রবিবার, ২৫ অগাস্ট ২০১৯ | বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   রাজনীতি -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ভৈরবে আইভি রহমানের মৃত্যু বার্ষিকী পালন

ভৈরব প্রতিনিধি: নারী আন্দোলনের অগ্রদূত আইভি রহমানের ১৫তম  শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে ভৈরবে নানা কর্মসূচীর মধ্যদিয়ে এদিনটি পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে আজ সকাল ৯টায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে নির্মিত আইভি রহমান স্মৃতিস্তম্ভে ভৈরব উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আলাহাজ্ব মো: সায়দুল্লাহ মিয়া, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি এসএম বাকি বিল্লাহ ও সাধারণ সম্পাদক আতিক আহমেদ সৌরভ, উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক অরুণ আল আজাদ, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি খুরিলুর রহমান লিমনের নেতৃত্বে পুস্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে তাঁর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এছাড়াও সকাল সাড়ে ১০টায় হাজী আসমত আলি কলেজে স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিল হয়।
২০০৪ সালের ২১আগস্ট ঢাকার বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামীলীগের সন্ত্রাসবিরোধী জনসভায় ঘাতকের ছোঁড়া গ্রেনেডে মারাত্মকভাবে আহত হয়ে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে তিন দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৪ আগষ্ট তিনি মৃত্যুবরণ করেন।
শহীদ আইভি রহমানের এমন আষ্কমিক মৃত্যুতে ভৈরববাসী গভীরভাবে শোকাহত। শোকাহত আওয়ামীলীগের দলীয় নেতাকর্মীরা।  তাঁর মৃত্যুর দীর্ঘ ১৪ বছরের সাধারন মানুষের শূন্যস্থান যেন আরো বড় হয়েছে। ভৈরববাসী আইভি রহমান হত্যাসহ গ্রেনেড হামলায় আহত ও নিহত হওয়া নেতাকর্মীদের হত্যাকারীদের বিচারের দাবী জানিয়েছেন বর্তমান সরকারের নিকট।

ভৈরবে আইভি রহমানের মৃত্যু বার্ষিকী পালন
                                  

ভৈরব প্রতিনিধি: নারী আন্দোলনের অগ্রদূত আইভি রহমানের ১৫তম  শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে ভৈরবে নানা কর্মসূচীর মধ্যদিয়ে এদিনটি পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে আজ সকাল ৯টায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে নির্মিত আইভি রহমান স্মৃতিস্তম্ভে ভৈরব উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আলাহাজ্ব মো: সায়দুল্লাহ মিয়া, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি এসএম বাকি বিল্লাহ ও সাধারণ সম্পাদক আতিক আহমেদ সৌরভ, উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক অরুণ আল আজাদ, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি খুরিলুর রহমান লিমনের নেতৃত্বে পুস্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে তাঁর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এছাড়াও সকাল সাড়ে ১০টায় হাজী আসমত আলি কলেজে স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিল হয়।
২০০৪ সালের ২১আগস্ট ঢাকার বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামীলীগের সন্ত্রাসবিরোধী জনসভায় ঘাতকের ছোঁড়া গ্রেনেডে মারাত্মকভাবে আহত হয়ে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে তিন দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৪ আগষ্ট তিনি মৃত্যুবরণ করেন।
শহীদ আইভি রহমানের এমন আষ্কমিক মৃত্যুতে ভৈরববাসী গভীরভাবে শোকাহত। শোকাহত আওয়ামীলীগের দলীয় নেতাকর্মীরা।  তাঁর মৃত্যুর দীর্ঘ ১৪ বছরের সাধারন মানুষের শূন্যস্থান যেন আরো বড় হয়েছে। ভৈরববাসী আইভি রহমান হত্যাসহ গ্রেনেড হামলায় আহত ও নিহত হওয়া নেতাকর্মীদের হত্যাকারীদের বিচারের দাবী জানিয়েছেন বর্তমান সরকারের নিকট।

তারেককে ফিরিয়ে আনতে সরকার সর্বাত্মক চেষ্টা করছে : ওবায়দুল কাদের
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেশে ফেরাতে সরকারের উদ্যোগের কমতি নেই জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সরকার তাকে ফিরিয়ে আনতে সর্বাত্মক চেষ্টা করছে। এ ব্যাপারে আইন মন্ত্রণালয় কাজ করছে। রাজনৈতিক বাধা ও চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করেই এগিয়ে যাচ্ছি আমরা।

রাজধানীর বনানী কবরস্থানে শনিবার সকালে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত আইভী রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, গণতন্ত্রের সংগ্রামে আইভি রহমান ছিলেন আপসহীন। তিনি ছিলেন বাংলাদেশের রাজনীতিতে নারীদের একজন নক্ষত্র।

তিনি বলেন, গ্রেনেড হামলায় আইভি রহমান রক্তাক্ত অবস্থায় কাতরাচ্ছিলেন। কিন্তু সময়মতো চিকিৎসা পাননি। চিকিৎসায় বিলম্ব না হলে হয়তো তিনি বেঁচে যেতেন।

তিনি আরও বলেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় হয়েছে। এখন উচ্চ আদালাতে শুনানি হবে। সেজন্য পূর্ণাঙ্গ রায়ের জন্য আমাদের অপেক্ষা করতে হবে।

আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, মাস্টারমাইন্ডদের সর্বোচ্চ বিচার হওয়া উচিত। এটা আমরা আবারও ব্যক্ত করছি। সে ব্যাপারে আইনি, কূটনৈতিক, আইন প্রক্রিয়া, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, আইন মন্ত্রণালয় কাজ করছে তাকে ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক আফজাল হোসেন, নির্বাহী সদস্য এবিএম রিয়াজুল কবির কাওসার প্রমুখ।

জামায়াত নেতার নাতনি শ্রমিকলীগ নেত্রী
                                  

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: আওয়ামীলীগে জামায়াতের অনুপ্রবেশ নিয়ে দীর্ঘদিন থেকেই   সমালোচনা আছে। এবার নারায়ণগঞ্জ জেলা শ্রমিক লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদকের পদ পেয়েছেন বন্দর জামায়াত আমীরের নাতনি। ওই নেত্রীর নাম হাসিনা রহমান সিমু। আর এ নিয়ে নারায়ণগঞ্জ জুড়ে চলছে ব্যাপক সমালোচনা।

রাজনীতির পাশাপাশি একাধিক সমাজসেবামূলক সংগঠনের সঙ্গে জড়িত সিমু। প্রতিষ্ঠা করেছেন অটিজম শিশুদের জন্য একটি স্কুল। পাশাপাশি প্রতিষ্ঠা করেছেন ‘সিমু আনন্দধাম বৃদ্ধাশ্রম’। হঠাৎ করে রাজনৈতিক ও সামাজিকভাবে আলোচনা আসেন সিমু। জামায়াত আমিরের নাতি হওয়ায় তাকে নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা চলছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত হলেও সিমুন নানা জামায়াত নেতা। তার নানা জাফর সাদেক ভূইয়া ছিলেন বন্দর থানা জামায়াতের আমির। নানার পরিচয় গোপন রেখে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছেন সিমু। বর্তমানে জেলা শ্রমিক লীগের গুরুত্বপূর্ণ পদে রয়েছেন তিনি।

বছর খানেক আগে আওয়ামী লীগ সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, যুদ্ধাপরাধী কিংবা জামায়াতের ইসলামীর কেউ যেন তাদের দলে যোগ দিতে না পারে। জামায়াত-শিবিরের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত এমন কোনো নেতার পরিবারের সদস্যদের আওয়ামী লীগের যোগদানের বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বার বার এসব সুবিধাবাদীর সম্পর্কে দলীয় নেতাকর্মীদের সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। ২০১৫ সালের ৮ নভেম্বর এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি-জামায়াত থেকে কাউকে দলে নিতে নিষেধও করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

তৃণমূল থেকে ওপর পর্যন্ত লুটপাট চলছে: মির্জা ফখরুল
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আগে সরকার ছিল অব দ্য পিপল, বাই দ্য পিপল, ফর দ্য পিপল। এখন হয়েছে, অব দ্য লুটেরাস, বাই দ্য লুটেরাস, ফর দ্য লুটেরাস। এছাড়া আর কিছু নেই। একেবারে তৃণমূল থেকে ওপর পর্যন্ত এখন লুটপাট চলছে। টিআর-কাবিখা থেকে শুরু করে একেবারে মেগা প্রজেক্ট পর্যন্ত সব জায়গায় ভাগ-বাটোয়ারা চলছে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘আমার দেশ আমার শিল্প’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। এ সভার আয়োজন করে বিএনপিপন্থী গবেষণা প্রতিষ্ঠান ন্যাশনালিস্ট রিসার্স সেন্টার।

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশের সংকট উত্তরণের জন্য সুষ্ঠু একটি নির্বাচনের মধ্যে দিয়ে জনগণের পছন্দের সরকার প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। এ জন্য প্রথম প্রয়োজন নির্বাচন কমিশন ভেঙে দেওয়া এবং নির্বাচনী সময়ের জন্য একটি নিরপেক্ষ সরকার প্রতিষ্ঠা করা। যাদের কাজ হবে দেশে একটি অবাদ-সুষ্ঠু নির্বাচন করা। দেশ বাঁচাতে হলে দেশপ্রেমিক নেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনতে হবে। সম্পূর্ণ জনগণের ম্যান্ডেট নেওয়া সরকার প্রতিষ্ঠায় নতুন নির্বাচন করতে হবে। এর বাইরে দেশের জনগণের সংকট উত্তরণ ও আশা-আকাঙ্কা পূরণের কোনো বিকল্প নেই।

এ সময় সরকার পরিকল্পিতভাবে চামড়া শিল্পকে ধ্বংস করছে বলে অভিযোগ করেন বিএনপি মহাসচিব। তিনি বলেন, দেশের পত্র-পত্রিকা এমনকি ভারতের পত্রিকায়ও খবর বেরিয়েছে। অথচ বাংলাদেশের বেনাপোল থেকে মাত্র ১০০ কিলোমিটার দূরে বানতলা নামক স্থানে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের ছোট একটি চামড়া শিল্প নগরী ছিল। সেটাকে এখন নতুন করে বড় আকারে একটি লেদার সিটি হিসেবে গড়ে তোলা হচ্ছে। সেখানে পশ্চিমবঙ্গ সরকার ৮০ হাজার কোটি টাকা নতুন করে বিনিয়োগ করেছে। ইতালি থেকে বিনিয়োগকারী আনা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিছুদিন আগে সেটা উদ্বোধন করেছেন। ভারতের কানপুরের সব ট্যানারি বন্ধ হয়ে গেছে। সেখানকার ট্যানারি মালিকরাও বাংলাদেশের সীমান্তের কাছে ওই (বানতলায়) লেদার সিটিতে নতুন করে ব্যবসা শুরু করার অনুমতি নিচ্ছে। এতে পশ্চিমবঙ্গের অর্থনীতিতে একটা নতুন অধ্যায়ের শুরু হয়েছে।

ফখরুল বলেন, জানি না কতো দূর সত্য, শুনতে পারলাম মেগা প্রকল্প মেট্রোরেল ও এলিভেটেট এক্সপ্রেসওয়ের টিকিটিং ব্যবস্থাপনার দায়িত্বও সরকারের লোকদের দেওয়া হচ্ছে। স্ট্যান্ডগুলো তাদের একেকজন লোকের মধ্যে ভাগ করে দেওয়া হচ্ছে। বিদেশিদের না-কি বাধ্য করা হয়েছে, টিকিটের দায়িত্ব সরকারের লোকজনদের দিতে। এই যদি অবস্থা হয়, তাহলে এটা লুটপাট ছাড়া আর কিছু নয়।

আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, বরকতউল্লাহ বুলু, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল।

১৪ সেপ্টেম্বর ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কাউন্সিল
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট: কাউন্সিলরদের সরাসরি ভোটে আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর বিএনপির সহযোগী সংগঠন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কাউন্সিল হতে যাচ্ছে।
গতকাল শুক্রবার বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে নেতৃত্ব বাছাইয়ের দায়িত্বে থাকা সার্চ কমিটি বৈঠক করে এ তারিখ চূড়ান্ত করে।
সন্ধ্যায় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ভিডিও কনফারেন্সে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সঙ্গে এ বৈঠক হয়।
সার্চ কমিটির এক সদস্য জানান, বিএনপির সম্পাদকমণ্ডলীর এক নেতা বলেন, আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কাউন্সিলের তারিখ নির্ধারণ করে দিয়েছেন তারেক রহমান। তবে ঈদের পরে সংবাদ সম্মেলন করে এ তারিখ ঘোষণা করা হবে।
তিনি বলেন, শুধু সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে সরাসরি ভোট হবে। নির্বাচনে প্রার্থী হতে ইচ্ছুকদের অবশ্যই ২০০০ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থী হতে হবে। বিবাহিতরা প্রার্থী হতে পারবেন না। তবে ঢাকা মহানগরের চারটি ইউনিটেরও শীর্ষ দুই পদে (সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক) সরাসরি ভোট করার চিন্তা রয়েছে। সেটা নিয়ে এখন আলোচনা চলছে। কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।
সূত্র জানায়, দীর্ঘ ২ ঘণ্টার বৈঠকে সার্চ কমিটির সঙ্গে আলোচনা করে ছাত্রদলের আগামী কাউন্সিলের তারিখ চূড়ান্ত করেন তারেক রহমান।
এছাড়াও শিগগিরই ছাত্রদলের কাউন্সিল নিয়ে সংগঠনটির অভ্যন্তরীণ সংকটের কারণে বহিষ্কার ১২ ছাত্র নেতার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হবে। তাদের ছাত্রদলের কাউন্সিলের বিভিন্ন কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করারও সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারেক রহমান।
এর আগে গত ১৫ জুলাই ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কাউন্সিলের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছিল।
সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র বিতরণ ও জমা নেয়া হবে। যোগ্যতার ক্ষেত্রে প্রার্থীকে ২০০০ সালের এসএসসি অথবা সমমানের পরীক্ষায় পাস হতে হবে।
তবে রেজিস্ট্রেশন অবশ্যই ১৯৯৮ সালের হতে হবে। সেক্ষেত্রে প্রমাণের জন্য এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাসের সার্টিফিকেট ও রেজিস্ট্রেশনের কপি জমা দিতে হবে।
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্রত্ব আছে এমন প্রমাণপত্র অবশ্যই দাখিল করতে হবে। প্রার্থীকে ন্যূনতম স্নাতক পাস হতে হবে এবং পাসের সার্টিফিকেটের সত্যায়িত কপি জমা দিতে হবে। প্রার্থীকে অবশ্যই অবিবাহিত হতে হবে।
ছাত্রদলের কাউন্সিল উপলক্ষে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি প্রধান বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন যুগান্তরকে বলেন, কাউন্সিলের তারিখ ঘোষণার পর যত দ্রুত সম্ভব আনুষঙ্গিক কাজ শেষ করা হবে।

খালেদার মুক্তির দাবিতে নারায়ণগঞ্জে মানববন্ধন
                                  

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে নারায়ণগঞ্জে জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে জেলা আদালত প্রাঙ্গণে আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খানের নেতৃত্বে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সভাপতি অ্যাডভোকেট সরকার হুমায়ূন কবিরের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন- ফোরামের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম মোল্লা, ফোরামের নেতা অ্যাডভোকেট আজিজুল হক হান্টু, অ্যাডভোকেট নবী হোসেন, অ্যাডভোকেট মশিউর রহমান শাহিন, অ্যাডভোকেট রাকিবুল হাসান শিমুল প্রমুখ।

ডেঙ্গু ও আদালতে বিচারকের সামনে মানুষ হত্যা এটাও নাকি গুজব: খন্দকার মোশারফ হোসেন
                                  

টি এম এ হাছান, সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন বলেছেন, ডেঙ্গু হইছে এটাও নাকি গুজব। জজের সামনে কোর্টে আসামীকে হত্যা করা হলো এটাও নাকি গুজব। অতএব নমুনা কিন্তু ভালো না। দেশের মানুষের মধ্যে অস্বস্তি এবং ক্ষোভ এগুলো তার বহিপ্রকাশ। গণতন্ত্রকে যেখানে ধামাচাপা দেয়া হয়, দাবিয়ে রাখা হয় সেখানেই ক্ষোভ প্রকাশ পায়। এগুলো তার ফসল। অতএব বেশিদিন কিন্তু এসরকার টিকতে পারবে না।

তিনি আজ রবিবার বেলা ১২টার দিকে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার কালিয়া হরিপুর ইউনিয়নে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরন কালে একথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, গত নির্বাচনে আমাদের নেত্রীকে জেলে রাখা হয়েছে আগেই। যাতে করে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তারা গায়ের জোরে ভোট লুটকরে নিয়ে যেতে পারে। আমরা আবার বেগম খালেদা জিয়াকে জেলে রেখেই নির্বাচনে গিয়েছিলাম। চ্যালেঞ্জ হিসেবে। নির্বাচনের মাধ্যমে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি। যখন আওয়ামীলীগ দেখলো দেশের শতকরা ৮০ ভাগ মানুষ ধানের শীষে ভোট দেয়ার জন্য প্রস্তুত তখনই কিন্তু তারা আগের রাতে ভোট ডাকাতি করেছে।

এসময় বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক সাইদুর রহমান বাচ্চু প্রমুখ।

উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিরুল ইসলাম খান আলীম, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মজিবুর রহমান লেবু, নাজমুল হাসান রানা, জেলা বিএনপির যুগ্ম-সম্পাদক নুর কায়েস সবুজ, রাশেদুল হাসান রঞ্জন, মুন্সি আলম, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ সুইট প্রমুখ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া আওয়ামীলীগের সভায় প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ
                                  

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আ’লীগের সভায় উপজেলা নির্বাচনে প্রশাসনের ভূমিকায় ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। এছাড়া উপজেলাগুলোতে সম্মেলন করারও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। গত শনিবার দিনব্যাপী শহরের সুরস¤্রাট আলাউদ্দিন খা সঙ্গীতাঙ্গন মিলনায়তনে এই সভা হয়। সভায় সদর এবং বিজয়নগর উপজেলা নির্বাচনে আ’লীগ প্রার্থীর পরাজয়ের বিষয়টি গুরুত্ব পায়। দলীয় সুত্র জানায়, জেলা আ’লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মাহবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর ও বিজয়নগর উপজেলার নির্বাচনে প্রশাসনের ভূমিকায় মনে হয়েছে তারা আ’লীগ ও নৌকাকে ঠেকানোর জন্যেই মাঠে কাজ করেছে। প্রশাসন দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে যে ন্যাক্কারজনক আচরন করেছে তা ভুলার নয়। একাধারে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক মন্টু বলেন নির্বাচনের কয়েক দিন আগে ফেনীতে ফুটবল টিম নিয়ে গেলে বিভাগীয় কমিশনার আবদুল মান্নান সদরের বর্তমান এসি ল্যান্ড কামরুজ্জামনের সঙ্গে পরিচয় করান। তার ভাতিজা পরিচয় দিয়ে দেখে রাখার জন্যে মন্টুকে বলেন মান্নান। কিন্তু এর পর পরই অনুষ্ঠিত উপজেলা নির্বাচনে সূর্যমুখী কিন্ডার গার্টেন কেন্দ্রে সকালে ভোট দিতে গেলে সেই (কামরুজ্জামান) তাকে লাঞ্ছিত করেন। আ’লীগের জাতীয় পরিষদ সদস্য আবুল কালাম ভূইয়া ওই নির্বাচনে প্রশাসনের লোকজনের হাতে লাঞ্ছিত হওয়ার বিবরন দেন।
উল্লেখ্য,৩১ মার্চ অনুষ্ঠিত সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রশাসনের পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ এনে পরদিন ছাত্রলীগ শহরে বিক্ষোভ করে। নৌকা ডুবানোর মুলহোতা হিসেবে চিহ্নিত করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সাবেক জেলা প্রশাসক বর্তমানে চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার আবদুল মান্নান এবং তার নির্দেশ পালনকারী ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খান,পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন খান,সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজাউল কবির,সহকারী কমিশনার(ভূমি) কামরুজ্জামান ও সদর মডেল থানার ওসি(তদন্ত)জিয়াউল হককে দায়িত্ব থেকে প্রত্যাহার করার দাবী জানায় ছাত্রলীগ। তারা ২৪ ঘন্টার আলটিমেটামও দেয়। এরপর পেরিয়েছে ৪ মাস। নির্বাচনের পরদিনই সহকারী কমিশনার(ভূমি) কামরুজ্জামানের নৌকার সমর্থকদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে ধাওয়ার ভিডিও প্রকাশ পায়। কামরুজ্জামান এখনো ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কর্মরত রয়েছেন। জেলা আ’লীগ সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী সদস্য র. আ. ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি সভাপতিত্ব করেন।  জেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকারের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সৈয়দ নজরুল ইসলাম, এডভোকেট শিবশংকর দাস, জহিরুল ইসলাম ভূঞা, হাবিবুল্লাহ বাহার, এডভোকেট নাজমুল হোসেন, এডভোকেট রাশেদুল কায়সার ভূইয়া,রফিকুল ইসলাম প্রমুখ। সভায় মাহমুদুল হক ভূঞা বক্তব্য দিতে চাইলে ব্যাক্তিগত বিষয় বলে থামানো হয়। মাহমুদসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে আইনজীবিকে মারধোর করার অভিযোগে গত ২৫ জুলাই দ্রুত বিচার আইনে মামলা হয়। আদালত তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করে। সভায় আশুগঞ্জ, সরাইল, আখাউড়া, কসবা, সদর, শহর ও বিজয়নগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সম্পন্ন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

গুজবের ফ্যাক্টরি বিএনপির কার্যালয় : কাদের
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়কে গুজবের ফ্যাক্টরি বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, বিএনপির কার্যালয় গুজবের কেন্দ্রীয় ফ্যাক্টরি। গুজবের পেছনে বিএনপির হাত রয়েছে। আমরা জানি কোথায় বসে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। বিএনপির মূল পুঁজি অপপ্রচার ও গুজব।

শনিবার ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সমাবেশে এ কথা বলেন তিনি।

কাদের বলেন, আজকে দেশের ভেতরে নানা রকম গুজব ছড়ানো হচ্ছে। দেশের বাইরে দেশও দেশকে হেয় করার জন্য অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে। এর সঙ্গে দেশ সাম্প্রতিক যে গুজব এর কোনো যোগসূত্র আছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে হবে।

সম্প্রতি পদ্মা সেতু নির্মাণে এক লাখ মানুষের মাথা লাগবে বলে গুজব ছড়িয়ে দেওয়া হয় সামাজিক মাধ্যমে। উদ্ভট হলেও বহু মানুষ এই বক্তব্যে বিশ্বাস করেছে আর উত্তেজিত হয়ে অন্তত আট জনকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে ‘ছেলেধরা’ অপবাদ দিয়ে। আরও বহুজনকে উত্তেজিত জনতার হাত থেকে রক্ষা করেছে পুলিশ।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আন্দোলনে ও নির্বাচনে ব্যর্থ, তারা আজ তাদের নেত্রীর জন্য হা-হুতাশ করছে। তাদের নেত্রীর শারীরিক অবস্থা যতটা না খারাপ, তার চেয়ে বেশি অপপ্রচার করছে।

তিনি বলেন, আজকে এই দলের কেন্দ্রীয় অফিস একটা গুজবের ফ্যাক্টরি। সেখান থেকে বসে বসে প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে একদিকে অপ্রপচার করছে, অন্যদিকে নানা গুজব রটাচ্ছে। গুজব থেকে গণপিটুনি, এই গুজবের পেছনেও এই দলটির হাত রয়েছে।

সরকারের কাছে এই বিষয়ক তথ্য থাকার দাবি করে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী কাদের বলেন, আমরা জানি, তারা কী করছে, কোথায় বসে ষড়যন্ত্র হচ্ছে? দেশে হচ্ছে, বিদেশে হচ্ছে।

তবে বিএনপি এসব গুজব ছড়িয়ে সফল হবে না বলে মনে করেন আওয়ামী লীগ নেতা। তিনি বলেন, বিএনপির ওপর থেকে জনগণের আস্থা হারিয়ে ফেলেছে। তারা এখন কোন সত্য কথা বললেও মানুষ বিশ্বাস করে না। তাদের অবস্থা গল্পের ওই রাখাল বালকের মতো। যেদিন সত্যি বাঘ আসলো মানুষ তার কথা বিশ্বাস করল না, ডাকে সাড়া দিল না। তাদের প্রতি আস্থাহীনতা এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে গল্পের রাখাল বালকের মত বেগম জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে অপপ্রচার করে বেড়াচ্ছে।

‘দেড় বছর বেগম জিয়া কারাগারে কিন্তু তারা দেড় মিনিটের জন্যও আন্দোলন করতে পারলো না!’

বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক শক্তিগুলো দুর্বল হয়ে গেলেও একেবারে শেষ হয়ে যায়নি বলেও সতর্ক করেন কাদের। বলেন, তারা তলে তলে ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে। সাম্প্রদায়িক শক্তিগুলো এখনো দেশের অভ্যন্তরে নানা চক্রান্ত চালিয়ে যাচ্ছে। দেশের বাইরেও দুই একটা চালাচ্ছে।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা মোহাম্মদ আবু কাউসারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ নাথ।

গুজবে গ্রেফতার ৭০ ভাগই বিএনপি জামায়াতের : তথ্যমন্ত্রী
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, পদ্মা সেতুতে মাথা লাগবে বলে সারাদেশে যে গুজব ছড়িয়েছে, তাতে বিএনপি-জামায়াত জোটের ইন্ধন রয়েছে। এসব হত্যাকাণ্ডে গ্রেফতার ব্যক্তিদের ৭০ ভাগই বিএনপি জামায়াতের নেতা-কর্মী।

বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এ কথা বলেন। ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-ন্যাপ ভাসানীর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

তিনি বলেন, অপকৌশলের অংশ হিসেবে রটিয়ে দেওয়া হলো-সরকারি অনুমোদন নিয়ে নাকি পদ্মা সেতুতে শিশু বলি দিতে হবে। তাও একটি-দু’টি নয়, একলাখ শিশু। এমন একটি গুজব রটিয়ে দেওয়া হলো এবং সেই সূত্র ধরেই দেশে ছেলেধরা আতঙ্ক তৈরি করা হলো। এর ধারাবাহিকতায় আতঙ্ক সৃষ্টিকারী কিছু মানুষ আর কিছু দুষ্কৃতিকারী বিভিন্ন স্থানে নিরীহ মানুষের ওপর হামলা পরিচালনা করেছে। একজন নিরীহ মা-সহ বেশ কয়েকজনকে হত্যা করেছে। এদের বিরুদ্ধে সরকার কঠোর অবস্থানে আছে। এদের অনেককেই গ্রেফতার করা হয়েছে।

অজুহাত দেখাবেন না-গ্যাসের দাম কমান : রিজভী
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, অজুহাত দেখাবেন না, গ্যাসের দাম কমান।

বুধবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে বলবো, কোনও অজুহাত দেখাবেন না। গ্যাসের দাম কমান। গ্যাসের দাম বাড়ানোর কারণে জনজীবনে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। জনগণ ক্ষোভে ফুঁসছে। অনতিবিলম্বে গ্যাসের দাম বাড়ানোর ঘোষণা স্থগিত করুন। অন্যথায় রাজপথে নেমে জনগণ দাবি আদায় করে নেবে।

সরকারের কঠোর সমালোচনা করে রিজভী বলেন, সরকারের প্রতিটি পদক্ষেপে দুর্নীতি ও অদক্ষতা। তারা যে দেশ পরিচালনায় অক্ষম তার প্রমাণ এ গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি। গণবিরোধী সরকারের হিসাব খুবই সোজা, তারা চুরি করবে আর ক্ষতির টাকা জনগণের পকেট থেকে উসুল করে নেবে। গ্যাসের দাম বাড়িয়ে সাধারণ মানুষের পকেট থেকে আট হাজার কোটি টাকা নেয়া হচ্ছে।

বিএনপির নেতার অভিযোগ, দেশের জনগণের প্রিয় নেত্রী খালেদা জিয়াকে দুনিয়া থেকে সরিয়ে দেওয়ার নীলনকশা তৈরি করেছে সরকার। তাকে মিথ্যা মামলায় ক্ষমতার মত্ততায় দেড় বছর বন্দি করে রাখা হয়েছে। তিনি গুরুতর অসুস্থ। তার জামিনে এখন সরাসরি বাধা দিচ্ছেন মিডনাইট নির্বাচনের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আদালতে হস্তক্ষেপ করার পাশাপাশি দেশনেত্রীর (খালেদা জিয়া) আইনজীবীদেরও আইনি পদক্ষেপ গ্রহণে বাধা দেওয়া হচ্ছে। দেশনেত্রীর ওকালতনামায় স্বাক্ষর করতে দেওয়া হচ্ছে না।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ছাড়লেন কাদের সিদ্দিকী
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে বৃহত্তর ঐক্যের ডাক দিয়ে ড. কামাল হোসেন নেতৃত্বাধীন গঠন করা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট  ছেড়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি আবদুল কাদের সিদ্দিকী।

সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এই ঘোষণা দেন আওয়ামী লীগের এই সাবেক সংসদ সদস্য।

তিনি বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নামে যে জোট তারা গড়েছিলেন, নির্বাচনের পর গত সাত মাসে তার কোনো অস্তিত্ব এখন খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

কাদের সিদ্দিকী বলেন, জাতীয় কোনো সমস্যাকে তারা তুলে ধরতে পারছে না। এরকম একটি জোট যে আছে তা দেশের মানুষ জানেই না।

সারাদেশে বাম জোটের হরতাল চলছে
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি ও গণবিরোধী বাজেটের প্রতিবাদ এবং সিলিন্ডার গ্যাসের দাম কমানোর দাবিতে বামপন্থি তিন জোটের ডাকে সারাদেশে অর্ধদিবস হরতাল পালিত হচ্ছে।

রোববার সকাল ৬টা থেকে শুরু হওয়া এই কর্মসূচি বেলা ২টা পর্যন্ত চলবে। হরতালে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে মিছিল ও জমায়েত হওয়ার খবর পাওয়া গেলেও কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

এর মধ্যে সকাল সাড়ে ৭টার দিকে পল্টনে মিছিল করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। মিছিলটি বিজয় নগর মোড়ে শুরু হয়ে পল্টন মোড় হয়ে গুলিস্তানের দিকে যায়। এসময় পুলিশ জলকামান ও প্রিজন ভ্যান নিয়ে পল্টন মোড়ে অবস্থান নেয়।

বাম নেতারা জানান, হরতালের সমর্থনে আয়োজিত মিছিলে খুলনাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় পুলিশ হামলা চালিয়েছে। সেইসঙ্গে তাদের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হয়েছে বলেও দাবি করেন তারা।

মিছিলে বাম গণতান্ত্রিক জোটের সাবেক সমন্বয়ক সাইফুল হক বলেন, স্বতঃস্ফূর্তভাবে হরতাল পালন করছে জনগণ। পুলিশ দিয়ে হামলা করে হরতাল ঠেকানো যাবে না।

মিছিলে অংশ নেন বাংলাদেশ ন্যাপের মহাসচিব গোলাম মোস্তফা, এনডিপির মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন, গণসংহতি আন্দোলনের জোনায়েদ সাকি, সিপিবির রুহুল হোসেন প্রিন্সসহ অসংখ্য নেতাকর্মী।

এদিকে প্রায় একইসময়ে পুরানা পল্টন মোড়ে ব্যানার, ফেস্টুন ও প্ল্যাকার্ড নিয়ে শান্তিপূর্ণ অবস্থান নিয়ে যান চলাচলে বাধা দেন সিপিবি নেতাকর্মীরা।

অন্যদিকে শাহবাগ মোড়ে সড়ক বন্ধ করে দিয়েছে প্রগতিশীল ছাত্র জোট। রোববার সকাল ৭টার দিকে টিএসসি থেকে একটি মিছিল বের করে তারা। মিছিলটি শাহবাগ থেকে সায়েন্স ল্যাবরেটরি পর্যন্ত যায়। পরে সায়েন্স ল্যাবরেটরি হয়ে আবারও শাহবাগ মোড়ে ফিরে আসে। শাহবাগে অবস্থান নিয়ে রাস্তায় বসে যায় সংগঠনটির নেতাকর্মীরা। এতে টিএসসি, সায়েন্স ল্যাবরেটরি, কারওয়ানবাজার, মৎস্য ভবন রোডে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের কমিটিতে পটুয়াখালীর কৃতী সন্তান সাইফুর রহমান শামীম
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের উপ-ত্রাণ ও দুযোর্গ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক নির্বাচিত হলেন-পটুয়াখালীর জেলার বাউফল উপজেলার কৃতী সন্তান, মেধাবীছাত্র ও পরিশ্রমী ত্যাগী ছাত্রনেতা সাইফুর রহমান শামীম।

শামীম বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সুপার ইউনিট খ্যাত ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের কমিটিতে স্থান পাওয়ায় তার উপজেলা বাউফলে চলছে উৎসবের আমেজ। এলাকায় পরিচ্ছন্ন ছাত্রনেতা হিসেবে সবার মন জয় করে নিয়েছেন তিনি।

২৭ জুন বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী স্বাক্ষরিত এবং নগর দক্ষিণ সভাপতি মেহেদি হাসান ও সাধারণ সম্পাদক জোবায়ের আহমদ কর্তৃক সুপারিশকৃত পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে তিনি এ পদ লাভ করেন।

পড়াশোনার পাশাপাশি হাইস্কুল জীবন থেকেই বাবার আদর্শ ও অনুপ্রেরণাতেই ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত সাইফুর রহমান শামীম।

শামীম বলেন, আমি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে বিশ্বাসী। আমাকে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের উপ-ত্রাণ ও দুযোর্গ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক নির্বাচিত করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জোবায়ের আহমেদ ভাইয়ের প্রতি কৃতজ্ঞ।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষ্য সর্বদা নিজেকে নিয়োজিত রাখবো। এবং দেশরত্ন শেখ হাসিনার চলার পথকে সব সময় মসৃন রাখার চেষ্টা করবো আমৃত্যু। ইনশাআল্লাহ।

আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে দেশের স্বাধীনতা অর্জনে নেতৃত্বদানকারী দল বাংলাদেশে আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ। ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন পুরনো ঢাকার ঐতিহ্যবাহী রোজ গার্ডেনে এই রাজনৈতিক দলটি প্রতিষ্ঠিত হয়। পরবর্তীতে দেশের অন্যতম প্রাচীন এই দলটি প্রতিটি গণতান্ত্রিক, রাজনৈতিক ও সামাজিক আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়ে এদেশের গণমানুষের সংগঠনে পরিণত হয়।

গৌরব ও ইতিহাসের নানা বাঁক পেরিয়ে ৭১ বছরে পা দিল হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী, মওলানা ভাসানী আর বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া দল আওয়ামী লীগ। দলটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকাসহ সারাদেশ সেজেছে নতুন সাজে।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি ঘোষণা করেছে দলটি। এর মধ্যে রয়েছে- ভোরে কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও দেশব্যাপী আওয়ামী লীগ দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন। সকাল সাড়ে ৮টায় বঙ্গবন্ধু ভবনে দলীয় প্রধান শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন। বেলা ১১টায় টুঙ্গিপাড়ায় চিরনিদ্রায় শায়িত জাতির পিতার সমাধিতে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের একটি প্রতিনিধি দল শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করবেন।

টুঙ্গিপাড়ার কর্মসূচিতে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য লে. কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক আলহাজ অ্যাডভোকেট শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য এস এম কামাল হোসেন ও মারুফা আক্তার পপি প্রমুখ উপস্থিত থাকবেন।

আগামীকাল সোমবার বিকাল ৪টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। এতে সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আলোচনা করবেন দেশের বরেণ্য বুদ্ধিজীবী ও জাতীয় নেতারা।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনসহ বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে যথাযথ মর্যাদায় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের জন্য আওয়ামী লীগ, সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের সকল জেলা, উপজেলাসহ সকল স্তরের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হলে জিয়া হত্যাকাণ্ড ঘটতো না: গণপূর্ত মন্ত্রী
                                  

স্টাফ রিপোর্টার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর যদি এতে জড়িতদের সঠিক বিচার করা হতো, তাহলে এরপর সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের হত্যাকা-টি ঘটতো না বলে মন্তব্য করেছেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। তিনি বলেছেন, বিচারহীনতার রাজনীতি আমাদের দেশে পুরনো ঘটনা। এ কারণে মানুষ নির্বিচারে হত্যা করতে সাহস পায়। কারণ সঠিক বিচার হয় না। যেমন বঙ্গবন্ধুর হত্যার পর যদি সঠিক বিচারটি হয়ে যেতো, তাহলে জিয়াউর রহমানকে আর কেউ হত্যা করার সাহস পেতো না, শুধু বিচারের ভয়ে। বিএনপি সরকার ক্ষমতায় এসেও চার্জশিট দিতে পারেনি। বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার কার্যক্রম সংসদে আইন করেও বন্ধ করা হয়েছিল। আমি চাই সঠিক বিচার হোক। এ ক্ষেত্রে সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যার সঠিক বিচার আমি কামনা করি।

শুক্রবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনি মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন পূর্তমন্ত্রী। ‘মিট দ্য রিপোর্টার্স’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনটি আয়োজন করে ডিআরইউ। মন্ত্রী বলেন, বনানীতে অগ্নিকা-ের পর সঠিক তদন্ত করে প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। যেটা অত্যন্ত সাফল্যের বিষয়। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে দুর্নীতির বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি নিয়ে অন্যান্য দোষীদের পাশাপাশি সরকারি লোকজনদেরও ধরা হচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ইতোমধ্যে আমরা নির্দেশ দিয়েছি।

অনিয়ম করে ঢাকা নগরে গড়ে তোলা ১ হাজার ৮০৮ বাড়ির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে উল্লেখ করে গণপূর্তমন্ত্রী বলেন, ২৪টি টিমের সমন্বয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছিলাম রাজধানীর অনিয়মে পরিপূর্ণ বাড়িগুলো চিহ্নিত করার জন্য। আমরা ১ হাজার ৮০৮টি বাড়ি চিহ্নিত করেছি। এসব বাড়ির মধ্যে অনেকেই আছেন অনেক ক্ষমতাধর, যারা ভাবেননি তাদের বাড়ির বিরুদ্ধে রিপোর্ট হতে পারে। এই ১ হাজার ৮০৮ বাড়ির প্রত্যেকটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য রাজউককে নির্দেশ দিয়েছি। এ ক্ষেত্রে কেউ ছাড় পাবে না। আইন সবার জন্য সমান হবে।

রাজধানীকে নিরাপদ রাখতে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রম সম্পর্কে মন্ত্রী বলেন, পুরান ঢাকায় এমন অনেক বিল্ডিং আছে যেগুলো ৫০০ বছরের পুরনো। আমরা তাদের জানিয়েছি, সরকারি সহায়তায় এসব বিল্ডিং ভেঙে সিঙ্গাপুরসহ উন্নত বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো নতুন বিল্ডিং বানাবো। ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনকেও আমরা প্রস্তাবনা দিয়েছি। এ ক্ষেত্রে জায়গা অনুসারে সেখানে মানুষ ফ্ল্যাট পাবে। অনেকেই সাড়া দিয়েছেন। হয়তো শিগগির এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের কাজ শুরু হতে পারে। এ ছাড়া ঢাকার অন্যান্য স্থানে যেসব ভবন একেবারে ঝুঁকিপূর্ণ সেগুলো সিলগালা করে দেওয়া হবে। যেগুলো একটু কম ঝুঁকিপূর্ণ সেগুলোকে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বা আলাদা পিলারের মাধ্যমে স্থায়িত্ব দেওয়া হবে। এসব বিষয় নিশ্চিত করতে হবে, কারণ মানুষের জীবনের চেয়ে ভবন মালিকদের আয়ের উৎস বড় হতে পারে না।

দেশে আর কোনো তদবির চলবে না জানিয়ে দিয়ে মন্ত্রী বলেন, হঠাৎ একটি ঘটনা শুনলাম রাজধানীর একটি ভবনের ফাইল হারিয়ে গেছে। আমি দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থায় আমার সামনে ৭০০ ফাইল নামানো হয়েছে। ৩০০ ফাইল পাওয়া যায়নি, সে ফাইলগুলো খুঁজে পাওয়ার ব্যবস্থা করলাম। পরবর্তীতে সেই ফাইল পাওয়া গেলো। প্রয়োজনে বিকল্প ফাইল বানানোর কাজ চলছে। এ ছাড়া মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন অফিসে অনেক পাওয়ারফুল কর্মকর্তাদের সন্ধান পেলাম। যাদের নাড়ানো যেতো না। আমি তাদেরই একজনকে পাহাড়ি এলাকায় বদলি দিয়েছি। আমার মন্ত্রণালয় সম্পূণ দুর্নীতিমুক্ত থাকবে, কোনো তদবির চলবে না। একটি ভবন নির্মাণ করতে ১৬টি টেবিলে দৌড়াদৌড়ি করতে হতো আগে। সেখান থেকে ১২টি টেবিল বাদ দিয়েছি। ৫৭ দিনের ভেতরে ভবন পাস করানোর ব্যবস্থা করেছি। টেবিলে টেবিলে ঘোরার দিনও শেষ করেছি। অটোমেশন ব্যবস্থা চালুর মাধ্যমে ঘরে বসেই প্ল্যান জমা দেওয়ার সুবিধা রয়েছে এখন।

শ ম রেজাউল করিম বলেন, বিজিএমইএ ভবন ভাঙা যাবে না, এমন অবস্থা ছিল। বিল্ডিং ভাঙা ঝুঁকিপূর্ণ কি-না তা নিয়ে যেমন শঙ্কা ছিল, তেমনি তারা শক্তিশালী সংগঠন, এমন কথাও শোনা গেছে। তবু আমরা ভাঙার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছি। সরকারের নির্ধারিত দামের বাইরে কেউ প্লট বিক্রি করলে আমরা সেটার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবো।

রাজউকের বিষয়ে তিনি বলেন, রাজউক অনেকগুলো প্রকল্প হাতে নিয়ে ফেলেছে। যেগুলোর সব বাস্তবায়িত হয়নি। এ কারণে সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। এখন রাজউক যেন আর নতুন কোনো প্রকল্প হাতে নিতে না পারে, সেদিকে আমি আন্তরিকভাবে নজর রাখবো। আগে এসব প্রকল্প শেষ করতে হবে। চকবাজারে জাহাজবাড়ির মতো ঐতিহাসিক স্থাপনা ভাঙা হয়েছে, এ ব্যাপারে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, আগে দেখতে হবে জাহাজবাড়ি প্রতœতাত্মিক অধিদপ্তরের তালিকায় আছে কি-না। যেটা আমার মন্ত্রণালয়ের কাজ নয়। সেটা ওই তালিকায় থাকলে তা রক্ষার দায়িত্ব আমাদের। গেন্ডারিয়ায় রাজউকের পুকুর, যেটা ফায়ার সার্ভিসের পানি নেওয়ার কাজে ব্যবহৃত হতো, সেটা অবৈধ দখল হয়ে গেছে জানিয়ে সাংবাদিকরা দৃষ্টি আকর্ষণ করলে মন্ত্রী বলেন, জায়গাটির জন্য ভুয়া কাগজ তৈরি করে ওই এলাকার কাউন্সিলর উচ্চ আদালতে গিয়ে নিজেদের পক্ষে রায়ও নিয়েছেন। তবু আমি অ্যাটর্নি জেনারেল বরাবর চিঠি দিয়েছি। এই জায়গা কোনোভাবেই বেদখল হতে দেবো না। প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেবো।


   Page 1 of 77
     রাজনীতি
ভৈরবে আইভি রহমানের মৃত্যু বার্ষিকী পালন
.............................................................................................
তারেককে ফিরিয়ে আনতে সরকার সর্বাত্মক চেষ্টা করছে : ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
জামায়াত নেতার নাতনি শ্রমিকলীগ নেত্রী
.............................................................................................
তৃণমূল থেকে ওপর পর্যন্ত লুটপাট চলছে: মির্জা ফখরুল
.............................................................................................
১৪ সেপ্টেম্বর ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কাউন্সিল
.............................................................................................
খালেদার মুক্তির দাবিতে নারায়ণগঞ্জে মানববন্ধন
.............................................................................................
ডেঙ্গু ও আদালতে বিচারকের সামনে মানুষ হত্যা এটাও নাকি গুজব: খন্দকার মোশারফ হোসেন
.............................................................................................
ব্রাহ্মণবাড়িয়া আওয়ামীলীগের সভায় প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ
.............................................................................................
গুজবের ফ্যাক্টরি বিএনপির কার্যালয় : কাদের
.............................................................................................
গুজবে গ্রেফতার ৭০ ভাগই বিএনপি জামায়াতের : তথ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
অজুহাত দেখাবেন না-গ্যাসের দাম কমান : রিজভী
.............................................................................................
জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ছাড়লেন কাদের সিদ্দিকী
.............................................................................................
সারাদেশে বাম জোটের হরতাল চলছে
.............................................................................................
মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের কমিটিতে পটুয়াখালীর কৃতী সন্তান সাইফুর রহমান শামীম
.............................................................................................
আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হলে জিয়া হত্যাকাণ্ড ঘটতো না: গণপূর্ত মন্ত্রী
.............................................................................................
বিএনপির স্থায়ী কমিটিতে সেলিমা-টুকু
.............................................................................................
টেকসই অর্থনীতির ভীত রচনার বাজেট : ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ছাত্রদলের তালা
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে গণঅনশনে বিএনপি
.............................................................................................
আ.লীগকে চিরতরে বিদায় করতে পুরোপুরি প্রস্তুতি নিয়ে মাঠে নামব
.............................................................................................
সিঙ্গাপুর নেয়া হবে ওবায়দুল কাদেরকে
.............................................................................................
গুরুতর অসুস্থ হয়ে আইসিইউতে ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
বিডিআর বিদ্রোহ একটি পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র : মির্জা ফখরুল
.............................................................................................
জামায়াত বিলুপ্ত করার পরামর্শ দিয়ে ব্যারিস্টার রাজ্জাকের পদত্যাগ
.............................................................................................
বিএনপির পুনরায় নির্বাচনের দাবি শিশুসুলভ: চট্টগ্রামে তথ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
সংসদে কী হচ্ছে না হচ্ছে খোঁজ-খবর রাখছি: ড. কামাল
.............................................................................................
কাউন্সির পদে মাঠে সরব মনির হোসেন মোল্লা
.............................................................................................
আন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকারকে নামাতে হবে: ফখরুল
.............................................................................................
বিপিএল নিষিদ্ধের দাবি ওলামা লীগের
.............................................................................................
হ্যাকের শিকার মমতাজের ফেসবুক আইডি
.............................................................................................
জনগণের দৃষ্টি ভিন্নখাতে নিতে আ.লীগ বিজয় উৎসব করছে: মির্জা ফখরুল
.............................................................................................
আ.লীগের বিজয় সমাবেশ দুপুরে, প্রধান অতিথি শেখ হাসিনা
.............................................................................................
এরশাদের অবর্তমানে জিএম কাদের জাপার চেয়ারম্যান
.............................................................................................
ঐক্যফ্রন্ট ভেঙে যাবে: কাদের
.............................................................................................
ব্যর্থতার দায়ে মির্জা ফখরুলের পদত্যাগ করা উচিত: কাদের
.............................................................................................
টিআইবির প্রতিবেদন মনগড়া কল্পকাহিনি: তথ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
নারী আসনে অগ্রাধিকার পাবেন ত্যাগীরা: কাদের
.............................................................................................
২৮ জানুয়ারির মধ্যে নবম ওয়েজবোর্ডের প্রজ্ঞাপন: তথ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
সংরক্ষিত নারী আসনের তফসিল ১৭ ফেব্রুয়ারি: ইসি সচিব
.............................................................................................
ড. কামালের বক্তব্য ঐক্যফ্রন্টের নয়: ফখরুল
.............................................................................................
সংলাপ নয়, শুভেচ্ছা বিনিময় হবে: ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
ড. কামালের সংবাদ সম্মেলন বিকেলে
.............................................................................................
শাসকগোষ্ঠী বিএনপিকে নির্মূল করতে মরিয়া: ফখরুল
.............................................................................................
ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে ধানের শীষের প্রার্থী সাত্তার জয়ী
.............................................................................................
ইসি প্রহসনের নির্বাচন করেছে: ফখরুল
.............................................................................................
নতুনদের জায়গা দিতে হবে: তোফায়েল আহমেদ
.............................................................................................
জৈন্তাপুরের ইমরান আহমদ হচ্ছেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী
.............................................................................................
কূটনীতিকদের ব্রিফ করবে বিএনপি
.............................................................................................
সৈয়দ আশরাফের শূন্যতা পূরণ হওয়ার নয়: কাদের
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Nytasoft