শনিবার, ২২ জানুয়ারী 2022 বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   গ্রাম বাংলা -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
জিপিএ-৫ পেয়েও কলেজে ভর্তি অনিশ্চিত শুভ’র

জেলা প্রতিনিধি, পাবনা: দারিদ্র পরিবারে বেড়ে উঠা, মা বাবার অসচেতনতাসহ নানা প্রতিবন্ধকতার মধ্যেও নিজের প্রচেষ্টায় লেখাপড়া করে উচ্চ মাধ্যমিকে রাজশাহী বোর্ড থেকে ভাল ফলাফল অর্জন করেছে শোভন আক্তার শুভ (১৬)। গত বছরের এসএসসি পরীক্ষায় সে মথুরাপুর সেন্ট রীটাস উচ্চ বিদ্যালয় থেকে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়ে কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হয়েছে। কিন্তু তার এই কৃতিত্বের পরে পরিবারে এখন আনন্দের পরিবর্তে দুঃশ্চিন্তা যেন সঙ্গী হতে চলেছে। নিভে যেতে বসেছে শুভর ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন। অর্থের অভাবে উচ্চ শিক্ষা শুভর অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

পাবানার চাটমোহর উপজেলার মূলগ্রাম ইউনিয়নের জগতলা গ্রামের দিনমজুর উজ্জল হোসেন ও গৃহীনি সাবিনা ইয়াসমিন দম্পতির ২য় সন্তান শুভ। সারা দিন অন্যের বাড়িতে কিংবা প্রতিষ্ঠানে শ্রম বিক্রি করে যে টাকা বাবা উজ্জল হোসেন উপার্জন করেন সেটা দিয়ে সংসার চালাতেই শেষ হয়ে যায়। এরপরে ছেলের পড়াশুনার খরচ বহন করা একেবারেই অপারগ বলে তিনি জানান।

সরেজমিন শুভ’র বাড়িতে গিয়ে জানা যায়, ছোট বেলা থেকেই ভীষন শান্ত, নম্র, ভদ্র ছেলেটি পড়াশুনায় ছিল ভীষণ মেধাবী। তার বড় ভাই সৌরভ আক্তার সম্রাট বিয়ে করে বউ নিয়ে ঢাকায় থাকেন। মাধ্যমিকে টিউশনি করে উপার্জন করেছে লেখাপড়া চালিয়ে গেছে। বাবার অভাবের সংসারে বোঝা না হয়ে হাত খরচের টাকা যোগার করতে চাটমোহর সাপ্তাহিক রবিবারের হাটে কাঁচা বাজারের ব্যবসায়ীদের হিসাব রক্ষক হিসেবে কাজ করেছে। তবে বাবা মা তাকে কখনও পড়াশুনা বাদ দিয়ে অন্যের কাজ করে টাকা উপার্জনে উৎসাহিত করেনি।

শোভন আক্তার শুভ বলেন, নিজে প্রাইভেট পড়িয়ে ও দোকানে ঘন্টা চুক্তিতে কাজের বিনিময়ে সেই আয়ের টাকায় নিজের পড়ালেখার খরচ চালিয়ে আসছি। এখন ভালো কোনো কলেজে ভর্তি ও পড়ালেখায় প্রয়োজনীয় টাকা তার দিনমজুর বাবার পক্ষে যোগান দেওয়া সম্ভব নয়। এজন্য শুভ এক ধরনের অনিশ্চয়তা নিয়ে এখন দিন পার করছে বলে জানা গেছে।

 ছেলেটির মা সাবিনা ইয়াসমিন বলেন, আমি সহ আমার পরিবারের কেউই প্রাইমারির গন্ডি পার হতে পারিনি। তবে ছেলেকে অনেক দুর পড়াশুনা করার স্বপ্ন আমার আগে থেকেই ছিল। সেটাই করার চেষ্টা করেছি। ছেলে শুভর পড়াশুনার আগ্রহ ও এবারের এসএসসির রেজাল্ট দেখে আমাদের মনে ওকে নিয়ে বড় স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছিলাম। যখন জানতে পারলাম এরপরে ছেলের উচ্চ শিক্ষা নিতে গেলে অনেক টাকার প্রয়োজন হবে, ঠিক তখন থেকেই আমাদের মনটা খুবই খারাপ হয়ে আছে। আসলে আমাদের পক্ষে অনেক টাকা খরচ করে ওর পড়াশুনা করানো সম্ভব নয়। তাহলে কি টাকার জন্য আমার ছেলের স্বপ্ন মিথ্য হয়ে যাবে?।

 মূলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের স্থানীয় ইউপি সদস্য ফরহাদ হোসেন মানিক বলেন, উজ্জল মানুষ হিসেবে ভীষন মানবিক ও দরীদ্র। তার ছেলে এবার এসএসসি পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে বলে শুনেছি। এমন ছেলেকে যদি ভালভাবে পৃষ্টপোষকতা করা যায় তাহলে দেশ তথা রাষ্ট্রের জন্য ভালো কিছু হবে বলেই বিশ্বাস করি। সমাজের বিত্তবানদের নিকট ছেলেটির পাশে দাড়ানোর কথা জানান তিনি।

মথুরাপুর সেন্ট রীটাস উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সিষ্টার মেরি মনিকা জানান, শুভ একজন মেধাবী ছাত্র। গরিব পরিবারের সন্তান হয়েও ভালো রেজাল্ট করে এখন অর্থের অভাবে ভালো কলেজে ভর্তি অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে তার।

মূলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদুল ইসলাম বকুল  বলেন, ছেলেটি অত্যন্ত মেধাবী হওয়ায় প্রত্যেক পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে পাশ করে গেছে। সম্প্রতি এসএসসি পরীক্ষায় সে জিপিএ-৫ পেয়েছে। তার পরিবার দরিদ্র হওয়ায় লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়া সম্বব হচ্ছে না। ছেলেটির জন্য আর্থিকভাবে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে। পড়াশুনা করতে যা যা করা দরকার আমার ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে সেটা করা হবে। প্রয়োজনে শিক্ষা নিয়ে যেসব এনজিও কাজ করে থাকে তাদের মাধ্যমে ছেলেটিকে সহায়তা করা হবে।

চাটমোহর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈকত ইসলাম  বলেন, ছেলেটি সম্পর্কে খোজঁখবর নিয়ে ছেলেটির শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার জন্য সহযোগিতা করা হবে।

জিপিএ-৫ পেয়েও কলেজে ভর্তি অনিশ্চিত শুভ’র
                                  

জেলা প্রতিনিধি, পাবনা: দারিদ্র পরিবারে বেড়ে উঠা, মা বাবার অসচেতনতাসহ নানা প্রতিবন্ধকতার মধ্যেও নিজের প্রচেষ্টায় লেখাপড়া করে উচ্চ মাধ্যমিকে রাজশাহী বোর্ড থেকে ভাল ফলাফল অর্জন করেছে শোভন আক্তার শুভ (১৬)। গত বছরের এসএসসি পরীক্ষায় সে মথুরাপুর সেন্ট রীটাস উচ্চ বিদ্যালয় থেকে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়ে কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হয়েছে। কিন্তু তার এই কৃতিত্বের পরে পরিবারে এখন আনন্দের পরিবর্তে দুঃশ্চিন্তা যেন সঙ্গী হতে চলেছে। নিভে যেতে বসেছে শুভর ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন। অর্থের অভাবে উচ্চ শিক্ষা শুভর অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

পাবানার চাটমোহর উপজেলার মূলগ্রাম ইউনিয়নের জগতলা গ্রামের দিনমজুর উজ্জল হোসেন ও গৃহীনি সাবিনা ইয়াসমিন দম্পতির ২য় সন্তান শুভ। সারা দিন অন্যের বাড়িতে কিংবা প্রতিষ্ঠানে শ্রম বিক্রি করে যে টাকা বাবা উজ্জল হোসেন উপার্জন করেন সেটা দিয়ে সংসার চালাতেই শেষ হয়ে যায়। এরপরে ছেলের পড়াশুনার খরচ বহন করা একেবারেই অপারগ বলে তিনি জানান।

সরেজমিন শুভ’র বাড়িতে গিয়ে জানা যায়, ছোট বেলা থেকেই ভীষন শান্ত, নম্র, ভদ্র ছেলেটি পড়াশুনায় ছিল ভীষণ মেধাবী। তার বড় ভাই সৌরভ আক্তার সম্রাট বিয়ে করে বউ নিয়ে ঢাকায় থাকেন। মাধ্যমিকে টিউশনি করে উপার্জন করেছে লেখাপড়া চালিয়ে গেছে। বাবার অভাবের সংসারে বোঝা না হয়ে হাত খরচের টাকা যোগার করতে চাটমোহর সাপ্তাহিক রবিবারের হাটে কাঁচা বাজারের ব্যবসায়ীদের হিসাব রক্ষক হিসেবে কাজ করেছে। তবে বাবা মা তাকে কখনও পড়াশুনা বাদ দিয়ে অন্যের কাজ করে টাকা উপার্জনে উৎসাহিত করেনি।

শোভন আক্তার শুভ বলেন, নিজে প্রাইভেট পড়িয়ে ও দোকানে ঘন্টা চুক্তিতে কাজের বিনিময়ে সেই আয়ের টাকায় নিজের পড়ালেখার খরচ চালিয়ে আসছি। এখন ভালো কোনো কলেজে ভর্তি ও পড়ালেখায় প্রয়োজনীয় টাকা তার দিনমজুর বাবার পক্ষে যোগান দেওয়া সম্ভব নয়। এজন্য শুভ এক ধরনের অনিশ্চয়তা নিয়ে এখন দিন পার করছে বলে জানা গেছে।

 ছেলেটির মা সাবিনা ইয়াসমিন বলেন, আমি সহ আমার পরিবারের কেউই প্রাইমারির গন্ডি পার হতে পারিনি। তবে ছেলেকে অনেক দুর পড়াশুনা করার স্বপ্ন আমার আগে থেকেই ছিল। সেটাই করার চেষ্টা করেছি। ছেলে শুভর পড়াশুনার আগ্রহ ও এবারের এসএসসির রেজাল্ট দেখে আমাদের মনে ওকে নিয়ে বড় স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছিলাম। যখন জানতে পারলাম এরপরে ছেলের উচ্চ শিক্ষা নিতে গেলে অনেক টাকার প্রয়োজন হবে, ঠিক তখন থেকেই আমাদের মনটা খুবই খারাপ হয়ে আছে। আসলে আমাদের পক্ষে অনেক টাকা খরচ করে ওর পড়াশুনা করানো সম্ভব নয়। তাহলে কি টাকার জন্য আমার ছেলের স্বপ্ন মিথ্য হয়ে যাবে?।

 মূলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের স্থানীয় ইউপি সদস্য ফরহাদ হোসেন মানিক বলেন, উজ্জল মানুষ হিসেবে ভীষন মানবিক ও দরীদ্র। তার ছেলে এবার এসএসসি পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে বলে শুনেছি। এমন ছেলেকে যদি ভালভাবে পৃষ্টপোষকতা করা যায় তাহলে দেশ তথা রাষ্ট্রের জন্য ভালো কিছু হবে বলেই বিশ্বাস করি। সমাজের বিত্তবানদের নিকট ছেলেটির পাশে দাড়ানোর কথা জানান তিনি।

মথুরাপুর সেন্ট রীটাস উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সিষ্টার মেরি মনিকা জানান, শুভ একজন মেধাবী ছাত্র। গরিব পরিবারের সন্তান হয়েও ভালো রেজাল্ট করে এখন অর্থের অভাবে ভালো কলেজে ভর্তি অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে তার।

মূলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদুল ইসলাম বকুল  বলেন, ছেলেটি অত্যন্ত মেধাবী হওয়ায় প্রত্যেক পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে পাশ করে গেছে। সম্প্রতি এসএসসি পরীক্ষায় সে জিপিএ-৫ পেয়েছে। তার পরিবার দরিদ্র হওয়ায় লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়া সম্বব হচ্ছে না। ছেলেটির জন্য আর্থিকভাবে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে। পড়াশুনা করতে যা যা করা দরকার আমার ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে সেটা করা হবে। প্রয়োজনে শিক্ষা নিয়ে যেসব এনজিও কাজ করে থাকে তাদের মাধ্যমে ছেলেটিকে সহায়তা করা হবে।

চাটমোহর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈকত ইসলাম  বলেন, ছেলেটি সম্পর্কে খোজঁখবর নিয়ে ছেলেটির শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার জন্য সহযোগিতা করা হবে।

সহকর্মীরা মরদেহ ফেলে পালিয়ে গেলেন !
                                  

মাদারীপুর প্রতিনিধি :
মাদারীপুরের শিবচরে থ্রী হুইলার থেকে মো. শফিকুল ইসলাম (২৮) নামের এক ওষুধ বিক্রয় প্রতিনিধির রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত শফিকুল দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হওয়ার পর তাকে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মৃত্যুবরণ করলে মরদেহ ফেলে সহকর্মীরা পালিয়ে যান বলে পুলিশ ধারণা করছে। পুলিশ মরদেহ উদ্ধার ও দুর্ঘটনাকবলিত উভয়ই স্থানই পরিদর্শন করেছে।

পুলিশ জানায়, বুধবার রাত আনুমানিক সাড়ে ১১টার দিকে শিবচর পৌরসভার শেখ হাসিনা সড়কে একটি থ্রী হুইলারে একজনের রক্তাক্ত মরদেহ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা শিবচর থানায় খবর দেয়। খবর পেয়ে শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিরাজ হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে ও থ্রী হুইলারটি জব্দ করে।

পুলিশ প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয় নিহত যুবক বরগুনা জেলার বামনা উপজেলার সোনাখালী গ্রামের নুরুল হকের ছেলে শফিকুল ইসলাম। তিনি শিবচরে কিউ রেক্স কোম্পানিতে কর্মরত।

বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে শফিকুল দুজন সহকর্মীকে নিয়ে মাহেন্দ্রতে চড়ে শিবচরের মাদবরচরের বিভিন্ন বাজারে ওষুধ বিক্রি করে ফিরছিলেন। খাড়াকান্দি এলাকায় পৌঁছালে ড্রেজারের পাইপে লেগে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দ্রুতগতির মাহেন্দ্রটি উল্টে গিয়ে গাড়ির নিচেই শফিকুল চাপা পড়েন।
সঙ্গে থাকা দুজন সহকর্মী স্থানীয়দের সহযোগিতায় ওই মাহেন্দ্র গাড়িতে গুরুতর আহত মো. শফিকুল ইসলামকে নিয়ে শিবচর হাসপাতালের উদ্দেশে রওনা হন। শিবচর পৌরসভার শেখ হাসিনা সড়কে পৌঁছালে মো. শফিকুল ইসলাম মৃত্যুবরণ করেন। পরে ভয়ে মৃতদেহ মাহেন্দ্র গাড়িতে রেখেই সহকর্মীরা পালিয়ে যান।

শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিরাজ হোসেন বলেন, এটি দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু বলে আমরা নিশ্চিত হয়েছি। গুরুতর আহত শফিকুলকে কে বা কারা রেখে পালিয়ে গেছে সেটি আমরা নিশ্চিত নই। তদন্ত চলছে।

না.গঞ্জে ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত দেড়শতাধিক
                                  

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি :
মহামারী করোনাভইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্টের দেশে চরম উৎকন্ঠা বিরাজ করছে। ইতোমধ্যে ১২টি জেলাকে রেড জোন হিসেবে ঘোষণ করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ক্রমবর্ধমান হারে নারায়ণগঞ্জে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলছে। মঙ্গলবার আক্রান্তের সংখ্যা ছিল শতাধিক; বুধবার সকালে একদিনের ব্যবধানে তা দেড়শতাধিকে দাঁড়িয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ১৫৭ জনের মধ্যে সিটি করপোরেশন এলাকায় ৬৩, সদর উপজেলায় ২৫, রূপগঞ্জ উপজেলায় ৩১, সোনারগাঁও উপজেলায় ১৪, বন্দর উপজেলায় আট ও আড়াইহাজার উপজেলায় ১৬ জন শনাক্ত হয়েছেন।

জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির ফোকাল পারসন ডা. সাখাওয়াত হোসেন জানান, আক্রান্তের সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে। অবস্থা ভালোর দিকে যাচ্ছে না। আক্রান্তদের মধ্যে কারও ওমিক্রন ধরন রয়েছে কিনা তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। আমরা নমুনা রেখেছি; সেটি সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) থেকে নিয়ে যাবে এবং পরীক্ষা করবে। তার পর আমরা জানাতে পারব এদের মধ্যে কেউ ওমিক্রনে আক্রান্ত আছেন কিনা।

তিনি আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জবাসী এখনই যদি সতর্ক না হন এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচল না করেন; তা হলে হয়তো আবারও সেই ভয়াবহ পরিস্থিতির দিকে যেতে হতে পারে।

বোরহানউদ্দিনে করোনার টিকা থেকে বঞ্চিত বেদেরা
                                  

বোরহানউদ্দিন (ভোলা) প্রতিনিধি :
করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সব জায়গায় টিকাদান কর্মসূচি চললেও টিকা পাননি ভোলার বোরহানউদ্দিনের বেদে পরিবারের লোকজন। টিকার বিষয়ে কোনো ধারণাও নেই তাঁদের। এতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিষয়ে তাঁরা উদাসীন।

গত শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, বোরহানউদ্দিনে হ্যালিপেডের পাশে কাঠ বাগানে গত কয়েক বছর ধরে বসবাস করছেন অর্ধশতাধিক বেদে। জন্ম নিবন্ধন ও আইডি কার্ড না থাকায় করোনার টিকা পেতে নিবন্ধন নিতেও পারছেন না তারা।

 জানা গেছে, বেদে সম্প্রদায়ের নারী-পুরুষ গ্রামগঞ্জে, হাটবাজারে এবং বাড়ি বাড়ি গিয়ে, পুকুরে হারানো জিনিসপত্র খুঁজে দেওয়া, সিংঙ্গা, তাবিজ এবং ফেরি করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন। করোনাকালীন  তাঁদের কেউ মানছেন না স্বাস্থ্যবিধি। তৃণমূল পর্যায়ে করোনা টিকার ক্যাম্পেইন চললেও আজও টিকার আওতায় আসেননি বেদেরা। এতে করোনা সংক্রমের ঝুঁকিতে পড়েছেন বেদেসহ স্থানীয় লোকজন।

বোরহানউদ্দিনে বেদে পরিবারের সদস্য সাদ্দাম (২৬), কবির (৩৫) আলি, মনিরুল  কাঞ্চন বলেন, করোনা থেকে সুরক্ষায় আমাদের টিকা নেওয়া দরকার। কিন্তু আমরা কীভাবে টিকা নেব তা জানি না। কেউ আমাদের টিকা নেওয়ার ব্যাপারে বলেনি।

বেদেরা অভিযোগ করে বলেন, এখানকার  বেদেপল্লিতে কেউ করোনা বিষয়ে কিছুই জানায়নি। তবে করোনা রোগ সম্পর্কে আমরা শুনেছি। আমরা নারী-পুরুষ  সারা দিন গ্রামগঞ্জে ঘুরে বেড়াই। আমাদের থেকেও করোনা ছড়াতে পারে। এতে আমরাও আতঙ্কের মধ্যে আছি।’

এ ব্যাপারে বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুর রহমান বলেন, এখন শিক্ষার্থীদের টিকা নিয়ে ব্যস্ত সরকার। তারা (বেদে সম্প্রদায়) হাসপাতালে এসে দিয়ে যাবে।

বেদে সম্প্রদায়ের ভোটার আইডি বা জন্ম সনদ না থাকায় নিবন্ধন করতে পারছে না এমন প্রশ্নের জবাবে ইউনো বলেন, এনআইডি ছাড়া কাউকে দিচ্ছে না সরকার। শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে শিথিল করছে তারা দিচ্ছে। তাদের ব্যাপারে নির্দেশনা আসলে দেওয়া হবে।

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১
                                  

মোঃ আকরামুজ্জামান আরিফ:

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ১ জন নিহত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫ টার দিকে পাহাড়পুর গ্রামে আমিরুল ইসলাম (৫০) নামের একজন নিহত হন। তিনি একই গ্রামের মৃত সাজ্জাদ হোসেনের ছেলে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে, ১ বছর পূর্বে পাহাড়পুর গ্রামে লস্কর গ্রুপের হামলায় মন্ডল গ্রুপের নেহেদ ও বকুল নামের দুই সহোদর নিহত হন। সেই হত্যা মামলার আসামী আমিরুল  সম্প্রতি জামিনে মুক্তি পেয়ে এলাকায় আসেন। এলাকায় আসার পর থেকেই মন্ডল গ্রুপ আধিপত্য ধরে রাখতে মরিয়া হয়ে ওঠে। মঙ্গলবার বিকেলে দু গ্রুপ আবার সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে। সংঘর্ষ চলাকালীন গুরুতর আহত অবস্থায় আমিরুলকে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, হত্যা মামলার আসামীরা জামিনে মুক্তি পেয়ে এলাকায় আসায় বিরোধী পক্ষের সাথে সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে।

পাবনায় ছুরিকাঘাতে যুবককে হত্যা
                                  

জেলা প্রতিনিধি, পাবনা:

পাবনায় সোহাগ হোসেন (২২) নামে এক নির্মাণ শ্রমিককে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) রাত  ৮ টার দিকে শহরের দিলালপুর সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের পাশে একটি ওষুধের দোকানের সামনে  তাকে হত্যা করা হয়।

নিহত সোহাগ দোগাছি ইউনিয়নের নতুন মাদারবাড়িয়া এলাকার কামাল শেখের ছেলে। তিনি পেশায় নির্মাণ শ্রমিক (সেনেটারী মিস্ত্রি) ছিলেন।

স্থানীয়রা জানান, সকালে সে কাজের উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়ে সন্ধায় বাড়িতে ফিরে যাওয়ার সময় সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের পাশের ওষুধের দোকানে কয়েকজন যুবকের সাথে নিজেদের সমস্যা নিয়ে তর্কাতর্কি হয়। এক পর্যায়ে তাকে ছুরিকাঘাত করা হয়। তখন উপস্থিত জনগণ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের ছোট ভাই শুভ শেখ বলেন, সকালে কাজের উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়ে যান তার ভাই সোহাগ। রাত আটটার দিকে কাজ শেষে শহর থেকে বাড়ি ফেরার পথে দিলালপুর মহল্লায় তাকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে পালিয়ে যায় প্রতিপক্ষের লোকজন।

সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, প্রাথমিকভাবে আমরা ধারণা করছি পুর্ব শক্রুতার জেড়ে এ হত্যাকান্ড সংঘটিত হয়েছে। একটি ওষুধের দোকানে ওষুধ কেনার সময় একজনের সাথে কথা কাটাকাটি হয় সোহাগের। সেখান থেকে ফেরার পথে সোহাগকে কুপিয়ে হত্যা করে ওই যুবক। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

হত্যাকান্ডের পরপরই আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। হত্যাকান্ডের মূল রহস্য উদঘাটনে আমরা কাজ করছি।  পরে বিস্তারিত জানাতে পারব।

পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণের শিকার, যুবক আটক
                                  

নীলফামারী প্রতিনিধি :

নীলফামারীর ডিমলা উপজেলায় পঞ্চম শ্রেণীতে পড়–য়া ১১ বছর বয়সী এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ সুজন ইসলাম নামে এক যুবককে আটক করেছে। সোমবার (১৭ জানুয়ারি) ডিমলা উপজেলার খালিশা চাপানি ইউনিয়নের এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, দুপুরের দিকে শিশুটির বাবা ও মা তাকে বাড়িতে রেখে এক আত্মীয়ের জানাজায় অংশ নিতে যান। শিশুটি বাড়িতে একাই ছিল। এ সুযোগে প্রতিবেশী মোশাররফ হোসেনের ছেলে সুজন ইসলাম ও আমিনুর রহমানের ছেলে বুলু বাদশা ওই বাড়িতে ঢুকে শিশুটিকে ধর্ষণ করে।

নির্যাতিত শিশুর মা জানান, আত্মীয়ের দাফন শেষে সন্ধ্যায় বাড়িতে ঢুকে তিনি মেয়েকে মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখেন। তার কাছ থেকে ঘটনা জেনে গ্রামের লোকজনকে জানান।

শিশুটির চাচা জানান, রাতে মেয়ের অবস্থার অবনতি হলে ডিমলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। পরে চিকিৎসকেরা শিশুটিকে নীলফামারী সদর আধুনিক হাসপাতালে রেফার করেন। সে এখন সেখানে চিকিৎসাধীন।

ডিমলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. শফিকুল ইসলাম জানান, প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে রাতেই শিশুটিকে নীলফামারী সদর আধুনিক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

ডিমলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘এ ব্যাপারে শিশুটির পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করেছে। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। ’

দুর্ঘটনায় ২ ভাই নিহত
                                  

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি :
ময়মনসিংহের নান্দাইলে ট্রাক্টর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পুকুরে পড়ে দুই চাচাতো ভাই নিহত হয়েছেন। গতকাল সোমবার রাত ৯টার দিকে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ হাইওয়ে সড়কে চামটা নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- উপজেলার আতকাপাড়া গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে রাফাদ (২২) ও তাহের উদ্দিনের ছেলে মোস্তফা (৩২)। নিহতরা সম্পর্কে চাচাতো ভাই ছিলেন।

জানা গেছে, রাফাদ ও মোস্তফা ট্রাক্টর নিয়ে উপজেলার আতকাপাড়া গ্রামে নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। পথে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাক্টরটি পুকুরে পড়ে যায়। এতে ট্রাক্টরচাপায় ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু ঘটে।

নান্দাইল হাইওয়ে থানার ওসি মাসুদ খান ও নান্দাইল হাসপাতালের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মুহাম্মদ মামুনুর রশীদ মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তারা জানান, নিহতদের লাশ নান্দাইল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে রাখা হয়েছে।


বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যুবককে হত্যা
                                  

স্টাফ রিপোর্টার :
ঢাকার কেরানীগঞ্জে চাঞ্চল্যকর সাইমুন হত্যাকাণ্ডের মূলহোতা সুমনসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। সোমবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে এ তথ্য জানান র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সহকারী পরিচালক এএসপি আ ন ম ইমরান খান।

তিনি বলেন, গত শনিবার সন্ধ্যায় কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন কালিন্দী গোল্ডেন সেন্টারের পাশে সন্ত্রাসীরা ডেকে নেয় সাইমুনকে। এরপর তার হাত-পায়ের রগ কেটে মুক্তিরবাগ বালুর মাঠে ফেলে যায় তারা। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় হত্যাকাণ্ডের মূলহোতা সুমনসহ পাঁচজনকে কেরানীগঞ্জ থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

দেশের উপকূলীয় এলাকায় ৩৩ হাজার মেট্রিক টন খাদ্য উৎপাদন ঘাটতি
                                  

ফারুক রহমান, সাতক্ষীরা:
দেশের আবাদযোগ্য জমি ৬৬ শতাংশ থেকে বর্তমানে ৬০ শতাংশে নেমে আসার পরও খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে। বাংলাদেশের উপকূলজুড়ে ৩৩ হাজার মেট্রিক টন খাদ্য উৎপাদন থেকে বঞ্চিত রয়েছে। ৭২০ কিলোমিটার উপকূলীয় ১৯টি জেলার এক কোটি অধিবাসী এই বঞ্চনার শিকার হচ্ছেন। জলবায়ু পরিবর্তনজনিত অভিযোজন এবং আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে এই ঘাটতি পূরণ করা সম্ভব। আউশ, আমন ও বোরো ধান উৎপাদনই নয়, দেশজুড়ে সব ধরনের কৃষিখাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে, উপকূলের জলাবদ্ধতা হ্রাস এবং লবণাক্ততা সহনীয় পর্যায়ে নিয়ে আসতে পারলে এ উৎপাদন আরও বেড়ে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে। শনিবার সাতক্ষীরায় বাংলাদেশ কৃষি ফোরাম আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় বক্তারা এসব তথ্য তুলে ধরেন।
ওই অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক মোঃ হুমায়ুন কবির। বক্তব্য রাখেন কৃষি ফোরামের সঙ্গে সংযুক্ত হন সাংবাদিক মানিক মুনতাসির, মোস্তাফিজ, কাবেরী মৈত্র, সাঈদ শাহীন প্রমুখ।
সেমিনারে তথ্যউপাত্ত তুলে ধরে কৃষি সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, বাংলাদেশে কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে এক ফসলী, দুই ফসলী ও তিন ফসলী চাষাবাদ করার কারনে। জমির বহুমুখী ব্যবহার উৎপাদন বৃদ্ধিতে সহায়ক শক্তির কাজ করেছে। আবাদযোগ্য ৭৫ শতাংশ জমিতে বহুমুখী এবং মিশ্র চাষ করে উপকূলীয় অঞ্চলে খাদ্য উৎপাদন বাড়ানোা সম্ভব। দেশে এখন ৪৫ লাখ মেট্রিক টন মাছ উৎপাদিত হয়। উপকূলীয় এলাকায় লবণাক্ততার মাত্রা ছিল ৭ থেকে ৮ পিপিটি। বর্তমানে শুষ্ক মওসুমে তা ১৮/১৯ পিপিটি পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিনাসহ বিভিন্ন জাতের ধান উৎপাদন ১২ থেকে ১৩ পিপিটি পর্যন্ত সম্ভব হলেও অন্যান্য উৎপাদন নানাভাবে মার খাচ্ছে।
উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরার আশাশুনি ও শ্যামনগর উপজেলা এখানকার বিভিন্ন অঞ্চলে লবণাক্ততার কারনে পরিবেশগত বিপর্যয় শুরু হয়েছে। নদী খালে পুকুরে নোনা পানি এবং জলাবদ্ধতার অবসান শেষে বিস্তীর্ন এলাকা বালুকাময় হয়ে ওঠায় সেখানকার সবুজ বৃক্ষসম্পদ শুকিয়ে কাঠ হয়ে যাচ্ছে। গাছপালা এবং ধানসহ অন্যান্য কৃষি খাদ্যপণ্য উৎপাদন কমে গেছে। লবণসহিষ্ণু ধান উৎপাদনে বাংলাদেশ কৃষি বিভাগ সহযোগিতা করছে। জলবায়ু পরিবর্তনজনিত এবং মনুষ্যসৃষ্ট জলাবদ্ধতা ও লবনাক্ততার কবল থেকে রক্ষা পেতে অভিযোজন প্রক্রিয়া জোরদার করতে হবে। সেমিনারে দেশের ৯ কোটি টন কৃষিপণ্য উৎপাদনের তথ্য তুলে ধরে বক্তারা বলেন, বর্তমান সময়ে পরিবার প্রতি গড়ে দশমিক ৮২ একর জমি রয়েছে। গত পাঁচ দশকে ধান উৎপাদন বেড়ে এখন তা ১০ লাখ মেট্রিক টন ছাড়িয়ে গেছে।
সাতক্ষীরার প্রেক্ষাপটে বক্তারা বলেন, ইচ্ছা করলেই জলবায়ু পরিবর্তনের এই ক্ষতি থেকে রক্ষা পাওয়া সহজ কথা নয়। শুধুমাত্র ধান উৎপাদনের ওপর নির্ভর না করে সাতক্ষীরার আম, উন্নত জাতের কুল, বিভিন্ন প্রজাতির সবজি এবং অন্যান্য কৃষি ফসলের চাষ করে উপকূলের উৎপাদন বঞ্চনাকে অনেকটাই ঠেকিয়ে রাখা সম্ভব। সরকার কৃষিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কৃষক ও কৃষিকাজে সব ধরনের সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে। লবণাক্ত পানির চিংড়ি ছাড়াও মিষ্টি পানিতে অন্যান্য মৎস্য উৎপাদনে সরকারের সহযোগিতা অব্যাহত রয়েছে।


দক্ষিণাঞ্চলে ফের বাড়ছে করোনা
                                  

বরিশাল ব্যুরো :
মাত্র ১০ দিন আগে করোনায় আক্রান্ত ও শানাক্তের সংখ্যায় শুণ্যের কোঠায় থাকা বরিশাল বিভাগে হঠাত করে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে। গত কয়েকদিনে গড় হিসেবে দৈনিক আট থেকে ১০ জন ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন।
এমনকি মঙ্গলবার করোনার উপসর্গ নিয়ে দক্ষিণাঞ্চলের সর্ববৃহত চিকিৎসা সেবা প্রতিষ্ঠান বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণরোধে সরকার ঘোষিত ১১ দফা বিধি নিষেধ কঠোরভাবে পালন করতে পরামর্শ দিয়েছেন স্বাস্থ্য বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। অন্যথায় একমাত্র অসচেতনতার কারণে বরিশালের জন্য আবারও ভয়াবহ রূপ নিতে পারে করোনা।
বৃহস্পতিবার সকালে বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের কার্যালয়ের পরিসংখ্যানে জানা গেছে, নতুন বছরের শুরুতে ১ জানুয়ারি বিভাগে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও শনাক্তের সংখ্যা ছিলো শুণ। ওইদিন করোনার নমুনা পরীক্ষা হলেও কেউ আক্রান্ত শনাক্ত হয়নি। এর আগের দিনেও শনাক্তের সংখ্যা একই ছিলো। এরপর থেকেই শনাক্তের সংখ্যা বাড়তে থাকে। এখন দৈনিক আক্রান্তের হার সর্বনিন্ম তিন থেকে ১০ জন পর্যন্ত। সবশেষ ১০ জানুয়ারি নয়জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে বিভাগে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৫ হাজার ৪০০ জন। যারমধ্যে ৪৪ হাজার ৫৮১ জন সুস্থতা লাভ করেছেন। আর মৃত্যুর সংখ্যা ৬৭৯ জনেই রয়েছে।
শেবাচিম হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডের তথ্যানুযায়ী, গত ১০ জানুয়ারি করোনা ইউনিটে উপসর্গ নিয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। তবে মৃত ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন কিনা সে বিষয়টি এখনো নিশ্চিত হতে পারেনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সর্বশেষ করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন, গৌরনদী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এইচএম জয়নাল আবেদীন ও একই উপজেলার হরিসেনা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ফারিহা বিনতে আজিজ।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বরিশাল বিভাগীয় কার্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডাঃ মোঃ হুমায়ুন শাহীন বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে এটা এখনো ভয়াবহ রূপ নেয়নি। সংক্রমণের হার বৃদ্ধির আগেই সবাইকে নিয়মিত মাস্ক পড়ার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি সঠিকভাবে পালন করতে হবে। পাশাপাশি যারা এখনো করোনা প্রতিরোধের টিকা গ্রহণ করেননি বা যারা টিকার ডোজ সম্পন্ন করেছেন তাদের বুস্টার ডোজ গ্রহণের জন্য তিনি পরামর্শ দিয়েছেন।

কুষ্টিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২
                                  

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি:
কুষ্টিয়ার বিত্তিপাড়ায় সড়ক দূর্ঘটনায় ২জন নিহত এবং আহত হয়েছেন ২জন। শনিবার (জানুয়ারী)  বেলা সাড়ে ১২টার দিকে কুষ্টিয়া শহরের বিত্তিপাড়া বাজারে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

 নিহতরা হলেন, ভ্যানযাত্রী ছলেমান (৪০) ও ওসমান (৬০)। গুরুতর আহত অবস্থায় ভ্যানচালক কামাল (৪৩) সহ ২জন কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। হতাহতদের বাড়ি চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গায় বলে জানাগেছে।  

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঝাউদিয়া থেকে আসা যাত্রীবাহী একটি ভ্যান কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়ক পার হওয়ার সময় ঝিনাইদহ থেকে আসা দ্রুতগামী একটি ট্রাক ভ্যানকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই ভ্যানের যাত্রী ওসমান মারা যান এবং গুরুতর আহত অবস্থায় ভ্যানের চালকসহ ৩জনকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছলেমান মারা যান।

এ ব্যাপারে কুষ্টিয়া হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ( ওসি) উদ্রিস আলী জানান, কুষ্টিয়ার বিত্তিপাড়া সড়ক দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলে একজন নিহত হয়েছে এবং আহত অবস্থায় কুষ্টিয়া জেনারেল  হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর একজন মারা গেছে। ভ্যানের চালকসহ ২জন চিকিৎসাধীন রয়েছে।

শপথের আগেই মৃত্যুর কাছে হেরে গেলেন নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান
                                  

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি :

নির্বাচনে জিতেও মৃত্যুর কাছে হেরে গেলেন লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দিঘলী ইউনিয়ন পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মো. ইসমাইল হোসেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। গত শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে লক্ষ্মীপুর শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর কাছে হেরে যান তিনি।

নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার ২০ দিনের মাথায় মৃত্যু হওয়ায় শপথ নিয়ে আর দায়িত্বভার গ্রহণ করার সুযোগ হয়নি ইসমাইলের। তবে ইতোপূর্বে অত্র ইউনিয়নে সুনামের সাথেই চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

দীর্ঘদিন আওয়ামী রাজনীতির সঙ্গে জড়িত থাকলেও বিদ্রোহী হয়ে নির্বাচনে অংশ নেওয়ায় গত ১৬ ডিসেম্বর দল থেকে বহিষ্কার করা হয় মো. ইসমাইল হোসেনকে।

গত ২৬ ডিসেম্বর চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে আনারস প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ওই ইউপি’র বিদায়ী চেয়ারম্যান নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. শেখ মুজিবুর রহমানকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে নির্বাচিত হন তিনি। গেজেট প্রকাশ না হওয়ায় তার শপথ গ্রহণ করা হয়নি।

ইসমাইলের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন দিঘলী ইউনিয়ন পরিষদের সচিব আবদুল কাদের।

তিনি জানান, ইসমাইল হৃদরোগে আক্রান্ত হলে তাকে লক্ষ্মীপুর জেলা শহরের আধুনিক হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে সেখানেই মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে তিনি দুই ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন। নির্বাচনের মাত্র ৩ মাস পূর্বে তার স্ত্রীর মৃত্যু হয়।

শনিবার (১৫ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় স্থানীয় দিঘলী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে মরহুম ইসমাইল হোসেন চেয়ারম্যানের নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। নবনির্বাচিত এ চেয়ারম্যানের মৃত্যুতে ইউনিয়নজুড়ে শোকের ছায়া নেমে আসে।

সাটুরিয়ায় দুই মোটর সাইকেল চোরকে গণধোলাই
                                  

আল মামুন, মানিকগঞ্জ:

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলায় দুই মোটর সাইকেল চোরকে গনধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয়রা। এ ঘটনায় উদ্ধার করা হয়েছে একটি চোরাই মোটর সাইকেল। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) সাটুরিয়া উপজেলায় দরগ্রাম এলাকায়।

আটককৃত দুই চোর সাটুরিয়া উপজেলার দরগ্রাম ইউনিয়নের টেবারিয়া এলাকার আবুল বাশার এর পুত্র টিপু সুলতান (২৬) ও একই এলাকার আবুল এর পুত্র জনি মিয়া (২২)।

জানা গেছে, আটক দুই চোর টাংগাইল থেকে (ঢাকামেট্রো- ল ৩৬- ৭৫১৫) নম্বরের একটি মোটর সাইকেল চুরি করে তাদের গ্রাম সাটুরিয়া উপজেলায় দরগ্রাম এলাকায় নিয়ে আসে। শুক্রবারস্থানীয় লোকজন বিষয়টি জানতে পেরে তাদের আটক করে গনধোলাই দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য সাটুরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করে।

সাটুরিয়া থানার এসআই মোক্তার ঘটনার সত্যত্বা নিশ্চিত করে জানায়, খবর পেয়ে চোরাই মোটর সাইকেলসহ দুই চোরকে উদ্ধার করা হয়। আহত দুই চোরকে সাটুরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এ ঘটনায় সাটুরিয়া থানায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছ।

অসময়ে দেখা দিয়েছে পলাশ ফুল
                                  

নওগাঁ প্রতিনিধি:
এখনো শীত শেষ হয়নি। মাঘের শুরু এখনও একদিন বাকী। বরং কিছুদিন ধরে তার তীব্রতা আরো বেড়েছে। তবে এবার শীতেই নওগাঁ শহরে দেখা মিলেছে পলাশ ফুলের।

অসময়ে লালচে কমলা রঙের আভায় নওগাঁ শহরের ব্যস্ততম মুক্তির মোড় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্তর পলাশ ফুল প্রকৃতিকে রাঙিয়ে দিয়েছে। আর এই ফুলকে ঘিরে অসময়ে বসন্ত উৎসবে মেতেছে কোকিল, বুলবুলি, শালিকের মত ছোট গানের পাখিরা।

নওগাঁ শহরের প্রাণ কেন্দ্র হিসেবে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরকে বিবেচনা করা হয়। এই চত্বর একপাশে গাছে গাছে পলাশ রঙের পসরা সাজিয়েছে। এই অসময়ে পলাশের পসরা যেন শহরেতে বসন্ত বরণে প্রস্তুতি।

জাতীয় কবি নজরুলের একটি জনপ্রিয় গানে আছে, ‘হলুদ গাঁদার ফুল, রাঙা পলাশ ফুল, এনে দে এনে দে নৈলে রাঁধব না, বাঁধব না চুল।’

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর পলাশের রঙ দেখে লিখেছিলেন, -‘রাঙ্গা হাসি রাশি-রাশি অশোকে পলাশে, রাঙ্গা নেশা মেঘে মেশা প্রভাত-আকাশে, নবীন পাতায় লাগে রাঙ্গা হিল্লোল।’

পলাশ পর্ণমোচী বৃক্ষ জাতীয় ফুল গাছ। উচ্চতা গড়ে ১২ থেকে ১৫ মিটার। শাখা-প্রশাখার সামনে থোকায় থোকায় ফুল ফোটে। কুঁড়ি দেখতে অনেকটা বাঘের নখের আকৃতির মতো। বাকল ধূসর। শাখা-প্রশাখা ও কাণ্ড আঁকাবাঁকা। নতুন পাতা রেশমের মতো সূক্ষ্ম। গাঢ় সবুজ পাতা ত্রিপত্রী, দেখতে অনেকটা মান্দার গাছের পাতার মতো হলেও আকারে বড়। শীত মৌসুমে গাছের সব পাতা ঝরে যায়। গ্রীষ্মে নতুন পাতা গজায়। ফুল ফোটার সময় গাছ থাকে পাতাশূন্য। গাছের শাখা-প্রশাখা নরম। ফুল শেষে গাছে ফল ধরে। ফল দেখতে অনেকটা শিমের মতো। বীজ ও ডাল কাটিংয়ের মাধ্যমে পলাশের বংশবিস্তার ঘটানো হয়।

পলাশ বসন্তজুড়েই মুগ্ধতা ছড়ায়। সংস্কৃতিতে ফুলটি কিংসুক নামে আর মনিপুরী ভাষায় পাঙ গোঙ নামে পরিচিত।

প্রতিকূল পরিস্থিতিতে অসময়ে নওগাঁর রাস্তার পাশে অন্তত ১০-১২টি পলাশ গাছ রয়েছে; যাতে শীতের মধ্যভাগেই লালচে কমলা রঙের ফুলের দেখা মিলছে। এই পথে আসা-যাওয়ার সময় ইট-পাথরের নগরীর বাসিন্দাদের মনে পলাশ ফুল দেখে ভালোলাগার আবহ ছড়িয়ে যাচ্ছে।

অসময়ে পলাশ ফুল ফোঁটার পেছনে আবহাওয়া পরিবর্তনের প্রভাব রয়েছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। নওগাঁর বদলগাছী উপজেলা কৃষি আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগার সূত্রে জানা যায় , বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে আবহাওয়ায় বড় ধরণের অদল-বদল হয়েছে।

নওগাঁ সরকারি কলেজের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ফজিলাতুন নেছা মিলি বলেন, `বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে ষড়ঋতুর বাংলাদেশে ঋতুর চারিত্রিক পরিবর্তন হচ্ছে। আর এর প্রভাব পড়ছে পরিবেশ ও প্রকৃতিতে। বসন্ত ঋতু আসার আগে পলাশ ফুল ফোঁটার পেছনেও আবহাওয়ার পরিবর্তণের প্রভাব বলে মনে করছেন তিনি।

একসময় গ্রামে-গঞ্জে অনেক পলাশ গাছ দেখা গেলেও আজকাল কদাচিৎ তার দেখা পাওয়া যায়। এমন অবস্থায় অসময়ে নওগাঁ শহরেতে পলাশের পসরাকে শহরবাসী দেখছেন প্রকৃতির আশীর্বাদ হিসেবে।

ফেনীতে ছিনতাই হওয়া টাকা উদ্ধার, গ্রেফতার ৭
                                  

কামরুল হাসান নিরব, ফেনী :

ফেনী শহরের তাকিয়া রোডে গত ৬ জানুয়ারি সন্ধ্যায় সম্রাট মেজর ফ্লাওয়ারস মিলের ছিনতাই হওয়া টাকা সহ ৭ জনকে গ্রেফতার করেছে ফেনী জেলা পুলিশ। শুক্রবার (১৩ জানুয়ারি দুপুরে ফেনী পুলিশ সুপার কার্যলয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে ফেনী অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বদরুল আলম মোল্লা এই তথ্য জানায়। এসময় উপস্থিত ছিলেন ফেনী সদর সার্কেল থোয়াই ফ্রু মারমা, ফেনী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন।

পুলিশ জানান গত ৬ জানুয়ারি সন্ধ্যায় ফেনীর সম্রাট ফ্লাওয়ার মিলের কালেকশনের ১৪ লক্ষ টাকা নিয়ে মিলের কর্মচারী মোঃ জসিম ও মিন্টু কুমার তাদের প্রতিষ্ঠানে ফিরছিলেন পথে শহরের তাকিয়া রোডে তাদের দুজনকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে মারাত্মক আহত করে তাদের সাথে থাকা টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়।  

এই ঘটনায় মিলের ম্যানেজার জসিম উদ্দিন বাদী হয়ে ফেনী মডেল থানায় মামলা করেন। পরে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করে ঢাকা, কক্সবাজার, লক্ষীপুর থেকে ৭ জনকে গ্রেফতার করে এবং দুটি ছোরা ও নগদ ৪ লক্ষ ২৮ হাজার টাকা উদ্ধার করে।


   Page 1 of 325
     গ্রাম বাংলা
জিপিএ-৫ পেয়েও কলেজে ভর্তি অনিশ্চিত শুভ’র
.............................................................................................
সহকর্মীরা মরদেহ ফেলে পালিয়ে গেলেন !
.............................................................................................
না.গঞ্জে ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত দেড়শতাধিক
.............................................................................................
বোরহানউদ্দিনে করোনার টিকা থেকে বঞ্চিত বেদেরা
.............................................................................................
কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১
.............................................................................................
পাবনায় ছুরিকাঘাতে যুবককে হত্যা
.............................................................................................
পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণের শিকার, যুবক আটক
.............................................................................................
দুর্ঘটনায় ২ ভাই নিহত
.............................................................................................
বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যুবককে হত্যা
.............................................................................................
দেশের উপকূলীয় এলাকায় ৩৩ হাজার মেট্রিক টন খাদ্য উৎপাদন ঘাটতি
.............................................................................................
দক্ষিণাঞ্চলে ফের বাড়ছে করোনা
.............................................................................................
কুষ্টিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২
.............................................................................................
শপথের আগেই মৃত্যুর কাছে হেরে গেলেন নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান
.............................................................................................
সাটুরিয়ায় দুই মোটর সাইকেল চোরকে গণধোলাই
.............................................................................................
অসময়ে দেখা দিয়েছে পলাশ ফুল
.............................................................................................
ফেনীতে ছিনতাই হওয়া টাকা উদ্ধার, গ্রেফতার ৭
.............................................................................................
ভান্ডারিয়ায় গাঁজাসহ মাদক কারবারি গ্রেফতার
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা তাজমেরী এস ইসলাম গ্রেফতার
.............................................................................................
বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন
.............................................................................................
দেবীদ্বারে ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী ১১৬ জন
.............................................................................................
পিরোজপুরে কুপিয়ে যুবলীগ কর্মীর হাত বিচ্ছিন্ন করেছে প্রতিপক্ষ
.............................................................................................
নবীনগরে ইউপি সদস্যদের শপথ গ্রহণ
.............................................................................................
সাভারে লেবানন প্রবাসীকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা
.............................................................................................
কালিহাতীতে জোকারচর ব্রীজ উদ্ভোধন
.............................................................................................
ডাকাত সন্দেহে তিনজনকে পিটিয়ে হত্যা
.............................................................................................
শরীরে আগুন দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা
.............................................................................................
করোনা সংক্রমণের ‘রেড জোন’ ঢাকা-রাঙামাটি
.............................................................................................
পঞ্চগড় সীমান্তে বিএসএফের হাতে ২ বাংলাদেশি আটক
.............................................................................................
৭০ বোতল ফেনসিডিল সহ পুলিশ আটক
.............................................................................................
হাওর থেকে কলেজ ছাত্রের লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে ফেনীতে মানববন্ধন
.............................................................................................
শ্রীপুর রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি সিরাজুল, সম্পাদক স্বপন
.............................................................................................
ব্যবহার উপযোগী ওষুধ পুড়িয়ে ফেলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ!
.............................................................................................
কুষ্টিয়ায় ট্রাকচাপায় নিহত ৪
.............................................................................................
সাভারে গণমাধ্যমকর্মীর উপর হামলা, ৪ দিনেও মামলা রেকর্ড হয়নি
.............................................................................................
নবীনগরে নৌকাডুবিতে নিখোঁজ হওয়া পল্লী চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
নরসিংদীতে মাদ্রাসা ছাত্র অপহৃত, মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
.............................................................................................
কোটালীপাড়ায় নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতায় বৃদ্ধ নিহত
.............................................................................................
নাসিরনগর উপজেলা ছাত্রদল নেতা শরীফ গ্রেপ্তার
.............................................................................................
মালবাহী ট্রেনের চাকায় আগুন
.............................................................................................
এক লাখ টাকা না দেয়ায় থানায় ছেলের মৃত্যু, বাবার দাবি
.............................................................................................
লক্ষ্মীপুরে ‘খুনীর’ মুক্তির দাবীতে মানববন্ধন
.............................................................................................
স্ত্রীকে হত্যার পর পুলিশ হেফাজতে থানায় স্বামীর আত্মহত্যা!
.............................................................................................
নির্বাচনী সহিংসতায় চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৬, পাল্টাপাল্টি মামলা
.............................................................................................
ঝালকাঠিতে ইলিশ সম্পদ উন্নয়নে অবহিতকরণ কর্মশালা
.............................................................................................
টাকা ফেরৎ চাওয়া নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১০
.............................................................................................
বিনা টিকিটে ট্রেনে ভ্রমণ: অভিযান চালিয়ে ৩ লাখ ৭১ হাজার আদায়
.............................................................................................
মির্জাপুরে ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান হলেন যারা
.............................................................................................
কুমিল্লায় সড়ক দুর্ঘনায় নিহত ২, আহত ৩
.............................................................................................
জামায়াতের কাছে শোচনীয় পরাজয় নৌকা প্রার্থীর, ভোটের ব্যবধান ১২ হাজার
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
যুগ্ম সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT