সোমবার, ২০ জানুয়ারী 2020 | বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
   * ভারতের সিএএ পাশের প্রয়োজন ছিল না: প্রধানমন্ত্রী   * ব্ল্যাকবক্স ইউক্রেনকে ফেরত দেবে ইরান   * বুধবার চালু হচ্ছে ই-পাসপোর্ট সেবা   * নির্বাচন কমিশন ব্যর্থ-অযোগ্য: ফখরুল   * আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শেষ   * মৌলভীবাজারে নারকীয় হত্যার শিকার ৫ জন  
  সর্বশেষ সংবাদ
                              আজকের পত্রিকার লিড
নদী-খাল উদ্ধারে অভিযান

নিজস্ব প্রতিবেদক : সারাদেশে দখল হয়ে যাওয়া নদী-খালের পরিমাণ নির্ণয় করে অভিযানে নেমেছে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড। অনেকটা আঁটঘাট বেঁধে সারাদেশে একযোগে নদী-খাল উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব কবির বিন আনোয়ার।

গতকাল সোমবার সকালে রাজধানীর মোহাম্মদপুর বেড়িবাঁধের ভাঙা মসজিদ এলাকা সংলগ্ন রামচন্দ্রপুর খালে উচ্ছেদ অভিযান পরিদর্শনে এসে সচিব এ কথা জানান। তিনি জানান, দেশের ৬৪ জেলার ছোট নদী, খাল এবং জলাশয় পুনর্দখল প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। প্রথম পর্যায়ে ঢাকা মহানগরীর রামচন্দ্রপুর খালের অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ঢাকা জেলা প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা কমিটির মাধ্যমে এই উদ্ধার কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

সচিব বলেন, সারাদেশে একযোগে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উদ্যোগে নদী-খাল-বিলের দখলকৃত জায়গা উদ্ধারে একযোগে অভিযান শুরু হয়েছে। এটি সময়ের দাবি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নদী-খাল দখলমুক্ত করতে বারবার আমাদের নির্দেশ দিয়েছেন। আমরা প্রত্যেকটি আরএস, সিএস ধরে ধরে প্রত্যেক জেলায় কোথায় কোথায় আমাদের নদী-খাল দখল করা আছে সেটি নিরূপণ করেছি। পানি আইন ২০১৩ অনুযায়ী যেসব নদী-নালা, খাল-বিল দখলদারদের দখলে রয়েছে সেগুলো উদ্ধার এবং খনন কাজ হাতে নিয়েছি।

নির্ণয় করা জায়গাগুলোতে কোনো ধরনের আইনি ঝামেলা থাকলে তা আইনিভাবে মোকাবেলা করা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, সারাদেশে ৪৪ হাজার জমি এভাবে দখলে রয়েছে বলে আমরা নির্ণয় করেছি। আমাদের দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা রয়েছে। যেকোনো মামলার বিষয় এলে আমরা তা মোকাবেলা করবো। সচিব আরও বলেন, ৬৪ জেলায় একসঙ্গে ৪৬৮টি নদী উদ্ধার ও খননের কাজ এগিয়ে চলছে। ক্রমান্বয়ে সেগুলো উদ্ধার করব। শুধু যে দখল উচ্ছেদ করব তাই না, পাশাপাশি খনন করে এর পানি প্রবাহ ঠিক করা এবং যে প্রাকৃতিক ভারসাম্য বিনষ্ট হয়েছে সেটি ফিরিয়ে আনতে কাজ করব।

রামচন্দ্রপুর খাল এলাকায় অভিযানের বিষয়ে সচিব বলেন, এখানে অবৈধ দখলদারদের কারণে এখানে রীতিমতো খালটি ভরাট হয়ে গেছে। বিভিন্ন স্থাপনা তৈরি হয়েছে, যার সবই উচ্ছেদ করব। মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ থেকে আগেই নির্দেশনা রয়েছে যেখান থেকে বলা হয়েছে, সিএস খতিয়ান ধরে আমাদের উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করতে হবে। অভিযান চালাতে গিয়ে কতগুলো বিষয় আমরা নজর রাখছি যেমন, আমরা চেষ্টা করছি যেখানে হতদরিদ্র মানুষ থাকে, নদীর বাঁধ ভাঙা মানুষ থাকে তাদের জন্য পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করে তারপর উচ্ছেদ করা। স্কুল-কলেজ বা ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান যেমন মসজিদ, মাদ্রাসা, মন্দির থাকলে সেগুলো অন্যত্র স্থানান্তর করা হবে।

রামচন্দ্রপুর খালের মীনা বাজার অংশ প্রায় দুই বছর আগে দখল হয়ে যায়। স্থানীয়দের থেকে পাওয়া তথ্য মতে, খালের উত্তর পাশের কিছু অংশ মীনা বাজার কর্তৃপক্ষ তাদের প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার সময় দখল করেছে। দক্ষিণ পাশের সাত মসজিদ হাউজিং গড়ে তোলার সময় দখল হয় খালের অনেকটাই। এলাকার অধিকাংশ বাড়ির ময়লা ফেলা হয় খালের এই অংশে। পাশেই সাদিক এগ্রো নামের একটি এগ্রো প্রতিষ্ঠান তাদের স্থাপনা নির্মাণ করে খাল দখল করেছে। এসব স্থাপনায় দীর্ঘদিন ধরে এগ্রো ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিলেন সাদিক এগ্রোর মালিক ইমরান হোসেন।

এছাড়া বেড়িবাঁধ থেকে প্রায় চারশ ফুট পর্যন্ত মাটি ফেলে খাল ভরাট করে গড়ে তোলা হয় ট্রাক স্ট্যান্ড। ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর তারেকুজ্জামান রাজীবের (শুদ্ধি অভিযানে গ্রেপ্তার) নেতৃত্বে খালটি দখল করা হয় বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। অভিযোগ রয়েছে, স্থাপিত ট্রাকস্ট্যান্ড থেকে নিয়মিত মাসোয়ারা নিতেন কাউন্সিলর রাজীব। আর রাজীবসহ এই দখলে সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন স্থানীয় প্রভাবশালীদের অনেকেই।

খালের বিভিন্ন অংশে গড়ে তোলা হচ্ছে পাকা, আধা পাকা এমনকি বহুতল ভবন। এসব স্থাপনা উচ্ছেদ করা হলেও দখলদারদের কোনো ধরনের শাস্তি বা জরিমানার বিষয়ে এখনো ভাবছে না পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়। নদী-খাল উদ্ধারে সরকারের ১০০ বছরের ডেল্টা প্লানের অংশ হিসেবে অভিযান পরিচালিত হচ্ছে বলে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। পরিকল্পনার অংশ হিসেবে নদীর পাড়ে ওয়াকওয়ে নির্মাণ, ছোট ছোট পার্ক নির্মাণ, বৃক্ষরোপণসহ নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়।

উচ্ছেদ অভিযান নিয়ে প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:

দিনাজপুর: দিনাজপুর শহরের বড়মাঠ বড়পুল এলাকা থেকে ঘাগড়া খালের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল ১০টায় এ উচ্ছেদ অভিযান শুরু করা হয়। দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. মাহমুদুল আলম এ উচ্ছেদ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এসময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আবু সালেহ মাহফুজুল ইসলাম, পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী ফয়জুর রহমান, উপ-সহকারী প্রকৌশলী সাইফুল ইসলাম, দিনাজপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. ফিরুজুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী সাইফুল ইসলাম জানান, দিনাজপুর শহরের ভেতর দিয়ে প্রবাহিত ঘাগড়া খালের আংশিক অংশে প্রায় ৮ কিলোমিটার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হচ্ছে। ২ কোটি ২৪ লাখ টাকা ব্যয় হবে এ উচ্ছেদ অভিযানে। উচ্ছেদে অবৈধ স্থাপনার মধ্যে ৬৩টি পাকা বাড়ি, ২৫৪টি সেমি পাকা, ২৪০টি কাঁচা বাড়ি অপসারণ করা হবে। ৮ কিলোমিটার ঘাগড়া খালের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে ঠিকাদার হিসেবে কাজ করছেন ঢাকার মতিঝিল এলাকার মেসার্স শাহীন ব্রাদার্স। অভিযানে জেলা প্রশাসনের ৪ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে পুলিশ, র‌্যাব ও আর্ম পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

গাজীপুর: গতকাল সোমবার সকাল থেকে গাজীপুর জেলা প্রশাসন ও বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড যৌথভাবে ওই উচ্ছেদ শুরু করে। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতে নেতৃত্ব দেন টঙ্গী রাজস্ব সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) গোলাম মোর্শেদ খান। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. সাজ্জাদ হোসেন জানান, সরকারি জলাধার তীরবর্তী অবৈধ স্থাপনা ও দখলদারদের তালিকা অনুযায়ী গতকাল সোমবার টঙ্গী বাজার (নদী বন্দর) এলাকায় তুরাগ পাড়ে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা শতাধিক দোকানপাট উচ্ছেদ করা হয়েছে। সহকারী কমিশনার গোলাম মোর্শেদ খান জানান, টঙ্গীর পাগাড় এলাকায় তুরাগ নদের তীরে অবৈধভাবে নির্মিত দি মার্চেন্টস্ লিমিটেডের স্থাপনা গত এপ্রিলে উচ্ছেদ করা হয়। তারা তুরাগ নদের সীমানায় কারখানার শেড নির্মাণ ও কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে আবার দখল করেছে। গতকাল সোমবার দুপুরে ওই শেড ও কাঁটা তারের বেড়া উচ্ছেদ করে কারখানা কর্তৃপক্ষকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এই অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ অভিযান অব্যহত থাকবে।

শরীয়তপুর: পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে সকাল ১০টায় শরীয়তপুর শহরের ডাকবাংলা এলাকায় এ অভিযান শুরু হয়। পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মোহাম্মদ তারেক হাসান বলেন, মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে সারা দেশে উচ্ছেদ অভিযানের অংশ হিসেবে শরীয়তপুরে সরকারি খালের উপর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হচ্ছে। জেলার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশিদ বলেন, শরীয়তপুর ডাকবাংলা মোড়ে ৭০টি প্রতিষ্ঠান, বটতলায় কয়েকটি আধাপাকা ও টং দোকান ভেক্যু মেশিন দিয়ে ভেঙে দেওয়া হয়েছে। এ সময় ব্যবসায়ীরা দোকান পাট ও দোকানের মালামাল সরিয়ে নেওয়ার জন্য সময় চাইলে ও সময় দেওয়া হয়নি বলে ব্যবসায়ীদের অভিযোগ।

এর আগে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে ১ নম্বর খাশ খতিয়ানের জমি পরিমাপ করে ব্যবসায়ীদেরকে নোটিশ দেওয়া হয়েছিল। এ বিষয়ে কারো কোনো আপত্তি থাকলে তা শোনার গত গত রোববার শুনানির দিন ঠিক করা হয়েছিল। এ শুনানির পর গতকাল সোমবার সকাল থেকে প্রশাসন উচ্ছেদ অভিযান শুরু করে বলে মামুনুর রশিদ জানিয়েছেন। উচ্ছেদকালে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ছাড়াও পুলিশ, পানি উন্নয়ন বোর্ড, ভূমি বিষয়ক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। তবে এলাকার এক ব্যবসায়ী ইয়াকুব আলী পাহাড় বলেন, “আমরা জেলা পরিষদ থেকে বন্দোবস্ত নিয়ে ব্যবসা করে আসছি। ২০১৯ সাল পর্যন্ত লিজের টাকা পরিশোধ করা আছে। এরপরেও আমাদেরকে মালামাল সরিয়ে নেওয়ার সময় না দিয়ে ভাংচুর শুরু করেছে। আমরা দোকানপাট ও মালামাল সরিয়ে নেওয়ার জন্য সময় চাই। জেলা পরিষেদ থেকে লিজ নিয়ে টাকা পরিশোধ করে ব্যবসা করছেন ভাষ্য অপর আরেক ব্যবসায়ী শাহজাহান হাওলাদারের। মালামাল সরানোর সময় দেওয়ার অভিযোগ তুলে তিনি বলেন, উচ্ছেদ করে আমাদের অনেক ক্ষতি করেছে।

গোপালগঞ্জ: গতকাল সোমবার সকালে শহরের গেটপাড়া, চরনারায়নদিয়া ও বেদগ্রামে পানিউন্নয়ন বোর্ড উচ্ছেদ অভিযান চালায় গোপালগঞ্জে পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সড়ক বিভাগ। গোপালগঞ্জ পানিউন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী বিশ্বজিৎ বৈদ্য বলেন, গতকাল সোমবার ৫২টি স্থাপনা উচ্ছেদ করে পানি উন্নয় বোর্ড অন্তত পাঁচ কোটি টাকার সরকারি সম্পত্তি উদ্ধার করেছে। এ ছাড়া গোপালগঞ্জ সড়ক বিভাগ শহরের পুলিশ লাইন্স মোড় থেকে চাপাইল ব্রিজ পর্যন্ত উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছে। এদিন সকালে সড়ক বিভাগ পুলিশ লাইন থেকে উচ্ছেদ অভিযান আরম্ভ করে।

ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহে ব্রহ্মপুত্র নদের তীরবর্তী সরকারি খাস জমির অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান শুরু করেছে জেলা প্রশাসন, পানি উন্নয়ন বোর্ড ও পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়। সকাল ৯টা থেকে নগরীর কালীবাড়ি গুদারাঘাট এলাকা থেকে এ উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়। এতে বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয় নদের জায়গা দখল করে গড়ে উঠা পাকা-আধাপাকা ও টিনশেড ঘর এবং দোকানপাট। অভিযানের নেতৃত্ব দেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবুল হাশেম ও সদরের সহকারী কমিশনার (ভূমি) এম সাজ্জাদুল হাসান। এম সাজ্জাদুল হাসান বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে আমাদের দেশের জলাশয়গুলো অর্থাৎ নদ-নদী যেগুলো আছে সেগুলো উদ্ধার করতে হবে। সেই নির্দেশনার প্রেক্ষিতেই ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসন, পানি উন্নয়ন বোর্ড ও পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের যৌথ উদ্যোগে ময়মনসিংহে উচ্ছেদ কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকলে দেশের নদীগুলো নতুন করে প্রাণ ফিরে পাবে বলে আশা করছেন তিনি। ময়মনসিংহের পাটগুদাম ব্রিজ থেকে কাচারিঘাট পর্যন্ত হাজারের বেশি অবৈধ স্থাপনা রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সেগুলো ধারাবাহিক অভিযানের মধ্যদিয়ে দখলমুক্ত করা হবে। এদিকে, এ উচ্ছেদ অভিযানে বাসস্থান হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন কিছু ছিন্নমূল মানুষ। তারা বলছেন, মাথা গোজার ঠাঁইটুকু ভেঙে ফেলায় তাদের খোলা আকাশের নিচে থাকতে হবে। এদেশে রোহিঙ্গারা থাকার জায়গা পেলেও আমরা পাই না। আমরা থাকার মতো আশ্রয় চাই।

সিলেট: সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার আটগ্রামে সুরমা নদীতে অবৈধ দখলদার উচ্ছেদে অভিযান শুরু করেছে পানি উন্নয়নবোর্ড ও জেলা প্রশাসন। গতকাল সোমবার সকাল ১০টায় জকিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিজন কুমার সিংহের নেতৃত্বে এ অভিযান শুরু হয়। সিলেট পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. মনির হোসেন জানান, জকিগঞ্জের আটগ্রাম বাজারে অভিযানে সুরমা নদীর তীরে গড়ে তোলা প্রায় ৫৫টি স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। এছাড়া সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেড়ি বাঁধের উপর নির্মিত ৩৫টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে বলে জানান তিনি। পর্যায়ক্রমে সিলেটের সব উপজেলায় অবৈধ দখলদার উচ্ছেদে অভিযান শুরু হবে বলে জানিয়েছেন পানি উন্নয়নবোর্ডের এ কর্মকর্তা।

ফরিদপুর: ফরিদপুরে কুমার নদের পাড়ে গড়ে ওঠা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে নেমেছে প্রশাসন। ফরিদপুর জেলা প্রশাসন, পানি উন্নয়ন বোর্ড ও পৌরসভার তত্ত্বাবধানে গতকাল সোমবার সকাল ১০টার দিকে শহরের আলিমুজ্জামান ব্রিজের নিচে কুমার নদের পাড়ে এ অভিযান শুরু হয়। সরেজমিনে দেখা গেছে, আলিমুজ্জামান বেইলি ব্রিজের নিচে গড়ে ওঠা কাঁচা ঘর ভেঙে দেওয়া হয়। এ সময় সেখানে বসতিরা নানা অভিযোগ করতে থাকেন। সাজেদা বেগম নিলু বলেন, প্রায় ৩০ বছর যাবত আমরা এখানে বসবাস করছি। আমাদের কিছু না জানিয়েই সকালে ঘরবাড়ি ভেঙে ফেলা হয়। আমরা মালামাল ঠিকভাবে সরাতেও পারিনি। এসব গরিব পরিবারগুলোকে উচ্ছেদের আগে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা উচিত ছিল। লতা নামে আরেকজন বলেন, আমি ফুটপাতে পরাটা ও চটপটি বিক্রি করি। বিভিন্ন সমিতিতে আমার কিস্তি রয়েছে। এখন এখান থেকে উচ্ছেদ হলে আমরা কোথায় যাব কিস্তির টাকাই বা পরিশোধ করব কীভাবে ফরিদপুর পৌর মেয়র শেখ মাহতাব আলী মেথু বলেন, এখানে বসবাসকারীদের কিছু সময় দেওয়ার দরকার ছিল। এই শীতের সময় এরা কোথায় যাবে। তাদের পুনর্বাসনের ব্যাবস্থা নেওয়া হলে ভালো হতো।

বাগেরহাট: জেলা শহরের দড়াটানা ব্রিজ এলাকা থেকে এ অভিযান শুরু হয়। বাগেরহাট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. তানজিল্লুর রহমান জানান, একই সময়ে জেলার চিতলমারী উপজেলার মধুমতি নদীর তীরে গড়ে ওঠা অবৈধ স্থাপনাও উচ্ছেদ করে প্রশাসন। বাগেরহাট শহরে ভৈরব নদীর তীর দখল করে গড়ে ওঠা সব অবৈধ স্থাপনা ভেঙে ফেলা হয়েছে। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। শহরের দড়াটানা ব্রিজ থেকে থেকে মুন্সীগঞ্জ ব্রিজ এলাকার সব স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, যারা নদীর তীর দখল করার চেষ্টা করবে তাদের কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

শীতজনিত রোগের প্রকোপ
পেঁয়াজ সংকটের শেষ কোথায়
   টপ নিউজ
বারৈচা বালিকা বিদ্যালয়ে খোলা মাঠে পাঠদান
ভারতের সিএএ পাশের প্রয়োজন ছিল না: প্রধানমন্ত্রী
ব্ল্যাকবক্স ইউক্রেনকে ফেরত দেবে ইরান
সাঙ্গুতে মাদক কারবারীকে আটক করেছে কোস্ট গার্ড
বুধবার চালু হচ্ছে ই-পাসপোর্ট সেবা
জয়পুরহাটে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা ও পুরস্কার বিতরণ
নির্বাচন কমিশন ব্যর্থ-অযোগ্য: ফখরুল
আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শেষ
মৌলভীবাজারে নারকীয় হত্যার শিকার ৫ জন
যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ব্যায় কমাতে ৫০০ মিলিয়ন ডলার সৌদির অনুদান
পাকিস্তানে খেলতে যাবেন না মুশফিক
চীনের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি যুক্তরাষ্ট্রের
                জাতীয়
ভারতের সিএএ পাশের প্রয়োজন ছিল না: প্রধানমন্ত্রী
বুধবার চালু হচ্ছে ই-পাসপোর্ট সেবা
আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শেষ
স্মার্ট ঢাকা সিটি গড়তে চান আতিক
        'জাতীয়' - এর আরো খবর
                রাজনীতি
নির্বাচন কমিশন ব্যর্থ-অযোগ্য: ফখরুল
ভোটারদের কেন্দ্রে যেতে সহযোগিতা করবে বিএনপি: তাবিথ আউয়াল
ইসির ভূমিকা সন্তোষজনক নয়: তাবিথ আউয়াল
ঢাকা সিটি নির্বাচন পরিচালনায় দক্ষিণে মোশাররফ, উত্তরে মওদুদ
        'রাজনীতি' - এর আরো খবর
                আন্তর্জাতিক
ব্ল্যাকবক্স ইউক্রেনকে ফেরত দেবে ইরান
যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ব্যায় কমাতে ৫০০ মিলিয়ন ডলার সৌদির অনুদান
চীনের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি যুক্তরাষ্ট্রের
পাকিস্তানে তুষারধসে নিহত ৭৭
        'আন্তর্জাতিক' - এর আরো খবর
   ই-পেপার
অনলাইন ভোট
               অর্থ-বাণিজ্য
শেয়ারবাজারের ধীর গতি

অর্থনৈতিক ডেস্ক: বড় ধরনের ধসের পর নানামুখী তৎপরতায় বুধবার ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার দেখা মেলে দেশের শেয়ারবাজারে। বৃহস্পতিবারও লেনদেনের শুরুতে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা রয়েছে। তবে ধীর গতিতে বাড়ছে সূচক। এর আগে বড় ধরনের ধসের কবলে পড়ে মঙ্গলবার পর্যন্ত মাত্র ৮ কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্সের ৪১১ পয়েন্ট পতন হয়। এতে ২০১৩ সালের ২৭ জানুয়ারি ৪ হাজার ৫৫ পয়েন্ট নিয়ে যাত্রা শুরু করা সূচকটি শুরুর অবস্থান বা ভিত্তি পয়েন্টের নিচে নেমে যায়।

শেয়ারবাজারের এ অবস্থাকে ২০১০ সালের মহাধসের থেকেও খারাপ বলে অভিহিত করেন শেয়ারবাজার সংশ্লিষ্টরা। দরপতনের প্রতিবাদ জানাতে মতিঝিলে অবস্থিত ডিএসইর আগের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেন কিছু বিনিয়োগকারী।

অবস্থার ভয়াবহতা অনুধাবন করে ২০ জানুয়ারি জরুরি বৈঠক ডেকেছে অর্থ মন্ত্রণালয়। বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, পুঁজিবাজারে স্থিতিশীলতা ও উন্নয়নে এ পর্যন্ত যতগুলো প্রস্তাব দেয়া হয়েছে, তার মধ্যে সর্বোত্তম প্রস্তাব বাস্তবায়নে সহায়তা দেবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

পাশাপাশি আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিবের সঙ্গে বৈঠক করেন বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমবিএ) প্রতিনিধিরা। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কার্যালয়ে স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে নিয়ন্ত্রক সংস্থার জরুরি বৈঠক হয়।

বিএসইসির কমিশনার স্বপন কুমার বালার সভাপতিত্বে বৈঠকে বিএমবিএ, ডিএসই ব্রোকার্স অ্যাসোসিয়েশন (ডিবিএ) এবং শীর্ষ ব্রোকারেজ হাউসের প্রতিনিধিরা অংশ নেন। সভায় কমিশনের পক্ষ থেকে স্টেকহোল্ডারদের ২০ জানুয়ারির বৈঠকে শেয়ারবাজারের জন্য করণীয় এবং কার্যকরি প্রস্তাব রাখার আহ্বান করা হয়।

বিভিন্ন পক্ষের এমন নানামুখী তৎপরতায় বুধবার লেনদেনের শুরুতেই শেয়ারবাজারে বড় উত্থানের আভাস মেলে। লেনদেনের প্রথম আধাঘণ্টায় ডিএসইর প্রাধান মূল্যসূচক ৮৩ পয়েন্ট বেড়ে যায়। তবে লেনদেনের শেষদিকে এসে বেশকিছু প্রতিষ্ঠানের দরপতন হয়। এতে সূচকের বড় উত্থান কিছুটা বাধাগ্রস্ত হয়। ফলে দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক বাড়ে ৩১ পয়েন্ট।

উর্ধ্বমুখী প্রবণতা বৃহস্পতিবারের লেনদেনের শুরুতেও অব্যাহত রয়েছে। লেনদেনের প্রথম এক ঘণ্টায় ডিএসইর প্রধান সূচক ১৯ বেড়ে ৪ হাজার ৮৭ পয়েন্টে উঠে এসেছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ সূচক ৭ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৩৭৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক ৩ পয়েন্ট বেড়ে ৯১৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

প্রথম ঘণ্টায় বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৬৮ কোটি ১২ লাখ টাকা। লেনদেন অংশ নেয়া ১১৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৩০টির। ৬৮টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২৯ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২ হাজার ৪২২ পয়েন্টে। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ২ কোটি ২১ লাখ টাকা। লেনদেন অংশ নেয়া ৯৫ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ২৯টির, কমেছে ৪৯টির, অপরিবর্তিত রয়েছে ১৭টির।

বাজারে আসছে ২০০ টাকার নোট ॥ দৈনিক স্বাধীন বাংলা
মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি
বিসিকের বিজয় মেলা শুরু
মীরসরাইয়ে শাহ্জালাল ইসলামী ব্যাংকের ১৩১তম শাখার উদ্বোধন
বাজারে আসছে ৫০ টাকার নতুন নোট
সিঙ্গেল ডিজিটে আসছে ব্যাংক ঋণের সুদ হার; কমিটি গঠন
বাড়ছে লোকসানি শাখা
অস্থির চালের বাজার
পেঁয়াজে সিন্ডিকেট : চার মাসে ভোক্তাদের ক্ষতি ৩ হাজার ১৭৯ কোটি টাকা
     'অর্থ-বাণিজ্য' - এর আরো খবর
                শেয়ার বাজার
শেয়ারবাজারে আলোর ঝলকানি
কাল থেকে বসুন্ধরা পেপারের আইপিও আবেদন শুরু
ডিএসইর বিশেষায়িত তহবিল শূন্য
শাস্তি পাবেন ২ শতাংশের কম শেয়ারধারী পরিচালক
আমান কটনের কাট অফ প্রাইজ ৪০ টাকা
বিনিয়োগকারীদের ঠকানোর পায়তারা করছে ফু-ওয়াং ফুড!
ইসলামী ব্যাংকের শেয়ারপ্রতি আয় কমেছে
সূচক বেড়েছে, কমেছে লেনদেন
    'শেয়ার বাজার' - এর আরো খবর
                উপসম্পাদকীয়
সবার জন্য নিশ্চিত হোক নিরাপদ পানি
বিয়ে চুক্তিতে সমতার চারা
সভ্যতার সংকট : সামাজিক অবক্ষয়
প্রবৃদ্ধি অর্জনে আঞ্চলিক বাণিজ্যের গুরুত্ব
আরো কমেছে ধানের দাম
সরকারের ৬ মাস : একটি পর্যালোচনা
নয়ন বন্ড বনাম সামাজিক নিরাপত্তা
    'উপসম্পাদকীয়' - এর আরো খবর

                পড়াশোনা
তিতুমীরের আড়াইশ শিক্ষার্থীর ঝুঁকিপূর্ণ দিনযাপন
ক্যারি অন পরীক্ষা পদ্ধতি পুর্নবহালের দাবিতে বিজয়নগরসহ নানা এলাকায় সড়ক অবরোধ করেছে মেডিকেল শিক্ষার্থীরা
ভর্তি দুঃশ্চিন্তায় শিক্ষার্থীরা!
জবিতে শুরু হচ্ছে স্কুলের যাত্রা
শিক্ষার্থীদের উপর ধার্যকৃত ভ্যাট অবৈধ নয়, হাইকোর্টের রুল
এইচএসসিতে পাসের হার ও জিপিএ-৫ কমেছে
   'পড়াশোনা' - এর আরো খবর
                তথ্য -প্রযুক্তি
গুগল প্লেস্টোর ছাড়াই আসছে হুয়াওয়ে ফোন
ফেসবুক-গুগলকে নীতিমালা মানতে বললো অস্ট্রেলিয়া
৫জি চালুর সিদ্ধান্ত গ্রাহকদের সাথে প্রতারণার সামিল: বিএমপিসিএ
ফেসবুকে আর লাইক গোনা যাবে না
গুগলে ‘রাজনৈতিক আলাপ ও সাম্প্রতিক খবর নিয়ে বিতর্ক’ নিষেধ
গ্রাহকদের জন্য নতুন ফিচার নিয়ে এলো পাঠাও
বিশ্বজুড়ে স্মার্টফোন বিক্রি কমছে
   'তথ্য -প্রযুক্তি' - এর আরো খবর
                ফিচার
সিলেটি খাবার ফরাসের বিচি
ইন্টারভিউতে সফল হওয়ার উপায়
‘মামা হালিমের’ মামার খোঁজে
এসি ছাড়াই এসির হাওয়া!
তরমুজ খান-সতেজ থাকুন
   'ফিচার' - এর আরো খবর

খেলাধূলা
জুভেন্টাসের গোল উৎসব
উলভসকে হারিয়ে ম্যানইউর প্রতিশোধ
পাকিস্তানে খেলতে যাবেন না মুশফিক
অ্যাটলেটিকোকে হারিয়ে সুপার কাপ চ্যাম্পিয়ন রিয়াল
জয় দিয়ে বছর শেষ করল বার্সেলোনা
   'খেলাধূলা' - এর আরো খবর
বিনোদন
ফেব্রুয়ারিতে মুক্তি পাচ্ছে মাহির ‘মন দেব মন নেব’
পুলিশের চরিত্রে তানহা
যৌন হয়রানির বিচার পেলেন জায়রা
গানটিতে নিজেকে ভিন্ন ভাবে উপস্থাপন করেছি : রিদুয়ানা
তেত্রিশে পা দিলেন মম
   'বিনোদন' - এর আরো খবর

                স্বাস্থ্য
শীতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় যে খাবার
রোটা ভাইরাসের ঝুঁকিতে শিশুরা
ভালো ঘুমের জন্য
সতর্ক বার্তা: রেনিটিডিনে ক্যান্সার উপাদান । ডেইলি স্বাধীন বাংলা
নিয়ম মেনে হাঁটুন-মেদ কমান
২৪ ঘন্টায় নতুন করে ৩৪ জন আক্রান্ত
পরোক্ষ ধূমপানও মৃত্যু ঘটায়
ইচ্ছে হলেই ওষুধ নয়
বিশ্ব অটিজম দিবস আজ
   'স্বাস্থ্য' - এর আরো খবর
                ফটোগ্যালারী
                শিক্ষা
বারৈচা বালিকা বিদ্যালয়ে খোলা মাঠে পাঠদান
প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক পাচ্ছেন জবির ৬ শিক্ষার্থী
হাসপাতাল ছাড়লেন ঢাবির সেই ছাত্রী
শিক্ষার্থী ধর্ষণের প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল ঢাবি
ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে অনশন
ফারাবির অবস্থার উন্নতি, খোলা হয়েছে লাইফ সাপোর্ট
জবিতে বহিষ্কৃত ছাত্রদের দৌরাত্ম, নিরব প্রশাসন
   'শিক্ষা' - এর আরো খবর

                চিত্র-বিচিত্র
ব্যাংকঋণ না পেয়ে কিডনি বিক্রির বিজ্ঞাপন!
গরু-মহিষের আবাসিক হোটেল!
যুবতী থেকে এক রাতেই যুবকে পরিণত, একনজর দেখতে লোকজনের ভিড়!
প্রেমিকের পুরুষাঙ্গ ‘হেয়ার স্ট্রেটনার’ দিয়ে পোড়ালেন তরুণী
যেখানে চলে প্রকাশ্যে নারী কেনাবেচা!
বিয়ে ছাড়াই সন্তানের মা!
   'চিত্র-বিচিত্র' - এর আরো খবর
                নগর - মহানগর
দিনাজপুর উপশহরে রাস্তা কেটে ইচ্ছে মতো ড্রেন নির্মাণ
বর্জ্য থেকে জ্বালানী তৈরি বিষয়ে মতবিনিময় সভা
রাজশাহী পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে মাসিক অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত
ডিএসসিসি’র ২১ কাউন্সিলরকে নোটিস
নড়াইলে উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন
   'নগর - মহানগর' - এর আরো খবর
                রাজধানী
কুয়াশার চাদরে মোড়ানো রাজধানী
র‌্যাব-১০ এর অভিযানে লালবাগ থেকে ইয়াবাসহ আটক ২
মালিবাগে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের ৪ সদস্য আটক
চীনা নাগরিক হত্যায় গ্রেফতার ২
   'রাজধানী' - এর আরো খবর
                গ্রাম বাংলা
জয়পুরহাটে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা ও পুরস্কার বিতরণ
গাইবান্ধায় সাম্য হত্যা মামলায় ৩ জনের ফাঁসি
ময়মনসিংহে চার বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে নিহত ১
কক্সবাজার-ফরিদপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩
রংপুরে বাস ও অ্যাম্বুলেন্সের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৩
নদীতে মিলল বন বিভাগের নৌ-চালকের মরদেহ
   'গ্রাম বাংলা' - এর আরো খবর

                সিলেট
মৌলভীবাজারে নারকীয় হত্যার শিকার ৫ জন
কুলাউড়ায় পুষ্টি বিষয়ক অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত
মৌলভীবাজারে কিশোরী সমাবেশ
জৈন্তাপুরে গুণীজন সংবর্ধনা
কানাইঘাটে জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষ্যে অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত
বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ারুল হকের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত
   'সিলেট' - এর আরো খবর
                চট্রগ্রাম
রোহিঙ্গাদের এনআইডি : ইসি কর্মচারীসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা
১১০০ টন কয়লা নিয়ে বঙ্গোপসাগরে জাহাজডুবি, ১২ নাবিক নিখোঁজ
পটিয়া থেকে ৪২ রোহিঙ্গা আটক
চট্টগ্রামে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ধর্ষণ মামলার আসামি নিহত
কক্সবাজারে বন্দুকযুদ্ধে বার্মাইয়া শামসু নিহত
খাগড়াছড়িতে গুলিতে ইউপিডিএফ কর্মী নিহত
   'চট্রগ্রাম' - এর আরো খবর
                কৃষি
সমন্বিত সবজি চাষে সচ্ছল কৃষক
উচ্চ ফলনশীল ধানের ৩ টি নতুন জাত উদ্ভাবন করেছে ‘ব্রি’
দিনাজপুরে ধান কাটা শুরু
অভয়নগরে বোরো বীজ ধানের সংকট
লংগদুতে কৃষি প্রনোদনা প্রদান
হাওরে ছত্রাকজনিত ব্লাস্টের আক্রমণ, দিশেহারা কৃষক
   'কৃষি' - এর আরো খবর
                পরিবেশ
লক্ষীপুরে পরিবেশ দূষণকারী ইটভাটার ছড়াছড়ি
শব্দ দূষণ মানব দেহের জন্য নিরব ঘাতক
বায়ুমণ্ডলে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ ৮ লাখ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ
বাংলাদেশের জাতীয় দুর্যোগ নদীভাঙন: পর্ব- ২
‘নদী রক্ষায় ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে’
একূল ভাঙে ওকূল গড়ে এইতো নদীর খেলা
   'পরিবেশ' - এর আরো খবর

                আইন - অপরাধ
সাঙ্গুতে মাদক কারবারীকে আটক করেছে কোস্ট গার্ড
কায়সারের মৃত্যুদণ্ড বহাল
এলপি গ্যাসের মূল্য নির্ধারণে কমিশন গঠনের নির্দেশনা চেয়ে রিট
বিচারের জন্য প্রস্তুত আবরার হত্যা মামলা
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে র‌্যাগিং বন্ধে স্কোয়াড গঠনে হাইকোর্টর নির্দেশ
আবরার হত্যার আসামি মোশের্দের আত্মসমর্পণ
ঢাবি শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১
ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় মামলা
পিইসিতে বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা নেওয়ার নির্দেশ হাইকোর্টের
   'আইন - অপরাধ' - এর আরো খবর
                মানবাধিকার
ফেব্রুয়ারিতে ৪৮ নারী-শিশু ধর্ষণের শিকার
অটোরিকশা থেকে নামিয়ে নারী চিকিৎসককে গণধর্ষণ
৫ সন্তানের জনকের ঠাই হল রাস্তায়
গাজীপুরে শিশু ধর্ষণ, আ.লীগ নেতার বাধায় মামলা দিতে পারছে না পরিবার
রংপুরে ডিবির বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীকে হত্যার অভিযোগ
যশোরে মামলা তুলে না নেওয়ায় শিক্ষককে গাছে বেধে নির্যাতন
ডিমলার প্রতিবন্ধি ফিরোজ বাঁচতে চায়
বড়লোকের ছেলে সাথে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে লাগাতার ধর্ষণ
   'মানবাধিকার' - এর আরো খবর
                সম্পাদকীয়
দুর্ঘটনা প্রতিরোধই কাম্য
ক্রীড়াঙ্গনে কলঙ্কের ছাপ
দায়ীদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নিন
একটি বিলম্বিত বোধদয়ের অবিশ্বাস্য কালক্ষেপণ
বন্যা পরিস্থিতির অবনতি
বাণিজ্য বাড়ছে ভারতে
রাজধানীতে যানজট জলজট : নগরবাসীর ভোগান্তি দূর করুন
গণপরিবহনে বিড়ম্বনা
   'সম্পাদকীয়' - এর আরো খবর
                শিল্প সাহিত্য
জাতীয় কবি নজরুলের প্রয়াণ দিবস আজ
একাকিত্বে বহুত্ব
কাপালিকের দেশে
চলতি বছরের নোবেল সাহিত্য পুরস্কার স্থগিত
ময়মনসিংহে সাহিত্য উৎসব অনুষ্ঠিত, পুরস্কৃত হলেন ৪ গুণীজন
প্রথম মৃত্যু
শুভংকরের ফাঁকি
বউ যেভাবে ঘরে আসে
মধ্যরাতের কথা
বাঙালির রক্তের বন্ধন ও জাতি-পরিচয়
   'শিল্প সাহিত্য' - এর আরো খবর

                সম্পাদকীয়
দুর্ঘটনা প্রতিরোধই কাম্য
ক্রীড়াঙ্গনে কলঙ্কের ছাপ
দায়ীদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নিন
একটি বিলম্বিত বোধদয়ের অবিশ্বাস্য কালক্ষেপণ
বন্যা পরিস্থিতির অবনতি
বাণিজ্য বাড়ছে ভারতে
রাজধানীতে যানজট জলজট : নগরবাসীর ভোগান্তি দূর করুন
   'সম্পাদকীয়' - এর আরো খবর
                এক্সক্লুসিভ
চালের দাম বাড়িয়ে টাকা লুটছে অটোমিল সিন্ডিকেট
ইয়াবার চালান থামছে না
বিশেষ অভিযানে মাঠে পুলিশ
পুলিশে শুদ্ধি অভিযানের উদ্যোগ
আয়ু থাকে না বিআরটিসি বাসের
জামায়াতীদের নাগরিক মর্যাদা বদলানো দরকার
ফেলানী হত্যার আট বছর
   'এক্সক্লুসিভ' - এর আরো খবর
                ইসলাম
এশার পর বিতর নামাজ পড়া আবশ্যক
ইসলামে জুয়া-বাজি সম্পূর্ণ হারাম
আল্লাহু আকবার ধ্বনিতে মুখরিত আরাফার আকাশ-বাতাস
হজ ব্যবস্থাপনায় সফলতম ইতিহাস : ধর্ম প্রতিমন্ত্রী
সুন্নত পালনের মধ্যে রয়েছে মুক্তি
ইয়াহুদিরা যে কারণে মাথায় টুপির মতো ‘কিপ্পা’ পরে
কাল পবিত্র আশুরা
পবিত্র আশুরা ২১ সেপ্টেম্বর
   'ইসলাম' - এর আরো খবর
                জীবনশৈলী
ঠান্ডায় নাক বন্ধ হলে করণীয়
যেসব অভ্যাসে বাড়ে মাইগ্রেনের ব্যথা
শীতে পানি কম খেলে বিপদ!
শীতে পা ফাটা রোধ করার সহজ উপায়
শীতেও সুস্থ উজ্জ্বল ত্বক
শীতকালে অ্যালার্জি ও অ্যাজমা নিয়ন্ত্রণের উপায়
শীতে চুলের রুক্ষতা দূর করার উপায়
শীতে খুশকি দূর করুন ঘরোয়া উপায়ে
ঝলমলে চুল পাওয়ার উপায়
   'জীবনশৈলী' - এর আরো খবর

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Nytasoft