সোমবার, ২০ জানুয়ারী 2020 | বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   শিক্ষা -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
বারৈচা বালিকা বিদ্যালয়ে খোলা মাঠে পাঠদান

বেলাব (নরসিংদী) প্রতিনিধি: নরসিংদীর বেলাব উপজেলার বারৈচা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পাঠদান হচ্ছে খোলা মাঠে। শ্রেণী কক্ষের সংকটের কারণে দীর্ঘদিন ধরে বেলাব উপজেলার পাঁচবারের শ্রেষ্ঠ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়া এই বিদ্যালয়ের পাঠদান চলে খোলা মাঠে।
বেলাব উপজেলার চর উজিলাব ইউনিয়নের ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে বারৈচায় স্থাপিত এই বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায় , হাড় কাঁপানো শীতের সকালে ও শ্রেণী কক্ষে শিক্ষার্থীদের জায়গা না হওয়ায় খোলা মাঠে শতাধিক শিক্ষার্থীদের ক্লাস নিচ্ছেন শিক্ষকরা। এভাবেই চলছে দুই বছর ধরে। কুয়াশা ও হাড়কাঁপানো শীতে শিক্ষার্থীদের ঠান্ডাজনিত সমস্যাসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।

১৯৮৪ সালে নির্মিত বেলাব উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বারৈচা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বর্তমান শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৯২৩ জন। শ্রেণীকক্ষ রয়েছে ১২ টি। প্রতি কক্ষে বসতে পারে ৫০ জন শিক্ষার্থী। চলতি বছরও বিদ্যালয়টি বেলাব উপজেলার মধ্যে জেএসসি ও এসএসসি পরিক্ষায় একাধিক জিপি ৫ সহ শতভাগ পাস করে বেলাব উপজেলার মধ্যে শ্রেষ্ঠপ্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি পায়। চারবার বিদ্যালয়টির ফলাফলের কারণে বেলাব উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি পায়।এছাড়া বিদ্যালয়ে রয়েছে মেধাবী শিক্ষার্থীদের আবাসিক সুবিধা।  এসব কারণে বেলাব উপজেলার পাশাপাশি রায়পুরা , শিবপুর ,  মনোহরদী উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে শিক্ষার্থী ভতি হয় এই বিদ্যালয়ে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো.মোস্তফা কামাল বলেন, প্রায় দুই বছর ধরে শ্রেণী কক্ষ সংকটের কারণে বিদ্যালয়ের মাঠে আমরা দুই তিনটি করে ক্লাস নিচ্ছি। এতে আমাদের শিক্ষার্থীদের অনেক সমস্যা হয়। এই কারণে একটি ভবন তৈরি করে ও এ সমস্যা সমাধান করার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত আবেদন করেছি। কিন্তু এর কোন ফল পাওয়া যাচ্ছে না।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো. আব্দুল জব্বার মাষ্টার বলেন, চলতি বছর সহ পাঁচবার আমাদের বিদ্যালয়টি বেলাব উপজেলায় শ্রেষ্ঠ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। আমাদের বিদ্যালয়ের লেখাপড়ার মান ভালো। এই কারণে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ও বেশি। যার কারণে শ্রেণীকক্ষে জায়গা না হওয়ায় বাইরে ক্লাস নিতে হচ্ছে বাধ্য হয়ে। অনেক দরখাস্ত করেছি। আজ ও বিদ্যালয়ের অতিপ্রয়োজনীয় একটি ভবন তৈরি হয়নি।

বারৈচা বালিকা বিদ্যালয়ে খোলা মাঠে পাঠদান
                                  

বেলাব (নরসিংদী) প্রতিনিধি: নরসিংদীর বেলাব উপজেলার বারৈচা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পাঠদান হচ্ছে খোলা মাঠে। শ্রেণী কক্ষের সংকটের কারণে দীর্ঘদিন ধরে বেলাব উপজেলার পাঁচবারের শ্রেষ্ঠ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়া এই বিদ্যালয়ের পাঠদান চলে খোলা মাঠে।
বেলাব উপজেলার চর উজিলাব ইউনিয়নের ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে বারৈচায় স্থাপিত এই বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায় , হাড় কাঁপানো শীতের সকালে ও শ্রেণী কক্ষে শিক্ষার্থীদের জায়গা না হওয়ায় খোলা মাঠে শতাধিক শিক্ষার্থীদের ক্লাস নিচ্ছেন শিক্ষকরা। এভাবেই চলছে দুই বছর ধরে। কুয়াশা ও হাড়কাঁপানো শীতে শিক্ষার্থীদের ঠান্ডাজনিত সমস্যাসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।

১৯৮৪ সালে নির্মিত বেলাব উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বারৈচা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বর্তমান শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৯২৩ জন। শ্রেণীকক্ষ রয়েছে ১২ টি। প্রতি কক্ষে বসতে পারে ৫০ জন শিক্ষার্থী। চলতি বছরও বিদ্যালয়টি বেলাব উপজেলার মধ্যে জেএসসি ও এসএসসি পরিক্ষায় একাধিক জিপি ৫ সহ শতভাগ পাস করে বেলাব উপজেলার মধ্যে শ্রেষ্ঠপ্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি পায়। চারবার বিদ্যালয়টির ফলাফলের কারণে বেলাব উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি পায়।এছাড়া বিদ্যালয়ে রয়েছে মেধাবী শিক্ষার্থীদের আবাসিক সুবিধা।  এসব কারণে বেলাব উপজেলার পাশাপাশি রায়পুরা , শিবপুর ,  মনোহরদী উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে শিক্ষার্থী ভতি হয় এই বিদ্যালয়ে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো.মোস্তফা কামাল বলেন, প্রায় দুই বছর ধরে শ্রেণী কক্ষ সংকটের কারণে বিদ্যালয়ের মাঠে আমরা দুই তিনটি করে ক্লাস নিচ্ছি। এতে আমাদের শিক্ষার্থীদের অনেক সমস্যা হয়। এই কারণে একটি ভবন তৈরি করে ও এ সমস্যা সমাধান করার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত আবেদন করেছি। কিন্তু এর কোন ফল পাওয়া যাচ্ছে না।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো. আব্দুল জব্বার মাষ্টার বলেন, চলতি বছর সহ পাঁচবার আমাদের বিদ্যালয়টি বেলাব উপজেলায় শ্রেষ্ঠ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। আমাদের বিদ্যালয়ের লেখাপড়ার মান ভালো। এই কারণে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ও বেশি। যার কারণে শ্রেণীকক্ষে জায়গা না হওয়ায় বাইরে ক্লাস নিতে হচ্ছে বাধ্য হয়ে। অনেক দরখাস্ত করেছি। আজ ও বিদ্যালয়ের অতিপ্রয়োজনীয় একটি ভবন তৈরি হয়নি।

প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক পাচ্ছেন জবির ৬ শিক্ষার্থী
                                  

জবি প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) প্রদত্ত ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক-২০১৮ পাচ্ছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের(জবি) ৬ শিক্ষার্থী।

বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) নিজস্ব ওয়েবসাইটে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়। জবির ৬ অনুষদে সর্বোচ্চ ফলাফলধারীরা পাচ্ছেন এ পদক।রোববার (১২জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক-২০১৮ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা হলেন- লাইফ অ্যান্ড আর্থ সায়েন্স অনুষদের মাইক্রোবায়োলজি অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান, বিজ্ঞান অনুষদের গণিত বিভাগের শিক্ষার্থী সেলিম হোসেন, কলা অনুষদের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী মো. ওমর ফারুক, ব্যবসা অনুষদের ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষার্থী শারমিন সুলতানা, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের সমাজকর্ম বিভাগের শিক্ষার্থী উম্মে হাবিবা ও আইন অনুষদের আইন বিভাগের শিক্ষার্থী আলমগীর হোসেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী ওহিদুজ্জামান বলেন, অনুষদভিত্তিক ফলাফলের জন্য ৬ শিক্ষার্থী প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক পাচ্ছেন। শিক্ষার্থীদের সাফল্যে আমরা গর্বিত ও আনন্দিত। আমরা তাদের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করছি।

উল্লেখ্য, উচ্চশিক্ষায় শিক্ষার্থীদের মেধাবিকাশে উৎসাহিত করতেই ইউজিসি ২০০৬ সাল থেকে ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’ প্রদান করে আসছে।এ বছর ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক-২০১৮’ এর জন্য সারাদেশের ৩৬টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭২ জন শিক্ষার্থীকে মনোনীত করা হয়। এর মধ্যে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬ শিক্ষার্থীর নাম রয়েছে।

হাসপাতাল ছাড়লেন ঢাবির সেই ছাত্রী
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর কুর্মিটোলা এলাকায় ধর্ষণের শিকার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সেই ছাত্রীকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। শারীরিক অবস্থার উন্নতি হওয়ায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এ সিদ্ধান্ত নেয়।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টার থেকে ছাড়পত্র দেওয়ার পর বাড়ির উদ্দেশে রওনা হন ওই ছাত্রী।

ঢামেক পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, মেয়েটি সব ধরনের ট্রমা ও সমস্যা কাটিয়ে এখন সুস্থ আছে। তাই বোর্ড চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে রিলিজ দেয়া হয়েছে। এছাড়াও পরবর্তীতে কোনো সমস্যা হলে তাকে আবারও আসতে বলা হয়েছে বলে জানান তিনি।

হাসপাতাল ছেড়ে চলে যাওয়ার আগে ওই ছাত্রীর বাবা প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পুলিশবাহিনী ও ঢামেক কর্তৃপক্ষের সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে একটি চিঠি দিয়ে গেছেন বলে জানান ঢামেকের পরিচালক।

গত ৫ জানুয়ারি সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের ওই ছাত্রী শেওড়ায় বান্ধবীর বাসায় যাওয়ার পথে কুর্মিটোলায় বাস থেকে নামেন। এ সময় পেছন থেকে মুখ চেপে ধরে তাকে তুলে সড়কের পাশে নিয়ে ধর্ষণ করা হয়।

কয়েক ঘণ্টা পর চেতনা ফিরে পেয়ে ওই ছাত্রী বান্ধবীর বাসায় যান। রাতেই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়। পরদিন ক্যান্টনমেন্ট থানায় একটি মামলা করেন তার বাবা।

সহপাঠী ধর্ষিত হওয়ার খবরে সেই রাত থেকেই ক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। মামলা তদন্তের দায়িত্ব গোয়েন্দা পুলিশকে দেওয়া হলেও র‌্যাবসহ পুলিশের অন্যান্য বিভাগ তদন্তে নামে।

র‌্যাব জানায়, ধর্ষণ করার পর ওই ছাত্রীর মোবাইল ফোন ও ব্যাগ নিয়ে গিয়েছিল ধর্ষক, যার সূত্র ধরে মঙ্গলবার দুইজনকে আটক করা হয়। পরে তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বুধবার ভোর পৌনে পাঁচটায় শেওড়া রেল ক্রসিং এলাকা থেকে মজনুকে র‌্যাব গ্রেপ্তার করে। তার কাছ থেকে ধর্ষণের শিকার শিক্ষার্থীর মোবাইল ফোন, ব্যাগ ও পাওয়ার ব্যাংক উদ্ধার করার কথাও জানানো হয় র‌্যাবের পক্ষ থেকে।

বুধবার দুপুরে মজনুকে কারওয়ানবাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে নেওয়ার পর সংবাদ সম্মেলনে তার বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য প্রকাশ করেন সারোয়ার বিন কাশেম। গ্রেপ্তারকৃত মজনু এর আগেও ‘বহু নারীকে ধর্ষণ করেছে’ বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান র‌্যাব কর্মকর্তা সারোয়ার। তিনি জানান, মজনু একজন ‘মাদকাসক্ত এবং ‘সিরিয়াল রেপিস্ট’।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মজনু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

শিক্ষার্থী ধর্ষণের প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল ঢাবি
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়-ঢাবির দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় দোষীদের কঠোর শাস্তি চেয়ে আজও আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার সকালে তীব্র শীতেও শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল করছেন। স্লোগানে স্লোগানে ধর্ষণের প্রতিবাদ ও এর বিচার দাবি করছেন তারা।

আজ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে প্রথমে শুভ সংঘের ব্যানারে প্রতিবাদ জানানো হয়। বেলা পৌনে ১১টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার শিক্ষার্থীসহ অন্যান্য বিভাগের শিক্ষার্থীরা মিলে মুখে কালো পতাকা বেঁধে পদযাত্রা করেন। পরে তারা রাজু ভাস্কর্যের সামনে অবস্থান নেন।

সেখান থেকে তাসনিম ফারিয়া নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, আমরা আগেও দেখেছি, এ ধরনের ঘটনার বিচার হয় না। আসামিরা আইনের আওতায় আসে না। আমাদের সহপাঠীর ওপর চলা নির্যাতনের প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে আন্দোলন চলবে। আমরা চাই, দ্রুত জড়িতদের গ্রেপ্তার করা হোক। আইনের শাসন নিশ্চিত হোক।

গত রোববার বিকাল সাড়ে পাঁচটার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে করে বান্ধবীর বাসায় যাচ্ছিলেন ঘটনার শিকার ওই ছাত্রী। কুর্মিটোলা বাস স্টেশনে নামার পর তাকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি অনুসরণ করতে থাকে। একপর্যায়ে মাঝপথে তাকে ধরে নির্জন স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে। রাত ১০টার দিকে জ্ঞান ফিরলে রিকশায় করে বান্ধবীর বাসায় যান ওই ছাত্রী। সেখান থেকে বান্ধবীসহ অন্য সহপাঠীরা রাত পৌনে একটার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করেন। ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর থেকে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন ঢাবি শিক্ষার্থীরা। সোমবার সারাদিন বিক্ষোভ, অবরোধ করে সহপাঠীর সঙ্গে এমন আচরণের বিচার দাবি করেন তারা।

ছাত্রী ধর্ষণের প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় মধুর ক্যান্টিন থেকে এক বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে উপাচার্যের কার্যালয়ের যান ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা।  এসময় তারা `ধর্ষকের কালো হাত ভেঙে দাও গুঁড়িয়ে দাও`  `শিক্ষা ঐক্য প্রগতি ছাত্রদলের মূলনীতি` এবং খালেদা জিয়ার মুক্তি নিয়েও বিভিন্ন স্লোগান দেন। পরে ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকনসহ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের কয়েকজন নেতা উপাচার্যের কাছে স্মারকলিপি জমা দেন।

এদিকে পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী ধর্ষণের ঘটনার প্রতিবাদে রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান নিয়েছে ছাত্রলীগ। এসময় নেতাকর্মীরা প্রতিবাদস্বরূপ বিভিন্ন চিত্রের অংকন করেন। ধর্ষণের বিরুদ্ধে আল্পনা আঁকেন।  বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাসসহ বিভিন্ন হলের নেতাকর্মী উপস্থিত রয়েছেন।

ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে অনশন
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর কুর্মিটোলা এলাকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়-ঢাবির এক ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হওয়ার প্রতিবাদে অনশনে বসেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের এক ছাত্র।

অনশনে বসা ছাত্রের নাম সিফাতুল ইসলাম সিফাত। দর্শন বিভাগের ২০১৩-১৪ সেশনের ছাত্র তিনি। সোমবার সকাল থেকে অনশন শুরু করেন সিফাত। পরে তার সঙ্গে যোগ দেন আরো কয়েকজন শিক্ষার্থী।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে একটি ব্যানার নিয়ে সকাল থেকে অনশন শুরু করেন সিফাত। পাশে হাতে লেখা একটা ব্যানারে লেখা, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে অনশন।’

সিফাতুল ইসলাম বলেন, আমাদের বোন ধর্ষণের শিকার হয়েছে। তার প্রতিবাদে অনশন পালন করছি। দ্রুত ধর্ষকদের গ্রেপ্তারের দাবি জানাচ্ছি।

পরে অনশনে যোগ দেওয়া দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের ছাত্রী শেখ কান্তা রেজা বলেন, এরকম ধর্ষণের ঘটনা দেশে প্রায় প্রতিদিনই ঘটে। কিছু দিন পরে আবার তা ধামাচাপা পড়ে যায়। ঢাবি শিক্ষার্থীকে ধর্ষণে যারা জড়িত, তাদের গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি।

জানা যায়, রোববার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে করে শেওড়া যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন ওই ছাত্রী। সন্ধ্যা ৭টার দিকে কুর্মিটোলায় বাস থেকে নামার পর অজ্ঞাত ব্যক্তি মুখ চেপে তাকে পার্শ্ববর্তী একটি স্থানে নিয়ে যান। সেখানে তাকে অজ্ঞান করে ধর্ষণ ও শারীরিক নির্যাতন করা হয়। পরে রাত ১০টার দিকে জ্ঞান ফিরলে তিনি নিজেকে নির্জন স্থানে আবিষ্কার করেন। পরে সেখান থেকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে নিজ গন্তব্যে পৌঁছালে রাত ১২টার পর তাকে ঢামেক জরুরি বিভাগে নিয়ে আসা হয়। পরে তাকে ওসিসিতে ভর্তি করে।

ফারাবির অবস্থার উন্নতি, খোলা হয়েছে লাইফ সাপোর্ট
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের হামলায় আহত বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতা ও ধানমণ্ডির চার্টার্ড বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ছাত্র তুহিন ফারাবীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে।

সোমবার ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেক) জরুরি বিভাগের আবাসিক চিকিৎসক ডা. মো. আলাউদ্দিন এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, ফারাবির লাইফ সাপোর্ট খুলে দেওয়া হয়েছে। তিনি এখন কথা বলছেন। অন্যদিকে ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুরসহ বাকি দুই জনের অবস্থা আগের চেয়ে ভালো।

এর আগে গত রোববার দুপুরে ডাকসু ভবনের নিজ কক্ষে হামলার শিকার হন ভিপি নুর ও তার অনুসারীরা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ডাকসু ভবনের মূল ফটক বন্ধ করে নুরের ওপর লাঠিসোটা নিয়ে হামলা করা হয়। এছাড়া বাইরে থেকেও মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীরা ইটপাটকেল ছোড়েন। হামলায় অন্তত ৩২ জন আহত হন।

নুরসহ আহত ছয়জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহতদের মধ্যে ফারাবীকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছিল। এছাড়া আহত বাকিদের চিকিৎসা দিয়ে ঢামেক থেকে ছেড়ে দেয়া হয়।

জবিতে বহিষ্কৃত ছাত্রদের দৌরাত্ম, নিরব প্রশাসন
                                  

জবি প্রতিনিধিঃ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত থাকার অভিযোগে বহিস্কৃত ছাত্রদের দৌরাত্ম্যে অতিষ্ট হয়ে উঠছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। প্রতিনিয়ত ক্যাম্পাস ও এর আশেপাশের এলাকায় এসব শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে প্রায়ই মেয়েদের লাঞ্চিত, চাঁদাবাজি, মারামারি এবং গুমের মত ঘটনা ঘটাচ্ছে। এই ঘটনাগুলো বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জানলেও কঠোর ব্যবস্তা নিচ্ছেনা তাদের বিরুদ্ধে। সুযোগ দেওয়ায় বারবার বিভিন্ন অপকর্মে জড়িয়ে পড়ছেন উশৃঙ্খল ছাত্ররা।
অনুসন্ধানে দেখা যায়, বিভিন্ন অপকর্মে জড়ানো যে সমস্ত শিক্ষার্থীর নাম প্রায় উঠে আসছে তারা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শৃঙ্খলাভঙ্গের দায়ে একাধিকবার শাস্তিপ্রাপ্ত। তারা রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় এবং প্রশাসনের উদাসীনতায় এদের দৌরাত্ম্য বেড়েই চলেছে।

অনুসন্ধানে আরও দেখা যায়, ইতিহাস বিভাগের ১২ ব্যাচের নূরে আলম, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ১১ব্যাচের আল সাদিক হৃদয় ইতিপূর্বে শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে বহিস্কার হলেও বর্তমান ক্যাম্পাস ও এর আশেপাশের এলাকায় বিভিন্ন অপরাধকান্ডে জড়িত। গত ১৩ তারিখে রাতেও এক নারী শিক্ষার্থীকে লাঞ্চিত করে তারা।
ইতিপূর্বে, প্রগতিশীল ছাত্রজোটের নেতাকর্মী ও সাংবাদিকদের উপর অতর্কিত হামলার প্রেক্ষিতে ২০১৮ সালের অক্টোবরে সাময়িক বহিষ্কার হয় ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থী নূরে আলম। একই বছর ১৫ নভেম্বর আলি সাদিক হৃদয়কে এক টমটম চালককে মারধর ও ছাত্রলীগের দুইগ্রুপে সংঘর্ষে জড়িত থাকার অভিযোগে বহিষ্কার করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।
সম্প্রতি, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক মেসেঞ্জারে মেসেজ চালাচালির জের ধরে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) সাবেক দুই শিক্ষার্থীকে চাপাতি দিয়ে কোপানোর অভিযোগে ৭ ছাত্রের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় অন্যতম সমাজবিজ্ঞান বিভাগের আল সাদিক হৃদয়।
এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির প্রায় থেকে নূরে আলম ও আল সদিক হৃদয় দৈনিক প্রায় ১০ হাজার টাকা চাঁদা তোলে। জানা যায়, ফুচকা দোকান সহ ১৩টি চায়ের দোকান থেকে দৈনিক ১৫০-২০০ টাকা, খিচুড়ি ৩ টা দোকান থেকে ৩০০ টাকা ,ভাতের হোটেল ২টা ৩০০ টাকা ,রুটি-লুচি  ৩টা দোকান থেকে ৩০০ টাকা, সিংগারা-সমুচা দোকান থেকে ৫০০,  এছাড়াও রয়েছে বরফ,শরবত, শুকনো খাবারের দোকান সহ কয়েকটি পান-সিগারেটের দোকান থেকে ১০০-২০০ টাকা করে টাকা তোলা হয়। এছাড়াও গত ফেব্রুয়ারিতে প্রেমঘটিত কারণে শাখা ছাত্রলীগের দুইগ্রুপে সংঘর্ষেও অস্ত্রহাতে দেখা যায় নূরে আলমকে। এছাড়াও ক্যাম্পাসে বেপোরয়াভাবে বাইক চালানোর অভিযোগ আছে তাদের বিরুদ্ধে। এসব ঘটনায় জড়িত বহিস্কৃত পরিচয়হীন ছাত্রলীগ কর্মীদের আড়াল থেকে মদদ দিচ্ছেন জবি ছাত্রলীগের পদপ্রত্যাশী  নেতা সৈয়দ শাকিল । এই পদপ্রত্যাশী নেতাকেও বিভিন্ন সময়ে মারামারির ঘটনায় হাতে চাপাতি ও দা নিয়ে ঘুরতে। এছাড়াও জবি ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ জয়নুল আবেদিন রাসেলের ঘনিষ্ঠ হিসাবে পরিচিত শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ শাকিল। শাখা ছাত্রলীগের দুইগ্রুপের সংঘর্ষে শাকিলের হাতে ধারালো অস্ত্র নিয়ে মহড়ার ছবিও বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে।

এসমস্ত অভিযোগের বিষয়ে আল সাদিক হৃদয় বলেন,  টিএসসিতে আমরা সবসময় যাতায়াত করি চা খায়, আমরা ওখান থেকে কোনো প্রকার চাঁদা নিই না, বরং আমরা দোকানদারদের বলে দিছি কেউ চাঁদা নিলে আমাদের বলতে।

নারী শিক্ষার্থী লাঞ্চিত করার বিষয়ে তিনি বলেন, আমি ছোটোভাইয়ের বাইকে আমি আসছিলাম, মেয়ে সাইড দিতেছিলো না আমার ছোটভাই সোজা চালইদিছে, মেয়ের গায়ে লাগে কি লাগে নাই। আমি ৭-৮ বার সরি বলছি মেয়েকে।

এবিষয়ে কথা বলতে চাইলে নূরে আলমের সাথে কথা বলার চেষ্টা করা হলেও সম্ভব হয়নি।

কর্মীদের অপকর্মের বিষয়ে সৈয়দ শাকিল বলেন, এরা এভাবে চললে আমার সাথে এদের রাজনীতি করার দরকার নাই, আমি এদের বলে দিবো। কোনো জায়গা থেকে টাকা নিবে, কোনো মেয়েকে আপত্তিকর কথা বললে আমার সাথে এদের রাজনীতি করার প্রয়োজন নাই।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বলেন, যারা ক্যাম্পাসে অপকর্মে করবে তাদের বিরুদ্ধে আগের চেয়ে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।
যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আসবে তাদের শাস্তি প্রদান করা হবে।

এ বিষয়ে কোতয়ালী থানার ওসি মো. মিজানুর রহমান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের আশেপাশে যদি কেও চাদাবাজি করে থাকে  এবং তাদের নাম জানতে পারলে আমরা অবশ্যই ব্যবস্থা নিবো।
আমরা এ ব্যাপারে আপনাদের সহযোগীতা চাই।

রাজাকারকে শহীদ বলা জঘন্য অপরাধ: ঢাবি উপাচার্য
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়-ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান বলেছেন, আমরা একটা পত্রিকায় দেখলাম একজন চিহ্নিত রাজাকারকে শহীদ বলা হয়েছে। স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রে এই রাজাকারকে শহীদ বলা জঘন্য অপরাধ।

শনিবার সকালে রাজধানীর মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানানোর পর ঢাবি ভিসি এই মন্তব্য করেন।

ঢাবি উপাচার্য বলেন, আলবদর ও রাজাকারদের বিচার হয়েছে। বিচারের রায়ে অনেক রাজাকারের ফাঁসি হয়েছে। এসব রাজাকারকে শহীদ আখ্যায়িত করা জঘন্য অপরাধ। সামনে যেন এ ধরনের অপরাধ করার সাহস না পায় কেউ।

আখতারুজ্জামান আরও বলেন, আমাদের তরুণ সমাজ জেগেছে। এ ধরনের জঘন্য আস্ফালন তারা মানেনি। এটাই দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। রাজাকারকে শহীদ বলা তরুণ সমাজ মানবে না, এটাই আমাদের আশার জায়গা।

দৈনিক সংগ্রাম পত্রিকায় কাদের মোল্লাকে শহীদ বলে সংবাদ প্রকাশ করে। এই ঘটনার জেরে শুক্রবার রাতে পত্রিকার অফিসে হামলা করে মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চ নামের একটি সংগঠন। এছাড়া পত্রিকাটির সম্পাদক আবুল আসাদকে তুলে দেয়া হয় পুলিশের কাছে।

জবিতে গ্যারেজ খালি, যত্রতত্র কার পার্কিং
                                  

জবি প্রতিনিধি: বিশালাকার গ্যারেজ থাকা সত্বেও তা ব্যবহারে আগ্রহ নেই অধিকাংশ শিক্ষক শিক্ষার্থীর মাঝে। এর ফলে শিক্ষার্থীদের চলাচলের পথে জটলা সৃষ্টি হচ্ছে যার প্রধান কারণ হিসেবে ইঙ্গিত করা হচ্ছে শিক্ষক অতিথিদের ব্যক্তিগত গাড়ির যত্রতত্র পার্কিংকে। এদিকে গ্যারেজ প্রায় ফাঁকা থাকায় সেখানে জমছে মাদক ও জুয়ার আসর। এর কান্ডারিদের ধরতে জবির সদ্য দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোস্তফা কামাল বেশ কয়েকবার টহল পুলিশ দিয়ে তল্লাশি চালান।

গত রবিবার সরেজমিনে দেখা যায়, হাতে গোনা ক’টি প্রাইভেট কার ও কয়েক সারি বাইক ছাড়া পুরো গ্যারেজ প্রায় খালি পড়ে আছে। এদিকে এই ফাঁকা স্থানগুলো দিনের পর দিন অব্যবহৃত থাকায় তা এখন ভাঙাচোরা চেয়ার ও ময়লার স্তুপের দুর্গন্ধযুক্ত ভাগাড়ে রুপ নিচ্ছে।

এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষকের গাড়ি চালক বলেন, ‘এখানে গাড়ি রাখি কারণ আলো বাতাসের সুব্যবস্থা আছে। গাড়ির জানলিা খোলা রেখে আরামে গানও শুনতে পারি। শিক্ষকরাও কখনো গ্যারেজ ব্যবহারের নির্দেশ দেননা।’

অর্থনীতি বিভাগের ১৪ তম আবর্তনের শিক্ষার্থী মুনতাসির রাফসান বলেন, যত্রতত্র পার্কিংএর ফলে শুধু যে চলাফেরায়ই কষ্ট হচ্ছে তা নয়, পরিবেশও যান্ত্রিক আবর্জনার স্তুপে পরিণত হচ্ছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ছাত্রকল্যাণ পরিচালক ড. মোহাম্মদ আব্দুল বাকি বলেন, ‘এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সাথে আলোচনা চলছে। গ্যারেজ ফাঁকা থাকতেও শিক্ষকরা কেনো যত্রতত্র ব্যক্তিগত গাড়ি পার্কিং করছেন এ বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে ও সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’ এছাড়াও শিক্ষার্থীদের মোটরবাইক ও সাইকেল রাখার জন্য আলাদা স্ট্যান্ড করার ইচ্ছাও তিনি প্রকাশ করেন।


ঢাবির ৫২তম সমাবর্তন কাল
                                  

ঢাবি প্রতিনিধি : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়-ঢাবির ৫২তম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল সোমবার। এই সমাবর্তনে অংশগ্রহণের জন্য ২০ হাজার ৭৯৬ জন গ্র্যাজুয়েট নিবন্ধন করেছেন। এর মধ্যে ১০ হাজার ৬৭৩ জন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এবং বাকি ১০ হাজার ৪৪ জন অধিভূক্ত সাত কলেজের গ্রাজুয়েট।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে দুপুর ১২টায় এই সমাবর্তন অনুষ্ঠান শুরু হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠ ছাড়াও ভেন্যু হিসেবে থাকছে ঢাকা কলেজ ও ইডেন কলেজ।

ঢাবির কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে সমাবর্তনের মূল অনুষ্ঠান শুরু হলে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঢাকা কলেজ ও ইডেন মহিলা কলেজ ভেন্যু থেকে সরাসরি সমাবর্তন অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের গ্রাজুয়েটরা।

সমাবর্তনে বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সভাপতিত্ব করবেন। আর সমাবর্তনে বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জাপানের টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ের কসমিক রে রিসার্চ ইনস্টিটিউটের পরিচালক ও পদার্থে নোবেল বিজয়ী অধ্যাপক তাকাকি কাজিতা।

গতকাল সমাবর্তনের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান সংবাদ সম্মেলনে বলেন, সমাবর্তনকে ঘিরে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। সমাবর্তন অনুষ্ঠানের সকল প্রস্তুতি ইতিমধ্যেই সম্পন্ন হয়েছে। অনুষ্ঠানের সার্বিক নিরাপত্তাও নিশ্চিত করা হয়েছে। সমাবর্তনের দিন বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে গ্র্যাজুয়েটদের চলাচল নির্বিঘ্ন করতে বিকল্প রাস্তা ব্যবহারের জন্য তিনি সর্বসাধারণের প্রতি আহ্বান জানান।

র‌্যাগিং ও রাজনীতিতে জড়িত হলে বুয়েট থেকে বহিষ্কার
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : র‌্যাগিং ও রাজনীতিতে কোনো শিক্ষার্থী জড়িত হলে সর্বোচ্চ শাস্তি চিরতরে বহিষ্কারের নীতিমালা প্রণয়ন করেছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়-বুয়েট  প্রশাসন। এখানেই শেষ নয়, র‌্যাগিংয়ের কারণে কোনো ছাত্রের মৃত্যু হলে অভিযুক্তকে বুয়েট থেকে চিরতরে বহিষ্কার ও তার বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হবে।

সোমবার রাতে এ-সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বুয়েট প্রশাসন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকল্যাণ পরিদফতরের পরিচালক মিজানুর রহমানের স্বাক্ষরে বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বুয়েটে কেউ সাংগঠনিক ছাত্র রাজনীতি করলে সর্বোচ্চ সাজা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চিরতরে বহিষ্কার। প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে রাজনীতিতে জড়িত হলে, রাজনৈতিক পদে থাকলে, রাজনীতি করতে কাউকে উদ্বুদ্ধ বা বাধ্য করলে অপরাধ সাপেক্ষে শাস্তি সতর্কতা, জরিমানা ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যে কোনো মেয়াদে বহিষ্কার করা হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, র‌্যাগিংয়ের কারণে কোনো ছাত্রের মৃত্যু হলে অভিযুক্তকে বুয়েট থেকে চিরতরে বহিষ্কার ও তার বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হবে। কোনো ছাত্র গুরুতর শারীরিক ক্ষতির শিকার হলে বা মানসিক ভারসাম্যহীনতার শিকার হলে অভিযুক্তকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চিরতরে বহিষ্কার করা হবে। এতে আরো বলা হয়, মৌখিক বা শারীরিক লাঞ্ছনা এবং সাময়িক মানসিক ক্ষতিসহ এ সংক্রান্ত অপরাধের শাস্তি হচ্ছে সতর্কতা, জরিমানা, হল থেকে চিরতরে বহিষ্কার বা একাডেমিক কার্যক্রম থেকে একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য বিরত রাখা। এ ধরনের অপরাধীকে শিক্ষাজীবনে ফিরতে হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ঠিক করে দেওয়া মনোরোগ বিশেষজ্ঞের কাছে নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত কাউন্সেলিং করতে হবে।

গত ৬ অক্টোবর আবরা ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের পর থেকে ক্লাস বর্জন করে আসছে বুয়েট শিক্ষার্থীরা। ফলে প্রায় দুই মাস ধরে অচল বাংলাদেশে প্রকৌশল শিক্ষার নামী এই প্রতিষ্ঠান। আবরার হত্যাকা-ের পর শিক্ষার্থীরা যে ১০ দফা দাবি তুলেছিল, ধাপে ধাপে তা বাস্তবায়ন হচ্ছে।

গত ৬ অক্টোবর শেরেবাংলা হলে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের নির্যাতনে আবরারের মৃত্যু ঘটে। এরপর শিক্ষার্থীরা আন্দোলনে নামলে ওই ঘটনায় জড়িত কয়েকজনকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করেছিল বুয়েট কর্তৃপক্ষ।

১০ দফার কয়েকটি মেনে নেওয়ার পর গত ১৫ অক্টোবর মাঠের আন্দোলন থেকে সরে আসে বুয়েট শিক্ষার্থীরা; তবে মামলার অভিযোগপত্র ও অন্য দাবিগুলো পূরণ না হওয়া পর্যন্ত ক্লাসে না ফেরার ঘোষণা দেয়।

পাঁচ সপ্তাহের তদন্তে গত ১৩ নভেম্বর পুলিশ ২৫ জনকে আসামি করে অভিযোগপত্র দিলেও ক্লাসে ফেরার জন্য বুয়েট কর্তৃপক্ষকে তিনটি শর্ত দেয় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

ওই শর্তের একটি ছিল অভিযোগপত্রভুক্ত আসামিদের স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা। এছাড়া আগের র‌্যাগের ঘটনায় অভিযুক্তদের অপরাধের মাত্রা অনুযায়ী শাস্তি দেওয়ার দাবিও ছিল তাদের।

আবরার হত্যাকাণ্ডের অভিযোগপত্রভুক্ত আসামিদের গত ২১ নভেম্বর স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করে বুয়েট কর্তৃপক্ষ। সেদিন শৃঙ্খলা ভঙ্গের জন্য আরও ছয়জনকেও বহিষ্কার করা হয়। গত ২৮ নভেম্বর আরও ২৬ জনকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়। এরা সোহরাওয়ার্দী ও আহসানউল্লাহ হলে র‌্যাগিংয়ের ঘটনায় জড়িত ছিল।

এর মধ্যেই বুয়েটে র‌্যাগিং ও রাজনীতিতে জড়িত থাকলে সর্বোচ্চ শাস্তি চিরতরে বহিষ্কার নির্ধারণ করে একটি নীতিমালা প্রণয়ন করার কথা জানানো হল।

জবির নতুন ট্রেজারার ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ
                                  

জবি প্রতিনিধি: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ট্রেজারার হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ইংরেজি বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কামালউদ্দিন আহমেদ।

বুধবার (২৭ নভেম্বর) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব সৈয়দ আলী রেজার স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় আইন ২০০৫ এর ধারা ১২(১) অনুসারে অধ্যাপক ড. কামালউদ্দিন আহমেদকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় বিদ্যালয়ের ট্রেজারার নিয়োগ করা হলো, ট্রেজারার পদে তার নিয়োগের মেয়াদ ৪ (চার) বছর হবে এবং তিনি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় আইন ২০০৫ এর ধারা ১২ এর উপধারা ৪,৫,৬,৭ ও ৮ অনুযায়ী ট্রেজারারের দায়িত্ব পালন করবেন।
উল্লেখ্য, অধ্যাপক ড. কামালউদ্দিন আহমেদ এর আগে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ও ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এরপর তিনি চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সর্বশেষ তিনি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ইনস্টিটিউট অব মডার্ন ল্যাংগুয়েজের অধ্যাপক (চুক্তিবদ্ধ) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা শুরু
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : সারাদেশে একযোগে শুরু হয়েছে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা।  রোববার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে শুরু হওয়া এই পরীক্ষা চলবে বেলা ১টা পর্যন্ত। এবার এই পরীক্ষায় প্রায় ২৯ লাখ ক্ষুদে শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছে।

এবছর প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় ২৫ লাখ ৫৩ হাজার, ২৬৭ জন ছাত্র-ছাত্রী অংশ নিচ্ছে, এর মধ্যে ছাত্র সংখ্যা ১১ লাখ ৮১ হাজার ৩০০ জন ও ছাত্রী সংখ্যা ১৩ লাখ ৭১ হাজার ৯৬৭ জন।

ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় তিন লাখ ৫০ হাজার ৩৭১ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে, যার মধ্যে ছাত্র সংখ্যা এক লাখ ৮৭ হাজার ৮২ এবং ছাত্রী সংখ্যা এক লাখ ৬৩ হাজার ২৮৯ জন।

প্রাথমিক ও ইবতেদায়িতে গত বছরের তুলনায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে দুই লাখ ২৩ হাজার ৬১৫ জন। সমাপনীতে ছয়টি বিষয়ের প্রতিটিতে ১০০ করে মোট ৬০০ নম্বরের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন গত বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, এবার প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনীতে ছাত্রের চেয়ে ছাত্রীর সংখ্যা এক লাখ ৬৬ হাজার ৮৭৪ জন বেশি। প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে তিন হাজার ৩৪৭ জন এবং ইবতেদায়ি শিক্ষায় ২৩৬ জন বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করছে।

প্রতিমন্ত্রী জানান, সারাদেশে মোট সাত হাজার ৪৭০টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এর মধ্যে বিশ্বের আটটি দেশের ১২টি কেন্দ্রে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এর পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৬১৫ জন।

মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের টেলিফোন নম্বর ০২-৯৫৭৭২৫৭ ও ইমেইল, অধিদপ্তরের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের টেলিফোন নন্বর ০২- ৫৫০৭৪৯১৭, ০১৭১১৩৪৪৫৩২, ০১৭১২১০৬৩৬৯, ইমেইল: ddestabdpe@gmail.com।

সমাপনী পরীক্ষাসংক্রান্ত সব তথ্য এই নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে জানা যাবে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

প্রাথমিক সমাপনীতে আজ অনুষ্ঠিত হচ্ছে ইংরেজি পরীক্ষা। ১৮ নভেম্বর বাংলা, ১৯ নভেম্বর বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়, ২০ নভেম্বর প্রাথমিক বিজ্ঞান, ২১ নভেম্বর ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা এবং ২৪ নভেম্বর গণিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনীতে আজ অনুষ্ঠিত হচ্ছে ইংরেজি পরীক্ষা। ১৮ নভেম্বর বাংলা, ১৯ নভেম্বর বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় এবং বিজ্ঞান, ২০ নভেম্বর আরবি, ২১ নভেম্বর কোরআন মাজিদ ও তাজবিদ এবং ২৪ নভেম্বর গণিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

জবিতে ২৩ নভেম্বর থেকে শুরু হতে যাচ্ছে UV-VIS & IR শীর্ষক ট্রেনিং
                                  

জবি প্রতিনিধি: Network of Instrument Technical Personnel and User Scientists of Bangladesh (NITUB) এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের যৌথ উদ্যোগে আগামী ২৩-২৮ নভেম্বর-২০১৯ ‘The use, maintenance and trouble-shooting of Ultra-Violet, Visible and Infrared Spectrophotometer (UV-VIS & IR)’ শীর্ষক ট্রেনিং প্রোগ্রাম জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষ্ঠিত হবে। ট্রেনিং প্রোগ্রামটি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগে অনুষ্ঠিত হবে।

ট্রেনিং প্রোগ্রামে উপস্থিত থাকবেন জবির রসায়ন বিভাগের চেয়ারম্যান এবং অনুষ্ঠানের আহবায়ক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ সৈয়দ আলম। সদস্য হিসেবে উপস্থিত থাকবেন রসায়ন বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক প্রফেসর ড. মোঃ শাহজাহান ও সহযোগী অধ্যাপক ড. সুব্রত চন্দ্র রায় এবং সদস্য সম্পাদক হিসেবে থাকবেন NITUB এর যন্ত্র প্রকৌশলী মোঃ আবুল কালাম চৌধুরী।

উপাচার্যের অপসারণ দাবিতে উত্তাল জাবি
                                  

জাবি প্রতিনিধি : উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণ দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলার পর গতকাল জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নির্দেশ উপেক্ষা  করে উপাচার্যের অপসারণ দাবিতে আন্দোলন করছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মুরাদ চত্বর থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন শিক্ষার্থীরা। পরে মিছিলটি ছাত্রীদের হলের দিকে গেলে হল থেকে ছাত্রীরা বেরিয়ে এসে মিছিলে যোগ দেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি ছাত্রী হল ঘুরে পরিবহন চত্বর হয়ে মুরাদ চত্বরে গিয়ে সমবেত হয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক মুসফিক-উস-সালেহীন বলেন, উপাচার্যের অপসারণের দাবিতে আমাদের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।  হল বন্ধে প্রশাসনের সিদ্ধান্ত তারা মানবেন না বলেও জানান তিনি।

দুর্নীতির অভিযোগে জাবি উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকদিন ধরেই আন্দোলন চলছে। গতকাল দুপুর ১২টার দিকে আন্দোলনকারী শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। হামলায় শিক্ষকসহ ৩০ জনেরও বেশি আহত হন।

এই ঘটনার পর দুপুরে এক জরুরি সিন্ডিকেট সভা শেষে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়। এছাড়া বিকাল সাড়ে চারটার মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশের কথা জানান ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ। পরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জারি করা এক বিজ্ঞপ্তিতে বিকাল সাড়ে পাঁচটার মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা শুরু
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : সারা দেশে একযোগে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা শুরু হয়েছে।

শনিবার সকাল ১০টায় দেশের মোট ২ হাজার ৯৮২টি কেন্দ্রে একযোগে এই পরীক্ষা শুরু হয়। এছাড়া দেশের বাইরের ৯টি কেন্দ্র থেকে শিক্ষার্থীরা এ পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে।

প্রথমদিন জেএসসিতে বাংলা এবং জেডিসিতে কুরআন মাজিদ ও তাজবিদ বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এ বছর মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে জেএসসিতে ২২ লাখ ৬০ হাজার ৭১৬ জন ও জেডিসিতে ৪ লাখ ৯৬৬ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে নিয়মিত ২৩ লাখ ৯৭ হাজার ৫৬০ জন। বাকিরা অনিয়মিত।

এ পরীক্ষা নিয়ে গত ২৯ অক্টোবর এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানান, জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার কারণে ২৫ অক্টোবর থেকে আগামী ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত দেশে সব ধরনের কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এসময় প্রশ্নপত্র ফাঁস-সংক্রান্ত গুজবের ফাঁদে না পড়তে অভিভাবকদের প্রতিও তিনি আহ্বান জানান।

দেশের ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড ও মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে নেয়া হচ্ছে এই পরীক্ষা। এরমধ্যে প্রথমবারের মতো ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ড পরীক্ষা নিচ্ছে।

এদিকে গত দশবছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো ঢাকা মহানগরের বাইরের পরীক্ষা কেন্দ্র কেরানীগঞ্জের জিঞ্জিরা পিএম পাইলট উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিদর্শনে যাওয়ার কথা আছে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির।

এদিকে, সকালে কেরানীগঞ্জ উপজেলার জিনজিরা পি এম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্র পরিদর্শনে যান শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনি।

কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে  তিনি বলেন, বিগত সময়ে একটি চক্র সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজব ছড়িয়ে প্রতারণা করেছে। প্রশ্ন ফাঁসের কথা বলে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এবার এ ব্যাপারে আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা যথেষ্ট সতর্ক রয়েছে।

তিনি বলেন, এবার জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষায় এখন পর্যন্ত কোনো প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা ঘটেনি, আশা করি ঘটবেও না।

তিনি অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনাদের সন্তানদের পরীক্ষা কেন্দ্রে ভালো প্রস্তুতি নিয়ে পাঠাবেন। তাহলে মেধা অনুযায়ী তাদের ফল আসবে। আপনারা যদি সন্তানের ভালো ফলাফলের জন্য অনৈতিক পদ্ধতি অবলম্বন করেন তবে তাদের ভবিষ্যৎ নষ্ট হয়ে যাবে।

কেন্দ্র পরিদর্শনকালে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. সোহরাব হোসাইন, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর মু. জিয়াউল হক, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) কেরানীগঞ্জ সার্কেল কামরুল হাসান সোহেল, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নিলুফার জাহান প্রমুখ।


   Page 1 of 29
     শিক্ষা
বারৈচা বালিকা বিদ্যালয়ে খোলা মাঠে পাঠদান
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক পাচ্ছেন জবির ৬ শিক্ষার্থী
.............................................................................................
হাসপাতাল ছাড়লেন ঢাবির সেই ছাত্রী
.............................................................................................
শিক্ষার্থী ধর্ষণের প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল ঢাবি
.............................................................................................
ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে অনশন
.............................................................................................
ফারাবির অবস্থার উন্নতি, খোলা হয়েছে লাইফ সাপোর্ট
.............................................................................................
জবিতে বহিষ্কৃত ছাত্রদের দৌরাত্ম, নিরব প্রশাসন
.............................................................................................
রাজাকারকে শহীদ বলা জঘন্য অপরাধ: ঢাবি উপাচার্য
.............................................................................................
জবিতে গ্যারেজ খালি, যত্রতত্র কার পার্কিং
.............................................................................................
ঢাবির ৫২তম সমাবর্তন কাল
.............................................................................................
র‌্যাগিং ও রাজনীতিতে জড়িত হলে বুয়েট থেকে বহিষ্কার
.............................................................................................
জবির নতুন ট্রেজারার ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ
.............................................................................................
প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা শুরু
.............................................................................................
জবিতে ২৩ নভেম্বর থেকে শুরু হতে যাচ্ছে UV-VIS & IR শীর্ষক ট্রেনিং
.............................................................................................
উপাচার্যের অপসারণ দাবিতে উত্তাল জাবি
.............................................................................................
জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা শুরু
.............................................................................................
আবাসন সংকট : উপাচার্যের বাসার সামনে ঢাবি শিক্ষার্থীদের অবস্থান
.............................................................................................
জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা শুরু ২ নভেম্বর
.............................................................................................
জবির বিজ্ঞান শাখার ফলাফল প্রকাশ
.............................................................................................
ঢাবির ‘খ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ, পাস ২৩.৭২ শতাংশ
.............................................................................................
বুয়েটে ছাত্রলীগের রুম সিলগালা । দৈনিক স্বাধীন বাংলা
.............................................................................................
কাল ঢাবি ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল
.............................................................................................
বুয়েটের আন্দোলন ২ দিনের জন্য শিথিল
.............................................................................................
ফাহাদ হত্যার বিচার দাবিতে উত্তাল বুয়েট
.............................................................................................
বুয়েট হলের সিঁড়িতে ছাত্রের লাশ, শরীরে আঘাতের চিহ্ন
.............................................................................................
ঢাবির ‘গ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ, পাসের হার ১৫.৪৯ শতাংশ
.............................................................................................
শিক্ষার্থী আন্দোলনে উত্তাল বশেমুবিপ্রবি
.............................................................................................
শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে বশেমুরবিপ্রবি বন্ধ ঘোষণা
.............................................................................................
পরীক্ষা থাকছে না প্রথম থেকে তৃতীয় শ্রেণী পর্যন্ত
.............................................................................................
দিনে শিক্ষক, রাতে রিক্সা-ভ্যান চালক
.............................................................................................
প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার সূচি প্রকাশ
.............................................................................................
ধলেশ্বরী নদীতে গোসল করতে গিয়ে ৩ শিক্ষার্থী নিখোঁজ
.............................................................................................
দ্বিতীয় দিনের মতো ঢাবির সব ভবনে তালা
.............................................................................................
সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে ঢাবির সব ফটকে তালা
.............................................................................................
শতভাগ পাস ৯০৯ প্রতিষ্ঠানে, ৪১টিতে পাস করেনি কেউ
.............................................................................................
যেভাবে জানা যাবে এইচএসসির ফল
.............................................................................................
এইচএসসিতে পাশের হার ৭৩.৯৩ শতাংশ
.............................................................................................
এমপিওভুক্তিতে অবহেলিত এলাকা অগ্রাধিকার পাবে
.............................................................................................
মৌলিক গবেষণায় পিছিয়ে পড়ছে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো
.............................................................................................
ফেসবুক পেজের বিরুদ্ধে রাবি ছাত্রীর জিডি
.............................................................................................
প্যানেল ঘোষণা করলো কোটা আন্দোলনকারীরা
.............................................................................................
দুদক জ্বরে কাঁপছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান
.............................................................................................
ডাকসু নির্বাচন: ছাত্র সংগঠনগুলোর সঙ্গে বৈঠকে প্রশাসন
.............................................................................................
১৬-১৭ জানুয়ারি শাবিতে নবীনদের ওরিয়েন্টেশন
.............................................................................................
হাসনা হেনার মুক্তির দাবিতে ভিকারুননিসায় অনশন
.............................................................................................
নিখোঁজ জাবি ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সৈকত
.............................................................................................
ঢাবি’র চারুকলা অনুষদভুক্ত ‘চ’ ইউনিটে পাস ১৯ দশমিক ৪৫
.............................................................................................
অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতাকে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ
.............................................................................................
ঢাবির ৫১তম সমাবর্তন আজ
.............................................................................................
হাটগোপালপুর মর্নিংসান কিন্ডার গার্টেন স্কুলে বৃত্তির অর্থ ও সনদপত্র বিতরণ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Nytasoft