বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৯ | বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   গ্রাম বাংলা -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
মদপানে রাশিয়ান প্রকৌশলী ও রাবির ২ শিক্ষার্থীর মৃত্যু

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট  : মদপানে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেনÑ আইন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র মোহতাসিম রাফিক খান তুর্ষ ও অর্থনীতি বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র তুর্য রায়। বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর হুমায়ুন কবীর এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। নিহত রাফিক খানের বাড়ি খুলনায় এবং তুর্য রায়ের বাড়ি নীলফামারির ডোমারে।

সহকারী প্রক্টর হুমায়ুন কবীর জানান, নগরীর মুন্নাফের মোড় এলাকায় ছাত্রাবাসে তারা মদমদপানে অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর ভোরে তাদের মৃত্যু হয়। তাদের সঙ্গে মদপানে রুয়েটের আরেক ছাত্র অসুস্থ হয়েছেন বলেও জানান তিনি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রফ্রন্টের নেতা তোহরাব হোসেন, রাফিক খানের বাড়ি খুলনায়। আর তুর্য রায়ের বাড়ি উত্তরাঞ্চলের জেলা নীলফামারী। তুর্য নগরীর বালিয়াপুকুরের একটি ছাত্রাবাসে থাকতেন। আর রাফিক খান থাকতেন মোন্নাফের মোড়ের একটি ছাত্রাবাসে। দুজনই ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছিলেন। দুজনের বন্ধুত্ব ছিল খুব ভাল।

তোহরাব হোসেন আরও জানান, শুক্রবার রাতে রাফিক খান, তুর্য রায় এবং রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেক শিক্ষার্থী একসঙ্গে মদপান করেছিলেন। এদের মধ্যে রাবির দুই শিক্ষার্থী মারা গেছেন। তাদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজের (রামেক) মর্গে রাখা আছে।

তিনি আরও জানান, শনিবার রাত ১০টার দিকে রাফিক খান তুর্য তাকে ফোন করে মদপানের কারণে তাদের দুজনের অসুস্থতার কথা জানান। তিনি তাদেরকে তার বাসার রোড এলাকার ছাত্রাবাসে ডাকেন। পরে রাফিক খান ও তুর্য রায় তার ছাত্রাবাসে যান। তোহরাব তাদের হাসপাতালে নিতে চাইলে তারা বলেন, কিছুক্ষণ বিশ্রাম করলে তারা ঠিক হয়ে যাবেন। তোহরাব তাদের ডাবের পানি ও স্যালাইন পান করতে দেন। এরপর তারা সবাই ঘুমিয়ে পড়েন।

ছাত্রফ্রন্ট নেতা আরও জানান, রাত তিনটার দিকে রাফিক খান বেশি অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে রাত চারটার দিকে তাকে রাজশাহী মেডিকেলে নেয়া হয়। এর মধ্যে ছাত্রাবাসে থাকা তুর্য রায়েরও অবস্থার অবনতি হয়। তখন তাকেও হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে রবিবার ভোর পাঁচটার দিকে রাফিক খান এবং সকাল সাতটার দিকে তুর্য রায় মারা যান।

এদিকে, মদপানের পর অসুস্থ হয়ে পাবনার ঈশ্বরদীর রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের রুশ প্রকৌশলী দিমিত্রি বেল্লি (৪১) মারা গেছেন। অসুস্থ হয়েছেন আরও দুই রুশ প্রকৌশলী।

শনিবার দিবাগত রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দিমিত্রি বেল্লি মারা যান। দিমিত্রির বাবার নাম ভ্লাদিমির বেল্লি। দুই রুশ প্রকৌশলী মিকায়েল দিমা ও লোগেচেভ লেভ নগরের লক্ষ্মীপুর এলাকার সিডিএম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আজ রোববার সকালে হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কোয়েল চৌধুরী জানান, তাঁদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাঁরা নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন। তাঁদের নিরাপত্তার জন্য হাসপাতালে পুলিশ পাহারা বসানো হয়েছে।

গতকাল রাতে রাজশাহী মেডিকেল থেকে ওই দুই প্রকৌশলীকে সিডিএম হাসপাতালে নেওয়া হয়। রাতে রাজশাহী মেডিকেলে চিকিৎসাধীন মিকায়েল দিমা বলেন, গতকাল সকালের দিকে তাঁরা হুইক ব্রান্ডের মদপান করেন। সন্ধ্যার পর থেকে সবাই অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাঁদের প্রথমে পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকের পরামর্শে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। রাজশাহীতে আনার পরে রাত ১০টা ৩১ মিনিটে কর্তব্যরত চিকিৎসক দিমিত্রি বেল্লিকে মৃত ঘোষণা করেন।

মদপানে রাশিয়ান প্রকৌশলী ও রাবির ২ শিক্ষার্থীর মৃত্যু
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট  : মদপানে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেনÑ আইন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র মোহতাসিম রাফিক খান তুর্ষ ও অর্থনীতি বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র তুর্য রায়। বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর হুমায়ুন কবীর এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। নিহত রাফিক খানের বাড়ি খুলনায় এবং তুর্য রায়ের বাড়ি নীলফামারির ডোমারে।

সহকারী প্রক্টর হুমায়ুন কবীর জানান, নগরীর মুন্নাফের মোড় এলাকায় ছাত্রাবাসে তারা মদমদপানে অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর ভোরে তাদের মৃত্যু হয়। তাদের সঙ্গে মদপানে রুয়েটের আরেক ছাত্র অসুস্থ হয়েছেন বলেও জানান তিনি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রফ্রন্টের নেতা তোহরাব হোসেন, রাফিক খানের বাড়ি খুলনায়। আর তুর্য রায়ের বাড়ি উত্তরাঞ্চলের জেলা নীলফামারী। তুর্য নগরীর বালিয়াপুকুরের একটি ছাত্রাবাসে থাকতেন। আর রাফিক খান থাকতেন মোন্নাফের মোড়ের একটি ছাত্রাবাসে। দুজনই ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছিলেন। দুজনের বন্ধুত্ব ছিল খুব ভাল।

তোহরাব হোসেন আরও জানান, শুক্রবার রাতে রাফিক খান, তুর্য রায় এবং রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেক শিক্ষার্থী একসঙ্গে মদপান করেছিলেন। এদের মধ্যে রাবির দুই শিক্ষার্থী মারা গেছেন। তাদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজের (রামেক) মর্গে রাখা আছে।

তিনি আরও জানান, শনিবার রাত ১০টার দিকে রাফিক খান তুর্য তাকে ফোন করে মদপানের কারণে তাদের দুজনের অসুস্থতার কথা জানান। তিনি তাদেরকে তার বাসার রোড এলাকার ছাত্রাবাসে ডাকেন। পরে রাফিক খান ও তুর্য রায় তার ছাত্রাবাসে যান। তোহরাব তাদের হাসপাতালে নিতে চাইলে তারা বলেন, কিছুক্ষণ বিশ্রাম করলে তারা ঠিক হয়ে যাবেন। তোহরাব তাদের ডাবের পানি ও স্যালাইন পান করতে দেন। এরপর তারা সবাই ঘুমিয়ে পড়েন।

ছাত্রফ্রন্ট নেতা আরও জানান, রাত তিনটার দিকে রাফিক খান বেশি অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে রাত চারটার দিকে তাকে রাজশাহী মেডিকেলে নেয়া হয়। এর মধ্যে ছাত্রাবাসে থাকা তুর্য রায়েরও অবস্থার অবনতি হয়। তখন তাকেও হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে রবিবার ভোর পাঁচটার দিকে রাফিক খান এবং সকাল সাতটার দিকে তুর্য রায় মারা যান।

এদিকে, মদপানের পর অসুস্থ হয়ে পাবনার ঈশ্বরদীর রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের রুশ প্রকৌশলী দিমিত্রি বেল্লি (৪১) মারা গেছেন। অসুস্থ হয়েছেন আরও দুই রুশ প্রকৌশলী।

শনিবার দিবাগত রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দিমিত্রি বেল্লি মারা যান। দিমিত্রির বাবার নাম ভ্লাদিমির বেল্লি। দুই রুশ প্রকৌশলী মিকায়েল দিমা ও লোগেচেভ লেভ নগরের লক্ষ্মীপুর এলাকার সিডিএম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আজ রোববার সকালে হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কোয়েল চৌধুরী জানান, তাঁদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাঁরা নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন। তাঁদের নিরাপত্তার জন্য হাসপাতালে পুলিশ পাহারা বসানো হয়েছে।

গতকাল রাতে রাজশাহী মেডিকেল থেকে ওই দুই প্রকৌশলীকে সিডিএম হাসপাতালে নেওয়া হয়। রাতে রাজশাহী মেডিকেলে চিকিৎসাধীন মিকায়েল দিমা বলেন, গতকাল সকালের দিকে তাঁরা হুইক ব্রান্ডের মদপান করেন। সন্ধ্যার পর থেকে সবাই অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাঁদের প্রথমে পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকের পরামর্শে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। রাজশাহীতে আনার পরে রাত ১০টা ৩১ মিনিটে কর্তব্যরত চিকিৎসক দিমিত্রি বেল্লিকে মৃত ঘোষণা করেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বসতঘরে আগুন, লুটপাট
                                  

মোঃ মনিজ্জামান মনির: ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার রামরাইল ইউনিয়নের রামরাইল মাগুরা গ্রামে জমি সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের বসতঘরে আগুন ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। গত ২৯ মার্চ সকালে নিরীহ সামছুদ্দিন ওরফে কালা মিয়ার পরিবারের উপর এ হামলার ঘটনা ঘটে।  
সরেজমিন ও স্থানীয়দের এবং মামলার নথিসূত্রে জানা যায়, রামরাইল মাগুরা গ্রামের নজরুল ইসলাম (৩৫) এর নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র, রাম দা, বল্লম, লোহার রড, কোদাল, লাঠি, কোচশলা, কেরোসিন, তেলের ডিবি নিয়ে ওই দিন সকাল ৮টার দিকে হামলা চালায় পরিবারটির উপর। হামলাকারীরা বসতঘরে আগুন লাগিয়ে দিলে ঘরে থাকা মূল্যবান আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ফায়ার ব্রিগেডের সদস্যরা গিয়ে আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। হামলাকারীরা কালা মিয়ার বাড়ির দক্ষিণ পাশের বাড়ীর ছাদ থেকে এলোপাতাড়ি ইট-পাটকেল ছুড়ে মারতে থাকে। দুর্বৃত্তরা এলইডি টিভি, ফ্রিজ ইত্যাদি লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় প্রায় দেড় লক্ষাধিক টাকার মালামাল ক্ষতিগ্রস্থ হয়। আক্রমণে কালা মিয়ার স্ত্রী রানোয়ারা বেগম, হারুনুর রশিদের স্ত্রী কোহিনুর আক্তার, সোহেল মিয়া, ফরিদ মিয়া, জীবন মিয়া, বাদশা মিয়া, সাইফুল ইসলাম, দেলোয়ার মিয়া, সুমা বেগম, আছমা বেগম আহত হন।
কালা মিয়া জানান, জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে স্থানীয় সর্দার-মাতব্বরদের কাছে বেশ কয়েকবার বিচারের ধরনা দিয়েও ন্যায় বিচার পাইনি। পরে নিরূপায় হয়ে রামরাইল গ্রামের মৃত আব্দুল মালেকের ছেলে হারুন মিয়া (৬০), মৃত আব্দুল হেকিমের ছেলে আব্দুল মতিন ওরফে দার” মিয়া (৭০), মৃত আব্দুল মালেকের ছেলে বসু মিয়া (৪০), খুরশিদ মিয়ার ছেলে নজরুল ইসলাম (৩৫), জামাল মিয়া (৩৬), বাবুল মিয়া (৫০), মন মিয়ার ছেলে নোয়াব মিয়া (৫০), মৃত রাজু মিয়ার ছেলে আব্দুল মালেক (৪০), সুদন মিয়ার ছেলে রাহিম মিয়া (৩৫), মৃত আব্দুল হাসিম মিয়ার ছেলে সেলিম মিয়া (৩০), আব্দুল হাসিমের স্ত্রী বানেছা বেগম (৬০), সুদন মিয়ার ছেলে মনির মিয়া (৩৩), মৃত ইদ্রিস মিয়ার ছেলে মোঃ লিয়াকত মিয়া (৩৯), বাবুল মিয়ার ছেলে রুবেল মিয়া (২৭) সহ মোট ১৪ জনকে আসামী করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করি। যার নং-৭৪, তাং-৩০/০৩/১৯ইং।
প্রশাসনের কাছে সুষ্টু ও নিরপেক্ষ বিচার দাবি করে নিজেদের নিরাপত্তার জন্য আকুল আবেদন জানান তিনি।


মাদারীপুরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গণধর্ষণ
                                  

মাদারীপুর প্রতিনিধি: মাদারীপুরে কালকিনি উপজেলার ডাসার থানার বালিগ্রাম ইউনিয়নে মাদ্রাসার দুই ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দুদিন আটকে রেখে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষক সাকিব ও হৃদয়ের পরিবার প্রভাশালী হওয়ায় স্থানীয়ভাবে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে। অভিযুক্ত ধর্ষক সাকিব সাবেক ইউপি মেম্বারের ছেলে। তবে প্রসাশন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছে।

নিগৃহীত অসহায় পরিবার জানায়, গত বুধবার সকাল থেকে তাদের দুই মেয়ে মাদ্রাসা ৫ম ও ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী বের হওয়ার পর থেকে নিখোঁজ। অনেক খোজাখোজি করেও বৃহস্পতিবার রাতে ভাঙ্গাব্রীজ নামক স্থানে ইতালি প্রবাসী মাহবুব সর্দারের বিলাশবহুল বাড়ীতে তালাবদ্ধ অবস্থায় দুই মেয়েসহ বালীগ্রাম ইউনিয়ের আটিপাড়া গ্রামের সাবেক ইউপি মেম্বার মজিবর হাওলাদের ছেলে সাকিব ও একই এলাকার হৃদয়, আলামিন, শাওনসহ ৪-৫ জনকে আটক করে এলাকাবাসী। তবে পুলিশকে বিষটি জানালেও তারা আসতে দেরি করায় একই এলাকার সাবেক চেয়ারম্যান মতিন মোল্লাসহ এলাকার প্রভাশালীদের নিয়ে টাকার বিনিময় দামাচাপা দেয়া চেষ্টা চালায়। মেয়ে পক্ষ এতে রাজী না হওয়া শুক্রবার বিষয়টি জানাজানি হলে ডাসার থানার পুলিশ এসে দুটি মেয়ের একটি মেয়ে ও তার বাবাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিকালে থানায় নিয়ে যায়। মাদ্রাসার দুটি মেয়েকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দুদিন আটকে রেখে গনধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত সকলকে দ্রুত গ্রেফতার করে উপযুক্ত শাস্তি দেয়া হোক এবং এরকম ঘটনা যাতে পুণরায় না ঘটে এমনটাই প্রত্যাশা এলাকাবাসীর।

ভিকটিম মাদ্রাসার ছাত্রী বলেন, আমার সাথে সাকিবের প্রেম ও আমার বান্ধবীর সাথে হৃদয় নামে আর একটি ছেলের প্রেম ছিল। সেই কারনে আমাদের মাদ্রাসা থেকে ফোন দিয়ে ডেকে নিয়ে মোটরসাইকেলে করে মাদারীপুরের বিভিন্নস্থান ঘুরিয়ে বিবাহ করার প্রলোভন দেখিয়ে রাতে আটকে রেখে শারিরিক মেলামেশা করছে। আমরা চলে আসতে চাইলেও আমাদের নানা ভয়ভিতি দেখিয়ে একটি ঘরের মধ্যে আটকে রেখে ওদের বন্ধুরা জোর করে শারিরিক সম্পর্ক করেছে। আমরা অসুস্থ থাকায় কিছু বলার ক্ষমতা ছিল না। এরপর পরের দিন আমাদের দুজনকে একই ঘরে আটকে রেখে একজন বাহিরে যেত কিছুক্ষন পর আর একজন আসত এভাবেই রাত পযন্ত আমরা ঐখানে ছিলাম। পরে এলাকার লোকজন আমাদের উদ্ধার করে।

বতলা ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক আবু আলেম জানান, এরা দুইজন বুধবার সকাল দশটার দিকে বইখাতা রেখে পালিয়েছে এরপর আর এদের খোজ পাওয়া যায়নি।

বালীগ্রাম ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মতিন মোল্লা জানান, আমার কাছে আসার পর সঠিক তথ্য চেয়ে সময় বেধে দিয়েছিলাম তারা আর আমার কাছে কোন তথ্য নিয়ে আসেন নাই। আমরা কোন শালিশ করি নাই।

মাদারীপুর পুলিশ সুপার সুব্রত কুমার হালাদার বলেন, আমরা একটি মেয়ে ও তার বাবা মামলা করার জন্য নিয়ে আসছি। আমরা চেষ্টা করবো মেয়ে দুটি যাতে তাদের উপযুক্ত বিচার পায়। তাছাড়া যারা শালিশ করছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে গ্রাম পুলিশ নিহত
                                  

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে দুর্বৃত্তের গুলিতে ভানু লাল চন্দ্র (৪২) নামে এক গ্রাম পুলিশ নিহত হয়েছেন। সকাল ১০টার দিকে উপজেলার তালশহর-বাহাদুরপুর সড়কে এই ঘটনা ঘটে। নিহত ভানু লাল চন্দ্র তালশহরের হরি চরন দাসের ছেলে। তিনি তালশহর ইউনিয়ন পরিষদে গ্রাম পুলিশ হিসেবে চাকরি করতেন।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সকালে আশুগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সদ্য সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আমির হোসেনের ব্যক্তিগত গাড়ির তেল ভর্তি করার জন্য সরাইলের বিশ্বরোডের পাম্পে চালককে পাঠান। এসময় তার গ্রাম পুলিশ ভানুকেও পাঠান। তালশহর-বাহাদুরপুর সড়কে হয়ে গাড়িটি আশুগঞ্জে যাচ্ছিল। কিছু দূর যাবার পর একটি সিএনজি চালিত অটোরিকশা দিয়ে চার যুবক ইব্রাহিম মিয়ার বাড়ির সামনে গাড়িটির গতিরোধ করে। গাড়ি থেকে নেমেই যুবকরা এলোপাতাড়ি গুলি ছুঁড়তে থাকে। এসময় ভানু লালের মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এসময় গাড়ির চালক পালিয়ে যায়। তবে সদ্য সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আমির হোসেন জানান, নির্বাচনের বিরোধ নিয়ে আগে থেকেই বিভিন্ন হুমকি-ধামকি দেয়া হচ্ছিল। এরই জের ধরে হয়তো আমরা গাড়িতে আছি মনে করেই গুলি চালানো হয়েছে। ভানু লাল হামলাকারীকে চিনে ফেলায় তাকে হত্যা করা হয়েছে। আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুদ আলম জানান, নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছে। এই ঘটনায় জড়িতদের কেউ ছাড় পাবে না বলে তিনি জানান।

গাইবান্ধায় বাস উল্টে নিহত ৫
                                  

গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে একটি যাত্রীবাহী বাস উল্টে পাঁচজন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন অন্তত ১৫ জন। শনিবার ভোর রাত সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের জুম্মারঘর নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে চারজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন- রংপুর মিঠাপুকুরের রিয়াজ উদ্দিন, লালমনিরহাট পাটগ্রামের মাহাবুল ইসলাম, টাঙ্গাইলের সুনীল কুমার এবং বাসের চালকের সহকারী লালমণিরহাট হাতীবান্ধা উপজলার দোয়ানী গ্রামের বিদ্যুৎ মিয়া।

গোবিন্দগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মমিরুল ইসলাম জানান, বরকত ট্রাভেলসের যাত্রীবাহী একটি বাস ঢাকা থেকে বুড়িমাড়ী যাচ্ছিলো। পথে বালুয়া এলাকায় বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে মহাসড়কের পাশে খাদে পড়ে যায়। এতে ৫ জন নিহত হন।

গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার রামকৃষ্ণ বর্মন জানিয়েছেন, প্রশাসনের পক্ষ থেকে আহতদের চিকিৎসার খোঁজ-খবর নেয়া হচ্ছে এবং নিহতদের পরিবারকে ১০ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা দেয়া হয়েছে।

দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে বলেও জানান তিনি।

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৩ রোহিঙ্গা নিহত
                                  

কক্সবাজার প্রতিনিধি : কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে তিনজন নিহত হয়েছেন, যারা রোহিঙ্গা ডাকাত বলে দাবি করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীটি।

শুক্রবার রাত দেড়টার দিকে হ্নীলা ইউনিয়নের নয়াপাড়া রোহিঙ্গা শিবিরের হাবিরের ঘোনাপাহাড়ে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- হ্নীলা ইউনিয়নের মুছনী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বি-ব্লকের আমির হোসেনের ছেলে নুর আলম (২৩) এবং একই ক্যাম্পের এইচ-ব্লকের মোহাম্মদ ইউনুসের ছেলে মোহাম্মদ জুবায়ের (২০) ও ইমাম হোসেনের ছেলে হামিদ উল্লাহ (২০)।

বন্দুকযুদ্ধে পুলিশের ৩ সদস্যও আহত হয়। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হয়েছে অস্ত্র ও গুলি।

পুলিশের দাবি, এই শরণার্থীরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পকেন্দ্রিক সংঘবদ্ধ ডাকাত দলের সদস্য। আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন এসআই স্বপন, কনস্টেবল মোহাম্মদ মেহেদী ও মং মং।

টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ  বলেন, শুক্রবার রাতে মুছনী ক্যাম্প সংলগ্ন এলাকা থেকে নুর আলম, জুবায়ের ও হামিদকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে।

তিনি বলেন, জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের নিয়ে পুলিশের একটি দল ভোর রাতে মুছনী ক্যাম্প সংলগ্ন পাহাড়ি এলাকায় অস্ত্র উদ্ধারে অভিযানে যায়। সেখানে পৌঁছামাত্র তাদের সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। তখন পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এক পর্যায়ে নুর আলম, জুবায়ের ও হামিদ গুলিবিদ্ধ হয়। আহত হয় পুলিশের ৩ সদস্যও।

গুলিবিদ্ধ ৩ রোহিঙ্গাকে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে তাদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা দেখে জানান, তিনজনই মারা গেছেন।

কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) শাহীন মো. আব্দুর রহমান চৌধুরী বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই পথে ৩ রোহিঙ্গার মৃত্যু হয়েছে। তাদের শরীরে গুলির জখম রয়েছে।

ঘটনাস্থলে দেশে তৈরি চারটি বন্দুক ও সাতটি গুলি পাওয়া যায় বলে জানান ওসি।

তিনি বলেন, নিহত ৩ রোহিঙ্গা টেকনাফের ক্যাম্পকেন্দ্রিক গড়ে উঠা সংঘবদ্ধ ডাকাত দলের সদস্য। তারা রোহিঙ্গা ক্যাম্পসহ আশপাশের এলাকায় চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, হত্যা, অপহরণ ও মাদক পাচারসহ নানা অপরাধ সংঘটন করত।

তারা তিনজনই টেকনাফ থানার পাঁচটি মামলার আসামি বলে ওসি জানান। তিনি বলেন, এসব মামলায় তারা পলাতক ছিলেন।

তালায় দেড় হাজার বোতল ফেন্সিডিলসহ আটক ২
                                  

কেশবপুর(যশোর)প্রতিনিধি: তালায় পেয়াজের ট্রাক থেকে ১হাজার ৪৫০ বোতল ফেন্সিডিল সহ দুই মাদক ব্যাবসায়ী গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খুলনা-সাতক্ষীরা মহাসড়কের ধলবাড়িয়া নামক স্থান থেকে যানবহন তল্লাশিকালে এসব মদক উদ্ধার করা হয়।
সাতক্ষীরা জেলা পুলিশ সুপার মোঃ সাজ্জাদুর রহমান(বিপিএম)র নির্দেশে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পুলিশ সুপার মোঃ হুমায়ুন কবির ও তালা থানাড়র অফিসার ইনচার্জ মেহেদী রাসেল এর নেতৃত্বে মাদকদ্রব্য উদ্ধার, ওয়ারেন্ট তামিল ও বিশেষ অভিযান পরিচালনাকালে তালা থানাধীন খুলনা- সাতক্ষীরা মহাসড়কে ধলবাড়িয়া নামক স্থান হইতে আসামী ১। মোঃ রেজাউল করিম বাবু (৩৫), পিতা-কওছার আলী খাঁ, সাং-চালিতাবাড়ীয়া, থানা-কালিগঞ্জ, ২। মফিজুল হোসেন (৩০), পিতা-মৃত মোস্তাফিজুর রহমান, সাং-আলিপুর (মিস্ত্রিপাড়া), থানা-সাতক্ষীরা সদর, জেলা-সাতক্ষীরাদের হেফাজতে থাকা পিঁয়াজ ভর্তি একটি ট্রাকের মধ্যে হইতে ১,৪৫০ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল উদ্ধার করেন।

আজও পাটকল শ্রমিকদের অবরোধ
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : বকেয়া মজুরি পরিশোধ ও মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ৯ দফা দাবিতে তৃতীয় দিনের মতো মহাসড়ক ও রেলপথ অবরোধে নেমেছেন রাষ্ট্রায়ত্ত ২৬টি পাটকলের শ্রমিকরা। তাদের অবরোধের ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, নরসিংদীসহ বিভিন্ন জেলার মানুষ।

আগের দুই দিনের মতো বৃহস্পতিবার ধর্মঘটে নামে পাটকল শ্রমিকরা। এসময় বিক্ষোভ মিছিল, টায়ারে আগুন দেওয়াসহ সমাবেশ করেন তারা। শ্রমিক নেতারা বলছেন, তারা শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালন করেছেন। আর দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত এ আন্দোলন চলবে।

এদিকে খুলনা মহানগরীর দৌলতপুর নতুন রাস্তা মোড় এলাকায় শ্রমিক ও পুলিশের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় শ্রমিকরা নতুন রাস্তা মোড়ে পুলিশ বক্সে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করেন। সংঘর্ষে চার পুলিশসহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। সকাল ৯টার দিকে শ্রমিকরা নতুন রাস্তা মোড়ে অবস্থিত পুলিশ বক্সে হামলা চালান। এ সময় পুলিশ তাদের নিয়ন্ত্রণের জন্য ধাওয়া দিলে শুরু হয় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ।

আজও রেলপথ অবরোধ করে রেখেছেন বিক্ষব্ধ পাটকল শ্রমিকরা। শ্রমিকরা নগরীর খালিশপুর নতুন রাস্তা মোড়ে অবস্থান নিয়ে খুলনা-যশোর মহাসড়ক, নতুন রাস্তা মোড় থেকে সোনাডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড সড়ক, বিআইডিসি সড়ক এবং রেলপথ অবরোধ করে রেখেছেন। এছাড়া তারা বিক্ষোভ মিছিল, টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন ও সমাবেশ অব্যাহত রেখেছেন।

আন্দোলনরত শ্রমিক নেতারা বলেন, সরকার ঘোষিত জাতীয় মজুরি ও উৎপাদনশীলতা কমিশন-২০১৫ সুপারিশ বাস্তবায়ন, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক কর্মচারীদের পিএফ গ্র্যাচুইটি ও মৃত শ্রমিকের বীমার বকেয়া টাকা প্রদান, টার্মিনেশন ও বরখাস্ত শ্রমিকদের কাজে পুনর্বহাল, শ্রমিক-কর্মচারীদের নিয়োগ ও স্থায়ীকরণ, পাট মৌসুমে পাটক্রয়ের অর্থ বরাদ্দ, উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে মিলগুলোকে পর্যায়ক্রমে বিএমআরই করাসহ ৯ দফা বাস্তবায়নের আশ্বাস দিয়েছিল। কিন্তু আমাদের দাবিগুলো এখনও বাস্তবায়ন না হওয়ায় আমরা রাজপথে আবার নামতে বাধ্য হয়েছি।

পাটকল শ্রমিক নেতা সোহরাব হোসেন জানান, শ্রমিকরা ৭ থেকে ৯ সপ্তাহের মজুরি না পাওয়ায় মানবেতর জীবনযাপন করছে। তারা তাদের সন্তানদের লেখাপড়ার খরচ, ঘর ভাড়া দিতে পারছে না। এ অবস্থায় বাধ্য হয়েই তারা আন্দোলনে নেমেছেন।

পাটকল শ্রমিকদের অবরোধ, খুলনায় ট্রেন চলাচল বন্ধ
                                  

খুলনা প্রতিনিধি : বকেয়া মজুরি পরিশোধ ও মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ৯ দফা দাবিতে ধর্মঘট ও অবরোধ কর্মসূচি পালন করছেন খুলনা-যশোর অঞ্চলের নয়টি জুটমিলের শ্রমিকরা।

মঙ্গলবার ভোর ৬টা থেকে এসব পাটকলে টানা ৭২ ঘণ্টার ধর্মঘট শুরু হয়েছে। সেইসঙ্গে সকাল ৮টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত চলছে চার ঘণ্টার রাজপথ ও রেলপথ অবরোধ কর্মসূচি।

খুলনার খালিশপুর নতুন রাস্তার মোড়, আটরা শিল্পাঞ্চলে আলিম জুট মিলের সামনের রোড এবং যশোরের রাজঘাট এলাকার সড়কপথ-রেলপথ অবরোধ করে বিক্ষোভ করছে শ্রমিকরা।

খুলনার স্টেশন মাস্টার মানিক চন্দ্র সরকার বলেন, সকাল ৬টা থেকে ট্রেন ছাড়া সম্ভব হয়নি। যদিও অবরোধ সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়েছে। শ্রমিকরা ভোর ৬টা থেকেই ট্রেন ছাড়তে বাধা দিয়েছেন। ফলে সকাল ৬টার কমিউটার, সাড়ে ৬টার কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস, সোয়া ৭টার রূপসা এক্সপ্রেস, ৮টা ৪০-এ চিত্রা এক্সপ্রেস, ৯টা ১০-এ রকেট ছাড়া সম্ভব হয়নি। ১২টা পর্যন্ত কোনও ট্রেনই ছাড়া সম্ভব হবে না।

আন্দোলনরত শ্রমিক নেতারা জানান, খুলনার রাষ্ট্রায়ত্ত ক্রিসেন্ট, প্লাটিনাম, খালিশপুর, দৌলতপুর, স্টার, আলিম, ইস্টার্ন এবং যশোরের কার্পেটিং ও জেজেআই জুট মিলে বর্তমানে ১৩ হাজার ২৭১ শ্রমিক কাজ করছেন। মজুরি বকেয়া থাকায় শ্রমিকরা পরিবারের সদস্যদের নিয়ে অর্ধাহারে-অনাহারে দিন কাটাচ্ছেন।

তারা বলেন, সরকার ঘোষিত জাতীয় মজুরি ও উৎপাদনশীলতা কমিশন-২০১৫ সুপারিশ বাস্তবায়ন, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারীদের পিএফ গ্র্যাচুইটি ও মৃত শ্রমিকের বীমার বকেয়া প্রদান, টার্মিনেশন, বরখাস্ত শ্রমিকদের কাজে পুনর্বহাল, শ্রমিক-কর্মচারীদের নিয়োগ ও স্থায়ী করা, পাট মৌসুমে পাটক্রয়ের অর্থ বরাদ্দ, উৎপাদন বাড়ানোর লক্ষ্যে মিলগুলোকে পর্যায়ক্রমে বিএমআরই করাসহ ৯ দফা বাস্তবায়নের আশ্বাস দিয়েছিল। কিন্তু আমাদের দাবিগুলো এখনও বাস্তবায়ন না হওয়ায় আমরা আন্দোলনে নেমেছি।

মেরী এন্ডারসনে পুলিশের অভিযান, মাদকসহ গ্রেপ্তার ৭০
                                  

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলায় ভাসমান রেস্তোরাঁ মেরী এন্ডারসন রেস্টুরেন্ট অ্যান্ড বারে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ মাদক দ্রব্যসহ ৭০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ৮টা থেকে ১০টা পর্যন্ত এই অভিযান চলে।

জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশিদের নির্দেশে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) সুবাস চন্দ্র সাহার নেতৃত্বে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ ও ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ এই অভিযান পরিচালনা করে।

অভিযানে ৮১ কার্টন বিদেশি বিয়ার (প্রতি কার্টন ২৪টি ক্যান) এবং চার কার্টন বিদেশি মদ (প্রতি কার্টনে ১০টি বোতল) উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তার করা হয় ৭০ জনকে।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুবাস চন্দ্র সাহা বলেন, মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে এই অভিযান চালানো হয়। এ সময় রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষ কোনো বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। মাদক নির্মূলের লক্ষ্যে এ অভিযান চলবে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিএসএফের গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত
                                  

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি : চাঁপাইনবাবগঞ্জের মাসুদপুর সীমান্তে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বিএসএফের গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত হয়েছে। এসময় আহত হয়েছেন আরও দুইজন। সোমবার রাত তিনটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার মনাকষা ইউনিয়নের শাহাপাড়া-মোড়লপাড়া এলাকার কালু দালালের ছেলে মিলন আহম্মেদ ও তারাপুর-ঠুটাপাড়া এলাকার আফসার হাজীর ছেলে সেনারুল ইসলাম। তারা পেশায় গরু ব্যবসায়ী।

স্থানীয়রা জানায়, সোমবার দিনগত রাত তিনটার দিকে শিবগঞ্জ উপজেলার মাসুদপুর সীমান্ত দিয়ে গরু আনতে ভারতে যান মিলন ও সেনারুল। এ সময় শোভাপুর টেন্ট ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যদের গুলিতে ভারতীয় ভূখণ্ডেই মিলন ও সেনারুল গুলিবিদ্ধ হন। পরে ওই রাখালের সঙ্গীরা গুলিবিদ্ধ অবস্থায় দুইজনকে উদ্ধার করে বাংলাদেশের ভূখণ্ডে নিয়ে আসলে তারা মারা যান।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৫৩ বিজিবির অধিনায়ক সাজ্জাদ সারোয়ার একজন নিহত হওয়ার তথ্য জানিয়েছেন। তবে স্থানীয় ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান জানিয়েছেন দুইজন মারা গেছেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ ৫৩ বিজিবির অধিনায়ক সাজ্জাদ সারোয়ার বলেন, সোমবার গভীর রাতে মাসুদপুর গরু বিট-খাটালের জন্য কয়েকজন ব্যবসায়ী ভারতে যায়। পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ জেলার জঙ্গীপুর সীমান্ত পাহাড়ারত বিএসএফ জওয়ানরা গুলি করলে কয়েকজন গরু ব্যবসায়ী হতাহত হয়।

‘কষ্টে আছি কক্সবাজারে’
                                  

কক্সবাজার প্রতিনিধি : বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া কবে নাগাদ শুরু হবে, কক্সবাজারের স্থানীয় বাসিন্দারা এ প্রশ্নের উত্তর খুঁজে পাচ্ছেন না। রোহিঙ্গারা আসার পর থেকে পরিবেশ-প্রতিবেশ সবকিছু মিলিয়ে ভাল নেই কক্সবাজারের মানুষ। বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর চাপের মুখে নানা সমস্যার মুখোমুখি স্থানীয়রা।

দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি, যাতায়াত সমস্যা, আইন-শৃঙ্খলার অবনতির মতো বিষয় নিয়ে এক আতঙ্কজনক পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন তারা। রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে দেড় বছরের বেশি সময় ধরে নানামুখী চেষ্টা চললেও তা এখন পর্যন্ত সফল হয়নি। ফলে বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর চাপের মুখে নানা সমস্যার মুখোমুখি স্থানীয়রা। রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের কোন আলামতই না দেখতে পেয়ে তারা খুবই হতাশ।

তারা কেবল বার বার জানতে চাচ্ছেন- রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন কবে। নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা বলছেন, আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো নিজেদের স্বার্থে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত করছে। প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া কবে নাগাদ শুরু হবে সেটা জানাতে না পারলেও বাংলাদেশ এজন্য সব সময় প্রস্তুত বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয়ভাবে জাতিগত নিষ্ঠুর দমন নিপীড়নের মুখে রোহিঙ্গারা সাগরে ভেসে, নাফ নদী পাড়ি দিয়ে, আবার কখনো মাইলের পর মাইল পায়ে হেঁটে পাহাড় ডিঙ্গিয়ে আশ্রয় নেয় বাংলাদেশে। যার সংখ্যা এখন নতুন-পুরাতন মিলে এগারো লাখে ছাড়িয়েছে। এক মাস দুমাস করে গত ১ বছর ৭ মাসেরও বেশি সময় ধরে এসব রোহিঙ্গার ভার বইছে বাংলাদেশ।

সরকারের নানামুখী উদ্যোগ এবং মিয়ানমারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ বাড়লেও রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া কার্যকর হচ্ছেনা। আলোচনা, চুক্তি, তালিকা হস্তান্তর, যাচাই-বাছাইসহ রোহিঙ্গাদের প্রতি অনুকম্পা দেখানোর বড় বড় আয়োজনও আছে, কিন্তু মিয়ানমারের নানা অজুহাতে থেমে আছে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া।

কক্সবাজারের স্থানীয় বাসিন্দা কলিম উল্লাহ বলেন, রোহিঙ্গারা আসার পর থেকে আমরা কক্সবাজারবাসী খুবই কষ্টে আছি। দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি, যাতায়াত সমস্যা, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি এসব কারণে আতঙ্কের মধ্যে রয়েছি।

আরেক বাসিন্দা এএইচএম নজরুল ইসলাম বলেন, বিদেশি এনজিও সংস্থাগুলোর কারণেই মূলত কক্সবাজারবাসী রোহিঙ্গাদের চেয়ে বেশি চাপের মুখে রয়েছে। মনে হচ্ছে, একটা অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে আমরা চলে যাচ্ছি।

রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে সরকারের সদিচ্ছা থাকলেও আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো নিজেদের স্বার্থে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত করছে বলে দাবি নিরাপত্তা বিশ্লেষক ও কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান লে কর্নেল (অব:) ফোরকান আহমদের। তিনি বলেন, শুধু করবো করছি হবে হচ্ছে- এরকম করলে হবে না। নির্দিষ্ট সময় সীমার মধ্যে তাদের চেষ্টা চালাতে হবে ফেরত পাঠানোর জন্যে।

প্রত্যাবাসন শুরুর কোন তথ্য না জানাতে পারলেও বাংলাদেশ এ জন্য সব সময় প্রস্তুত বলে জানান জেলা প্রশাসক মো কামাল হোসেন। তিনি বলেন, আইন শৃঙ্খলা বিষয়সহ জেলা প্রশাসনের যে এখতিয়ার রয়েছে তা দিতে আমরা প্রস্তুত আছি। মনে করা হচ্ছে, রোহিঙ্গাদের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত উখিয়া ও টেকনাফের প্রায় ৬ লাখ মানুষ। আর ধ্বংস হয়েছে ৬ হাজার ১শ ৬৩ একর বনভূমি।

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা নারীসহ নিহত ৩
                                  

কক্সবাজার প্রতিনিধি : কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশ ও বিজিবির সঙ্গে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক রোহিঙ্গা নারীসহ তিনজন ইয়াবা কারবারি নিহত হয়েছেন বলে দাবি করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

রোববার ভোরে উপজেলার হ্নীলা মৌলভীবাজার এলাকায় পুলিশের সঙ্গে ও দমদমিয়া নাফ নদীর ওমরখাল এলাকায় বিজিবির সঙ্গে এসব বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এই প্রথম টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে কোন নারীর মৃত্যু হয়েছে।

মৌলভীবাজার এলাকায় নিহতরা হলেন- হ্নীলা ইউনিয়নের আলী আকবরপাড়ার মিয়া হোসেনের ছেলে মাহমুদুর রহমান এবং হোয়াইক্ষ্যং নয়াপাড়ার নুরুল ইসলামের ছেলে আফছার। তাদের বিরুদ্ধে মাদকসহ বেশ কয়েকটি মামলা আছে বলে জানিয়েছেন টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা প্রদীপ কুমার দাশ।

অন্যদিকে দমদমিয়া ওমরখালের নাফ নদী এলাকায় নিহত নারীর নাম রুমানা আকতার। তিনি লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সি/৬ ব্লকের বদরুল ইসলামের স্ত্রী।

পুলিশ ও বিজিবির ভাষ্য মতে, নিহতরা সবাই ইয়াবা ব্যবসায়ী। বন্দুকযুদ্ধের পর ঘটনাস্থল থেকে ছয়টি এলজি বন্দুক, ২০ হাজার পিস ইয়াবা ও ১৮টি তাজা কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

জানা যায়, রবিবার রাতে ইয়াবা বিক্রির খবর পেয়ে টেকনাফ উপজেলার মৌলভীবাজার এলাকায় অভিযানে যায় পুলিশের একটি দল। পুলিশকে দেখে ইয়াবা কারবারিরা গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। বেশ কিছু সময় গোলাগুলির পর অন্যান্য ইয়াবা কারবারিরা পিছু হটলে ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ দুটি দেহ পায় পুলিশ। তাদের উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক কক্সবাজারে পাঠান। পরে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। মরদেহ দুটি কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।

অন্যদিকে টেকনাফ ২নং বিজিবির ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক শরীফুল ইসলাম জোমাদ্দার জানান, রবিবার ভোর চারটার দিকে উপজেলার দমদমিয়া ওমরখাল নাফ নদী এলাকায় টহলে বের হন বিজিবির কয়েকজন সদস্য। এ সময় কিছু লোক মিয়ানমার থেকে ওমরখাল পয়েন্ট দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে চাইলে তাদের থামার জন্য সংকেত দেয়া হয়। কিন্তু বিজিবির সংকেত অমান্য করে উল্টো বিজিবির টহলদলের উপর অতর্কিতভাবে গুলিবর্ষণ ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে আক্রমণ করে তারা। এতে বিজিবি এক সদস্য আহত হয়। আত্মরক্ষার্থে বিজিবি সদস্যরা পাল্টা গুলি ছোড়ে। বেশ কিছু সময় গোলাগুলির পর চোরাকারবারিরা পালিয়ে গেলে সেখানে নৌকার মধ্যে এক নারীর গুলিবিদ্ধ লাশ পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে রোহিঙ্গা নারী বলে শনাক্ত করে।

কুমিল্লায় তিন কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত
                                  

কুমিল্লা প্রতিনিধি : উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরুর আগেই কুমিল্লার তিতাস উপজেলার তিন কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। কেন্দ্রগুলো হলো দাসকান্দি, ভিটিকান্দি ও শাহাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

শনিবার রাতে ব্যালট পেপারে সিল, কেন্দ্র দখলের চেষ্টা এবং প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার অভিযোগে ভোট শুরুর আগেই সকালে এই তিন কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তিতাস উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা রাশেদা আক্তার।

এদিকে, তিতাস থানার এএসআই মাসুদকে ইউনিফর্ম ছাড়া শাহাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে প্রবেশ করার অভিযোগে দায়িত্ব থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

জানা যায়, শনিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে দাসকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র দখল নিয়ে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় আবদুল্লাহ মেম্বার নামে একজন আহত হয়। এছাড়া ভিটিকান্দি ও শাহাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রেও রাতে ব্যালটে সিল, কেন্দ্র দখল এবং রাতভর ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

তিতাস উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাশেদা আক্তার বলেন, রাতে ব্যালটে সিল, কেন্দ্র দখলের চেষ্টা এবং উভয়পক্ষের পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার অভিযোগে তিনটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। কেন্দ্রগুলো থেকে ভোটের মালামাল ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১
                                  

কক্সবাজার প্রতিনিধি : কক্সবাজারের টেকনাফের হাবিরছড়া পাহাড়ি এলাকায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মোহাম্মদ হোসেন (২৮) নামের এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। শনিবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মুহাম্মদ হোসেন (২৮) টেকনাফ উপজেলার হাবিরছড়া এলাকার নবী হোসেনের ছেলে। তার বিরুদ্ধে হত্যা, মাদকসহ ৪টি মামলা রয়েছে।

টেকনাফ থানা পুলিশের ওসি প্রদীপ কুমার দাশ জানান, শনিবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে টেকনাফ উপজেলার হাবিরছড়া পাহাড়ি এলাকায় গেলে ইয়াবা কারবারিরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষায় পুলিশও প্রায় ৪০ রাউন্ড গুলি চালায়। বেশ কিছুক্ষণ গুলি চালানোর পর ইয়াবা কারবারিরা পিছু হটলে ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ যুবককে পাওয়া যায়। উপজেলা হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় পুলিশের ৩ সদস্য আহত হন বলে জানিয়েছেন টেকনাফ থানা পুলিশের ওসি প্রদীপ কুমার দাশ। ঘটনাস্থল থেকে ৩টি দেশীয় তৈরি বন্দুক, ২ হাজার পিস ইয়াবা ও ১২টি তাজা কার্তুজ উদ্ধারের কথাও জানিয়েছেন তিনি।

মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে। এ ঘটনায় পৃথক মামলা হচ্ছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

মাদারীপুরে ছাত্রলীগ নেতার লাশ উদ্ধার
                                  

মাদারীপুর প্রতিনিধি : মাদারীপুর জেলা ছাত্রলীগের এক নেতার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার নাম লিমন মজুমদার। তিনি মাদারীপুর জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি।

সোমবার সকালে পৌর শহরের আমিরাবাদ এলাকার লিয়াকত আলীর নিমার্ণাধীন ভবনের দোতলা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। পরে মৃতদেহ মাদারীপুর মর্গে পাঠানো হয়। তবে লিমনের পরিবারের দাবি, পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যা করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার সকালে আমিরাবাগ এলাকার মিলন সিনেমা হলের পেছনে লিয়াকত আলীর নির্মাণাধীন ভবনের দোতলায় লিমন মজুমদারের গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় মৃতদেহ দেখতে পায়। পরে পুলিশ গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে মাদারীপুর মর্গে পাঠায়। এসময় লিমনের গলায় গামছা পেচানো থাকলেও দুপা মাটির সঙ্গে লেগে ছিল। এতে তার পরিবার দাবি করছে, পূর্ব পরিকল্পিতভাবে কেউ হত্যা করে রেখে গেছে।

লিমন মজুমদার সবুজবাগ এলাকার বাবুল মজুমদারের ছেলে। তিনি ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ছাড়াও  বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তার এই রহস্যজনক মৃত্যতে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছে।

লিমনের বাবা বাবুল মজুমদার বলেন, কিছুদিন ধরে লিমনের সাথে পরিবারের একটু ঝামেলা হচ্ছিল। এই কারণে মাঝে মাঝেই লিমন বাড়িতে থাকতো না। কেউ পরিকল্পিতভাবে লিমনকে হত্যা করে ঝুলিয়ে রেখে গেছে। এটা হত্যা, আত্মহত্যা না। আমি আইনগত ব্যবস্থা নেবো।

এ ব্যাপারে মাদারীপুর সদর থানার ওসি (তদন্ত) সিরাজুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে লিমনের পরিবার অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


   Page 1 of 146
     গ্রাম বাংলা
মদপানে রাশিয়ান প্রকৌশলী ও রাবির ২ শিক্ষার্থীর মৃত্যু
.............................................................................................
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বসতঘরে আগুন, লুটপাট
.............................................................................................
মাদারীপুরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গণধর্ষণ
.............................................................................................
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে গ্রাম পুলিশ নিহত
.............................................................................................
গাইবান্ধায় বাস উল্টে নিহত ৫
.............................................................................................
টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৩ রোহিঙ্গা নিহত
.............................................................................................
তালায় দেড় হাজার বোতল ফেন্সিডিলসহ আটক ২
.............................................................................................
আজও পাটকল শ্রমিকদের অবরোধ
.............................................................................................
পাটকল শ্রমিকদের অবরোধ, খুলনায় ট্রেন চলাচল বন্ধ
.............................................................................................
মেরী এন্ডারসনে পুলিশের অভিযান, মাদকসহ গ্রেপ্তার ৭০
.............................................................................................
চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিএসএফের গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত
.............................................................................................
‘কষ্টে আছি কক্সবাজারে’
.............................................................................................
টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা নারীসহ নিহত ৩
.............................................................................................
কুমিল্লায় তিন কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত
.............................................................................................
টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১
.............................................................................................
মাদারীপুরে ছাত্রলীগ নেতার লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
কটিয়াদী উপজেলা নির্বাচন স্থগিত
.............................................................................................
চন্দনাইশে ভোটকেন্দ্রে গোলাগুলি, পুলিশ সদস্য আহত
.............................................................................................
ভোলায় ১০টাকা কেজির চাল বিতরণে অনিয়ম অভিযোগ
.............................................................................................
সিরাজগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় কলেজ ছাত্র নিহত, প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ
.............................................................................................
চুয়াডাঙ্গায় স্ত্রী হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা
.............................................................................................
কুমিল্লায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১১ মামলার আসামি নিহত
.............................................................................................
তিন বছরেও মামলার অগ্রগতি নেই
.............................................................................................
গোপালগঞ্জে ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত ৩
.............................................................................................
সুনামগঞ্জে ছুরিকাঘাতে আ.লীগ নেতা খুন
.............................................................................................
বিলাইছড়ি উপজেলা আ.লীগ সভাপতিকে গুলি করে হত্যা
.............................................................................................
চুয়াডাঙ্গা ও কক্সবাজারে গুলিতে নিহত ৩
.............................................................................................
মির্জাপুরে মন্টুর পক্ষে ছাত্রলীগের বর্ধিত সভা
.............................................................................................
খুলনায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মামলার আসামি নিহত
.............................................................................................
ময়মনসিংহে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১
.............................................................................................
নিজ বাড়িতে পলাশের দাফন সম্পন্ন
.............................................................................................
কুষ্টিয়া ও বরিশালে ‘বন্ধুকযুদ্ধে’ নিহত ২
.............................................................................................
জয়পুরহাটে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
.............................................................................................
ঘুম থেকে চিরঘুমে ৮ জন
.............................................................................................
ইয়াবা কারবারিদের আত্মসমর্পণের মঞ্চ প্রস্তুত
.............................................................................................
আখেরি মোনাজাতে শেষ হলো প্রথম পর্ব
.............................................................................................
সমুদ্র সৈকতে ফাল্গুন উৎসব
.............................................................................................
লক্ষ্মীপুরে সাজাপ্রাপ্ত আসামির লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
গাজীপুরে গণপিটুনিতে ২ ডাকাত নিহত
.............................................................................................
জয়পুরহাটে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ১
.............................................................................................
কুষ্টিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১
.............................................................................................
পাবনায় যুবলীগ নেতা খুন
.............................................................................................
প্রাইভেটকার খাদে, নিহত ৪
.............................................................................................
দাগনভূঞায় ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২
.............................................................................................
গৌরনদীতে কলেজ ছাত্রী’র রহস্য জনক মৃত্যু
.............................................................................................
ভোলার লালমোহন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে সম্ভাব্য ৬ প্রার্থী
.............................................................................................
সাতক্ষীরায় মাদক ব্যবসায়ীর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
মেঘনায় ট্যাংকারের ধাক্কায় ট্রলারডুবি, নিখোঁজ ২০
.............................................................................................
নড়াইলে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Nytasoft