং আবু সাঈদকে আবার কারাগারে প্রেরণ করে। এখন পর্যন্ত সে কারাগারেই রয়েছে। এরই মধ্যে ওই কিশোরী একাই আবার আবু সাঈদের বাড়ি চলে যায়। পরে স্বজনরা তাকে নিয়ে ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার রাজেশ্বরদী গ্রামে আবু সাঈদের বোনের বাড়ীতে রেখে একটি মহিলা মাদ্রসায় ভর্তি করে দেয়। কিশোরীর পরিবারের অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ আবার তাকে উদ্ধার করে বাড়ী পৌঁছে দেয়। বাড়ীতে আনার পর প্রায় ১০ দিন তাকে পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখে এবং শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন চালায় পরিবারের সদস্যরা। পরে সাংবাদিকদের উপস্থিতি টের পেয়ে পরিবারের সদস্যরা তার পায়ের শিকল খুলে দিলেও বর্তমানে তাকে একা একটা রুমের মধ্যে তালাবদ্ধ করে রেখেছে।

নির্যাতিতা কিশোরী জানায়, আবু সাঈদের সাথে আমার প্রায় সাড়ে তিন বছরের সম্পর্ক। আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে তাকে বিয়ে করেছি। আমাকে পরিবারের লোকজন ধরে এনে দুই পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখে এবং শারিরীকভাবে নির্যাতন করে। আমি তার কাছে যেতে চাই।
কিশোরীর মা জানায়, মান-সম্মানের ভয়ে আমরা মেয়েকে শাসনে রেখেছি। এ ঘটনায় সমাজ আমাদের এক ঘরে করে রেখেছে। লজ্জায় মুখ দেখাতে পারিনা।

আবু সাঈদের বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল জলিল শেখ জানান, আমার ছেলের মুক্তি চাই এবং যাতে নিরাপদে থাকতে পারে সে ব্যবস্থা করা দরকার।

রাজৈর মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মাহমুদা আক্তার কনা জানান, একজন নাবালিকা নির্যাতন মানবাধিকার লংঘনের সামিল। যদি এরকম ঘটনা ঘটে থাকে, তাহলে আমরা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

মাদারীপুর জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন জানান, রাজৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সমাজ সেবা কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে গিয়েছিলো। মেয়ের সাথে কথা বলেছে। তারা আমাকে জানিয়েছে মেয়ে নাকি তার বাবার বাড়িতেই থাকার জন্য ইচ্ছে প্রসন্ন করেছে।

উগ্র স্ট্যাটাসের কারণে কঙ্গনার টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেওয়া হল বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের টুইটার অ্যাকাউন্ট। টুইটারের নিয়মবিধি লঙ্ঘন করে পোস্ট করায় এই পদক্ষেপ নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। খবর এনডিটিভির।

পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল পরবর্তী সহিংসতা নিয়ে একাধিক টুইট করেছিলেন কঙ্গনা। এমনকি তৃণমূল শাসিত বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি করেন বিজেপি সমর্থক এই অভিনেত্রী।

নির্বাচনে বিজেপি’র হারের পর একাধিক টুইট ভেসে উঠেছিল কঙ্গনার দেওয়ালে। প্রত্যেকটি টুইট যে তার পছন্দের দলকে সমর্থন করে লেখা, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। নির্দিষ্ট একটি টুইটে পশ্চিমবঙ্গকে কাশ্মীরের সঙ্গেও তুলনা করেন অভিনেত্রী। তার দাবি, যেসব জায়গায় বিজেপি জয়ী হয়েছে, সেখানে কোনও রকম সহিংসতামূলক কর্মকলাপ দেখা যায়নি। তবে পশ্চিমবাংলায় তৃণমূল ক্ষমতায় আসার পরই শুরু হয়েছে হত্যালীলা। ‘#বেঙ্গলইজবার্নিং’ জাতীয় হ্যাশটাগও ব্যবহার করেছিলেন এই অভিনেত্রী।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও কটাক্ষ করতে পিছপা হননি কঙ্গনা। তাকে রাবণের সঙ্গে তুলনা করেও টুইট করেন তিনি। লিখেছিলেন, “খলনায়ক হতে গেলে পরাক্রমী রাবণের মতো হন। ঠিক যেমন মমতা দিদি।”

এতদিন যেকোনও বিষয়েই নিজের মতামত টুইট আকারে তুলে ধরতেন অভিনেত্রী। তার জন্য বিতর্কও হয়েছে বিস্তর। একাধিকবার শিরোনামেও উঠে এসেছেন কঙ্গনা। তবে আপাতত টুইটারে ‘মন কি বাত’ বলার রাস্তা বন্ধ হল এই অভিনেত্রীর।

আবারো ৫ দিনের রিমান্ডে মামুনুল হক
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট :
মোদির সফরকে কেন্দ্র করে বায়তুল মোকাররমে হেফাজতের সহিংসতার ঘটনায় পল্টনা থানায় দায়ের করা দুই মামলায় হেফাজতে ইসলামের সদ্য বিলুপ্ত কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক মামুনুল হকের ফের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম সত্যব্রত শিকদার শুনানি শেষে এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

মামুনল হকের আইনজীবী সৈয়দ জয়নাল আবেদীন মেজবাহ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মঙ্গলবার ৭ দিনের রিমান্ড শেষে তাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় গত মার্চ মাসে বায়তুল মোকাররমে হেফাজতের তাণ্ডবের ঘটনায় পল্টন থানায় করা মামলায় (৬০(৩)২১) মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাকে ১০ দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন পুলিশ। শুনানি শেষে বিচারক ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

অপরদিকে চলতি বছরের মার্চে বায়তুল মোকাররমে হেফাজতের তাণ্ডবের ঘটনায় পল্টন থানায় করা মামলায় (৫৭(৩)২১) মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাকে ৭ দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন পুলিশ। শুনানি শেষে বিচারক ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

দুই মামলায় তাকে ৫ দিনের রিমান্ডে পেল পুলিশ।

এর আগে গত ২৬ এপ্রিল মতিঝিল ও পল্টন থানার নাশকতার দুই মামলায় মামুনুলের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। ১৯ এপ্রিল মোহাম্মদপুর থানায় হত্যার উদ্দেশ্যে আঘাত করে গুরুতর জখম, চুরি মামলায় সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

১৮ এপ্রিল মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদ্রাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

ব্যক্তিগত জীবন আর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সফরের বিরোধিতা করে হেফাজতের আন্দোলনসহ নানা কারণে আলোচনার কেন্দ্রে আছেন মাওলানা মামুনুল হক।

ফেসবুকে জিহাদের ডাক দিয়ে ইমাম আটক
                                  

নিজস্ব সংবাদদাতা :
সামাজিক যোগযোগ মাধ্যম ফেসবুকে জিহাদের ডাকসহ নানা উত্তেজনাকর স্ট্যাটাস দেয়ার অপরাধে আটক করা হয়েছে নারায়ণগঞ্জে একটি মসজিদের ইমামকে। আটক ইমামের নাম হাফেজ মাওলানা মাহাবুবুল আলম খান (২৭)। শনিবার রাতে রূপগঞ্জ থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটক মাওলানা রূপগঞ্জ দেইলপাড়া বায়তুল জান্নাত কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম। তিনি একই সাথে ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের একজন কর্মী ও মামুনুল হকের অনুসারী।

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম জানান, তিনি তার ফেসবুক আইডিকে অন্তত ৮-১০টি জিহাদিসহ নানা উত্তেজনাকর স্ট্যাটাস দিয়েছেন। এসব স্ট্যাটাসে সাধারণ মানুষ বিভ্রান্তির শিকার হচ্ছে। এজন্য তাকে আটক করা হয়েছে।

মুনিয়ার মৃত্যু : হুইপপুত্র শারুনের বিরুদ্ধে মামলা
                                  

স্বাধীন বাংলা অনলাইন :
কলেজছাত্রী মোসারাত জাহান মুনিয়ার আত্মহত্যার ঘটনায় জাতীয় সংসদের হুইপ শামসুল হক চৌধুরীর ছেলে নাজমুল করিম চৌধুরী শারুনের বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা করেছেন মুনিয়ার ভাই আশিকুর রহমান সবুজ। রোববার এই মামলা দায়ের করা হয়। মুনিয়ার পারিবারিক সূত্র থেকে এই ধরনের তথ্য পাওয়া গেছে।

রাজধানীর গুলশানের একটি ফ্ল্যাট থেকে মোসারাত জাহান মুনিয়ার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারের ঘটনার পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে হওয়া মুনিয়া ও শারুনের কথোপকথনের কয়েকটি স্ক্রিনশট অনলাইনে ছড়িয়ে পড়ার পরিপ্রেক্ষিতে হুইপপুত্র শারুন চৌধুরীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ।

শারুন সাংবাদিকদের জানান, মুনিয়ার সঙ্গে তার পরিচয় ছিল। গত বছর হোয়াটসঅ্যাপে তার সঙ্গে যোগাযোগ করে মেয়েটি। তখন শারুন তাকে জানান, মুনিয়া যার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন, সেই একই ব্যক্তির সাথে তার সাবেক স্ত্রীর সম্পর্ক ছিল।

গত ২৬ এপ্রিল সন্ধ্যায় গুলশানের একটি ফ্ল্যাট থেকে মুনিয়ার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। ওই দিন রাতেই মুনিয়ার বড় বোন বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান আনভীরকে একমাত্র আসামি করে আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা করেন।

মুনিয়ার মৃত্যুর ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার পর পুলিশের এক আবেদনের প্রেক্ষিতে আনভীরের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে আদালত। পরে গ্রেফতার এড়াতে হাইকোর্টে আগাম জামিন আবেদন করেন তিনি। গত ২৯ এপ্রিল হাইকোর্টের যে বেঞ্চের কার্যতালিকায় আনভীরের আগাম জামিনের আবেদনটি শুনানির জন্য ছিল, সেই বেঞ্চ ‘লকডাউন’ ও মহামারির এই পরিস্থিতিতে আগাম জামিনের শুনানি করবে না বলে জানায়।

মা’কে হত্যা: ছেলে গ্রেফতার
                                  

স্বাধীন বাংলা অনলাইন :
নিজের মাকে হত্যার মামলার আসামি ছেলেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। গ্রেফতারকৃত ব্যক্তির নাম সজীব। রোববার (২ মে) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন র‌্যাব-১০ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি এনায়েত কবীর সোয়েব।

তিনি বলেন, ‘মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া থেকে র‌্যাবের বিশেষ অভিযানে নিজের মাকে হত্যার চাঞ্চল্যকর মামলার আসামি ছেলেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।’

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাওলানা নিয়াজুলসহ হেফাজতের ৬ নেতাকর্মী গ্রেফতার
                                  

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজত কান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে আরও ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদের মধ্যে ইসলামি আন্দোলন জেলা শাখার মহিলা ও পরিবার কল্যাণ সম্পাদক, জাতীয় শিক্ষক ফোরামের মাদ্রাসা বিষয়ক সম্পাদক কেন্দ্রীয় কমিটির মাওলানা নিয়াজুল করিমও রয়েছেন।

শনিবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রইস উদ্দিন জানান, শুক্রবার রাত পর্যন্ত বিশেষ অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার ভিডিও ফুটেজ এবং স্থির চিত্র দেখে অপরাধীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। এসব মামলায় এপর্যন্ত ৩৯৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আটককৃতদের আজ শনিবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, হেফাজতে ইসলামের আহ্বানে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিভিন্ন মাদ্রাসার ছাত্ররা গত ২৭ মার্চ জেলা সদরে রাধিকা বাজারে মিছিল এবং রাস্তায় গাছের গুঁড়ি ও টায়ারে আগুন জালিয়ে রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। এ ঘটনায় জড়িত ইসলামি আন্দোলন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার মহিলা ও পরিবার কল্যাণ সম্পাদক, জাতীয় শিক্ষক ফোরামের মাদ্রাসা বিষয়ক সম্পাদক কেন্দ্রীয় কমিটির মাওলানা নিয়াজুল করিমকে গ্রেফতার করেছে। তাছাড়াও আরও পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়।

মোবাইল কার্ড কিনতে এসে গণধর্ষণের শিকার কিশোরী
                                  

নোয়াখালী প্রতিনিধি :
নোয়াখালীর সোনানাইমুড়ীতে এক কিশোরীকে (১১) গণধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। আজ শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) দুপুর ১ টার দিকে ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এর আগে, গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল ৫ টার দিকে উপজেলার পশ্চিম বজরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পশ্চিম বজরা গ্রামের এক রিকশা চালকের কিশোরী মেয়ে (১১) বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার দিকে ওই গ্রামের একটি দোকানে মোবাইল মিনিট কার্ড কিনতে যায়। দোকান থেকে ফেরার পথে একই গ্রামের বাকের মিয়ার বখাটে ছেলে আবদুর রব(২৩) তার গতি রোধ করে রাস্তায় দাঁড় করিয়ে রাখে। পরে পশ্চিম বজরা গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে রিপা (২৮) এসে উভয়ে তার মুখে গামছা পেঁছিয়ে কাচারী স্কুলের পাশে ধান ক্ষেতে নিয়ে যায়। একই গ্রামের সেরু মিয়ার পুত্র সালা উদ্দিন (২৯) দাড়িয়ে পাহারা দেয়। আর বখাটে আবদুর রব ও রিপা তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। পরে কিশোরী বাড়ীতে এসে বিষয়টি তার পরিবারের সদস্যদেরকে জানায়।

থানা সূত্রে জানা যায়, খবর পেয়ে সোনাইমুড়ী থানা পুলিশ রাত ৮টার দিকে ধর্ষিতাকে থানায় নিয়ে এসে জিজ্ঞাসা বাদ করে। পরে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত্রেই কিশোরীর মা বাদী হয়ে অভিযুক্ত ৩জনকে আসামি করে সোনাইমুড়ী থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করে।

সোনাইমুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) গিয়াস উদ্দিন জানান, ধর্ষিতাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষণের অভিযোগে এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চালচ্ছে পুলিশ।

মামুনুল হকের অ্যাকাউন্টে ৬ কোটি টাকা: ৩১৩ অর্থদাতাকে চিহ্নিত করেছে গোয়েন্দারা
                                  

স্বাধীন বাংলা অনলাইন :
সদ্য বিলুপ্ত হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মামুনুল হকের একাউন্টে ৬ কোটি টাকার লেনদেনের তথ্য পেয়েছে পুলিশ। একই সাথে হেফাজরেত অর্থের যোগানদাতা হিসেবে ৩১৩ জনকে চিহ্নিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অতিরিক্ত কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার।

মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) দুপুরে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) সদর দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা জানান।

এ কে এম হাফিজ আক্তার বলেন, হেফাজতে ইসলামের অর্থের যোগানদাতা ৩১৩ জনকে চিহ্নিত করা হয়েছে। মামুনুল হকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ৬ কোটি টাকার লেনদেনের তথ্য পাওয়া গেছে।

তিনি বলেন, হেফাজতে ইসলামের সদ্য বিলুপ্ত কমিটির আমির জুনায়েদ বাবুনগরীর ছেলের বিয়েতেই সাবেক আমির আল্লামা শফীকে সরিয়ে দেয়ার পরিকল্পনা হয়। ওই বিয়ের অনুষ্ঠানে মামুনুল হক, জুনায়েদ আল হাবিবসহ কয়েকজন নেতার বৈঠক হয়। সেই বৈঠকে আল্লামা শফীকে সরিয়ে বাবুনগরীকে আমির করার পরিকল্পনা করা হয়।

গত ১৮ এপ্রিল রাজধানীর মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া মাদরাসা থেকে মামুনুল হককে গ্রেফতার করা হয়। ১৯ এপ্রিল তাকে একটি মামলায় সাত দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়। ২৬ এপ্রিল তাকে আদালতে হাজির করে অন্য দুই মামলায় আরও ১০ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ।

মামুনুলকে জিজ্ঞাসাবাদের বিষয়ে পুলিশ জানায়, সম্প্রতি গ্রেফতার হওয়া হেফাজত নেতাদের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। পাকিস্তানের একটি সংগঠনের আদলে তারা হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশকে গঠন করে পাকিস্তানের মতো এ দেশকে গড়ে তুলতে চেয়েছিল।

শনিবার (২৪ এপ্রিল) গ্রেফতার হেফাজতের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির আহমদ আবদুল কাদের ইসলামী ছাত্রশিবিরের একজন সাবেক সভাপতি। হেফাজতে ইসলামের অধিকাংশই জামায়াত-শিবিরের সঙ্গে জড়িত। হেফাজতে ইসলাম ও মাদরাসার শিশুদের ঢাল হিসেবে ব্যবহার করে সরকার উৎখাত করে ক্ষমতায় যাওয়ার পরিকল্পনা করছিলেন মামুনুল।

দ্বৈত ভোটার হওয়ার পিন্টু দম্পত্তির বিরুদ্ধে চার্জশীট দাখিল
                                  

বগুড়া প্রতিনিধি:
জন্ম তারিখ ও এলাকা পরিবর্তন করে দ্বৈত ভোটার হওয়ার অপরাধে বগুড়া সদর উপজেলার গোকুল উত্তরপাড়ার পলাশ মাহবুব পিন্টু দম্পতির বিরুদ্ধে সদর থানায় দায়েরকৃত মামলার তদন্ত শেষে আসামীর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় বিচারের জন্য আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে। বগুড়া সদর থানার এস আই (নিরস্ত্র) মো: গোলাম মোস্তফা সম্প্রতি এই অভিযোগপত্র দাখিল করেছেন।

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের নির্দেশক্রমে গত গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর বগুড়া সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও রেজিষ্ট্রেশন অফিসার এএসএম জাকির হোসেন গত ৩১ ডিসেম্বর মামলাটি দায়ের করেছিলেন। বর্তমানে মামলাটি জেলা বগুড়ার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে বিচারাধিন রয়েছে।

মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, পলাশ মাহবুব পিন্টু ও তার স্ত্রী মহসিনা আকতার অসৎ উদ্দেশ্যে বগুড়া সদর উপজেলার গোকুল ও পৌরসভার মালতীনগর এলাকায় পৃথক দুটি ঠিকানা ব্যবহার করে ও নিজেদের জন্ম তারিখ পরিবর্তন করে দ্বৈত ভোটার হয়েছেন যা দন্ডবিধি ৪২০ ধারা ও ভোটার তালিকা আইন ২০০৯ এর ১৮ ধারা অনুসারে ফৌজদারি অপরাধ। মামলা দায়েরের পর বগুড়া সদর থানার এস আই গোলাম মোস্তফা ঘটনাটি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করছে গত ২৮ ফেব্রুয়ারী অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

চার্জশীটে তদন্তকারী কর্মকর্তা উল্লেখ করেছেন, পলাশ মাহবুব পিন্টু দম্পতি অসৎ উদ্দেশ্যে নিজেদের স্ব-স্ব জন্মস্থান ও জন্ম তারিখের তথ্য গোপন করে দ্বৈত ভোটার হয়েছেন। এ ব্যাপারে পলাশ মাহবুব পিন্টুর সাথে সেল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, দ্বৈত ভোটার হওয়ার ক্ষেত্রে তাদের অসৎ কোন উদ্দেশ্যে ছিল না। তবে কি কারনে ওই স্বামী-স্ত্রী যৌথভাবে দ্বৈত ভোটার হয়েছেন তার কোন সদুত্তর তারা দিতে পারেননি।

সাবেক স্ত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় এসআই কারাগারে
                                  

যশোর প্রতিনিধি:
সাবেক স্ত্রীর ঘরো জোরপূর্বক প্রবেশ করে ধর্ষণ করেছেন পুলিশ কর্মকর্তা এসআই আজিজুল হক সবুজ (৪৫)। পরে ওই নারী ৯৯৯ এ কল করলে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে এবং ওই পুলিশ সদস্যকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। ঘটনাটি যশোর শহরের বারান্দিপাড়া ঢাকার রোড এলাকায় ঘটেছে।

এসআই আজিজুল হক সবুজ সাতক্ষীরার তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা এলাকার সুরুলিয়া গ্রামের আনোয়ারুল হকের ছেলে। অভিযুক্ত পুলিশ কর্মকর্তাকে আজ রোববার (২৫ এপ্রিল) ভোরে তাকে গ্রেফতার করে দুপুরের দিকে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

আজিজুল হম সম্প্রতি ঢাকার এপিবিএন থেকে পুলিশের খুলনা রেঞ্জে তাকে বদলি করা হয়েছে।

ধর্ষণের ঘটনায় সবুজের সাবেক স্ত্রী থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, ২০১৯ সালের ২৭ ডিসেম্বর আজিজুল হক সবুজের সঙ্গে বাদীর বিয়ে হয়। চাকরির সুবাদে সবুজ কর্মস্থলে থাকতেন। মাঝে মাঝে যশোরে বাদীর বসতবাড়িতে আসতেন।

বাদী আরও উল্লেখ করেন, সবুজ ২০২০ সালের ১৪ ডিসেম্বর সাতক্ষীরায় লাবনী নামের এক মেয়েকে বিয়ে করেন। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের ২৩ তারিখে আমাকে তালাক দেন। শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) রাত একটার দিকে সবুজ আমার ঘরের দরজা নক করে। আমি দরজা খোলামাত্র তিনি ভেতর ঢুকেই দরজা বন্ধ করে দেন। ওই সময় তিনি আমাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করেন। তিনি ওয়াশরুমে ঢুকলে আমি ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিই। পরে কোতোয়ালি থানা পুলিশ এসে আমাকে উদ্ধার করেন।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ‘তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীর সঙ্গে পুলিশের এসআই আজিজুল হক সবুজ শারীরিক সম্পর্ক করেছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে। কোনো নারীর ইচ্ছার বিরুদ্ধে তার সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক হলে সেটা আইনানুযায়ী ধর্ষণ বলে গণ্য হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘ভোরে হটলাইন ৯৯৯ থেকে খবর পেয়ে আমরা দুজনকে থানায় নিয়ে আসি। কিন্তু ওই নারী মামলা করতে রাজি ছিলেন না। কিন্তু ধর্ষণের অভিযোগ আপসযোগ্য নয়। সে কারণে মামলা রুজু হয়েছে। আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।’

‘শিশু বক্তা’ রফিকুল ইসলাম ৫ দিনের রিমান্ডে তেজগাঁও থানায়
                                  

নিজস্ব সংবাদদাতা:
শিশুবক্তা খ্যাত মাওলানা রফিকুল ইসলাম মাদানীকে ৫ দিনের রিমান্ডে গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার থেকে তেজগাঁও থানায় নেওয়া হয়েছে। আজ রোববার (২৫ এপ্রিল) দুপুর দেড়টার দিকে গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ থেকে তাকে পুলিশ হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এর জেলার মো. আবু সায়েম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ঢাকার তেজগাঁও থানায় ২৩(৪)২১ নং মামলায় আদালতে রিমান্ড আবেদ করে পুলিশ। পরে আদালত তার ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। ওই মামলায় রোববার পুলিশ হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কারাগার থেকে রফিকুল ইসলাম মাদানীকে তেজগাঁও থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।  

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রাষ্ট্রবিরোধী উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়ায় ৭ এপ্রিল রফিকুল ইসলাম মাদানীকে তার গ্রামের বাড়ি নেত্রকোনার পূর্বধলার লেটিরকান্দা থেকে আটক করে র‌্যাব। পরের দিন ৮ এপ্রিল গাজীপুর মেট্রোপলিটনের গাছা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন র‌্যাব। ওই মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়।
 
পরে ১৩ এপ্রিল গাছা থানা পুলিশ গাজীপুর আদালতে রফিকুল ইসলাম মাদানীর ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। তারপর ১৫ এপ্রিল আদালত তার দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। পরে ১৮ এপ্রিল দুপুর পৌনে ২টার দিকে ২ দিনের রিমান্ডে রফিকুল ইসলাম মাদানীকে কারগার থেকে গাছা থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।  

এছাড়া গত ১১ এপ্রিল গাজীপুর মেট্রোপলিটনের বাসন থানায় স্থানীয় এক ব্যক্তি রফিকুল ইসলাম মাদানী বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করে। ওই মামলায় পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ২১ এপ্রিল দুপুরে আদালতে রিমান্ড চাওয়া হয়। পরে ভার্চ্যুয়ালি কোর্টের মাধ্যমে শুনানি শেষে আদালত রফিকুল ইসলাম মাদানীর ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। পরে ২২ এপ্রিল দুপুর সোয়া ১টার দিকে রফিকুল ইসলাম মাদানীকে ২ দিনের রিমান্ডে বাসন থানায় নেওয়া হয়েছিল। রিমান্ড শেষে ওই দুই থানা থেকে তাকে ফের কারাগারে পাঠানো হয়।

ফেনীতে অস্ত্র-গুলিসহ সন্ত্রাসী আটক
                                  

ফেনী প্রতিনিধি:
ফেনীর সোনাগাজী থেকে ১টি দেশীয় এলজি ও ৩ রাউন্ড গুলিসহ মো. হানিফ রোমন (২৯) নামে এক সন্ত্রাসীকে আটক করেছে র‌্যাব। শুক্রবার(২৩ এপ্রিল) দিবাগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার কুটিরহাট বাজার এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়েছে। হানিফ রোমানের বাড়ি সোনাগাজী উপজেলা বাদুরিয়া গ্রামে। সে ওই গ্রামের সাহবুদ্দিনের ছেলে।

র‌্যাব-৭, ফেনী ক্যাম্পের সিনিয়র সহকারী পরিচালক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মাহফুজুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার রাতে কুঠিরহাট বাজার সংলগ্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করলে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে আসামী মোঃ হানিফ রোমনকে আটক করে।

পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে তাকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করলে কোমরে গোঁজা অবস্থায় একটি এলজি এবং ৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। সে দীর্ঘদিন যাবত ফেনীসহ দেশের অন্যান্য অঞ্চলে অবৈধ অস্ত্র কেনা-বেচা এবং সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে বলে স্বীকারোক্তি প্রদান করে। পরে তাকে সোনাগাজী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজেদুল ইসলাম পলাশ জানান, র‌্যাবের হাতে আটককৃত হানিফের বিরুদ্ধে মাদক ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের একাধিক মামলা বিচারাধীন রয়েছে। তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করার প্রস্তুতি চলছে।

হেফাজত নেতা খালেদ সাইফুল্লাহ ৫ দিনের রিমান্ডে
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট:
হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবীকে ৫ দিনের রিমান্ডে দিয়েছেন আদালত। রাজধানীর পল্টন থানায় দায়ের করা মামলায় তাকে এ রিমান্ড দেয়া হয়।

আজ শুক্রবার ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট নিভানা খায়ের জেসীর আদালত রিমান্ডের এ আদেশ দেন। আদালতের সংশ্লিষ্ট থানার সাধারণ নিবন্ধন শাখা থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

এরআগে, পল্টন থানার দায়ের করা মামলায় খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবীকে আদলতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। এ সময় আসামিপক্ষের আইনজীবী রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত তার পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য, গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার নিজ গ্রামের বাড়ি থেকে তাকে আটক করে র‌্যাব-১। পরে তারা পল্টনা থানা তাকে হস্তান্তর করে।

করোনায় সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর রেকর্ড ভারতে
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক:
সুনামির ন্যায় ধেয়ে আসা করোনাভাইরাসের আগ্রাসী থাবায় বিপর্যন্ত ভারত। দৈনিক আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৩ লাখের ঘর ছাড়িয়ে গেছে।  এবার মৃত্যুতে রেকর্ড গড়েছে দেশটি।  গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ২২০০’রও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে, যা এ যাবৎকালে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে ৩ লাখ ৩২ হাজার ৭৩০ জন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এই সময়ে মারা গেছেন ২ হাজার ২৬৩ জন।  যেটি দৈনিক মৃত্যুর সর্বোচ্চ রেকর্ড।  বর্তমানে দেশটিতে ২৪ লাক একটিভ রোগী রয়েছেন। আজ শুক্রবার সকালে ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে দেশটির নির্ভরযোগ্য গণমাধ্যম এনডিটিভি ও টাইমস অব ইন্ডিয়া।
 
দেশটির সরকারি তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১ কোটি ৬২ লাখ ৬৩ হাজার ৬৯৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত ভারতে করোনায় মারা গেছেন ১ লাখ ৮৬ হাজার ৯২০ জন।

বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের পরেই রয়েছে ভারত। ভারতের পর রয়েছে ব্রাজিল। সংক্রমণের দিক দিয়ে সম্প্রতি ব্রাজিলকে টপকে দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে আসে ভারত।

সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় দিল্লিসহ বেশ কয়েকটি রাজ্যের হাসপাতালগুলোতে অক্সিজেন সংকট দেখা দিয়েছে।  আইসিইউ বেড না থাকায় অনেক রোগী ভর্তি করা যাচ্ছে না।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে ভারত কোভিড -১৯ সংক্রমণ এবং মৃত্যুর রেকর্ড করছে যার ফলে আশঙ্কা করা হচ্ছে যে, এই বিস্তার রোধে কেন্দ্রীয় সরকার আরও একটি দেশব্যাপী লকডাউন বাস্তবায়ন করতে বাধ্য হতে পারে।

স্কুলছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণ, তরুণ গ্রেফতার
                                  

জয়পুরহাট প্রতিনিধি:
জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে দশম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে বিবস্ত্র করে মুঠোফোনে ভিডিও চিত্র ধারণ করে তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে মনিরুল ইসলাম (২২) নামের এক তরুণকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) বিকেলে ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে পাঁচবিবি থানায় মামলা করার পর মনিরুলকে গ্রেফতার করা হয়।

মনিরুল ইসলাম দিনাজপুর জেলার ঘোড়াঘাট উপজেলার চৌড়িয়া গ্রামের আবু তাহেরর ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, পাঁচবিবি উপজেলার একটি গ্রামে নানার বাড়িতে থেকে স্থানীয় একটি উচ্চবিদ্যালয়ে দশম শ্রেণিতে পড়াশোনা করে ওই স্কুলছাত্রী। ওই গ্রামের মনিরুল ইসলামের ভগ্নিপতির বাড়ি। মনিরুল তার ভগ্নিপতির বাড়িতে প্রতিনিয়ত যাতায়াত করতেন।

একপর্যায়ে ওই স্কুলছাত্রীর সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এই সুবাদে ২০২০ সালের ২৬ নভেম্বর দুপুরে মনিরুল তার ভগ্নিপতির বাড়িতে ডেকে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে তা ভিডিও ধারণ করেন। পরে ভিডিওটি তার বন্ধুবান্ধবসহ বিভিন্নজনকে ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমে ছড়িয়ে দেন।

পাঁচবিবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পলাশ চন্দ্র দেব দৈনিক স্বাধীন বাংলাকে বলেন, মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন। আসামি মনিরুলকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।


   Page 1 of 140
     আইন - অপরাধ
ধর্মান্তরিত হয়ে বিয়ে; কিশোরীকে শিকলে বেঁধে পাশবিক নির্যাতন
.............................................................................................
উগ্র স্ট্যাটাসের কারণে কঙ্গনার টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ
.............................................................................................
আবারো ৫ দিনের রিমান্ডে মামুনুল হক
.............................................................................................
ফেসবুকে জিহাদের ডাক দিয়ে ইমাম আটক
.............................................................................................
মুনিয়ার মৃত্যু : হুইপপুত্র শারুনের বিরুদ্ধে মামলা
.............................................................................................
মা’কে হত্যা: ছেলে গ্রেফতার
.............................................................................................
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাওলানা নিয়াজুলসহ হেফাজতের ৬ নেতাকর্মী গ্রেফতার
.............................................................................................
মোবাইল কার্ড কিনতে এসে গণধর্ষণের শিকার কিশোরী
.............................................................................................
মামুনুল হকের অ্যাকাউন্টে ৬ কোটি টাকা: ৩১৩ অর্থদাতাকে চিহ্নিত করেছে গোয়েন্দারা
.............................................................................................
দ্বৈত ভোটার হওয়ার পিন্টু দম্পত্তির বিরুদ্ধে চার্জশীট দাখিল
.............................................................................................
সাবেক স্ত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় এসআই কারাগারে
.............................................................................................
‘শিশু বক্তা’ রফিকুল ইসলাম ৫ দিনের রিমান্ডে তেজগাঁও থানায়
.............................................................................................
ফেনীতে অস্ত্র-গুলিসহ সন্ত্রাসী আটক
.............................................................................................
হেফাজত নেতা খালেদ সাইফুল্লাহ ৫ দিনের রিমান্ডে
.............................................................................................
করোনায় সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর রেকর্ড ভারতে
.............................................................................................
স্কুলছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণ, তরুণ গ্রেফতার
.............................................................................................
দেবিদ্বার থেকে অপহৃত মাদরাসা ছাত্র বান্দরবানে খুন, গ্রেফতার-২
.............................................................................................
নারায়নগঞ্জে র‌্যাবের হাতে ছিনতাইকারী গ্রেফতার
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে আপত্তিকর মন্তব্য করায় যুবক গ্রেফতার
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা মামলায় কারাগারে সাংবাদিক
.............................................................................................
জয়পুরহাটে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ: গ্রেফতার ১
.............................................................................................
সাংবাদিককে হত্যার হুমকি প্রদানকারী কিলার বিপ্লব আটক: দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি
.............................................................................................
কালিয়াকৈর উপজেলা হেফাজতের আমির গ্রেফতার
.............................................................................................
জাল টাকাসহ প্রধানমন্ত্রীর ভুয়া পিএস গ্রেফতার
.............................................................................................
হেফাজত নেতা মামুনুল হক ৭ দিনের রিমান্ডে
.............................................................................................
বাঘা যতীন ভাস্কর্য ভাঙচুর মামলার ৩ আসামির জামিন নামঞ্জুর
.............................................................................................
চাঁদাবাজির মামলায় কারাগারে ছাত্রলীগ নেতা
.............................................................................................
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের আরও ৭ কর্মী গ্রেফতার
.............................................................................................
রিমান্ড শেষে কারাগারে হেফাজত নেতা শরিফউল্লাহ
.............................................................................................
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের আরও ২৪ কর্মী গ্রেফতার
.............................................................................................
মতিন খসরুর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের বিচারকাজ বন্ধ
.............................................................................................
আল্লামা শফী হত্যা মামলায় বাবুনগরী-মামুনুলের বিরুদ্ধে চার্জশিট
.............................................................................................
প্রেমিকাকে ধর্ষণ মামলায় প্রেমিক গ্রেফতার
.............................................................................................
মামুনুল হকের ‘দ্বিতীয় স্ত্রী’ নিখোঁজ, থানায় জিডি
.............................................................................................
রফিকুল ইসলাম মাদানীকে কাশিমপুর কারাগারে স্থানান্তর
.............................................................................................
সোনারগাঁওয়ে হেফাজতের ৩ নেতাকর্মী আটক
.............................................................................................
‘শিশুবক্তা’র বিরুদ্ধে করা মামলার প্রতিবেদন দাখিল ৩০ মে
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় কারাগারে ‘শিশুবক্তা’ রফিকুল মাদানী
.............................................................................................
পাকুন্দিয়ায় বোন হত্যায় ভাই-ভাবিসহ ৩ জনের যাবজ্জীবন
.............................................................................................
পেটের ভেতর ৪৫০ পিস ইয়াবার চালান, আটক ২
.............................................................................................
বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের পর নারী অন্তঃসত্ত্বা, যুবক গ্রেফতার
.............................................................................................
বিএনপি নেত্রী নিপুণ রায় ৩ দিনের রিমান্ডে
.............................................................................................
বাংলাদেশিকে হত্যায় সৌদি নাগরিকের মৃত্যুদন্ড
.............................................................................................
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিক্ষোভ ভাংচুরের ঘটনায় আটক ১৪
.............................................................................................
ধর্ষণের শিকার নারী-শিশুর পরিচয় প্রকাশে নিষেধাজ্ঞার আদেশ প্রকাশ
.............................................................................................
সুনামগঞ্জে জোড়া খুনের মামলায় ২ আসামীর মৃতুদন্ড, ১৩ জনের যাবজ্জীবন
.............................................................................................
শরীয়তপুরে বৃদ্ধের হাতে ২ শিশু ধর্ষণের শিকার, বৃদ্ধ কারাগারে
.............................................................................................
দক্ষিণখানে আ.লীগ নেতার গুলিতে ব্যবসায়ী নিহত
.............................................................................................
ভোলায় বাবা হত্যা মামলায় ছেলের ফাঁসি
.............................................................................................
খুলনায় ওষুধ ব্যবসায়ী হত্যায় ৪ জনের ফাঁসি
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
যুগ্ম সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT