শনিবার, ১৩ জুলাই 2024 বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   গ্রাম বাংলা -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
নোয়াখালীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ইলেকট্রিক মিস্ত্রি নি হ ত

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে আইপিএসের তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে আবু নাছের সোহাগ (৩৫) নামে এক ইলেকট্রিক মিস্ত্রির মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) রাত পৌনে ১০টার দিকে উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের ৮নম্বর ওয়ার্ডের ছাবিদ বেপারী বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সোহাগ একই ইউনিয়নের ৯নম্বর ওয়ার্ডের মোল্লা বাজার এলাকার নোয়াব আলী নতুন বাড়ির নোয়াব আলীর ছেলে। সে ৩ সন্তানের জনক ছিল।

নিহতের মামা তানভীর জানান, নিহত সোহাগ তার দূর সম্পর্কের ভাগনে হয়। সে রাতে আমার ঘরে আইপিএস (ইনস্ট্যান্ট পাওয়ার সাপ্লাই) মেরামতের কাজ করছিল। সেসময় আইপিএসের পাওয়ার বন্ধ না করায় অসাবধানতাবশত আইপিএসের তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে গুরুত্বর আহত হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসির দায়িত্বে থাকা পরিদর্শক (তদন্ত) মো.আবদুস সুলতান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তবে এ ঘটনায় নিহতের স্বজনেরা থানায় কোনো অভিযোগ করেনি।

নোয়াখালীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ইলেকট্রিক মিস্ত্রি নি হ ত
                                  

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে আইপিএসের তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে আবু নাছের সোহাগ (৩৫) নামে এক ইলেকট্রিক মিস্ত্রির মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) রাত পৌনে ১০টার দিকে উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের ৮নম্বর ওয়ার্ডের ছাবিদ বেপারী বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সোহাগ একই ইউনিয়নের ৯নম্বর ওয়ার্ডের মোল্লা বাজার এলাকার নোয়াব আলী নতুন বাড়ির নোয়াব আলীর ছেলে। সে ৩ সন্তানের জনক ছিল।

নিহতের মামা তানভীর জানান, নিহত সোহাগ তার দূর সম্পর্কের ভাগনে হয়। সে রাতে আমার ঘরে আইপিএস (ইনস্ট্যান্ট পাওয়ার সাপ্লাই) মেরামতের কাজ করছিল। সেসময় আইপিএসের পাওয়ার বন্ধ না করায় অসাবধানতাবশত আইপিএসের তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে গুরুত্বর আহত হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসির দায়িত্বে থাকা পরিদর্শক (তদন্ত) মো.আবদুস সুলতান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তবে এ ঘটনায় নিহতের স্বজনেরা থানায় কোনো অভিযোগ করেনি।

ডায়রিতে লেখা ‘আমরা দুইজন ইচ্ছায় মরছি এইখানে কারো দোষ নাই’, কিন্তু...
                                  

আশুলিয়া(সাভার)প্রতিনিধি:

আশুলিয়ায় জাহানারা খাতুন জান্নাতি (২২) নামের এক পোশাক শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এঘটনায় একটি ডায়েরি উদ্ধার করা হয়েছে। যাতে লেখা ছিল, ‘আমরা দুইজন ইচ্ছায় মরছি এইখানে কারো দোষ নাই’। ডায়েরিতে দু’জনের কথা উল্লেখ থাকলেও একজনের লাশ পাওয়া যায়। এঘটনায় স্বামী পলাতক রয়েছেন বলে জানা গেছে।

শনিবার (৬ জুলাই) বিকেল ৫টার দিকে আশুলিয়ার পূর্ব নরসিংহপুর এলাকার মিন্নাত আলীর বাড়ি থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত জাহানারা খাতুন জান্নাতি (২২) দিনাজপুর জেলার চিরিরবন্দর উপজেলার উত্তর ভোলানাথপুর গ্রামের মোঃ জামাল উদ্দীনের মেয়ে। তার স্বামী হাবিবুর রহমান অনিক (২৭) পাবনা জেলার ফরিদপুর উপজেলার দিঘুলিয়া দক্ষিণপাড়া এলাকার মোঃ আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে। দু’জনই ওই বাড়িতে ভাড়া থেকে একটি পোশাক কারখানায় অপারেটর ও হেলপার পদে চাকরি করতেন।

বাড়ি মালিক জিন্নাত আলীর মেয়ে সামছুনাহার বলেন, আজ কারখানায় কাজে যোগ না দেওয়ায় অফিস থেকে তিনজন নারী তার খোঁজ নিতে আসেন। আমরা জানি প্রতিদিনের মত আজও জান্নাতি কাজে যোগদান করেছেন। কাজে যোগ না দেওয়ার কথা শুনে আমরা ভেবেছি সে ঘরেই রয়েছে। পরে ঘরের দরজা খুলে ভিতরে দেখি জান্নাতির নিথর দেহ পড়ে আছে। এঘটনায় ৯৯৯ এ কল করে জানালে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

পুলিশ জানায়, দুপুরে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এর কল পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে এক পোশাক কর্মীর লাশ উদ্ধার করা হয়। ঘটনার পর থেকে তার স্বামী পলাতক রয়েছেন। মরদেহের পাশ থেকে একটি চিরকুট উদ্ধার করা হয়েছে। যাতে লেখা ছিল, ‘আমরা দুইজন ইচ্ছায় মরছি এইখানে কারো দোষ নাই। আমরা নিজের ইচ্ছায় মরছি। আমি আমার বউকে মারছি। বউ আমাকে মারছে। এইখানে বাড়ির কারো দোষ নাই।’

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক এসআই আবজালুল হক বলেন, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে বিষপানে কিংবা শ্বাসরোধে তার মৃত্যু হয়েছে। এ ব্যাপার পরবর্তী আইনানুগ প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।

পাবনায় আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে হত্যা মামলা, প্রতিবাদে বিক্ষোভ-মানববন্ধন
                                  

জেলা প্রতিনিধি, পাবনা:

পাবনার সুজানগরে আওয়ামী লীগ কর্মী মোজাহার বিশ্বাস হত্যা মামলায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীনুজ্জামান শাহীনকে আসামি করার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছের নেতাকর্মীরা।

শনিবার (৬ জুলাই) দুপুরের দিকে পাবনা-সুজানগর সড়কের সাতবাড়িয়া শুটকার মোড়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে দুই ঘন্টাব্যাপি বিক্ষোভ, অবরোধ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সুজানগর পৌর মেয়র রেজাউল করিম রেজা, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ফেরদৌস আলম ফিরোজ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাইদুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রাজু আহমেদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা, আব্দুস সাত্তার, সুজানগর উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা সরদার আব্দুর রউফ,ইউনুস আলী বাদশা, প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, বর্তমান সুজানগর উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ওহাব নির্বাচনে জয়ী হয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীনুজ্জামান শাহীনের সমর্থকদের উপরে নানাভাবে হামলা মামলা দিয়ে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব সৃষ্টি করছেন। সাধারণ সম্পাদকের নামে মামলা হলেও তিনি আনন্দ ভ্রমণে বর্তমানে কক্সবাজার অবস্থান করছেন। সুজানগরে আগুন ধরিয়ে দিয়ে তিনি কক্সবাজারের শীতল হাওয়া খাচ্ছেন। আসলে এটা দলের মধ্যে বিভেদ তৈরি করে দিচ্ছেন। বিএনপির নেতাদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে এমন অপকর্মে লিপ্ত হয়েছেন তিনি।

বক্তারা আরও বলেন, গত ২১ জুন দলের একজন নেতাকে পরিকল্পিতভাবে বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও দলের সভাপতি হত্যা করে এরপর গত (২৭ জুন) তার একজন সমর্থকের মৃত্যুর পরে ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে উপজেলার সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা শাহীনের নামে মামলা করিয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব। এই জনপদে পূর্বের যত হত্যাকান্ড ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ড সংগঠিত হয়েছে তার গডফাদার বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব। মিথ্যা বানোয়াট মামলা প্রত্যাহার করে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন এবং মামলা প্রত্যাহার না হলে কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারী দেন বক্তব্যরা। এসময় পুলিশ প্রশাসনও পক্ষপাতমূলক আচরণ করছেন বলে অভিযোগ করেন। হত্যার পর কোন প্রকার তদন্ত না শাহিনুজ্জামান শাহীনের নামে মিথ্যা মামলা নথিভুক্ত করা হয়েছে। আসলে পুলিশের এটা গাফিলতি বলব নাকি পক্ষপাত বলব? প্রশাসন যদি এই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার না করে প্রয়োজনে সুজানগর উপজেলাকে অচল করে দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত ৯ মে সুজানগর উপজেলা নির্বাচনের পর থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল ওহাব এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীনুজ্জামান শাহীনের সমর্থকদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল।

এ ঘটনার জেরে গত ২১ জুন উপজেলার রানীনগর এলাকায় ওহাব ও শাহীনের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে আল আমিন মিয়া (৩৫) নামে শাহীন গ্রুপের একজন কর্মী নিহত হয়। এ ঘটনায় জের ধরে ওইদিন রাতেই মোজাহার বিশ্বাসকে এলোপাথারী কোপায় দুর্বৃত্তরা। পরে তিনি ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২৭ জুন মারা যান।

এ ঘটনায় নিহত মোজাহার বিশ্বাসের ছোট ভাই জামাল বিশ্বাস বাদী হয়ে গত ৩০ জুন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীনুজ্জামান শাহীনকে প্রধান আসামি করে ২৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

লাউয়ের পাতা তুলতে গিয়ে লা শ হয়ে ফিরলেন ৩ জন
                                  

মিঠাপুকুর (রংপুর) প্রতিনিধি:

রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলায় লাউ গাছের পাতা তুলতে গিয়ে একই পরিবারের দু’জনসহ তিনজনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনার অত্র এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ছয়টায় উপজেলার শাল্টি গোপালপুর ইউনিয়নের উদয়পুর গ্রামে এ ঘটনা সংঘটিত হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মিঠাপুকুর থানার অফিসার ইনচার্জ ও ফায়ার সার্ভিস স্টেশন মাস্টার।

স্থানীয়দের বরাতে জানা যায়- বাদশা মিয়ার স্ত্রী দেলোয়াড়া বেগম (৫৫) লাউয়ের পাতা উঠানোর জন্য বাড়ির পিছনের জঙ্গলে মই দিয়ে মাচায় ওঠামাত্রই টয়লেটের ঢাকনা ধসে গিয়ে টয়লেটের গর্তে পড়ে যায়। মাকে উঠানোর জন্য তার ছোট ছেলে ইদা মিয়া(৩৫) টয়লেটের গর্তে লাফ দেয়। তাদের উঠতে না দেখে পাশের বাড়ির তবারক মিয়ার ছেলে ইবলুল মিযা(৩৫) ঝঁপিয়ে পড়লেও সেও আর উপরে উঠতে পারেনি।

পরে মিঠাপুকুর ফায়ার সার্ভিসে জানানো হলে একটি দল এসে উদ্ধার কাজে ব্যর্থ হলে পরবর্তীতে রংপুরের দলকে কল করে নিয়ে আসেন। ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের দুইটি ইউনিট মিলে কয়েক ঘন্টার চেষ্টায় উদ্ধার কাজ সম্পন্ন করেন। প্রথমে ইবলুল, দ্বিতীয় ইদা ও শেষে তার মা দেলোয়াড়া বেগমকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা।

মিঠাপুকুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কর্মকর্তা রবিউল ইসলাম জানান- ঘটনার তথ্য পাওয়ার সাথে সাথেই ফায়ার ডিফেন্স কর্মীরা টয়লেটের সেফটি ট্যাংক থেকে উদ্ধার করার চেষ্টা করা হয়। দীর্ঘ চেষ্টায় ব্যর্থ হলে আমরা রংপুরের ফায়ার ও ডিফেন্স কর্মীদের অবগত করলে তারা সহ দু’টি ইউনিট দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর তিনটি মরাদেহ উদ্ধার করা হয়।

মিঠাপুকুর থানা অফিসার্স ইনচার্জ ফেরদৌস ওয়াহিদ জানান- কার্বন মনোক্সাইড গ্যাসে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

গাজীপুরে পর্যটন সেবার মানোন্নয়নে মতবিনিময় সভা
                                  

স্টাফ রিপোর্টার

পর্যটন সেবার মান উন্নয়নে গাজীপুর জেলার ট্যুরিস্ট পুলিশ কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সাথে ট্যুরিস্ট পুলিশের পরিচিতি ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার বেলা ১১টার দিকে গাজীপুর জোন ট্যুরিস্ট পুলিশ কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির আয়োজনে গাজীপুর সদর উপজেলার ভাওয়ালগড় ইউনিয়নের বাঘেরবাজার পুষ্পদাম রিসোর্টে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় পর্যটন সেক্টরে নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এবং সেবার মান বৃদ্ধিকরণ সহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে উন্মুক্ত আলোচনা হয়। এসময় গাজীপুর জেলার পর্যটন শিল্পের সঙ্গে জড়িত সংশ্লিষ্ট ও গাজীপুর জেলার ট্যুরিস্ট পুলিশ কমিউনিটি পুলিশিং এর নতুন কমিটির সদস্যরা অংশ নেয়।

শ্রীপুরের ১নং মাওনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম খোকনের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ট্যুরিস্ট পুলিশে ঢাকা রিজিয়নের পুলিশ সুপার নাইমুল হক (পিপিএম)।

ট্যুরিস্ট পুলিশ সুপার (ট্রেনিং অ্যান্ড ওরিয়েন্টেশন) ইয়াছমিন খাতুনের সঞ্চালনায় আরো উপস্থিত ছিলেন, পিরুজালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন, কালীগঞ্জ মুক্তারপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এসএম আলমগীর হোসেন ও গাজীপুর জোন ট্যুরিস্ট পুলিশের অফিসার ইনচার্জ আলমগীর হোসেনসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

পর্যটন নিরাপত্তা ও সেবার মান উন্নয়ন বাড়াতে অনুষ্ঠানে গাজীপুর জোন ট্যুরিস্ট পুলিশ কমিউনিটি পুলিশিং এর নতুন কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিতে গাজীপুরের শ্রীপুর মাওনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম খোকন কে সভাপতি ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ফেডারেশনের সাংগঠনিক সম্পাদক ও গাজীপুর জেলার সড়ক পরিবহণ শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি সুলতান আহমেদ সরকার সাধারণ সম্পাদক করে ৩৫ বিশিষ্ট কমিটি গঠন করে নাম প্রকাশ করা হয়।

বার্ষিক ছুটির টাকার দাবিতে শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ, শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে ওসিসহ আহত ৫
                                  

স্টাফ রিপোর্টার

গাজীপুরের শ্রীপুরে বার্ষিক ছুটির টাকার দাবিতে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে শ্রমিকরা। তাতে সড়কের দুপাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে তাঁদের বাধা দেয়। এ সময় শ্রমিকরা উত্তেজিত হলে পুলিশের রাবার বুলেটে আহত হন বেশ কয়েকজন শ্রমিক। অন্যদিকে শ্রমিকদের ছোড়া ইটপাটকেলের আঘাতে দু’জন পুলিশ আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলার তেলিহাটি ইউনিয়নের মুলাইদ গ্রামের আনোয়ারা নিট কম্পোজিট কারখানায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন গাজীপুর শিল্প পুলিশের পরিদর্শক আ স ম আব্দুর নূর (৫৫) ও কনস্টেবল মো. ইনসান মিয়া (৩২)। আহত শ্রমিকেরা হলেন জামেলা খাতুন (২৮), লিপি আক্তার (৩৪), লিজা আক্তার (২৮) ও সুমি আক্তার (২৩)।

কারখানার সুইং সেকশনের শ্রমিক আব্দুর রাহিম বলেন, আমাদের বার্ষিক ছুটি দেওয়া হয় না, এর টাকাও দেওয়া হয় না। সেই টাকার দাবিতে আজ বেলা ১১টা থেকে আমরা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করি। কিছুক্ষণ পর পুলিশ এসে লাঠিপেটা করে টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করে। এরপর পুলিশ সমানে রাবার বুলেট ছোড়ে। তাতে আমাদের কারখানার ছয়জন শ্রমিক গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তাঁদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

কারখানার সুইং সেকশনের শ্রমিক আসমা আক্তার বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এই কারখানা আমাদের ছুটির বার্ষিক টাকা দেই-দিচ্ছি করছে। কিন্তু আমাদের সংসার চালাতে রীতিমতো হিমশিম খেতে হচ্ছে। সবারই দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। ন্যায্য পাওনার জন্য আমাদের আন্দোলন করতে হলো। আর আন্দোলন করতে গিয়ে আমাদের ভাইবোনদের গুলিবিদ্ধ হতে হলো।

কারখানার কাটিং সেকশনের শ্রমিক আনিসুল হক বলেন, আমাদের কেন রাস্তায় নামতে হলো, আপনি শ্রমিক হলে এটা সহজে বোঝাতে পারতেন। আমরা শ্রমিকেরা আজ খুবই অসহায়। সামান্য বেতনে চাকরি করি। তার পরও আন্দোলন করে পাওনা আদায় করতে হয়। পুলিশ এসে লাঠিপেটা করে, মারধর করে, টিয়ার গ্যাস মেরে আমাদের আহত করে। আমাদের শরীরের রক্ত ঝরিয়ে ন্যায্য পাওনা আদায় করতে হয়।

কারখানার শ্রমিক শিল্পী আক্তার বলেন, পুলিশের গুলিতে আমাদের দুজন শ্রমিক আহত হয়েছেন। এর মধ্যে জামেলা খাতুনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। কয়েকজনকে স্থানীয় ক্লিনিকে পাঠানো হয়েছে।

আনোয়ার নিট কম্পোজিট কারখানার মানবসম্পদ বিভাগের কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান সায়িম বলেন, কারখানার শ্রমিকেরা সকালে কর্মস্থলে এসে দাবি করেন তাঁদের ছুটির বার্ষিক টাকা দিতে হবে। হঠাৎ এত টাকা দেওয়া সম্ভব নয়। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে চলতি মাসে বার্ষিক টাকা দেওয়ার কথা জানালে শ্রমিকেরা রাস্তা অবরোধ করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে গাজীপুর শিল্প পুলিশ সুপার সারোয়ার আলম বলেন, আনোয়ারা নিট কম্পোজিট মিলের আন্দোলনরত শ্রমিকদের বুঝিয়ে মহাসড়ক থেকে সরিয়ে নিতে চেয়েছিল পুলিশ। শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় একটি পক্ষ পুলিশকে লক্ষ্য করা ইট ছোড়ে। তাতে শিল্প পুলিশের ইন্সপেক্টর আ স ম আব্দুর নুরের মাথা ফেটে গেছে। আরেকজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

আমের ভিতর ফেন্সিডিল, দুই কারবারি গ্রেপ্তার
                                  

আশুলিয়া (সাভার) প্রতিনিধি:

আশুলিয়ায় অভিযান চালিয়ে ফেনসিডিলসহ দুই মাদক কারবারিকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল। এ সময় তার হেফাজত থেকে ২৪৭ বোতল ফেনসিডিলসহ উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) সকাল ১১টার দিকে প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেন র‌্যাব-৪, সিপিসি-২ এর কোম্পানি কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কমান্ডার রাকিব মাহমুদ খান।

এর আগে সোমবার আশুলিয়া থানাধীন এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত কারবারি হলো- কুষ্টিয়া জেলার বাসিন্দা মোঃ শাহাব উদ্দিন সরদার (৬৫) ও তপন সরদার (২৭)।

র‌্যাব জানায়, সোমবার (০১ জুলাই) বিকালে র‌্যাব সদর দপ্তর গোয়েন্দা শাখার সহযোগিতায় র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল ঢাকা জেলার আশুলিয়া থানাধীন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ২৪৭ বোতল ফেনসিডিলসহ নিম্নোক্ত ০২ জন মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

র‌্যাব আরও জানায়, গ্রেফতারকৃত আসামী বেশ কিছুদিন যাবৎ লোক চক্ষুর আড়ালে দেশের বিভিন্ন স্থান হতে অবৈধ মাদকদ্রব্য ফেন্সিডিল সংগ্রহ করে ঢাকা জেলার সাভার, ধামরাই, আশুলিয়াসহ নিকটবর্তী বিভিন্ন এলাকার ডিলার ও খুচরা মাদক বিক্রেতাদের নিকট বিক্রয় করে আসছিলো।

র‌্যাব-৪, সিপিসি-২ এর কোম্পানি কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কমান্ডার রাকিব মাহমুদ খান জানান, এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

সিঙ্গাপুর থেকে স্কুলে হাজিরা দেন সেই ক্ষমতাধর শিক্ষিকা
                                  

মো. সাজ্জাদ হোসেন, মুরাদনগর

সিঙ্গাপুরে অবস্থান করে বিদ্যালয়ের হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে তাসলিমা আক্তার নামে এক ক্ষমতাধর সহকারী শিক্ষিকার বিরুদ্ধে। শুধু স্বাক্ষর করেই থেমে থাকেননি তিনি। বিদেশে থেকেও স্কুলে উপস্থিত দেখিয়ে বেতন উত্তোলন করে ভোগ করেছেন। তার অনুপস্থিতিকে হাজির দেখিয়ে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে সুপারিশও করেছেন খোদ সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা এবং বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

বিষয়টি সন্দেহজনক মনে হওয়ায় এর সঠিক ব্যাখ্যা চেয়ে ৩কার্য দিবসের মধ্যে লিখিত জবাব দাখিল করতে ওই শিক্ষিকাকে নোটিশ প্রদান করেন উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা। নোটিসের সময় পার হয়ে সেই শিক্ষা কর্মকর্তা বদলী হয়ে গেলেও এখনো জবাব দেননি ক্ষমতাধর ওই শিক্ষিকা। চাঞ্চল্যকর এমন ঘটনাটি ঘটেছে কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানাধীন বলীঘর পূর্ব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। শিক্ষিকা তাসলিমা আক্তার ওই বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত।

জানা যায়, বলীঘর পূর্ব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক তাসলিমা আক্তার উপজেলা শিক্ষা অফিস থেকে গত বছরের ৩ আগস্ট থেকে ১৭ আগস্ট পর্যন্ত ১৫ দিনের ছুটি নিয়ে সিঙ্গপুরে অবস্থানরত স্বামীর কাছে যান। ছুটি শেষে ১৮ আগস্ট তিনি কর্মস্থলে যোগদান করার কথা থাকলেও তিনি দেশে ফিরেন ৩ সেপ্টেম্বর। অর্থাৎ তিনি ১৫দিনের ছুটি নিয়ে একমাস পর দেশে ফিরে বিদ্যালয়ের হাজিরা খাতায় ১৫দিনের ছুটি বাদে বাকি ১৫দিনের হাজিরায় স্বাক্ষর করে বেতন উত্তোলনের মাধ্যমে ভোগ করেন। তিনি বিদ্যালয়ে যোগদান করার জন্য ৫ সেপ্টম্বরে পূর্ববর্তী আগস্ট মাসের ২০তারিখে (পেছনের তারিখে) বিদ্যালয়ে যোগদানের জন্য শিক্ষা অফিসে আবেদন জমা দেন। পেছনের তারিখে দেয়া এই আবেদনে সুপারিশ করেন সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ হায়াতুন্নবী ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আম্বিয়া খাতুন। জালিয়াতির মাধ্যমে করা এই আবেদনে সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা সুপারিশ করা নিয়ে এখন প্রশ্ন উঠেছে।

তাসলিমা আক্তারের ছুটি ও যোগদানপত্র নিয়ে অনিয়ম পরিলক্ষিত হওয়ার তৎকালীন শিক্ষা কর্মকর্তা মোতাহের বিল্লাহ তাকে বিস্তারিত ব্যাখ্যা চেয়ে ৩ কার্যদিবস সময় দিয়ে শোকজ করলেও ওই শিক্ষিকা সেই নোটিশের কোন তোয়াক্কাই করেনি। একজন শিক্ষিকার এমন জালিয়াতিতে এখনো কোন প্রকার ব্যবস্থা না নেওয়ায় শিক্ষা অফিসের ভূমিকা নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠেছে। সাধারণ মানুষ জানতে চাচ্ছে- কে বেশি ক্ষমতাধর, ওই শিক্ষিকা নাকি প্রশাসন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষিকা তাসলিমা আক্তারের কাছে জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে প্রতিবেদকের সাথে সরাসরি দেখা করে কথা বলবেন বলেন জানান।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আম্বিয়া খাতুন, সহকারী শিক্ষিকা তাসলিমা আক্তারের সিঙ্গাপুরে ১৫দিনের স্থলে ১ এক মাস অবস্থান করা এবং বিদ্যালয়ে উপস্থিত না থেকে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করার বিষয়টি স্বীকার করেন। নিজের অসহায়ত্ব প্রকাশ করে তিনি বাধ্য হয়ে সুযোগ দিয়েছেন বলে জানান।

সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ হায়াতুন্নবী বলেন, এই অনিয়মের বিষয়ে আমি অবগত নই। আমি যে তারিখে আবেদনপত্র পেয়েছি সেই তারিখেই সুপারিশ করেছি।
উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুর রাজ্জাক বলেন, এ বিষয়ে পূর্বের শিক্ষা কর্মকর্তা তাকে শোকজ করেছে। আমি ২/১ দিনের মধ্যে তাকে শোকজ করবো। ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কুমিল্লা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সফিউল আলম বলেন, ঘটনাটি আমার জানা নেই। উপজেলা থেকে রির্পোট পাঠালে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তারপরও বিষয়টি খতিয়ে দেখবো।

 

কালিহাতীর সাব-রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে ব্যাপক ঘুষ-দুর্নীতির অভিযোগ
                                  

কালিহাতী প্রতিনিধি :

টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রার মো. খায়রুল বাশার ভূঁইয়া পাভেলের বিরুদ্ধে ব্যাপক ঘুষ-দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার দুপুরে মো. খায়রুল বাশার ভূঁইয়া পাভেলের প্রত্যাহারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে উপজেলা দলিল লেখক কল্যাণ সমিতি।

এসময় সাব-রেজিস্ট্রার মো. খায়রুল বাশার ভূঁইয়া পাভেলের পক্ষে কর্মচারী আরতি রানীর ১২ লাখ টাকার দুর্নীতির বিরুদ্ধে স্বপক্ষে বক্তব্য নিতে গেলে সাব রেজিস্ট্রার খায়রুল বাশার ভূঁইয়া পাভেল দরজা বন্ধ করে দিতে বলেন। এর প্রতিবাদে সাংবাদিকরা তার এজলাসের সামনে অবস্থান করেন। এ ঘটনায় কালিহাতীতে কর্মরত সকল সাংবাদিক কালিহাতী প্রেসক্লাব ও কালিহাতী রিপোর্টার্স ইউনিটির সদস্যরা একাত্মতা ঘোষণা করে অবস্থান নেন।

সাংবাদিকরা জানান, সাব রেজিস্ট্রার অফিসের কর্মচারী আরতি রানীর বিরুদ্ধে অভিযোগের বিষয়ে তার স্বপক্ষে বক্তব্য নেয়ার জন্য গেলে সাব রেজিস্টার খাইরুল বাশার ভূইয়া পাভেল উত্তেজিত হয়ে বলেন, আপনারা এখানে প্রবেশ করেছেন কেন? মন্ত্রণালয়ের লিখিত অনুমতি নিয়ে আপনারা এখানে প্রবেশ করবেন। এক পর্যায়ে সাব রেজিস্ট্রার জানান, আপনার দ্বারা দলিল চুরি হতে পারে। এছাড়াও রাষ্ট্রের ক্ষতি সাধন হতে পারে বলে তিনি হুমকি দেন। এক পর্যায়ে কর্মচারীদের গেইট বন্ধ করার নির্দেশ দেন। পরে তার নির্দেশ মোতাবেক কর্মচারীরা গেইট বন্ধ করে দেয়। পরবর্তীতে সাংবাদিকরা অবরুদ্ধ হন। কিছুক্ষণ পরে গেইট খুলে দেন।

পরে বিকেলে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সভাপতি জাফর আহমেদের পরামর্শক্রমে কালিহাতী প্রেসক্লাবের সভাপতি রঞ্জন কৃষ্ণ পন্ডিত ও টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের কার্যকরী সদস্য মামুনুর রহমান মিয়া মঙ্গলবার সাংবাদিকরা কর্মসূচি সমাপ্ত ঘোষণা করেন। পরবর্তীতে প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা করে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে জানান।

এর আগে দুপুর ১২ টায় নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন কালিহাতী দলিল লেখক কল্যাণ সমিতি।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন দলিল লেখক কল্যাণ সমিতির সভাপতি মো. নুরুল ইসলাম সরকার। আরও বক্তব্য রাখেন, সাবেক সভাপতি ইমান আলী, সহ-সভাপতি শাজাহান মিয়া, সাধারণ সম্পাদক মাসুম সরকার, দলিল লেখক রাম প্রসাদ বসু ও আব্দুল করিম প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, কালিহাতী উপজেলা সাব-রেজিস্টার মো. খায়রুল বাশার ভূঁইয়া পাভেল কালিহাতী উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রার হিসেবে যোগদানের পর থেকে দাতা-গ্রহীতাদের প্রতিটি দলিল রেজিস্ট্রিতে সরকারি উৎসে করের সমপরিমাণ অর্থ দাবি করছে। ওই পরিমাণ অর্থ না দিলে তিনি কোন দলিল রেজিস্ট্রি করেন না। এজন্য উপজেলায় বিভিন্ন প্রকার দলিল রেজিস্ট্রির হার অর্ধেকে নেমে এসেছে। এছাড়া তিনি দলিল লেখক এবং দাতা গ্রহীতাদের সঙ্গে চরম দুর্ব্যবহার করেন। তার আচরণে ভদ্রতা-সভ্যতার লেশমাত্র নেই। তিনি প্রকাশ্যে দলিল প্রতি অর্থ দাবি করেন। অন্যথায় দলিল সম্পাদন বন্ধ রাখেন।

বগুড়া জেলা কারাগার থেকে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ৪ আসামির পলায়ন, অতপর...
                                  

জেলা প্রতিনিধি, বগুড়া:

কারাগারের ছাদ ফুটো করে দেয়াল টপকে পালিয়েছেন মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ৪ আসামী। ঘটনাটি ঘটেছে বগুড়া জেলা কারাগারে। মঙ্গলবার গভীর রাতে পালানোর পর বুধবার সকালে কারাগারের আশপাশের এলাকা থেকে তাদের আবারো আটক করা হয়।

বগুড়া জেলা কারাগারের জেলার মোহাম্মদ ফরিদুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, চারজনই ফাঁসির আসামি। তারা পালিয়েছিলেন। আমার কারাগারের পাশেই তাদের পেয়েছি।

আজ সকাল ৮টা পর্যন্ত মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত চার আসামির নাম জানা যায়নি। তবে তাদের গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

গাজীপুরে ৬ কোটি টাকা মূল্যের বনভূমি উদ্ধার
                                  

রোকুনুজ্জামান খান, স্টাফ রিপোর্টার

গাজীপুর সদর উপজেলায় প্রভাবশালীদের কাছে দখলে থাকা প্রায় ৬ কোটি টাকা মূল্যের বনের জমি উদ্ধার করে সামাজিক বনায়ন করেছে বন বিভাগ।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) দিনব্যাপি সদর উপজেলার ভাওয়ালগড় ইউনিয়নের লনজানী এলাকায় উদ্ধার হওয়া প্রায় ২ একর বনের জমিতে বিভিন্ন চারা গাছ রোপণ করা হয়।

বনবিভাগ সূত্রে জানা যায়, ঢাকা বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের গাজীপুরের ভাওয়াল রেঞ্জ এর অধীনে ভবানীপুর বিটের সিএস ৭১৩ নং দাগে প্রায় দুই একর বনভূমি দখল করে রাখে স্থানীয় কিছু প্রভাবশালীরা। খবর পেয়ে ভাওয়াল রেঞ্জ কর্মকর্তা মাসুদ রানার নেতৃত্বে অভিযান চালায় ভবানীপুর বিট কর্মকর্তা মিজানুর রহমান সহ বন প্রহরীরা। উদ্ধার হওয়া বনের জমিতে সামাজিক বনায়নের বিভিন্ন চারা রোপণ করা হয়।

ঢাকা বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের গাজীপুরের ভাওয়াল রেঞ্জ কর্মকর্তা মাসুদ রানা বলেন, বেদখল হওয়া বনের জমিগুলো পর্যায়ক্রমে উদ্ধার করে সামাজিক বনায়ন করা হচ্ছে। বনের যে সমস্ত জমি খালি পড়ে আছে বা বেদখল হয়ে গেছে সেগুলো পর্যায় ক্রমে উদ্ধার করে বনায়ন করা হবে। এবং এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সাপের দ ং শ নে হাসপাতালে যুবক
                                  

হালিমা খানম, স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাছ ধরতে গিয়ে বিষাক্ত সাপের দংশনে হেলাল মিয়া (৩৫) নামের এক যুবক গুরুতর আহত হয়েছে। সোমবার (২৪ জুন) সন্ধ্যায় জেলার আশুগঞ্জ উপজেলার লালপুর গ্রামে একটি বিলের জমিতে এ ঘটনা ঘটে।

আহত হেলাল ওই গ্রামের সাত্তার মিয়ার ছেলে। বর্তমানে সে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের মেডিসিন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

আহতের স্বজনরা জানান, বিকেলে হেলাল মাছ ধরতে বাড়ির পাশে একটি বিলের জমিতে যায়। এ সময় একটি বিষাক্ত সাপ তার পা কামড়ে ধরে। পরে সে সাপটিকে ছাড়িয়ে বাড়িতে চলে যায়। কিছুক্ষণ পর সে অসুস্থ হয়ে পড়লে ঘরের লোকজন তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসে।

২৫০ শয্যা বিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডাক্তার আবিদ হাসান জানান, বিষাক্ত সাপে কাটা রোগীকে হাসাপাতালে আনার পর তার শরীরে অ্যান্টিভেনম পুশ করা হয়। এতে তার শারীরিক অবস্থা উন্নতির দিকে আছে। বর্তমানে সে শঙ্কামুক্ত।

আমের ক্যারেটে ফেনসিডিলের চালান, মাদক কারবারি আটক
                                  

আশুলিয়া (সাভার) প্রতিনিধি:

আশুলিয়ায় অভিযান চালিয়ে প্রায় সাড়ে ১৩ লাখ টাকার ফেনসিডিলসহ মোঃ শান্ত আহমেদ (২৩) নামের এক মাদক কারবারিকে আটক করেছে র‌্যাব-৪ একটি আভিযানিক দল। গ্রেপ্তার মোঃ শান্ত আহমেদ (২৩) কুষ্টিয়া জেলার বাসিন্দা বলে জানা যায়।

রবিবার (২৩ জুন) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন সিপিসি-২, র‌্যাব-৪ এর কোম্পানি কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কমান্ডার রাকিব মাহমুদ খান।

এর আগে শনিবার দুপুরে আশুলিয়ার বাইপাইল এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

র‌্যাব জানায়, শনিবার দুপুরে র‌্যাব সদরদপ্তর গোয়েন্দা শাখার সহযোগিতায় র‌্যাব-৪ ও র‌্যাব-১২ যৌথভাবে আশুলিয়ার বাইপাইল এলাকায় আভিযান পরিচালনা করে। এসময় আমের ক্যারেটে লুকিয়ে আনা ৩৯২ বোতল ফেনসিডিলসহ শান্ত নামের এক মাদক কারবারিকে আটক করা হয়। উদ্ধার করা ফেনসিডিলের আনুমানিক বাজার মূল্য প্রায় ১৩ লাখ ৭২ হাজার।

সিপিসি-২, র‌্যাব-৪ এর কোম্পানি কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কমান্ডার রাকিব মাহমুদ খান জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শান্ত জানায় যে, সে ঢাকার সাভার, আশুলিয়া ও ধামরাইসহ নিকটবর্তী বিভিন্ন এলাকার ডিলার ও খুচরা মাদক বিক্রেতাদের নিকট ফেনসিডিল বিক্রয় করে আসছিলো।

এ ব্যাপারে পরবর্তী প্রয়োজনীয় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান তিনি।

কুষ্টিয়ায় সাংবাদিক হাসিবুর রহমান রিজুর ওপর সন্ত্রাসী হামলা
                                  

আকরামুজ্জামান আরিফ, কুষ্টিয়া:

এশিয়ান টেলিভিশন এর স্টাফ রিপোর্টার ও দৈনিক সত্যখবর পত্রিকার সম্পাদক হাসিবুর রহমান রিজুর ওপর বর্বোরচিত সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। এ সময় তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেল ভাঙচুর করেছে হামলাকারী সন্ত্রাসীরা।

বুধবার(১৯ জুন) বিকেল ৫টার দিকে কুষ্টিয়ার সদর উপজেলার হরিপুর বাজার এলাকায় তার ওপর এ হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা।

হাসিবুর রহমান রিজু এশিয়ান টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার, সম্পাদক- স্থানীয় দৈনিক সত্যের খবর, সাধারণ সম্পাদক টিভি জার্নালিস্ট কুষ্টিয়া ও ভারত-বাংলাদেশ যুব মৈত্রী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি। এছাড়া তিনি এলাকায় নানা সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জড়িত। তিনি স্থানীয় মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের নির্বাচনের সভাপতি পদে লড়তে চেয়েছিলেন।

স্থানীয় সন্ত্রাসী শিপন, মুরাদ ও রাজনের নেতৃত্বে কয়েকজন দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে হাসিবুর রহমান রিজুর শরীরের বিভিন্ন অংশে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে পালিয়ে যায়। সেখানে গুরুতর আহত অবস্থায় রিজু প্রায় ৩০ মিনিট পড়েছিলেন। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পত্রিকা ও টেলিভিশনে খবর প্রকাশের জেরেই তার ওপর এ হামলা করা হয়েছে বলে জানা যায়।

সন্ত্রাসীদের হাতুড়িপেটায় রিজুর দুই পা ভেঙে গেছে। বাম হাতের কবজি ভেঙ্গে যাওয়াসহ একটি গুরুত্বপূর্ণ শিরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়া তার দুই হাতের আঙ্গুল বুক এবং মাথায় গুরুতর জখমের চিহ্ন পেয়েছে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসকরা। হাসিবুর রহমান রিজুকে রাতেই উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

আহত সাংবাদিক হাসিবুর রহমান রিজু জানান, সন্ত্রাসী শিপন, মুরাদ ও রাজনের নেতৃত্বে কয়েজজন সন্ত্রাসী হরিপুর এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে মাদক ও অস্ত্র ব্যবসা করে আসছিল। এই নিয়ে খবর প্রকাশের জেরেই আমার ওপর এ হামলা করা হয়েছে। এসময় আমার ব্যবহৃত মোটরসাইকেল ভাঙচুর করেছে হামলাকারী সন্ত্রাসীরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক ব্যক্তি যানান, শিপন পরিবারের সাথে হাসিবুর রহমান রিজুর দীর্ঘদিন ধরে বিরত চলছিলো। সেই বিরোধ থেকে তাকে হামলা করা হতে পারে।
এদিকে সাংবাদিকের ওপর বর্বরোচিত হামলার নিন্দা জানিয়েছে বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠন। অবিলম্বে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান তারা। এঘটনায় গত কাল রাত ৮টার দিকে জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও থানায় অবস্থান কর্মসূচি পালন করে জেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা। এসময় অবস্থান কর্মসূচিতে অংশ নেয় কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আল মামুন সাগর, সাধারণ সম্পাদক আবু মনি জুবায়েদ রিপন ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনিসুজ্জামান ডাবলু প্রমুখ।

এসময় হাসিবুর রহমান রিজুর ওপর সন্ত্রাসী হামলায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবিতে পুলিশকে ৩৬ঘন্টা আলটিমেটাম দিয়েছেন সাংবাদিক নেতারা। পরে থানা চত্বরে এসে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস ও মিডিয়া) পলাশ কান্তি নাথ সাংবাদিক হাসিবুর রহমান রিজুর ওপর হামলায় জড়িতদের গ্রেফতারে আশ্বাস দিলে অবস্থান কর্মসূচি প্রত্যাহার করেন সাংবাদিক নেতারা।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানার (ওসি) শেখ সোহেল রানা বলেন, বিষয়টি দুঃখজনক। এ হামলায় জড়িতদের গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

ঈদের সকালে বাড়ি ফেরার পথে লা শ হলেন দুই ভাই
                                  

হালিমা খানম, স্টাফ রিপোর্টার:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মহাসড়কে ছিটকে পড়ে আপন দুই ভাই নি হ ত হয়েছেন।

সোমবার (১৭ জুন) সকালে উপজেলার সোহাগপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- জেলার বিজয়নগর উপজেলার মেরাসানী গ্রামের ওবায়দুর রহমান খানের ছেলে রবিউল খান (৫০) ও তার ভাই হুমায়ুন খান (৪৫)।

এ ঘটনায় মনিরুল ইসলাম নামে আরও একজন আহত হয়েছেন। তাকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও হতাহতদের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, রবিউল খান ও হুমায়ুন খান ঢাকায় জুতার ব্যবসা করেন। ঈদের ছুটিতে সোমবার তিনজন মিলে মোটরসাইকেলে করে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে সোহাগপুর বাস স্ট্যান্ড এলাকায় তাদের মোটরসাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে ছিটকে পড়ে। এতে তিনজনই গুরুতর আহত। পরে তাদেরকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দু’জনকে মৃত ঘোষণা করেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানার ওসি আশীষ কুমার বলেন, নিহতদের মরদেহ সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা আছে। এ ঘটনায় প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সৌদি আরবে সড়কে প্রাণ হারালেন ৩ বাংলাদেশি
                                  

স্বাধীন বাংলা প্রতিবেদন:

চাঁদপুরের হাইমচরের সৌদি আরব প্রবাসী ৩ যুবক মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন।। বৃহস্পতিবার দুপুরে দেশটির আল আলিফ শহরে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- উপজেলার ৩নং দক্ষিণ আলগী ইউনিয়নের চরভাঙ্গা গ্রামের ইসমাইল ছৈয়ালের ছোট ছেলে সাব্বির, একই ইউনিয়নের বর্ডারফুল এলাকার জামাল চৌকিদাদের ছেলে সবুজ চৌকিদার ও ২নং আলগী দূর্গাপুর উত্তর ইউনিয়নের কমলাপুর গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে রিফাত।

শুক্রবার সকাল ১০টার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন ২নং আলগী দূর্গাপুর উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান পাটোয়ারী।

তিনি বলেন, তারা তিনজন সৌদি আরবের আল আফিফ শহরে কর্মরত ছিলেন। সেখানেই সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন মারা যান। তাদের লাশ দেশে আনার জন্য যোগাযোগ করা হচ্ছে।


   Page 1 of 529
     গ্রাম বাংলা
নোয়াখালীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ইলেকট্রিক মিস্ত্রি নি হ ত
.............................................................................................
ডায়রিতে লেখা ‘আমরা দুইজন ইচ্ছায় মরছি এইখানে কারো দোষ নাই’, কিন্তু...
.............................................................................................
পাবনায় আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে হত্যা মামলা, প্রতিবাদে বিক্ষোভ-মানববন্ধন
.............................................................................................
লাউয়ের পাতা তুলতে গিয়ে লা শ হয়ে ফিরলেন ৩ জন
.............................................................................................
গাজীপুরে পর্যটন সেবার মানোন্নয়নে মতবিনিময় সভা
.............................................................................................
বার্ষিক ছুটির টাকার দাবিতে শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ, শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে ওসিসহ আহত ৫
.............................................................................................
আমের ভিতর ফেন্সিডিল, দুই কারবারি গ্রেপ্তার
.............................................................................................
সিঙ্গাপুর থেকে স্কুলে হাজিরা দেন সেই ক্ষমতাধর শিক্ষিকা
.............................................................................................
কালিহাতীর সাব-রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে ব্যাপক ঘুষ-দুর্নীতির অভিযোগ
.............................................................................................
বগুড়া জেলা কারাগার থেকে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ৪ আসামির পলায়ন, অতপর...
.............................................................................................
গাজীপুরে ৬ কোটি টাকা মূল্যের বনভূমি উদ্ধার
.............................................................................................
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সাপের দ ং শ নে হাসপাতালে যুবক
.............................................................................................
আমের ক্যারেটে ফেনসিডিলের চালান, মাদক কারবারি আটক
.............................................................................................
কুষ্টিয়ায় সাংবাদিক হাসিবুর রহমান রিজুর ওপর সন্ত্রাসী হামলা
.............................................................................................
ঈদের সকালে বাড়ি ফেরার পথে লা শ হলেন দুই ভাই
.............................................................................................
সৌদি আরবে সড়কে প্রাণ হারালেন ৩ বাংলাদেশি
.............................................................................................
গাজীপুরে সড়ক নির্মাণে নিম্নমানের ইট, বালু, খোয়া
.............................................................................................
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বজ্রপাতে প্রাণ হারালেন ২ জন
.............................................................................................
মির্জাগঞ্জে নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতায় ২৫ জন আহত, গ্রেপ্তার ৪
.............................................................................................
ভৈরব চেম্বার অব কমার্সের নির্বাচন অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
কাঠালিয়ায় আবারো উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরের বিজয়
.............................................................................................
গাজীপুরে দুই কোটি টাকার বনভূমি উদ্ধার করে চারা রোপন
.............................................................................................
আবারো বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নি হত
.............................................................................................
শিল্প-কারখানার নামে বনের জমি দখল, উদ্ধারে পদক্ষেপ নেই বন বিভাগের
.............................................................................................
চোখের সামনে ভেসে গেল ২ হাজার গবাদিপশু ও ১০ দোকান
.............................................................................................
সাভারে সাংবাদিকের ওপর হামলার ঘটনায় গ্রেপ্তার ২
.............................................................................................
ক্যান্সার আক্রান্ত স্ত্রীকে বাঁচাতে রাস্তায় ভিক্ষা করছেন স্বামী বেল্লাল মুন্সী
.............................................................................................
উপজেলা নির্বাচন: কসবায় ছাইদুর, আখাউড়ায় মনির চেয়ারম্যান নির্বাচিত
.............................................................................................
এমাদুল হক মনিরের গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণ
.............................................................................................
আশুলিয়ায় একদিনে স্বামী-স্ত্রীসহ ৪ জনের ম র দে হ উদ্ধার
.............................................................................................
কাঁঠাল নিয়ে ঝগড়া, ভাতিজার হাতে চাচা খু ন
.............................................................................................
আশুলিয়ায় ২৪ ঘন্টায় ৬ জনের মরদেহ উদ্ধার
.............................................................................................
উপজেলা নির্বাচনে ষড়যন্ত্রের তুললেন মনির
.............................................................................................
ছাত্রলীগ নেতার হাতুড়িপেটায় জমজ ২ বোন হাসপাতালে
.............................................................................................
বজ্রপাতে প্রাণ হারালেন ২ ভাই
.............................................................................................
কুমিল্লায় সড়কে প্রাণ হারালেন ৫ জন
.............................................................................................
একসঙ্গে মা-মেয়ের এসএসসি পাস, ফলাফলে এগিয়ে মা
.............................................................................................
পুলিশের জালে আশুলিয়ার আলোচিত মাদক সম্রাজ্ঞী পারভীন
.............................................................................................
সাংবাদিককে হুমকির ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন
.............................................................................................
উপজেলা নির্বাচন: কাঠালিয়ায় এগিয়ে আছেন এমাদুল হক মনির
.............................................................................................
টাঙ্গাইলে এসডিএস এর জমির মালিকানা দ্বন্দ্ব নিরসনে তদন্তে সরকারি কর্মকর্তারা
.............................................................................................
২২ লক্ষাধিক টাকাসহ উপজেলা চেয়ারম্যান আটক
.............................................................................................
অবৈধ লেগুনা চাঁদা দিলেই ফিটফাট-দাপিয়ে বেড়ায়, না দিলে ঘুরে না চাকা
.............................................................................................
রিকশাচালককে মারধরের অভিযোগ ট্রাফিক পুলিশের বিরুদ্ধে
.............................................................................................
নাগরপুরে রাজিবের হত্যাকারীদের শাস্তির দাবি
.............................................................................................
বজ্রপাতে ঘরে আগুন, মা-ছেলেসহ নি হ ত ৩ জন
.............................................................................................
কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় প্রাইভেটকার খাদে, একই পরিবারের ৩ জন নি হ ত
.............................................................................................
হেরোইনসহ ২ মাদক কারবারী পুলিশের কাছে আটক
.............................................................................................
সখীপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মেম্বারদের অনাস্থা
.............................................................................................
জাল টাকা তৈরির সরঞ্জামসহ গ্রেফতার ৩
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT