মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯ | বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
দুদক চেয়ারম্যানের পদত্যাগ করা উচিৎ: তাপস

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট: আদালতের নির্দেশ সত্ত্বেও বেসিক ব্যাংক কেলেঙ্কারির ঘটনায় ব্যাংকটির সাবেক চেয়ারম্যান শেখ আবদুল হাই বাচ্চুর বিরুদ্ধে মামলা করেনি দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তাই বাচ্চুর বিরুদ্ধে মামলা না করার দায়ে সংস্থাটির চেয়ারম্যানের পদত্যাগ করা উচিত। বেসিক ব্যাংক কেলেঙ্কারির ঘটনায় মামলা না হওয়ায় দুদকের চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদের পদত্যাগ করা উচিৎ বলে মন্তব্য করেছেন সংসদ সদস্য শেখ ফজলে নূর তাপস। সোমবার সুপ্রিম কোর্টে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আওয়ামী লীগের এই সংসদ সদস্য বলেন, বেসিক ব্যাংক কেলেঙ্কারির ঘটনার মামলায় বাচ্চুকে আসামি করে চার্জশিট দিতে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের নির্দেশনা থাকলেও তা অমান্য করেছে দুদক। কী কারণে দুদক এ রকম কাজ করেছে, এটি জাতি জানতে চায়।

বাচ্চুর বিরুদ্ধে মামলা করে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা উচিত মন্তব্য করে তিনি বলেন, জাতীয় সংসদের স্থায়ী কমিটির বিভিন্ন প্রতিবেদনে ব্যাংক কেলেঙ্কারির সঙ্গে বাচ্চুর সংশ্লিষ্টতার বিষয় উঠে এসেছে।

প্রসঙ্গত বেসিক ব্যাংকে সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা জালিয়াতির ঘটনায় ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে ৫৬ টি এবং পরের বছর আরও পাঁচটি মামলা করে দুদক। এসব মামলা করার পর ৪০ মাস পেরিয়ে গেলেও এখনও অভিযোগপত্র দেয়নি সংস্থাটি। মামলায় ব্যাংকার ও ঋণগ্রহীতাদের আসামি করা হলেও ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের কাউকেই আসামি করা হয়নি।

বেসিক ব্যাংক জালিয়াতির ঘটনায় বাংলাদেশ ব্যাংক ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের তদন্ত প্রতিবেদনে ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের সাবেক চেয়ারম্যান শেখ আবদুল হাই বাচ্চুসহ পরিচালনা পর্ষদের সদস্যদের জড়িত থাকার কথা বলা হলেও মামলায় তাদের আসামি করা হয়নি।

মামলা হওয়ার পর তদন্ত পর্যায়ে উচ্চ আদালতের নির্দেশে আবদুল হাই বাচ্চুসহ পরিচালনা পর্ষদের সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করলেও অভিযোগপত্র এখনও জমা দেয়া হয়নি।

বেসিক ব্যাংকের ঘটনায় করা মামলাগুলোয় ব্যাংকের কয়েকজন কর্মকর্তা অনেক দিন ধরে কারাগারে। ঋণগ্রহীতা কেউ কেউ ব্যবসায়ী। গ্রেফতার হওয়ার পর তারা জামিনে বেরিয়ে দেশের বাইরে চলে গেছেন। কেউ কেউ গ্রেফতার এড়াতে দেশ ছেড়েছেন। যারা এই জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত বলে বাংলাদেশ ব্যাংক ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, তাদের সবাই এখন বাইরে আছেন।

দুদক চেয়ারম্যানের পদত্যাগ করা উচিৎ: তাপস
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট: আদালতের নির্দেশ সত্ত্বেও বেসিক ব্যাংক কেলেঙ্কারির ঘটনায় ব্যাংকটির সাবেক চেয়ারম্যান শেখ আবদুল হাই বাচ্চুর বিরুদ্ধে মামলা করেনি দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তাই বাচ্চুর বিরুদ্ধে মামলা না করার দায়ে সংস্থাটির চেয়ারম্যানের পদত্যাগ করা উচিত। বেসিক ব্যাংক কেলেঙ্কারির ঘটনায় মামলা না হওয়ায় দুদকের চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদের পদত্যাগ করা উচিৎ বলে মন্তব্য করেছেন সংসদ সদস্য শেখ ফজলে নূর তাপস। সোমবার সুপ্রিম কোর্টে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আওয়ামী লীগের এই সংসদ সদস্য বলেন, বেসিক ব্যাংক কেলেঙ্কারির ঘটনার মামলায় বাচ্চুকে আসামি করে চার্জশিট দিতে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের নির্দেশনা থাকলেও তা অমান্য করেছে দুদক। কী কারণে দুদক এ রকম কাজ করেছে, এটি জাতি জানতে চায়।

বাচ্চুর বিরুদ্ধে মামলা করে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা উচিত মন্তব্য করে তিনি বলেন, জাতীয় সংসদের স্থায়ী কমিটির বিভিন্ন প্রতিবেদনে ব্যাংক কেলেঙ্কারির সঙ্গে বাচ্চুর সংশ্লিষ্টতার বিষয় উঠে এসেছে।

প্রসঙ্গত বেসিক ব্যাংকে সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা জালিয়াতির ঘটনায় ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে ৫৬ টি এবং পরের বছর আরও পাঁচটি মামলা করে দুদক। এসব মামলা করার পর ৪০ মাস পেরিয়ে গেলেও এখনও অভিযোগপত্র দেয়নি সংস্থাটি। মামলায় ব্যাংকার ও ঋণগ্রহীতাদের আসামি করা হলেও ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের কাউকেই আসামি করা হয়নি।

বেসিক ব্যাংক জালিয়াতির ঘটনায় বাংলাদেশ ব্যাংক ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের তদন্ত প্রতিবেদনে ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের সাবেক চেয়ারম্যান শেখ আবদুল হাই বাচ্চুসহ পরিচালনা পর্ষদের সদস্যদের জড়িত থাকার কথা বলা হলেও মামলায় তাদের আসামি করা হয়নি।

মামলা হওয়ার পর তদন্ত পর্যায়ে উচ্চ আদালতের নির্দেশে আবদুল হাই বাচ্চুসহ পরিচালনা পর্ষদের সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করলেও অভিযোগপত্র এখনও জমা দেয়া হয়নি।

বেসিক ব্যাংকের ঘটনায় করা মামলাগুলোয় ব্যাংকের কয়েকজন কর্মকর্তা অনেক দিন ধরে কারাগারে। ঋণগ্রহীতা কেউ কেউ ব্যবসায়ী। গ্রেফতার হওয়ার পর তারা জামিনে বেরিয়ে দেশের বাইরে চলে গেছেন। কেউ কেউ গ্রেফতার এড়াতে দেশ ছেড়েছেন। যারা এই জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত বলে বাংলাদেশ ব্যাংক ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, তাদের সবাই এখন বাইরে আছেন।

গণভবনে আবরারের বাবা-মা
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট: বুয়েটে ছাত্রলীগের পিটুনিতে নিহত মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদের মা-বাবা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গণভবনে গেছেন  প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন সংবাদমাধ্যমকে এ কথা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানিয়েছেন, আজ সোমবার বিকেল ৫টার কিছু আগে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আসেন আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ ও মা রোকেয়া বেগম।

গত ৬ অক্টোবর দিবাগত মধ্যরাতে বুয়েটের সাধারণ ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আবরারকে শেরেবাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। ৭ অক্টোবর সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এই ঘটনায় নিহত আবরারের বাবা মো. বরকত উল্লাহ ১৯ জনসহ অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে অভিযুক্ত করে চকবাজার থানায় মামলা করেন।

খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী বলে বক্তব্য দেয়া সেই অধ্যক্ষ বরখাস্ত
                                  

সাতক্ষীরা সদর প্রতিনিধি: শুভেচ্ছা বক্তব্যে পরপর দুই বার ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে “বেগম খালেদা জিয়া” বলে সম্বোধন করায় সাতক্ষীরার শ্যামনগরের গুমনতলি ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য একে ফজলুল হক সোমবার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
 
এর আগে রোববার দুর্যোগ প্রশমন দিবস উপলক্ষে তার শুভেচ্ছা বক্তব্যে পরপর দুই বার ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে “বেগম খালেদা জিয়া” বলে সম্বোধন করায় তোপের মুখে পড়েন শ্যামনগর উপজেলার গুমনতলি ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মওলানা আবদুল মুহিদ। এ সময় উপস্থিত সুধি, পুলিশ ও রাজনৈতিক নেতাদের ধাওয়ার মুখে শেষ পর্যন্ত তিনি ক্ষমা চেয়ে অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করেন।
সরকার ওই মাদ্রাসায় ৩ কোটি ১৭ লাখ টাকা ব্যয়ে একটি দুর্যোগ প্রশমন ভবন তৈরি করে করে। দুর্যোগ প্রশমন দিবস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশের ৬৪ জেলায় একযোগে এসব ভবন উদ্বোধন করেন।

এ উপলক্ষে শ্যামনগর গুমনতলির এই মাদ্রাসার নতুন ভবনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সাতক্ষীরা ৪ আসনের সংসদ সদস্য এসএম জগলুল হায়দার। এতে সভাপতিত্ব করেন সাবেক সংসদ সদস্য একে ফজলুল হক। এ সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. কামরুজ্জামান, ওসি আনিসুর রহমান মোল্লাসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
 
অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন মাদ্রাসা অধ্যক্ষ মওলানা আবদুল মুহিদ। তিনি বক্তব্য দিতে উঠেই ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া’ পরপর দুইবার উচ্চারণ করে সম্বোধন করেন। মুহুর্তেই উপস্থিত সুধিবৃন্দের মধ্যে ঘোর প্রতিবাদ ওঠে। তারা মারমুখী হয়ে পড়েন। শেষ পর্যন্ত তিনি ক্ষমা চেয়ে জনগনের তোপের মুখে ভবন ছেড়ে পালিয়ে যান।
 
স্থানীয় সংসদ সদস্য এসএম জগলুল হায়দার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

‘শিবির সন্দেহে আবরারকে হত্যা’
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদকে শিবির সন্দেহে হত্যা করা হয়। প্রাথমিক তদন্তে গোয়েন্দা পুলিশ এ বিষয়ে নিশ্চিত হয়েছে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মনিরুল ইসলাম এ কথা বলেছেন।

সোমবার ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের করা এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেন, আবরার হত্যাকা-ের সঙ্গে জড়িত ১৯ আসামির মধ্যে চারজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। আসামিদের জবানবন্দিতে বলা হয়, মূলত শিবির সন্দেহেই আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আসামিদের জবানবন্দিতে হত্যার কারণ হিসেবে এমনটাই বেরিয়ে এসেছে।

তিনি বলেন, আগামী নভেম্বর মাসের শুরুর দিকেই আবরার হত্যা মামলার তদন্ত শেষ হবে। নভেম্বর মাসেই আদালতে মামলার চার্জশিট দাখিল করবে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

ঘটনার রাতে বুয়েটে পুলিশের কোনো টহল টিম ছিল কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘ঘটনার দিন রাত ৩টা পর্যন্ত বুয়েট এলাকায় পুলিশের একটি টিম টহল দেয়। কিন্তু তারা এ সময় কোনো হইচইয়ের শব্দ পাইনি।

উল্লেখ্য, ৬ অক্টোবর দিবাগত মধ্যরাতে বুয়েটের সাধারণ ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আবরারকে শেরেবাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যান। ৭ অক্টোবর সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পুলিশের ওপর হামলা : দুই জঙ্গি গ্রেপ্তার
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর গুলিস্তান ও সায়েন্স ল্যাবরেটরি মোড়ে পুলিশের ওপর বোমা হামলার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সন্দেহভাজন দুই জঙ্গিকে গ্রেপ্তার করেছে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট।  

রোববার দিবাগত রাতে রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

ডিএমপির উপ-কমিশনার (ডিসি) মাসুদুর রহমান এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, সম্প্রতি রাজধানীর গুলিস্তান ও সায়েন্সল্যাবে পুলিশের ওপর বোমা হামলার ঘটনার সংশ্লিষ্টতায় নব্য জেএমবির দুই সদস্যকে আটক করা হয়েছে।

আজ ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলন করে তাদের ব্যাপারে বিস্তারিত জানানো হবে বলে জানান মাসুদুর রহমান।

গত ৩১ আগস্ট রাতে সায়েন্স ল্যাবরেটরি মোড়ে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলামের যাত্রাপথে বোমা বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। তাতে একজন এএসআই এবং একজন কনস্টেবল আহত হন।

তার চার মাস আগে ২৯ এপ্রিল রাতে গুলিস্তানে কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের ওপর বোমা হামলার ঘটনা ঘটে। এতে ট্রাফিক কনস্টেবল নজরুল ইসলাম, লিটন চৌধুরী ও কমিউনিটি পুলিশ সদস্য মো. আশিক আহত হন।

ভিসির পদত্যাগ চায় বুয়েট শিক্ষক সমিতি
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট: ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে ব্যর্থ হয়েছেন মন্তব্য করে বুয়েটের ভিসি অধ্যাপক সাইফুল ইসলামের পদত্যাগ দাবি করেছে বুয়েট শিক্ষক সমিতি। ক্যাম্পাসের শহীদ মিনারের সামনে ৭ দফা দাবি উত্থাপন শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে সমিতির সভাপতি একেএম মাসুদ বলেন, ‘আমরা ভিসির পদত্যাগ দাবি করছি। তিনি শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছেন। আমরা আশা করি তিনি তার পদ থেকে পদত্যাগ করবেন এবং যদি তিনি পদত্যাগ না করেন তাহলে আমরা সরকারকে আহ্বান জানাবো তাকে সরিয়ে দিতে’।

তাদের অন্য দাবিগুলো হলো-আবরারের হত্যাকারীদের শাস্তি নিশ্চিত করতে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করা, আবরার হত্যা মামলার ব্যয় বুয়েট প্রশাসনের বহন করা, বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করা, হত্যাকারীদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার করা, অবৈধভাবে দখলে থাকা হলের আসন উদ্ধার করা এবং ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।

বুয়েটের ইলেকট্রিকাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে (২১) রবিবার দিবাগত মধ্য রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শের-ই-বাংলা হলের সিঁড়ি থেকে অচেতন অবস্থায় পাওয়া যায়। পরে বুয়েটের মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. মো. মাসুক এলাহি তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এর আগে আবরারকে হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে নিয়ে মারধর করেন ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। সূত্র : ইউএনবি

ভূমি সেবা প্রদান ও দুর্নীতি প্রতিরোধই হটলাইনের উদ্দেশ্য: ভূমিমন্ত্রী
                                  

স্বচ্ছ, দক্ষ, আধুনিক, জবাবদিহিতামূলক ও টেকসই ভূমি ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে ভূমির সর্বোচ্চ ব্যবহার এবং ভূমি সংক্রান্ত জনবান্ধব সেবা নিশ্চিতকরণ আমাদের লক্ষ্য। ভূমি সেবা সহজীকরণ, সেবা গ্রহীতাদের সকল জটিলতা আইনগতভাবে নিরসন এবং ভূমি সংক্রান্ত সকল ধরনের দুর্নীতি প্রতিরোধের লক্ষ্যে ভূমি সেবা হটলাইন ১৬১২২ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার ১০ অক্টোবর, ২০১৯ ঢাকার সিরডাপ আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ভূমি সেবা হটলাইন ১৬১২২ উদ্বোধনের সময় ভূমি মন্ত্রণালয়ের লক্ষ্য ও হটলাইন স্থাপনের উদ্দেশ্য সম্পর্কে বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রধান অতিথি ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী, এমপি এসব কথা বলেন। এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে ভূমি সচিব মোঃ মাক্‌ছুদুর রহমান পাটওয়ারী উপস্থিত ছিলেন।  

সাইফুজ্জামান চৌধুরী আরও বলেন, হটলাইনে কল করে সহজেই সেবা প্রার্থীগণ ভূমি বিষয়ক বিভিন্ন সমস্যার সমাধান পাবেন। এছাড়া হটলাইনের মাধ্যমে ভূমি সেবা গ্রহীতাগণ ভূমি সেবা সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্য ও পরামর্শসহ দেশে বিদ্যমান ভূমি সংক্রান্ত আইন ও বিধিবিধান সম্পর্কে জানতে পারবেন।    

ভূমিসচিব বলেন, নিয়ন্ত্রক মন্ত্রণালয়ের সাথে সাথে আমরা পর্যায়ক্রমে সেবা প্রদানকারী মন্ত্রণালয়েও পরিণত হচ্ছি। সঠিকভাবে ভূমি সেবা প্রদানই আমাদের মূলনীতি।

অনুষ্ঠানে ভূমি সেবা হটলাইন ১৬১২২ এর পুরো কার্যপ্রণালী সচিত্র উপস্থাপন করেন ভূমি মন্ত্রণালয়ের সিস্টেম এনালিস্ট ও উপসচিব মোঃ দৌলতুজ্জামান খাঁন। হটলাইন উদ্বোধনের পর ভূমিমন্ত্রী উপস্থিত সাংবাদিকবৃন্দের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর প্রদান করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ভূমি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য উম্মে ফাতেমা নাজমা বেগম, এমপি, ভূমি আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ আবদুল হান্নান, ভূমি সংস্কার বোর্ডের চেয়ারম্যান উম্মুল হাছনা, ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ তসলীমুল ইসলাম, ভূমি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ মজিবর রহমান, মোঃ সিরাজ উদ্দিন আহমেদ, আনিস মাহমুদ, মোঃ আবদুল হক, মোঃ আতাউর রহমান, ভূমি প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের পরিচালক মোঃ আব্দুল হাই।  

উল্লেখ্য, শেখ হাসিনা বিশেষ উদ্যোগ’ ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ এর আওতায় স্থাপিত ভূমি সেবা হটলাইন ১৬১২২ এর কার্যক্রম প্রতি কর্মদিবসে সকাল ৯টা হতে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলবে। হটলাইন সেবা পেতে নিয়মিত কল চার্জ প্রযোজ্য হবে। হটলাইনের মাধ্যমে জরুরী অভ্যন্তরীণ যোগাযোগ, দ্রুততম সময়ের মধ্যে অভিযোগ নিষ্পত্তি ও সেবাগ্রহীতার নিকট হতে অভিযোগ গ্রহণ করা হবে। হটলাইন ব্যবহারকারীর নাম, ঠিকানা বা পরিচয় কোনও অবস্থাতেই প্রকাশ করা হবে না। ল্যান্ড সার্ভিস হটলাইন সিস্টেমটি জাতীয় ভূমি তথ্য ও সেবা কাঠামোর (জমি) সাথে একীভূত।

ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধানে ভূমি সম্পর্কিত অভিযোগগুলো সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা সমাধান করবেন। হটলাইনে পাওয়া সমস্যার বিষয়গুলো সরাসরি ভূমি সংস্কার বোর্ডের চেয়ারম্যান, ভূমি আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান, মহাপরিচালক ভূমি জরিপ অধিদপ্তর ছাড়াও বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকদের জানানো হবে। ভূমিমন্ত্রী ও ভূমি সচিব হটলাইনে প্রাপ্ত অভিযোগের বিষয় গুলো পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন।

কলসেন্টারটি মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন থাকবে। প্রাথমিক ভাবে এখানে ৫ জন এজেন্ট/অপারেটর থাকলেও ক্রমে ৩০ জন এজেন্ট/অপারেটর নেয়া হবে। অত্যাধুনিক পূর্ণাঙ্গ এই কলসেন্টারে ৩৬ ইউনিটের সিসিটিভি সিস্টেম, ডিজিটাল এলআইডি ইন্টারেকটিভ মনিটর সহ আনুষঙ্গিক অনেক আধুনিক যন্ত্রপাতি থাকবে বলে। হটলাইন কার্যক্রম সুষ্ঠু ভাবে সম্পাদনের উদ্দেশ্যে `হটলাইন (১৬১২২) নির্দেশিকা` প্রণয়ন করা হয়েছে। ভূমি সেবা হটলাইন সম্পর্কিত ওয়েবপেজ ‘অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থাপনা’ (hotline.land.gov.bd)।

সরকারি হিসাবে ডেঙ্গুতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৯৩
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : সরকারি হিসাবে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯৩ জনে।

সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) কাছে ডেঙ্গু সন্দেহে ২৪২টি মৃত রোগীর তথ্য এসেছে। এরমধ্যে ১৫১টি মৃত্যু পর্যালোচনা করে ৯৩ জন ডেঙ্গু রোগে মারা গেছেন বলে নিশ্চিত করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশনস সেন্টারের সহকারী পরিচালক ডা. আয়েশা আক্তার জানান, সর্বশেষ রিভিউ কমিটি মোট ১৫১ জনের মৃত্যুর কারণ রিভিউ করে ৯৩টি মৃত্যু নিশ্চিত করে।

তবে সরকারি হিসাবে ডেঙ্গুতে মৃতের সংখ্যা ৯৩ জন বলা হলেও বেসরকারি হিসাবে এ সংখ্যা কয়েক গুণ বেশি।

এছাড়া চলতি বছরের জানুয়ারিতে ৩৮, ফেব্রুয়ারিতে ১৮, মার্চে ১৭, এপ্রিলে ৫৮, মে মাসে ১৯৩, জুনে ১ হাজার ৮৮৪, জুলাইয়ে ১৬ হাজার ২৫৩, আগস্টে ৫২ হাজার ৬৩৬ জন এবং সেপ্টেম্বর মাসের ৩০ দিনে ১৬ হাজার ৮৫৬ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন। ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্তের সংখ্যা ২০১৯ সালেই সর্বোচ্চ। এর মধ্যে আগস্ট মাসে ছিল সর্বোচ্চ।

আবরার হত্যা : ছাত্রলীগ নেতা অমিত সাহা আটক
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক উপ-সম্পাদক অমিত সাহাকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায় রাজধানীর সবুজবাগ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ডিবির যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম জানান, রাজধানীর সবুজবাগ থানাধীন রাজারবাগ কালীবাড়ি এলাকায় এক আত্মীয়ের বাসা থেকে অমিত সাহাকে আটক করা হয়েছে। তাকে ডিবি কার্যালয়ে নেওয়া হচ্ছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ফাহাদ হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তাকে আদালতে পাঠানো হবে।

বুয়েটের শেরে বাংলা হলের যে ২০১১ নম্বর কক্ষে আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়; সেই কক্ষটি অমিত সাহার। তার বিরুদ্ধে আবরারকে হত্যার অভিযোগ থাকলেও মামলায় তাকে আসামি না করায় এবং তিনি গ্রেফতার না হওয়ায় সমালোচনা চলছিল।

আলোচিত এ হত্যাকাণ্ডে এখন পর্যন্ত মামলায় নাম থাকা ১৯ জনের মধ্যে ১৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে হত্যাকাণ্ডের পর সবচেয়ে আলোচিত নাম ছিল অমিত সাহা। কিন্তু কোনো এক অজ্ঞাত কারণে মামলায় তার নাম রাখা হয়নি। এরপর অমিত সাহার নানান কুকীর্তি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সরব হয়ে ওঠে। ফাহাদ হত্যাকাণ্ডে যে তার সম্পৃক্ততা রয়েছে তার প্রমাণ মেলে মেসেঞ্জার অ্যাক্টিভিটিতে।

 

এর আগে রোববার রাতে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের নেতারা পরিকল্পিতভাবে ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করে মরদেহ সিঁড়িতে ফেলে রাখে। পরে ভিডিও ফুটেজে হত্যাকারীদের শনাক্ত করা হয়। ফাহাদ হত্যার বিচার, আসল অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আট দফা দাবিতে আন্দোলনে ফুঁসছে বুয়েটসহ দেশের সব শিক্ষাঙ্গন। এরই মধ্যে আটক করা হলো অমিত সাহাকে।

সম্রাটের শারীরিক অবস্থা ভালো: চিকিৎসক
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক: ‘সম্রাটের বেশ কিছু পরীক্ষা নিরীক্ষা জরুরিভিত্তিতে করা হয়েছে। সব পরীক্ষার রিপোর্ট ভালো। তার আরও কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে। তবে সব মিলিয়ে তার শারীরিক অবস্থা ভালো বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের পরিচালক আফজালুর রহমান। তিনি জানান, আগামী ২৪ ঘণ্টার জন্য ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। এর আগে, আজ সকালে কারাগারে বুকে ব্যথা অনুভব করলে প্রথমে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে সেখান থেকে চিকিৎসকদের পরামর্শে সকাল ৮টায় জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়।

চিকিৎসক আফজালুর রহমান বলেন, ‘২৪ ঘণ্টা অবজারভেশনে রাখা হয়েছে সম্রাটকে। সাত সদস্যের একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। ’

চিকিৎসক আরও বলেন, ‘যে কোনো হার্টের রোগী আসলে আমরা তাকে ২৪ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রাখি। তারই পরিপ্রেক্ষিতে সম্রাটকেও অবজারভেশনে রাখা হয়েছে। আগামীকাল সকালে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে।’

সম্রাটকে হাসপাতালে ভর্তি করার পর তার সঙ্গে দেখা করতে আসেন তার আইনজীবী আফরোজা শাহনাজ পারভীন। তবে নিরাপত্তা বাহিনীর বাধার মুখে তিনি দেখা করতে পারেননি।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটকে গতকাল সোমবার রাতে অস্ত্র ও মাদক আইনের পৃথক দুই মামলায় ১০ দিন করে ২০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। এই রিমান্ড শুনানি আগামীকাল বুধবার ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে অনুষ্ঠিত হবে।

রমনা থানা পুলিশ অস্ত্র ও মাদক আইনে মামলায় সম্রাটকে গ্রেপ্তার দেখানো-পূর্বক ১০ দিন করে ২০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। ঢাকা মহানগর হাকিম ইয়াসমিন আরা আসামি সম্রাটের উপস্থিতিতে গ্রেপ্তার দেখানোর আবেদন ও রিমান্ড শুনানির জন্য বুধবার দিন ধার্য করেন।

উল্লেখ্য, গত রোববার বিকেলে কাকরাইলে সম্রাটের কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে মাদক, অস্ত্র ও ক্যাঙ্গারুর চামড়া উদ্ধার করে র‌্যাব। নিজ কার্যালয়ে পশুর চামড়া রাখার দায়ে ৬ মাস কারাদণ্ড দিয়ে কেরানীগঞ্জের কারাগারে পাঠানো হয় ঢাকা মহানগর দক্ষিণের বহিষ্কৃত সভাপতি সম্রাটকে। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদক আইনে রমনা থানায় দুটি মামলা হয়েছে।

বাংলাদেশ-ভারত সাত চুক্তি
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট : ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লিতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মধ্যে অনুষ্ঠিত বৈঠকে সাতটি চুক্তি ও সমঝোতা সই হয়েছে। এছাড়া দুই প্রধানমন্ত্রী তিনটি যৌথ প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। গতকাল শনিবার দুপুরে শেখ হাসিনা হায়দারাবাদ হাউসে পৌঁছালে প্রধান ফটকে গিয়ে তাকে অভ্যর্থনা জানান নরেন্দ্র মোদি। এরপর দ্বিপক্ষীয় বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকের পর অনুষ্ঠিত হয় মধ্যাহ্ন ভোজ।

সমঝোতা স্মারকগুলোর মধ্যে রয়েছে- উপকূলীয় এলাকায় নজরদারিতে সহযোগিতা বিনিময়। এর আওতায় বাংলাদেশের ফেনী নদী থেকে পানি প্রত্যাহার করতে পারবে ভারত। এই পানি তারা ত্রিপুরা রাজ্যর সাবরুম শহরে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ প্রকল্পে ব্যবহার করবে।

চট্টগ্রাম ও মোংলা সমুদ্রবন্দর দিয়ে ভারতীয় পণ্য পরিবহনের বিষয়ে একটি স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর (এসওপি) সই হয়েছে। বাংলাদেশকে দেওয়া ভারতের ঋণের প্রকল্প বাস্তবায়নে একটি চুক্তি হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে ইউনিভার্সিটি অব হায়দরাবাদের মধ্যে সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে। চুক্তি হয়েছে বাংলাদেশকে দেওয়া ভারতের ঋণের প্রকল্প বাস্তবায়নে। সহযোগিতা বিনিময়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে ইউনিভার্সিটি অব হায়দরাবাদের মধ্যে সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে। এছাড়া সাংস্কৃতিক কার্যক্রম বিনিময় নবায়ন এবং যুব উন্নয়নে সহযোগিতা নিয়ে দুটি সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে।

চুক্তি ও সমঝোতাপত্র বিনিময়ের পর শেখ হাসিনা ও মোদি যৌথভাবে তিনটি প্রকল্প উদ্বোধন করেন। এগুলো হলো খুলনায় ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্সে ‘বাংলাদেশ-ভারত প্রফেশনাল স্কিল ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউট, ঢাকার রামকৃষ্ণ মিশনে বিবেকানন্দ ভবন এবং বাংলাদেশ থেকে ত্রিপুরায় এলপিজি আমদানি প্রকল্প।

প্রকল্পগুলো উদ্বোধন করে শেখ হাসিনা বলেন, বিগত এক দশকে আমাদের উভয় দেশের মধ্যে বিভিন্ন প্রথাগত সহযোগিতা প্রভূত পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে। এর পাশাপাশি বিভিন্ন নতুন ও অপ্রচলিত খাত যেমন ব্লু ইকোনমি ও মেরিটাইম, পরমাণু শক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহার, মহাকাশ গবেষণা, ইন্টারনেট ব্যান্ডউইডথ রপ্তানি ও সাইবার সিকিউরিটি ইত্যাদি খাতে উভয় দেশ সহযোগিতার হাত সম্প্রসারিত করেছে। এসব বহুমুখী ও বহুমাত্রিক সহযোগিতার ফলে আমাদের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক বিশ্ববাসীর সামনে সু-প্রতিবেশীসুলভ সম্পর্কের দৃষ্টান্ত হিসেবে পরিগণিত হচ্ছে।

এলপিজির প্রকল্প নিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, এটা আমাদের উভয় দেশের বিদ্যমান বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় করবে বলে আমি মনে করি। এর ফলে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্যসমূহের জ্বালানি চাহিদা পূরণ অনেকাংশে সহজ হবে বলে আশা করছি।

খুলনার বিআইপিএসডিআই বাংলাদেশের ওই অঞ্চলে ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসারে বিভিন্ন রকম উন্নত মানের যন্ত্রপাতি দিয়ে অবদান রাখবে বলে আশা করেন শেখ হাসিনা। তিনি আশা করেন, ভারত সরকারের আর্থিক অনুদানে স্থাপিত রামকৃষ্ণ মিশনের বিবেকানন্দ ভবন শিক্ষা বিস্তারে সহায়তার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে ভূমিকা রাখবে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, গত এক বছরে আমি ভিডিও লিংকের মাধ্যমে ৯টি প্রকল্পের উদ্বোধন করেছি। আজকে তিনটি প্রকল্প যোগ হয়ে এক ডজন যৌথ প্রকল্পের উদ্বোধন করলাম। এই প্রকল্পগুলোর উদ্দেশ্য আমাদের নাগরিক জীবনমানকে উন্নত করা। এটা ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্কের মূল মন্ত্র।

এর আগে, গতকাল সকালে ভারত সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে ভারত সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয় বলে আবারও নিশ্চিত করেছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র টুইটে রাভিশ কুমার লিখেছেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্করের উষ্ণ আলোচনা হয়েছে। বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে যে ভারত সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয় তা আবারও নিশ্চিত করেছেন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী। ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) ইন্ডিয়া ইকোনোমিক সামিটে যোগ দিতে চারদিনের সরকারি সফরে বৃহস্পতিবার ভারতে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সফরশেষে আজ রোববার ঢাকার উদ্দেশে রওনা হবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

যুবলীগ নেতা সম্রাট আটক
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী ওরফে সম্রাটকে আটক করেছে র‌্যাব।

আজ রোববার ভোরে সম্রাটকে আটক করা হয়। তাঁর সঙ্গে থাকা যুবলীগের আরেক নেতা আরমান আলীকেও এ সময় আটক করেছে র‌্যাব।

রবিবার ভোর পাঁচটার দিকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের মুখপাত্র সারওয়ার-বিন-কাশেম সম্রাটকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গোয়েন্দা সূত্র জানায়, যুবলীগের প্রভাবশালী নেতা ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট চলমান ক্যাসিনো-জুয়াবিরোধী অভিযানের শুরু থেকে তাদের নজরদারির মধ্যেই ছিলেন। এই সময়ের মধ্যে তিনি বিদেশে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাও চালিয়েছিলেন। তবে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তৎপরতার কারণে তিনি দেশ ছাড়তে পারেননি।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম থানার আলকরা ইউনিয়নের কুঞ্জশ্রীপুর চৌধুরী বাড়ি থেকে রাতে সম্রাটকে গ্রেফতার করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। তবে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও গণমাধ্যমকে ব্রিফিং করা হয় নি।

গত ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে রাজধানীতে ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু করে র‌্যাব। ওইদিনই রাজধানীর ফকিরাপুল ইয়ংমেন্স ক্লাবের ক্যাসিনোয় অভিযান চালানোর পাশাপাশি গুলশান থেকে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়। ক্যাসিনো থেকে গ্রেপ্তার করা হয় দেড় শ’র মতো মানুষকে।

এর দুই দিন পর ২০ সেপ্টেম্বর নিকেতনে নিজের অফিস থেকে গ্রেপ্তার হন যুবলীগ নেতা জিকে শামীম। যুবলীগের এই দুই নেতাকে গ্রেপ্তারের সময় তাদের কাছ থেকে বিপুল অর্থ, মাদক ও আগ্নেয়াস্ত্র জব্দ করা হয়।

অভিযানের পর থেকেই অবৈধভাবে ক্যাসিনো পরিচালনায় যুবলীগ নেতা সম্রাটের নামও উঠে আসে। এরপর থেকে তাকে নজরদারির মধ্যেই রাখা হয়। অভিযানের শুরুর দিন থেকেই সম্রাট কয়েক শ’ নেতাকর্মী নিয়ে কাকরাইলে তার নিজ কার্যালয়ে অবস্থান নেন। পরে তার অবস্থান ও গ্রেপ্তার নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়।

এরই মধ্যে গত ২৩ সেপ্টেম্বর তার ব্যাংক হিসাব স্থগিত ও তলব করা হয়। ২৪ সেপ্টেম্বর তার বিদেশগমনে জারি করা হয় নিষেধাজ্ঞা।

সম্প্রতি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সম্রাটের গ্রেপ্তার প্রসঙ্গে বলেন, ‘সময় হলে সব দেখতে পাবেন।’ এরই ধারাবাহিকতায় রবিবার ভোরে র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হন সম্রাট।

সৌদি আরবে ধরপাকড় : দু’দিনে দেশে ফিরলেন ২৫০ শ্রমিক
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট : সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশি শ্রমিকদের দেশে ফেরা অব্যাহত রয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে ১৩০ জন ফিরে আসার পর  গতকাল শুক্রবার রাতে দেশে ফিরেছেন আরও ১২০ জন শ্রমিক। সৌদি এয়ারলাইনসের এসভি-৮০৪ বিমানে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছান তারা। এ নিয়ে গত দু’দিনে দেশে ফিরলেন ২৫০ জন শ্রমিক। বিমানবন্দরের প্রবাসী কল্যাণ ডেস্ক এ তথ্য জানায়।

ফেরত আসা কর্মীদের অভিযোগ, সৌদি আরবে বেশ কিছুদিন ধরে ধরপাকড়ের শিকার হচ্ছেন বাংলাদেশি শ্রমিকরা। সেই অভিযানে বাদ যাচ্ছেন না বৈধ কর্মীরাও।

শুক্রবার রাতে ফেরত আসা ঢাকার দোহার উপজেলার আনোয়ার হোসেন জানান, সৌদি আরবে একটি দোকানে তিনি কাজ করতেন। আকামার মেয়াদ ছিল আরও ১১ মাস। কিন্তু দোকান থেকে ধরে তাকে দেশে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

ফেরত আসা কর্মীদের অনেকে অভিযোগ করেন, তারা কর্মস্থল থেকে বাসায় ফেরার পথে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে, সে সময় নিয়োগকর্তাকে ফোন করা হলেও তারা দায়িত্ব নেননি। আকামা থাকা সত্ত্বেও কর্মীদেরকে ডির্পোটেশন ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। আবার দীর্ঘদিন অবৈধভাবে থাকার কারণেও অনেককে আটক করে ফেরত পাঠানো হচ্ছে।

ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রামের প্রধান শরিফুল হাসান জানান, এ বছর সৌদি আরব থেকে এভাবে ১১-১২ হাজার শ্রমিক দেশে ফিরেছেন।

হায়দ্রাবাদ হাউজে হাসিনা-মোদীর বৈঠক চলছে
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট : নয়াদিল্লির হায়দ্রাবাদ হাউজে বৈঠকে বসেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

শনিবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১১টার কিছুক্ষণ পরে এ বৈঠক শুরু হয়। নয়া দিল্লির হায়দরাবাদ হাউজে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

বৈঠকের আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হায়দরাবাদ হাউজে পৌঁছালে প্রধান ফটকে তাঁকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান নরেন্দ্র মোদি।

হায়দরাবাদ হাউজে প্রথমে একান্ত বৈঠকে বসেন দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী। পরে, তাদের নেতৃত্বে প্রতিনিধি পর্যায়ে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক হবে।

বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীদের উপস্থিতিতে দুই দেশের মধ্যে বেশ কয়েকটি সমঝোতা স্মারক ও চুক্তি সই হওয়ার কথা রয়েছে। সমঝোতা স্মারক ও চুক্তি সইয়ের পর শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদি যৌথভাবে কয়েকটি প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন, এরপর হায়দরাবাদ হাউজে মধ্যাহ্ন ভোজে অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে, ভারত সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করলেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে ভারত সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয় বলে আবারও নিশ্চিত করেছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র টুইটে রাভিশ কুমার লিখেছেন, `বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্করের উষ্ণ আলোচনা হয়েছে। বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে যে ভারত সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয় তা আবারও নিশ্চিত করেছেন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী।`

আজ বিকেলে ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে দেশটির রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন প্রধানমন্ত্রী। এরপর সফরকালীন আবাসস্থল হোটেল তাজমহলে এক অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনাকে ‘ঠাকুর শান্তি পুরস্কার’ দেবে এশিয়াটিক সোসাইটি। ওই অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী।

ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) ইন্ডিয়া ইকোনোমিক সামিটে যোগ দিতে চারদিনের সরকারি সফরে বৃহস্পতিবার ভারতে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সফরশেষে রবিবার রাতে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

‘অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং হাইটেক পার্কে বিনিয়োগ করুন’
                                  

স্বাধীন বাংলা: ভারতের ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং হাইটেক পার্কগুলোতে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ শুক্রবার ভারতের আইসিটি মৌর্য হোটেলের কামাল মহল হলে ভারত-বাংলাদেশ বিজনেস ফোরামের (আইবিবিএফ) উদ্বোধনী অধিবেশনে প্রদত্ত ভাষণে এ আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বেশ কয়েকটি হাইটেক পার্ক প্রযুক্তি এবং উদ্ভাবনী উদ্যোগের জন্যও প্রস্তুত রয়েছে। মংলা, ভেড়ামারা ও মিরসরাইয়ে ভারতীয় বিনিয়োগকারীদের জন্য তিনটি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রস্তুত করেছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের এই তিনটি ভারতীয় অর্থনৈতিক অঞ্চলে ভারতীয় বিনিয়োগকারীদের পর্যাপ্ত বিনিয়োগ আমাদের রপ্তানিযোগ্য খাতকে আএরা প্রশস্ত করতে সহায়তা করবে।

শেখ হাসিনা আরো বলেন, সারাদেশে একশ বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ বাস্তবায়ন করছি। যার মধ্যে প্রায় ১২টি তৈরি হয়ে গেছে, যেখানে চারটি অঞ্চল তিনটি দেশের জন্য বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আমি আপনাদের সকলকে প্ল্যাটফর্মটির সর্বোত্তম ব্যবহার করতে এবং আমাদের জনগণের পারস্পরিক বৃহত্তর স্বার্থে উভয় দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখার অনুরোধ করছি এবং এর মাধ্যমে আমরা আমাদের দেশ ও এই অঞ্চলকে আরও সমৃদ্ধ এবং ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত করতে পারব।

আমরা একসঙ্গে আরো বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ দেখতে চাই, যেখানে ভারতীয় বড় বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে শিল্প স্থাপন করতে এবং আমাদের মধ্যে বিদ্যমান উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থার সুযোগ নিয়ে উত্তর ভারতের রাজ্যগুলো এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় দেশগুলোতে পণ্য রপ্তানি করতে পারে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণে বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশে সবচেয়ে উদার বিনিয়োগের পরিবেশ বিরাজ করছে। যার মধ্যে রয়েছে-বৈদেশিক বিনিয়োগের আইনি সুরক্ষা, উদার রাজস্ব ব্যবস্থা, মেশিনপত্র আমদানির ক্ষেত্রে বিশেষ ছাড়, আনরেসট্রিকটেড এক্সিট পলিসি, সম্পূর্ণ বিনিয়োগ ও পুঁজি নিয়ে চলে যাবার সুবিধাসহ নানাবিধ সুযোগ সুবিধা। বাংলাদেশ ১৬২ মিলিয়ন জনসংখ্যা সমন্বিত একটি প্রগতিশীল ধর্ম নিরপেক্ষ রাষ্ট্র।

তিনি আরো বলেন, বিগত বছরগুলোতে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের পরিমাণ ক্রমাগত বৃদ্ধি পেয়েছে। বাণিজ্যের ভারসাম্য যদিও এখন পর্যন্ত ভারতের পক্ষে রয়েছে। দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যের পরিমাণ প্রায় ১০ বিলিয়ন ডলার। ২০১৮ সালে, বাংলাদেশে ৮ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলারের পণ্য রপ্তানি করে ভারত এবং বাংলাদেশ এই দেশটির অষ্টম বৃহত্তম রপ্তানি গন্তব্য। ভারতে আমাদের রপ্তানিও গত বছরের প্রথমবারের মত্োেক বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে। সুতরাং, অগ্রগতি দৃশ্যমান, তবে, বাণিজ্য ও বিনিয়োগের ক্ষেত্রে আমাদের সম্পর্ক আরও গভীর করার অনেক সুযোগ রয়েছে।

ভবিষ্যতে বাংলাদেশে পেঁয়াজসহ যে কোনো পণ্যের রপ্তানি বন্ধ করার সিদ্ধান্ত আগে থেকে জানানোর জন্য অনুরোধ জানান তিনি। প্রধানমন্ত্রী হিন্দিতে বলেন, হঠাৎ করে আপনারা বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছেন। আগে নোটিশ দিলে আমরা অন্য দেশ থেকে ব্যবস্থা করতে পারতাম। ভবিষ্যতে এমন কিছু করলে আগে জানালে ভালো হয়।

শেখ হাসিনা তার বাসায় রাঁধুনিকে রান্নায় পেঁয়াজ ব্যবহার করতে নিষেধ করেছেন বলেও রসিকতা করে জানান।

গত ১০ বছরে বাংলাদেশের ব্যাপক অর্থনৈতিক অগ্রগতির কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা গত এক দশকে উল্লেখযোগ্য অর্থনৈতিক উন্নয়নে সক্ষম হয়েছি, যা উন্নয়নের মডেল হিসেবে স্বীকৃতি অর্জন করেছে।

তিনি বলেন, মুদ্রাস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৫.৪ শতাংশ, মাথাপিছু আয় ২০০৬ সালের ৫৪৩ মার্কিন ডলার থেকে সাড়ে তিনগুণ বেড়ে ২০১৯ সালে প্রায় ২০০০ মার্কিন ডলার দাঁড়িয়েছে। বৈদেশিক মুদ্রার মজুদ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, রফতানি ২০০৫-০৬ সালের চেয়ে তিনগুণ বেড়ে ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে দাঁড়িয়েছে ৪০.৫৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

প্রাইস ওয়াটারহাউস কুপার্স-এর পরিসংখ্যান তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০৩০ সাল নাগাদ বাংলাদেশ হবে বিশ্বের ২৯তম বৃহত্তম অর্থনীতি। বিশ্বব্যাংকে সাম্প্রতিক প্রকাশনায় বাংলাদেশকে ‘বিশ্বের দ্রুত বিকাশমান অর্থনীতির’ পাঁচটি দেশের অন্তর্ভুক্ত করেছে।

শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসান দুবাইয়ে আটক, দেশে আনার প্রক্রিয়া চলছে
                                  

স্বাধীন বাংলা: শীর্ষ সন্ত্রাসী ও রাজধানীর মালিবাগে দুই পুলিশ হত্যা মামলার আসামি জিসান আহমেদকে মন্টিকে গত বুধবার রাতে সংযুক্ত আরব আমিরাতে গ্রেফতার করা হয়েছে। এখন তাকে দেশে ফেরত আনার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ সদর দফতর। এ তথ্য নিশ্চিত করে পুলিশ সদর দফতরের এআইজি (ন্যাশনাল সেন্ট্রাল ব্যুরো) মহিউল ইসলাম বলেন, ‘ইন্টারপোলের মাধ্যমে দুবাই কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বাংলাদেশ যোগাযোগ করছে। তারা জানিয়েছে যে, জিসানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। দুবাই কর্তৃপক্ষ জিসানকে গ্রেফতারের পর যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তরের প্রস্তুতি নিচ্ছে।’

আইনশৃংখলা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে, পলাতক সন্ত্রাসী জিসান একটি ভারতীয় পাসপোর্ট বহন করছেন। সেখানে তার নাম বলা হয়েছে আলী আকবর চৌধুরী। ওই পাসপোর্ট নিয়েই তিনি এতদিন দুবাই অবস্থান করছেন।

পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে বাংলাদেশের বন্দিবিনিময় চুক্তি নেই। তাই চাইলেও তাকে দেশে ফেরাতে পারবে না ঢাকা। পাসপোর্টসূত্রে ভারতের নাগরিক জিসানকে ভারতে ফেরত পাঠানো হলে বাংলাদেশ তাকে সেখান থেকে ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়া চালাতে পারে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, জিসান ইন্টারপোলের দাগি আসামি। বাংলাদেশে পুরস্কার ঘোষিত শীর্ষ সন্ত্রাসী। তাকে গ্রেপ্তারে বছরখানেক আগে ইন্টাপোলের সহযোগিতা চেয়েছিল বাংলাদেশ পুলিশ। এ নিয়ে কয়েক দফা চিঠি চালাচালিও হয়। ধারণা করা হচ্ছে, ইন্টারপোলের তথ্যের ভিত্তিতেই দুবাই পুলিশ জিসানকে গ্রেপ্তার করে থাকতে পারে।

জিসান দীর্ঘদিন ধরে দুবাইয়ে অবস্থান করছেন। সেখানে বসেই দেশের অপরাধ জগতের অনেক কিছু নিয়ন্ত্রণ করে আসছেন। ক্যাসিনোকাণ্ডে সম্প্রতি বেশ কয়েকজন যুবলীগ নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর জিজ্ঞাসাবাদে তারা জিসানের নামে অপরাধ জগতের অনেক অজানা তথ্য দিয়েছেন। গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের ‘টেন্ডারবাজ’ যুবলীগ নেতা জিকে শামীম তারই লোক। তার মাধ্যমেই দুবাইয়ে বসে ঠিকাদারি নিয়ন্ত্রণ করতেন জিসান।

জানা গেছে, জিসানের বিষয়ে ইন্টারপোলের সঙ্গে চিঠি চালাচালি শুরু করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের বিশেষায়িত ইউনিট স্পেশাল উইপনস্ অ্যান্ড ট্যাকটিস (সোয়াত)। ইন্টারপোলের সবুজ সংকেত পেলে পুলিশের একটি প্রতিনিধি দল দুবাই যেতেও প্রস্তুত।

২০০৩ সালে মালিবাগের একটি হোটেলে দুজন ডিবি পুলিশকে হত্যার পর আলোচনায় আসে জিসান। এরপরেই গা ঢাকা দেন। ২০০৫ সালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানের মুখে সে দেশ ছাড়ে বলে ধারণা করা হয়।

সূত্র জানায়, সেসময় পালিয়ে ভারতে প্রবেশ করে জিসান। এরপর নিজের নাম পরিবর্তন করে আলী আকবর চৌধুরী নামে পাসপোর্ট সংগ্রহ করে।

সাম্প্রতিক দুর্নীতি বিরোধী অভিযানে দুই যুবলীগ নেতা জিকে শামীম ও খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে আটকের পর তার (জিসানের) নাম ফের নতুন করে আলোচনায় আসে। তাদের মধ্যে একসময় ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল। পরে ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে দ্বন্দ্বে জিসাইন শামীম ও খালেদকে হত্যা করতে লোক ভাড়া করেছিলেন।


   Page 1 of 260
     জাতীয়
দুদক চেয়ারম্যানের পদত্যাগ করা উচিৎ: তাপস
.............................................................................................
গণভবনে আবরারের বাবা-মা
.............................................................................................
খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী বলে বক্তব্য দেয়া সেই অধ্যক্ষ বরখাস্ত
.............................................................................................
‘শিবির সন্দেহে আবরারকে হত্যা’
.............................................................................................
পুলিশের ওপর হামলা : দুই জঙ্গি গ্রেপ্তার
.............................................................................................
ভিসির পদত্যাগ চায় বুয়েট শিক্ষক সমিতি
.............................................................................................
ভূমি সেবা প্রদান ও দুর্নীতি প্রতিরোধই হটলাইনের উদ্দেশ্য: ভূমিমন্ত্রী
.............................................................................................
সরকারি হিসাবে ডেঙ্গুতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৯৩
.............................................................................................
আবরার হত্যা : ছাত্রলীগ নেতা অমিত সাহা আটক
.............................................................................................
সম্রাটের শারীরিক অবস্থা ভালো: চিকিৎসক
.............................................................................................
বাংলাদেশ-ভারত সাত চুক্তি
.............................................................................................
যুবলীগ নেতা সম্রাট আটক
.............................................................................................
সৌদি আরবে ধরপাকড় : দু’দিনে দেশে ফিরলেন ২৫০ শ্রমিক
.............................................................................................
হায়দ্রাবাদ হাউজে হাসিনা-মোদীর বৈঠক চলছে
.............................................................................................
‘অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং হাইটেক পার্কে বিনিয়োগ করুন’
.............................................................................................
শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসান দুবাইয়ে আটক, দেশে আনার প্রক্রিয়া চলছে
.............................................................................................
চার দিনের সফরে ভারত গেলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের বাণিজ্যিক কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
থানার বাইরে গায়ে আগুন দেয়া সেই কলেজছাত্রী মারা গেছেন
.............................................................................................
দেশের পথে প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
রোহিঙ্গা সংকট আঞ্চলিক নিরাপত্তার হুমকি
.............................................................................................
দুর্নীতিবাজ নিজের দলের হলেও ছাড় পাবে না : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
সম্রাট গ্রেফতার হয়েছে কি না শিগগির জানা যাবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
মহালয়ার মধ্য দিয়ে দুর্গাপূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু
.............................................................................................
ওয়ার্ল্ড স্ট্যান্ডার্ড-সেটার্স কনফারেন্সে যোগ দিতে লন্ডনে যাচ্ছেন বিএইচবিএফসি’র চেয়ারম্যান
.............................................................................................
শেখ হাসিনার ৭৩তম জন্মদিন আজ
.............................................................................................
রোহিঙ্গা সংকট আঞ্চলিক নিরাপত্তার হুমকি : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
লোকমানকে নিয়ে মুখ খুলেছেন পাপন
.............................................................................................
ইউরোপের দুয়ার খুলছে বাংলাদেশিদের জন্য
.............................................................................................
আরও ১০ দিনের রিমান্ডে ‘ক্যাসিনো খালেদ’
.............................................................................................
জামালপুরের সেই ডিসি বরখাস্ত
.............................................................................................
রেলের প্রকল্প বাস্তবায়নে গতি নেই
.............................................................................................
ক্যাসিনো : নেপালিদের পালাতে সহায়তা করায় ২ পুলিশ সদস্য বরখাস্ত
.............................................................................................
সরকারি চাকরি আইন কার্যকর হচ্ছে ১ অক্টোবর
.............................................................................................
ক্যাসিনো : অস্ট্রেলিয়ার দুই ব্যাংকে লোকমানের ৪১ কোটি টাকা
.............................................................................................
পর্যটন খাতে বিনিয়োগ করার আহ্বান প্রতিমন্ত্রীর
.............................................................................................
রোহিঙ্গা সংকটের কারণে বাংলাদেশের উন্নয়ন চ্যালেঞ্জের মুখে : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
রোহিঙ্গা সংকট : জাতিসংঘে ৪ প্রস্তাব দেবেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
‘ভ্যাকসিন হিরো’ পুরস্কারে ভূষিত প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
তেজগাঁও ফুয়াং ক্লাবে ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান চলছে
.............................................................................................
ঢাবিতে ছাত্রলীগের হামলায় ১৫ ছাত্রদল কর্মী আহত
.............................................................................................
চুনোপুঁটি-রাঘববোয়াল বুঝি না, অপরাধীরা ধরা পড়বেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
চুনোপুঁটি-রাঘববোয়াল বুঝি না, অপরাধীরা ধরা পড়বেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
বিশ্ব নদী দিবস আজ
.............................................................................................
গ্রামে মিলছে না ভোক্তার সুফল
.............................................................................................
নূর চৌধুরীকে নিয়ে কানাডার আদালতে বাংলাদেশের পক্ষে রায়
.............................................................................................
নার্সিং হলো সবচেয়ে সম্মানজনক পেশা : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
বিকেলে রাজহংস উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
রাজশাহী পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
কারাগারে বসেই মাদক ব্যবসা
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Nytasoft