সোমবার, ২০ জানুয়ারী 2020 | বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   রাজনীতি -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
নির্বাচন কমিশন ব্যর্থ-অযোগ্য: ফখরুল

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট: বর্তমান নির্বাচন কমিশন নিবাচন পরিচালনার ক্ষেত্রে একেবারেই ব্যর্থ এবং অযোগ্য। তার প্রমাণ হচ্ছে সিটি নির্বাচনের তারিখ তারা নির্ধারণ করে রেখেছিল সেদিন ছিল হিন্দু সম্প্রদায়ের পূজা। বড় সমস্যা হচ্ছে যেখানে নির্বাচনী কেন্দ্রগুলো হয় সেখানেই পূজা হয়। এতে করে বড় ধরণের সমস্যা হতে পারতো। কিন্তু এসব চিন্তা না করে তারা তারিখ নির্ধারণ করেছে। নির্বাচন কমিশনের অযোগ্যতার কারণেই এমন সমস্যার সৃষ্টি হয়। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৩৪তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে তার মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের সামনে এ মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ফখরুল বলেন, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান একজন ক্ষণজন্মা মানুষ ছিলেন। ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা ঘোষণার মধ্য দিয়ে তিনি বাঙালি জাতিকে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার অনুপ্রেরণা দিয়েছিলেন। খুব অল্প সময়ের মধ্যে তিনি বাংলাদেশের মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ বিশ্বদরবারে একটি মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত হয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, কিন্তু দুর্ভাগ্য আমাদের। আমরা যখন শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের জন্মদিবস পালন করছি, তখন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে একটা মিথ্যাবাদী আওয়ামী লীগ সরকার কারাগারে আটকে রেখেছে। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে বিদেশি নির্বাসিত করে রেখেছে। লক্ষ লক্ষ বিএনপির নেতা কর্মীকে তারা মিথ্যা মামলা দিয়েছে, হত্যা করেছে, গ্রেফতার করেছে, গুম করেছে, খুন করেছে। দেশটাকে একটা অগণতান্ত্রিক স্বৈরাচারী রাষ্ট্র হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করেছে তারা।

বহুদলীয় গণতন্ত্র মানেইতো সবার সমান সুযোগ তা কি এখন এই দেশে আছে এমন প্রশ্নে ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার আসার পর থেকে দেশের সকল গণতান্ত্রিক স্তরগুলোকে সংকুচিত করে ফেলেছে। স্পেস গুলো বন্ধ করে দিয়েছে এবং রাজনৈতিক দলগুলোর স্বাভাবিক কার্যক্রম সেগুলো বন্ধ করে দিয়েছে। আজকে এই ঢাকা সিটি নির্বাচনে একটি দলের প্রার্থীরা বেশি প্রাধান্য পাচ্ছে,  কারণ একটি অযোগ্য নির্বাচন কমিশন কোনো ব্যবস্থা নিতে সক্ষম নয়। এবং তাদের সেই যোগ্যতা নেই।

তিনি আরও বলেন, ইভিএমে নির্বাচন করার মানে হচ্ছে বাংলাদেশের নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দেয়ার আরেকটা অপকৌশল। জনগণের রায় কখনো ইভিএমের মাধ্যমে জনগণের সামনে আসবে না। ইভিএম ব্যবহার হচ্ছে একটা ত্রুটিপূর্ণ ব্যবস্থা। পৃথিবীর কোন দেশেই এই ব্যবস্থাকে ত্রুটিহীন সিস্টেম বলা যায় না। ব্যালটের মাধ্যমে যদি ভোট দেয়া হয় সেটাই জনগণের জন্য উপযুক্ত ব্যবস্থা।

নির্বাচন কমিশন ব্যর্থ-অযোগ্য: ফখরুল
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট: বর্তমান নির্বাচন কমিশন নিবাচন পরিচালনার ক্ষেত্রে একেবারেই ব্যর্থ এবং অযোগ্য। তার প্রমাণ হচ্ছে সিটি নির্বাচনের তারিখ তারা নির্ধারণ করে রেখেছিল সেদিন ছিল হিন্দু সম্প্রদায়ের পূজা। বড় সমস্যা হচ্ছে যেখানে নির্বাচনী কেন্দ্রগুলো হয় সেখানেই পূজা হয়। এতে করে বড় ধরণের সমস্যা হতে পারতো। কিন্তু এসব চিন্তা না করে তারা তারিখ নির্ধারণ করেছে। নির্বাচন কমিশনের অযোগ্যতার কারণেই এমন সমস্যার সৃষ্টি হয়। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৩৪তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে তার মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের সামনে এ মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ফখরুল বলেন, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান একজন ক্ষণজন্মা মানুষ ছিলেন। ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা ঘোষণার মধ্য দিয়ে তিনি বাঙালি জাতিকে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার অনুপ্রেরণা দিয়েছিলেন। খুব অল্প সময়ের মধ্যে তিনি বাংলাদেশের মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ বিশ্বদরবারে একটি মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত হয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, কিন্তু দুর্ভাগ্য আমাদের। আমরা যখন শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের জন্মদিবস পালন করছি, তখন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে একটা মিথ্যাবাদী আওয়ামী লীগ সরকার কারাগারে আটকে রেখেছে। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে বিদেশি নির্বাসিত করে রেখেছে। লক্ষ লক্ষ বিএনপির নেতা কর্মীকে তারা মিথ্যা মামলা দিয়েছে, হত্যা করেছে, গ্রেফতার করেছে, গুম করেছে, খুন করেছে। দেশটাকে একটা অগণতান্ত্রিক স্বৈরাচারী রাষ্ট্র হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করেছে তারা।

বহুদলীয় গণতন্ত্র মানেইতো সবার সমান সুযোগ তা কি এখন এই দেশে আছে এমন প্রশ্নে ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার আসার পর থেকে দেশের সকল গণতান্ত্রিক স্তরগুলোকে সংকুচিত করে ফেলেছে। স্পেস গুলো বন্ধ করে দিয়েছে এবং রাজনৈতিক দলগুলোর স্বাভাবিক কার্যক্রম সেগুলো বন্ধ করে দিয়েছে। আজকে এই ঢাকা সিটি নির্বাচনে একটি দলের প্রার্থীরা বেশি প্রাধান্য পাচ্ছে,  কারণ একটি অযোগ্য নির্বাচন কমিশন কোনো ব্যবস্থা নিতে সক্ষম নয়। এবং তাদের সেই যোগ্যতা নেই।

তিনি আরও বলেন, ইভিএমে নির্বাচন করার মানে হচ্ছে বাংলাদেশের নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দেয়ার আরেকটা অপকৌশল। জনগণের রায় কখনো ইভিএমের মাধ্যমে জনগণের সামনে আসবে না। ইভিএম ব্যবহার হচ্ছে একটা ত্রুটিপূর্ণ ব্যবস্থা। পৃথিবীর কোন দেশেই এই ব্যবস্থাকে ত্রুটিহীন সিস্টেম বলা যায় না। ব্যালটের মাধ্যমে যদি ভোট দেয়া হয় সেটাই জনগণের জন্য উপযুক্ত ব্যবস্থা।

ভোটারদের কেন্দ্রে যেতে সহযোগিতা করবে বিএনপি: তাবিথ আউয়াল
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট: গণতন্ত্র হরণ করা হয়েছে। এখন জনগণ ভোট দিতে পারে না। এবার বিএনপির নেতাকর্মীরা ভোটারদের সাহস দিবে ভোট কেন্দ্রে যেতে এবং ভোটারেরা যাতে সুশৃঙ্খলভাবে ভোট দিতে পারে সে সহযোগিতা করবে বলে মন্তব্য করেছেন ডিএনসিসি নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল।  আজ শনিবার সকালে খিলগাঁও তালতলা এলাকায় গণসংযোগকালে তিনি এ কথা জানান।

নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘তারা লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করতে ব্যর্থ হয়েছে। তারপরও আমরা দেখতে চাই নির্বাচন কমিশন কি করে? সুষ্ঠু নির্বাচন হলে ধানের শীষের বিজয় নিশ্চিত ।’

এ সময় তাবিথ আউয়ালের সঙ্গে আছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক শিরীন সুলতানা, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবুল হোসেন, নিপুন রায় চৌধুরী, আকরামুল হাসান প্রমুখ।

ইসির ভূমিকা সন্তোষজনক নয়: তাবিথ আউয়াল
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : নির্বাচন কমিশন-ইসির ভূমিকা সন্তোষজনক নয় বলে দাবি করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরশনের বিএনপির মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আউয়াল।

তিনি বলেন, আমাদের প্রচারে বাধা সৃষ্টি করা হচ্ছে। কাউন্সিলরদের নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর করা হয়েছে। ইসি এখনো এসব বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

মঙ্গলবার বেলা ১১টায় রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা শুরুর আগে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

তাবিথ আউয়াল বলেন, সিটি নির্বাচনে এখন পর্যন্ত লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি হয়নি। শত বাধার পরও বিএনপির নেতাকর্মীরা শান্ত আছেন। তারা যতই উস্কানি দেক আমরা শান্তিপূর্ণভাবে মাঠে আছি, মাঠে থাকবো।

তিনি বলেন, ধানের শীষের পক্ষে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। জনগণ ভোট দিতে পারলে বিজয় সুনিশ্চিত।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নাল আবদিন ফারুক, জলবায়ু বিষয়ক সহসম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান, নির্বাহী কমিটির সদস্য নিপুন রায় চৌধুরী, ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল হক, বিএনপি নেতা আহসান উল্লাহ হাসান, বজলুল বাসিদ আঞ্জু, ২১ ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী এজি এম শামসুল হক, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদিকা সুলতানা আহমেদ, যুবদল ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর হোসেনসহ বিএনপি ও তার অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

ঢাকা সিটি নির্বাচন পরিচালনায় দক্ষিণে মোশাররফ, উত্তরে মওদুদ
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট: ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোশেন নির্বাচন পরিচালনায় বিএনপি দুই নেতাকে দায়িত্ব দিয়েছে। শনিবার গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে স্থায়ী কমিটির বৈঠকের পর সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই তথ্য জানান। মির্জা ফখরুল আরও জানান, নির্বাচন পরিচালনা কমিটি হবে ২১ সদস্যের, বাকি সদস্যের তালিকা পরে জানানো হবে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির মওদুদ আহমদকে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। অপরদিকে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে পিএনপির নির্বাচন পরিচানলার দায়িত্ব পালন করবেন খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, “ঢাকা সিটি নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য আমরা দুটি নির্বাচন পরিচালনা কমিটি করেছি। দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচন পরিচালনা কমিটিতে আহ্বায়কের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে। সমন্বয়ক থাকবেন মির্জা আব্বাস ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। তাদের সাথে আরও দায়িত্বে থাকবেন আবদুস সালাম, হাবিব উন নবী খান সোহেল, কাজী আবুল বাশার।

“আর ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক থাকবেন ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। সমন্বয়ক থাকবেন গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও বেগম সেলিমা রহমান।”

গণতন্ত্রে বিশ্বাস করি বলে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি: মির্জা ফখরুল
                                  

স্বাধীন বালা রিপোর্ট: গণতন্ত্রে বিশ্বাস করি বলেই ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি বলে মন্তব করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘বর্তমান নির্বাচন কমিশন, সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ হতে পারে না এবং জনগণের যে রায় সেটি প্রতিফলিত হয় না।’ তিনি বলেন, সিটি নির্বাচনে আরেকটি বড় সমস্যা হয়েছে– ইভিএম। তারা বলেছেন– ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হবে, যেটি সম্পূর্ণভাবে ত্রুটিযুক্ত। আমরা এটিকে প্রত্যাখ্যান করেছি। বলেছি, আমরা মনে করি যে, এটি সঠিক হবে না। এ কারণে আমরা মনে করি, ইভিএমে জনগণের রায় প্রতিফলিত হবে না। সেই কারণে আমরা মনে করি, নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়ার সম্ভাবনা কম।’

আজ সকালে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের নবগঠিত কেন্দ্রীয় আংশিক কমিটি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল কমিটির নেতাদের নিয়ে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি শেষে এসব কথা বলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘নির্বাচনের বিষয়ে আমরা পরিষ্কার করে বলেছি, বর্তমান নির্বাচন কমিশন, সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ হতে পারে না এবং জনগণের যে রায় সেটি  প্রতিফলিত হবে না। তারপরও আমরা যেহেতু গণতন্ত্রে বিশ্বাস করি, তাই আমরা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজ ছাত্রদল নেতারা শপথ নিয়েছে, বাংলাদেশে গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে এবং গণতন্ত্রের মা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে তারা সংগ্রাম করে বাংলাদেশের ছাত্র এবং জনতার ঐক্য গড়ে তুলবে। ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মধ্য দিয়েই দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবে। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনবে। এ সময় খ্রিস্টান সম্প্রদায়কে বড়দিনের শুভেচ্ছা জানান ফখরুল।


সন্ধ্যায় আ.লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সভা
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট : আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সভা আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় গণভবনে অনুষ্ঠিত হবে। সভায় সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সংশ্লিষ্ট সকলকে সভায় যথাসময়ে উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন।

সভাপতিমলীর সভা শেষে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে বলে গত শনিবার জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

দলের ২১তম সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনে গত শনিবার কাউন্সিল অধিবেশনে শেখ হাসিনা টানা নবমবারের সভাপতি এবং ওবায়দুল কাদের দ্বিতীয়বারের মতো সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। এছাড়া ৮১ সদস্যের মধ্যে ৪২ জনের নাম জানিয়ে দলের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। আজ সভাপতিমণ্ডলীর সভা শেষে দলটির পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে।

২৬ ডিসেম্বর বিএনপির মনোয়ন ফরম বিক্রি
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট: ঢাকার দুই সিটিতে মেয়র পদে এবার দলীয় প্রতীকে ভোট হবে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরুর পরদিন বিএনপি তাদের মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু করবে। সন্দেহ আর শঙ্কা নিয়েই রাজধানীর দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ নিতে যাচ্ছে বিএনপি।

ফখরুল বলেন, ধানের শীষ প্রতীকে লড়তে আগ্রহী প্রার্থীদের মধ্যে মনোনয়ন ফরম বিতরণ করা হবে ২৬ ডিসেম্বর সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত, তা জমা নেওয়া হবে ২৭ ডিসেম্বর বিকাল ৪টা পর্যন্ত।

মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার হবে ২৮ ডিসেম্বর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে। এরপর মেয়র পদে চূড়ান্ত প্রার্থী ঘোষণা করবে বিএনপি।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী এবারের সিটি নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র জমা নেওয়া হবে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। ২ জানুয়ারি মনোনয়নপত্র বাছাই ও ৯ জানুয়ারি মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ সময়। ৩০ জানুয়ারি হবে ভোটগ্রহণ।

খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও তার বিচার ও জামিনের বিষয়ে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বিবৃতি দেওয়ায় সংস্থার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে বিএনপির স্থায়ী কমিটি।

ফখরুল বলেন, “শুধু দেশে নয়, এখন আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোও দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে সরকার যে নাটক করছেন, তাকে প্রপার ট্রিটমেন্ট দিচ্ছে না, তা নিয়ে কনসার্নাড হয়ে উঠছে।”

স্থায়ী কমিটির বৈঠকে লন্ডন থেকে স্কাইপে যুক্ত হয়ে সভাপতিত্ব করেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। ফখরুল ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন খন্দকার মোশাররফ হোসেন, জমিরউদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সেলিমা রহমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।

সরকারের মধ্যে দলকে গুলিয়ে ফেলা যাবে না : ওবায়দুল কাদের
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : সরকারের মধ্যে দলকে গুলিয়ে ফেলা যাবে না মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, দল শক্তিশালী না হলে সরকার শক্তিশালী হবে না। শক্তিশালী সরকারের জন্য দল শক্তিশালী হতে হবে। শক্তিশালী সরকারের জন্য শেখ হাসিনার শক্তিশালী আওয়ামী লীগ সংগঠন অপরিহার্য। তাই আমাদের দলকে কলহ, কোন্দলমুক্ত করতে হবে।

শনিবার সকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে কাউন্সিল অধিবেশনে বক্তৃতাকালে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, কিছু কিছু নেতা বিশৃঙ্খলা করেন। তা বন্ধ করতে হবে। আমাদের দলে লাখ লাখ কর্মী আছে, বিতর্কিতদের দলে দরকার নেই। বসন্তের কোকিলেরা সুসময়ে থাকবে, দুঃসময়ে তাদের পাওয়া যাবে না।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, মাদক, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, ক্ষমতার অপব্যবহারকারীদের বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার অ্যাকশন শুরু হয়েছে। অপকর্ম যারা করেন কখন যে ধরা পড়বেন বলতে পারবেন না। দলে বিশুদ্ধ রক্ত সঞ্চালনের তাগিদ দেন তিনি। অসুস্থ ও অসচ্ছল নেতাদের পাশে দাঁড়াতে বলেন সবাইকে।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে। বাংলাদেশের গণতন্ত্রকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে।

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানাকে পাশে পেয়েছেন জানিয়ে তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ওবায়দুল কাদের।

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তির প্রসঙ্গ টেনে কাদের বলেন, সেই জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মমতাময়ী মায়ের মতো আমার পাশে দাঁড়িয়েছিলেন। সেসময় সিদ্ধান্ত গ্রহণ ছিল খুবই জরুরি। তিনি ভারত থেকে দ্রুততায় দেবী শেঠির মতো বিশিষ্ট চিকিৎসককে যদি ডেকে না আনতেন তাহলে কী হতো আমি জানি না।

সে স্মৃতি আজ বারবার মনে পড়ছে জানিয়ে কাদের দলের সভাপতির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

বঙ্গবন্ধুর আরেক কন্যা শেখ রেহানা কোরআন শরিফ পড়ে আওয়ামী লীগের এই সাধারণ সম্পাদকের জন্য দোয়া করেছেন বলেও জানান কাদের।

বিএনপির চার নেতাকে আ.লীগের সম্মেলনে আমন্ত্রণ
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলনে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ চার নেতাকে।

বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সদস্য জিয়াউদ্দিন আহমেদ সিপু গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ কার্ড পৌঁছে দেন।

বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন নসু কার্ড গ্রহণ করেছেন।

আমন্ত্রণ পাওয়া বিএনপির অন্য তিন নেতা হলেন- দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও মির্জা আব্বাস।

আগামীকাল শুক্রবার ও শনিবার রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। তিনবছর পর পর আওয়ামী লীগের এই জাতীয় সম্মেলন হয়।

নবীন-প্রবীণের সমন্বয়ে আওয়ামী লীগের নতুন কমিটি হবে : ওবায়দুল কাদের
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নবীন-প্রবীণের সমন্বয়ে আওয়ামী লীগের নতুন কমিটি গঠন করা হবে। নতুন কমিটিতে একমাত্র শেখ হাসিনা ছাড়া আর কেউই অনিবার্য নয়। শেখ হাসিনাই একমাত্র ব্যাক্তি যাকে সভাপতির পদে থাকতে হবে।

বৃহস্পতিবার ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের সম্মেলন স্থল পরিদর্শন করার সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন ।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের সংগঠন পরিচালনাকালে সফলতার পাশাপাশি কিছু ব্যর্থতাও আছে নেতাকর্মীদের। তবে ভুল-ত্রুটি যাই হোক সেগুলো শুধরে আগামীতে একটি শক্তিশালী দল হিসেবে আমরা সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চাই।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমি দলের সাধারণ সম্পাদক থাকবো কিনা, তা জানেন আল্লাহ এবং আমাদের দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরবর্তী সাধারণ সম্পাদকের জন্য সবাইকে ২১ তারিখ পর্যন্ত অপেক্ষার করতে হবে।

যোগ্যরাই নেতৃত্বে আসবে জানিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মিশন ও ভিশন বাস্তবায়নে উপযোগী শক্তি হিসেবে যারা কাজ করবে, যারা যোগ্য তারাই নেতৃত্ব আসবে। তাদের নেতৃত্বে নতুন করে আওয়ামী লীগকে গড়ে তোলা সম্মেলনের মূল লক্ষ্য।

দল ও সরকার আলাদা করা হবে কি না? জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, দল ও সরকার গুলিয়ে ফেলার কোনো বিষয় নেই। দলের কাজ পরিচালনা করেন দলের নেতারা আর সরকারের মধ্যে যারা আছেন তারা তাদের কাজ করেন।

সম্মেলন প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, সম্মেলনের দিন আমাদের নেতাকর্মীরা যার যার দায়িত্ব পালনে সচেষ্ট থাকবে। শৃঙ্খলার মধ্যে দিয়ে বুঝা যাবে শৃঙ্খলার সঙ্গে কতটা সংযুক্ত আমরা। এ সম্মেলন উপলক্ষে আমাদের কাজ, চিন্তা-চেতনা সব কিছুতেই যেনো আদর্শ থাকে। সম্মেলনে যেসব উপকমিটি আছে যার যার দায়িত্ব পালন করবেন। সম্মেলনকে সফল করার জন্য শৃঙ্খলা উপকমিটির বিশাল দায়িত্ব। কেউ কার চেয়ার বসলে তাকে বলে দিতে হবে। যেকোনো মূলে শৃঙ্খলা বজায় রাখতে হবে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, এবার সম্মেলন উপস্থিতির দিক থেকে স্মরণকালের বৃহত্তর সভা হবে। এদিক থেকে কোনো সন্দেহ নেই। প্রমাণ করতে হবে বিজয়ের মাসে বড় সভা সবচেয়ে সুশৃঙ্খল পরিবেশ। সেইদিকে সকলকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ মাহাবুব উল আলম হানিফ, দীপু মনি, জাহাঙ্গীর কবির নানক এবং সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম প্রমুখ।

বিএনপিতে অবৈধ সরকারের এজেন্ট ঢুকে পড়েছে: ফখরুল
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট: বিএনপিতে অবৈধ সরকারের বিভিন্ন এজেন্ট ঢুকে পড়েছে, ঢুকে বিভিন্নভাবে আমাদের মধ্যে পার্থক্য সৃষ্টি করতে চায়, বিভিন্ন রকম কথা বলে আমাদের বিভ্রান্ত করতে চায় বলে দাবি করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতে দলের মধ্যে সরকারের এজেন্ট ঢুকে পড়েছে। আমি দলের সবাইকে আহ্বান করব, সরকার পতন আন্দোলনের জন্য প্রস্তুতি নেয়ার।

রবিবার রাজধানীর সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে বিএনপির উদ্যোগে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।
 
তিনি বলেন, আমরা খুব পরিষ্কার করে বলতে চাই, সময় নেই। অবিলম্বে এ পার্লামেন্ট বাতিল করুন, পার্লামেন্ট বাতিল করে একটি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সে তত্ত্বাবধায়ক সরকার যেটা আগে ছিল, সেটি গঠন করে একটা নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের অধীনে অবিলম্বে নির্বাচন দিন। অন্যথা জনগণের আন্দোলন আপনাকে ফেস করতে হবে। তখন আর আপনি কোনো সময় পাবেন না।


আগাম জামিন আবেদন মির্জা ফখরুলের
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট: গত ১১ ডিসেম্বর সুপ্রিমকোর্ট এলাকায় তিন মোটরসাইকেলে আগুন দেয়ার ঘটনায় করা মামলায় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলটির সিনিয়র নেতারা আগাম জামিনের আবেদন করেছেন। মির্জা ফখরুল ছাড়া যারা জামিন আবেদন করেছেন, তারা হলেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির মির্জা আব্বাস, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, মেজর (অব.) হাফিজউদ্দিন আহমেদ, জয়নুল আবেদীন, যুগ্ম মহাসচিব মাহবুব উদ্দিন খোকন, হাবিব-উন নবী খান সোহেলসহ ২১ জন।

রোববার হাইকোর্টের পৃথক বেঞ্চে এ আবেদনের ওপর শুনানি হতে পারে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিএনপিপন্থী আইনজীবী সগির হোসেন লিয়ন।

১১ ডিসেম্বর বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে হাইকোর্টের মাজার গেট, ঈদগাহ মাঠের গেট ও বার কাউন্সিলের গেটের সামনে তিনটি মোটরসাইকেলে আগুন দেয়া হয়। এ ঘটনায় পরে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ১৩৫ জনকে আসামি করে দুটি মামলা করা হয়। ১২ ডিসেম্বর মামলা করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডিএমপির রমনা বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) সাজ্জাদুর রহমান।

তিনি জানান, হাইকোর্ট এলাকায় মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ করে নাশকতার অভিযোগে শাহবাগ থানায় দুটি মামলা করা হয়েছে। এক মামলায় আসামির সংখ্যা ৭০ এবং আরেকটিতে ৬৫ জন।

বিকেলে খালেদার সঙ্গে দেখা করবেন স্বজনরা
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট: আজ শনিবার বিকেল ৩টায় খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে যাবেন তাঁর স্বজনেরা।

বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং কর্মকর্তা শামসুদ্দিন দিদার বলেন, ‘১৫ দিন পর পর খালেদা জিয়ার সঙ্গে তার পরিবারের সদস্যদের সাক্ষাতের কথা থাকলেও এক মাস পর এবার সাক্ষাতের অনুমতি দেয়া হয়েছে।’

উল্লেখ্য, সর্বশেষ গত ১৩ নভেম্বর চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার সঙ্গে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় গিয়ে তার স্বজনরা সাক্ষাৎ করেন।

ভারতের এনআরসি উপমহাদেশে সংঘাত সৃষ্টি করবে: মির্জা ফখরুল
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন উপমহাদেশে সাম্প্রদায়িক রাজনীতি উসকে দেওয়ার পাশাপাশি সংঘাত সৃষ্টি করবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শনিবার শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে রায়েরবাজার শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানাতে এসে তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ভারতের এনআরসি যে বিষয়টা আমরা প্রথম থেকেই বলছি, আমরা অত্যন্ত উদ্বিগ্ন এবং এনআরসি আমাদের স্বার্বভৌমত্বের ওপর হুমকি বলে মনে করছি। অতীতেও আমরা উল্লেখ করেছি, আজকে যে অবস্থা তৈরি হয়েছে- এটা শুধু বাংলাদেশে নয়, সমগ্র উপমহাদেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করবে, সংঘাত সৃষ্টি করবে। এবং রাজনীতির যে মূল বিষয়গুলো ছিল উদারপন্থী গণতান্ত্রিক রাজনীতি, অসাম্প্রদায়িক রাজনীতি সেই বিষয়গুলো ধ্বংস করে দিয়ে একটি সাম্প্রদায়িক রাজনীতিকে প্রতিষ্ঠা করার জন্য এ ধরনের প্রয়াস চালানো হচ্ছে।

তিনি বলেন, আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধের যে চেতনা, আমাদের স্বাধীন স্বার্বভৌম বাংলাদেশ, গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করবার যে স্বপ্ন, সেই স্বপ্ন বর্তমান অগণতান্ত্রিক সরকার আজকে ভেঙে খান খান করে দিয়েছে। তারা বাংলাদেশের অর্জনগুলোকে, জাতির অর্জনগুলোকে ধ্বংস করে ফেলেছে। আমরা আজকে একটা গণতন্ত্র বিহীন, জনগণের অধিকার বিহীন একটা অবস্থার মধ্যে বিরাজ করছি।

বিএনপির এ নেতা বলেন, আজকে যখন আমাদের নেত্রী কারাগারে, যখন আমাদের হাজার হাজার নেতাকর্মী কারাগারে, মিথ্য মামলায় আজকে গণতান্ত্রিক দলগুলোকে স্তব্দ করে দেয়ার চেষ্টা হচ্ছে, বিএনপিকে যখন নির্মূল করার চেষ্টা হচ্ছে সেই সময়ে আজকে সবচেয়ে বড় প্রয়োজন যেটা সমস্ত জাতির ঐক্য। আজকে সম্পূর্ণকে ঐক্যবদ্ধ করে গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠার জন্য আমাদের সবাইকে সংগ্রাম করতে হবে।

মির্জা ফখরুল আরও বলেন, আজকে আমাদের এই দিনে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের পথ অনুসরণ করে দেশের স্বাধীনতাকে স্বার্বভৌমত্ব রক্ষা করবার জন্যে, গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনার জন্যে আমাদের সংগ্রামের আরও গতি বাড়াব, সংগ্রামকে আরও বেগবান করব। ইনশাআল্লাহ, জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বিজয় অর্জন করব।

রাজধানীতে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল
                                  

স্বাধী বাংলা রিপোর্ট: কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন বিএনপি ও এর  অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে আজ শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) সকালে এ বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।

মগবাজার মোড় থেকে শুরু হয়ে মিছিলটি মগবাজার রেলগেটে গিয়ে শেষ হয়। বিএনপি নেতাকর্মীদের অভিযোগ, এ সময় গলির ভেতর থেকে ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা বিএনপির মিছিলে ধাওয়া দেন। কয়েকটি গাড়িতেও ইটপাটকেল ছোঁড়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন বিএনপির নেতাকর্মীরা।

বিক্ষোভ মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে রুহুল কবির রিজভী বলেন, ২৯ ডিসেম্বরের রাতের ভোটের সরকার সব অবৈধ ক্ষমতার জোরে খালেদা জিয়াকে বন্দি করে রেখেছে। গুরুতর অসুস্থ নেত্রীর জামিনে বাধা দেওয়া হচ্ছে। এখন তাঁর জামিন নিয়ে পুরোদমে টালবাহানা চলছে। দেশজুড়ে অরাজকতা, অনাচার, দুরাচার ঢাকতেই খালেদা জিয়াকে এখনো মুক্তি দেওয়া হচ্ছে না।

খালেদার মেডিক্যাল প্রতিবেদন পাল্টে দেওয়ার ব্যবস্থা হচ্ছে: ফখরুল
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট: কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপরসন খালেদা জিয়ার মেডিক্যাল প্রতিবেদন পাল্টে দেওয়ার ব্যবস্থা করছে সরকার বলে মন্তব্য করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আজ বুধবার (১১ ডিসেম্বর) রাজধানীর একটি হোটেলে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে বিএনপি আয়োজিত গোলটেবিল আলোচনায় এই অভিযোগ করেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মির্জা ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়ার শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে সুপ্রিমে কোর্টে যে মেডিক্যাল রিপোর্ট জমা দেওয়ার কথা ছিল সেটি এখন পর্যন্ত জমা দেওয়া হয়নি। আমরা যেটুকু জানি বিএসএমএমইউ কর্তৃপক্ষের রিপোর্ট দেওয়ার কথা ছিল সেই রিপোর্ট বাদ দিয়ে অন্য একটি রিপোর্ট দেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। এ দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা খালেদা জিয়াকে একটি মিথ্যা মামলায় গত ২০ মাস ধরে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে। এসব মামলায় যারা আসামি আছেন তারা সবাই জামিন পেয়েছেন এবং জামিনে আছেন। কিন্তু দেশনেত্রীকে জামিন দেওয়া হচ্ছে না। বিভিন্নভাবে সরকার তাঁর জামিনে বাধাগ্রস্ত করছে।

গোলটেবিল আলোচনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সেলিমা রহমান প্রমুখ।



   Page 1 of 80
     রাজনীতি
নির্বাচন কমিশন ব্যর্থ-অযোগ্য: ফখরুল
.............................................................................................
ভোটারদের কেন্দ্রে যেতে সহযোগিতা করবে বিএনপি: তাবিথ আউয়াল
.............................................................................................
ইসির ভূমিকা সন্তোষজনক নয়: তাবিথ আউয়াল
.............................................................................................
ঢাকা সিটি নির্বাচন পরিচালনায় দক্ষিণে মোশাররফ, উত্তরে মওদুদ
.............................................................................................
গণতন্ত্রে বিশ্বাস করি বলে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি: মির্জা ফখরুল
.............................................................................................
সন্ধ্যায় আ.লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সভা
.............................................................................................
২৬ ডিসেম্বর বিএনপির মনোয়ন ফরম বিক্রি
.............................................................................................
সরকারের মধ্যে দলকে গুলিয়ে ফেলা যাবে না : ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
বিএনপির চার নেতাকে আ.লীগের সম্মেলনে আমন্ত্রণ
.............................................................................................
নবীন-প্রবীণের সমন্বয়ে আওয়ামী লীগের নতুন কমিটি হবে : ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
বিএনপিতে অবৈধ সরকারের এজেন্ট ঢুকে পড়েছে: ফখরুল
.............................................................................................
আগাম জামিন আবেদন মির্জা ফখরুলের
.............................................................................................
বিকেলে খালেদার সঙ্গে দেখা করবেন স্বজনরা
.............................................................................................
ভারতের এনআরসি উপমহাদেশে সংঘাত সৃষ্টি করবে: মির্জা ফখরুল
.............................................................................................
রাজধানীতে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল
.............................................................................................
খালেদার মেডিক্যাল প্রতিবেদন পাল্টে দেওয়ার ব্যবস্থা হচ্ছে: ফখরুল
.............................................................................................
দেশে সর্বক্ষেত্রে দুর্নীতি শুরু হয়েছে : ফখরুল
.............................................................................................
ত্যাগী কর্মীদের নেতা বানানো হবে : ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে সরকার নাটক করছে : ফখরুল
.............................................................................................
বিএনপি অরাজকতা করলে সমুচিত জবাব দেওয়া হবে : ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
‘বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে বললে জিহ্বা ছিঁড়ে ফেলবে ছাত্রলীগ’
.............................................................................................
গ্রামকে শহরে রূপান্তর করা হবে: পরিকল্পনামন্ত্রী
.............................................................................................
তথ্য অধিকার আইনের আশ্রয় নিচ্ছে বিএনপি
.............................................................................................
সৈরশাসনের বিদায়ের সাথে শাসন ব্যবস্থা ও বদলাতে হবে: আ স ম রব
.............................................................................................
ক্ষমা চাইলেন রাঙ্গা
.............................................................................................
সংসদ সদস্য মইন উদ্দীন খান বাদল আর নেই
.............................................................................................
দেশের পথে খোকার মরদেহ
.............................................................................................
কৃষক লীগের সম্মেলন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
আখাউড়ায় আ.লীগের সম্মেলন স্থগিত
.............................................................................................
আন্দোলনের জন্য দল ঢেলে সাজানো হচ্ছেঃ এমপি সিরাজ
.............................................................................................
স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি কাওসারকে অব্যাহতি
.............................................................................................
সরকার ছাত্ররাজনীতি বন্ধের পক্ষে নয়: কাদের
.............................................................................................
ফাহাদ হত্যায় জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে : ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
দুর্বৃত্তায়নের চক্র ভেঙে দিতেই শুদ্ধি অভিযান : ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
সরকারের পায়ের নিচে মাটি নাই: খন্দকার মাহবুব
.............................................................................................
বিএনপি নেতাদের অবৈধ সম্পদের তথ্যও বের করা হবে : ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
বাহ! হুইপপুত্রের অস্ত্র মহড়া
.............................................................................................
ঢাবিতে ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিষিদ্ধের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবী ইসলামী আন্দোলনের
.............................................................................................
ফিতা কাটতে একদিনই ওই ক্লাবে গিয়েছি : মেনন
.............................................................................................
বিএনপির উচিত প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ দেওয়া : ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে ক্ষমা চাইলেন রাব্বানী
.............................................................................................
এবার সিনেট থেকে পদত্যাগ চেয়ে শোভনের আবেদন
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধুর ছাত্রলীগ কখনো আদর্শচ্যুত হতে পারে না: জয়
.............................................................................................
ছাত্রদলের নিজেদের মামলয় কাউন্সিল বন্ধ: কাদের
.............................................................................................
শোভন-রব্বানীর বিরুদ্ধে নতুন বোমা ফাটালেন জগন্নাথের জয়নুল আবেদীন রাসেল
.............................................................................................
চতুর্দিকে শুধু লুট, একটি পর্দার দাম ৩৭ লাখ: ফখরুল
.............................................................................................
মিথ্যা মামলায় হয়রানীর শিকার আ.লীগ নেতা
.............................................................................................
‘জনগণের পকেট কাটতেই মহাসড়কে টোল আদায়ের সিদ্ধান্ত’
.............................................................................................
জি এম কাদেরের হুঁশিয়ারি
.............................................................................................
রওশনকে চেয়ারম্যান ঘোষণা জাপার একাংশের
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Nytasoft