রবিবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২০ বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
আল্লাহর ৯৯ নাম দিয়ে ‘মুজিব মিনার’ করার প্রস্তাব যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর কাছে

স্বাধীন বাংলা:
ভাস্কর্যের পরিবর্তে আল্লাহর ৯৯ নামখচিত মুজিব মিনার করার প্রস্তাব দিয়েছেন আলেমরা। আজ সকালে রাজধানীর যাত্রাবাড়ি মাদরাসায় ভাস্কর্য ইস্যুতে করণীয় শীর্ষক বৈঠক শেষে পাঁচ দফা প্রস্তাব তৈরি করা হয়। এতে আল্লাহর ৯৯ নাম দিয়ে  মুজিব মিনার করার প্রস্তাব আছে, যা প্রধানমন্ত্রীর কাছে জমা দেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

আলেমরা বলেনথ ভাস্কর্য যে উদ্দেশ্যেই তৈরি হোক না কেন তা ইসলামে নিষিদ্ধ বলেও মত দেন কওমি আলেম ও ধর্মভিত্তিক দলের নেতারা।

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ ইস্যুতে গত কয়েকদিন ধরেই সরগরম দেশ। ধর্মভিত্তিক দলগুলো চাইছে কোন অবস্থাতেই নির্মাণ করতে দেয়া হবেনা ভাস্কর্য। অপরদিকে আওয়ামী লীগসহ প্রগতিশীলদের দাবি যে কোন মূল্যে তৈরি হবে জাতির জনকের ভাস্কর্য।

এ অবস্থা চলাকালেই ভাস্কর্য ইস্যুতে কি করণীয় তা নির্ধারণ করতে বৈঠকের ডাক দেয় কওমি মাদ্রাসার সম্মিলিত শিক্ষা বোর্ড আল হাইয়্যাতুল উলিয়া লিল জামিয়াতিল কাওমিয়া বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মাওলানা মাহমুদুল হাসান। যোগ দেন দেশের নানা প্রান্ত থেকে আসা কওমি আলেম ও বিভিন্ন ধর্মভিত্তিক দলের নেতারা।
 
প্রায় চার ঘণ্টা ধরে চলে আলেমদের আলোচনা। বৈঠক শেষে মুফতি মিজানুর রহমান বলেন, ‘ভাস্কর্য আর মূর্তি এই দুটোর মধ্যে কোন পার্থক্য নেই। ইসলামী বিধানমতে ছবি মাত্রই হারাম। যেটা পূজা করা হয়, সেটা শিরীক, সেটা জঘন্য আর যেটা পূজা করা হয় না, সেটাও হারাম।’

এসময় বিশ্বের মুসলিম প্রধান বিভিন্ন দেশে ভাস্কর্য থাকলেও তাকে উদাহরণ হিসেবে দেখতে নারাজ আলেমরা। তারা জানায় কুরআন ও হাদিসে যা বলা আছে তা থেকে একবিন্দুও সরবে না তারা। তবে, বিকল্প প্রস্তাব হিসেবে আল্লাহর ৯৯ নামখচিত মুজিব মিনার করার প্রস্তাব রাখেন আলেমরা।

আল্লাহর ৯৯ নাম দিয়ে ‘মুজিব মিনার’ করার প্রস্তাব যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর কাছে
                                  

স্বাধীন বাংলা:
ভাস্কর্যের পরিবর্তে আল্লাহর ৯৯ নামখচিত মুজিব মিনার করার প্রস্তাব দিয়েছেন আলেমরা। আজ সকালে রাজধানীর যাত্রাবাড়ি মাদরাসায় ভাস্কর্য ইস্যুতে করণীয় শীর্ষক বৈঠক শেষে পাঁচ দফা প্রস্তাব তৈরি করা হয়। এতে আল্লাহর ৯৯ নাম দিয়ে  মুজিব মিনার করার প্রস্তাব আছে, যা প্রধানমন্ত্রীর কাছে জমা দেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

আলেমরা বলেনথ ভাস্কর্য যে উদ্দেশ্যেই তৈরি হোক না কেন তা ইসলামে নিষিদ্ধ বলেও মত দেন কওমি আলেম ও ধর্মভিত্তিক দলের নেতারা।

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ ইস্যুতে গত কয়েকদিন ধরেই সরগরম দেশ। ধর্মভিত্তিক দলগুলো চাইছে কোন অবস্থাতেই নির্মাণ করতে দেয়া হবেনা ভাস্কর্য। অপরদিকে আওয়ামী লীগসহ প্রগতিশীলদের দাবি যে কোন মূল্যে তৈরি হবে জাতির জনকের ভাস্কর্য।

এ অবস্থা চলাকালেই ভাস্কর্য ইস্যুতে কি করণীয় তা নির্ধারণ করতে বৈঠকের ডাক দেয় কওমি মাদ্রাসার সম্মিলিত শিক্ষা বোর্ড আল হাইয়্যাতুল উলিয়া লিল জামিয়াতিল কাওমিয়া বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মাওলানা মাহমুদুল হাসান। যোগ দেন দেশের নানা প্রান্ত থেকে আসা কওমি আলেম ও বিভিন্ন ধর্মভিত্তিক দলের নেতারা।
 
প্রায় চার ঘণ্টা ধরে চলে আলেমদের আলোচনা। বৈঠক শেষে মুফতি মিজানুর রহমান বলেন, ‘ভাস্কর্য আর মূর্তি এই দুটোর মধ্যে কোন পার্থক্য নেই। ইসলামী বিধানমতে ছবি মাত্রই হারাম। যেটা পূজা করা হয়, সেটা শিরীক, সেটা জঘন্য আর যেটা পূজা করা হয় না, সেটাও হারাম।’

এসময় বিশ্বের মুসলিম প্রধান বিভিন্ন দেশে ভাস্কর্য থাকলেও তাকে উদাহরণ হিসেবে দেখতে নারাজ আলেমরা। তারা জানায় কুরআন ও হাদিসে যা বলা আছে তা থেকে একবিন্দুও সরবে না তারা। তবে, বিকল্প প্রস্তাব হিসেবে আল্লাহর ৯৯ নামখচিত মুজিব মিনার করার প্রস্তাব রাখেন আলেমরা।

বিএমএসএফ’র ঢাকা জেলা আহ্বায়ক রেজা নওফল হায়দার
                                  

স্টাফ রিপোর্টার:

দৈনিক জনকন্ঠের বিভাগীয় সম্পাদক সিনিয়র সাংবাদিক রেজা নওফল হায়দারকে আহবায়ক করে বিএমএসএফ ঢাকা জেলা কমিটি গঠন করা হয়েছে।

শনিবার সকাল ১১টায় পুরানাপল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ উপলক্ষে সভা অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সচিব আহমেদ আবু জাফর এতে সভাপতিত্ব করেন।

সভায় উপস্থিত ছিলেন জার্নালিস্ট শেল্টার হোমের সদস্য শাহেন শাহ, বিএমএসএফ নেতা আবু বকর তালুকদার, সানজিদা আকতার, দীন ইসলাম, হাবিবুর রহমান গাজী, আব্দুল্লাহ আল মামুন, মেহেদী হাসান, এমএকেএস তরুন রানা,  প্রমূখ।

সভায় প্রস্তাব সমর্থনের ভিত্তিতে রেজা নওফেল হায়দারকে আহবায়ক করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। এই কমিটি আগামি তিন মাসের মধ্যে কাউন্সিলের মাধ্যমে কমিটি গঠনসহ ১৪ দফা দাবি আদায় বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

নবগঠিত কমিটির নেতৃবৃন্দ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সচিব আহমেদ আবু জাফরকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে সাংবাদিকদের সকল আন্দোলন-সংগ্রামে পাশে থাকার প্রত্যয়ও ব্যক্ত করেন।

খাদ্য ও পুষ্টি নিরাপত্তা নিশ্চিতে মাটির গুরুত্ব অপরিসীম: কৃষিমন্ত্রী
                                  

স্বাধীন বাংলা অনলাইন:
কৃষিমন্ত্রী ড. মো: আব্দুর রাজ্জাক এমপি বলেছেন, দেশের মানুষের খাদ্য ও পুষ্টি নিরাপত্তার জন্য মাটির গুরুত্ব অপরিসীম। মানুষের জীবনজীবিকা ও খাদ্য নিরাপত্তা নির্ভর করে টেকসই মৃত্তিকা ব্যবস্থাপনার ওপর। দেশে বর্তমানে ১৭ কোটি মানুষ রয়েছে যা ক্রমশ বাড়ছে, প্রতিবছর ২২ লাখ নতুন মুখ যুক্ত হচ্ছে; অন্যদিকে শিল্পায়ন, নগরায়ন, বাড়ি-ঘর নির্মাণ, রাস্তাঘাট তৈরিসহ নানা কারণে চাষের জমি কমছে। এই দুই চ্যালেঞ্জের সাথে যুক্ত হয়েছে- জলবায়ু পরিবর্তন। এসব বিবেচনায় নিয়ে খাদ্য ও পুষ্টি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হলে টেকসই উৎপাদন ব্যবস্থা ও শস্যের উৎপাদনশীলতা বাড়াতে হবে। সেজন্য মাটিকে সজীব রাখতে হবে, মাটির গুণাগুণ বজায় রাখতে হবে।

কৃষিমন্ত্রী শনিবার অনলাইনে ‘বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস’ পালন উপলক্ষ্যে আয়োজিত সেমিনার, শোকেসিং এবং সয়েল কেয়ার অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।

কৃষিমন্ত্রী আরও বলেন, শুধু কৃষি নয়, মাছ, প্রাণিসম্পদ ও পোল্ট্রির খাদ্যও মাটি থেকে আসে। সেজন্যও মাটিকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে।  এছাড়া, দেশে খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধি করতে যেয়ে শস্যের নিবিড়তা বাড়ছে কিন্তু মাটির উৎপাদনশীলতা কমে যাচ্ছে। টেকসই মাটি ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে মাটির উৎপাদনশীলতা, মাটিতে গাছের অপরিহার্য পুষ্টি উপাদানের মান বজায় রাখতে হবে।

ড. রাজ্জাক আরও বলেন, দেশে মাটির গুণাগুণ ধরে রাখতে মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট ব্যাপকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। দেশের দক্ষিণাঞ্চলের লবণাক্ত জমি, পাহাড়ি এলাকার সমস্যাক্লিষ্ট জমিকে চাষের আওতায় আনার জন্য গবেষণার মাধ্যমে নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন করছে। যার মাধ্যমে টেকসই মৃত্তিকা ব্যবস্থাপনায় সংস্থাটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

 

কৃষি মন্ত্রণালয় দেশে বিশ্ব মৃত্তিকা দিবস ২০২০ পালনের জন্য রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে এ সেমিনারের আয়োজন করে। সহযোগিতা করেছে মৃত্তিকাসম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট, খাদ্য ও কৃষি সংস্থা, সয়েল সাইন্স সোসাইটি অব বাংলাদেশ এবং প্র্যাকটিক্যাল অ্যাকশন বাংলাদেশ। এবারের দিবসটির প্রতিপাদ্য হলো ‘মাটিকে সজীব রাখুন, মাটির জীববৈচিত্র রক্ষা করুন।

এফএও’র হিসাব মতে, পৃথিবীর জীববৈচিত্রের এক চতুর্থাংশের আবাসস্থল হচ্ছে মাটি। সুস্থ মাটির একটি অপরিহার্য উপাদান হচ্ছে মাটির জীববৈচিত্র্য। এ জীববৈচিত্রকে রক্ষা করতে পারলে মাটির স্বাস্থ্য ভাল থাকবে, আর মাটি সুস্থ থাকলেই কেবল নিরাপদ ও পুষ্টিগুণ সম্পন্ন  খাদ্য উৎপাদন সম্ভব হবে। কিন্তু বর্তমানে মাটির  এ জীববৈচিত্র ক্ষতির সম্মুখীন যা উদ্বেগের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। এর অন্যতম একটি কারণ টেকসই মৃত্তিকা ব্যবস্থাপনা না থাকা।

পরে কৃষিমন্ত্রী ‘সয়েল মিউজিয়াম সফটওয়্যার’ উদ্বোধন ও ‘ল্যান্ড ডিগ্রেডেশন ইন বাংলাদেশ’ বই এর মোড়ক উন্মোচন করেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এবং কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: মেসবাহুল ইসলাম। মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক বিধান কুমার ভান্ডারের সভাপতিত্বে কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (সম্প্রসারণ) মো: হাসানুজ্জামান কল্লোল, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের নির্বাহী চেয়ারম্যান শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার, এফএও’র বাংলাদেশ প্রতিনিধি রবার্ট ডি. সিম্পসন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

 

দিনের দ্বিতীয়/টেকনিক্যাল সেশনে প্রধান অতিথি হিসাবে ‘সয়েল কেয়ার অ্যাওয়ার্ড ২০২০’  বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। এ বছর সয়েল কেয়ার অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন কৃষকপর্যায়ে আমচাষি মো: মতিউর রহমান, শিক্ষাবিদ হিসাবে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকা বিভাগের অধ্যাপক মো: রফিকুল ইসলাম, এবং মৃত্তিকা বিজ্ঞানী ড. জেড. করিম।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ সংস্থা ‘মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট (এসআরডিআই)’ মাটির গুণাগুণ রক্ষার্থে কৃষকের জমির মাটি পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে সুষম মাত্রার সার ব্যবহারের মাধ্যমে ফসল উৎপাদনের জন্য সেবা প্রদান করে আসছে। এছাড়া, গবেষণার মাধ্যমে লবণাক্ত ও পাহাড়ি এলাকার মৃত্তিকায় ফসল উৎপাদনের উপযোগী প্রযুক্তি উদ্ভাবন করছে। এই প্রযুক্তিসমূহ ব্যবহার করে কৃষকেরা লাভবান হচ্ছে। অন্যদিকে, পরিবেশ ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণেও ভূমিকা রাখছে প্রযুক্তিগুলো ।

দেশ ও জাতির প্রতি সেবার মনোভাব নিয়ে কাজ করতে বিজিবিকে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট:
দেশ ও জাতির প্রতি একটা সেবার মনোভাব নিয়ে নিজের দায়িত্ব-কর্তব্য পালন করতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশকে (বিজিবি) নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ শনিবার সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে বিজিবির ৯৫তম ব্যাচ রিক্রুট মৌলিক প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে তিনি এই নির্দেশনা দেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৪ সালের ৫ ডিসেম্বর এই বাহিনীর তৃতীয় রিক্রুট ব্যাচ সমাপনী কুচকাওয়াজে অংশ নিয়ে যে ভাষণ দিয়েছিলেন তা স্মরণ করে দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন দেশকে ভালোবাসতে হবে। মানুষকে ভালোবাসতে হবে। মানুষের জন্য কাজ করতে হবে। মনে রাখতে হবে এই দেশ অর্থনৈতিকভাবে যত উন্নত হবে, আপনারদের পরিবারগুলোও উন্নত হবে।

৭৪ সালের ওই ভাষণে বঙ্গবন্ধু বলেন, ‘আজ আপনাদের কাছে আমি অনেক বড় কর্তব্য দিয়েছি। অনেক বড় কাজ দিয়েছি। এ কাজ হলো চোরাচালানি বন্ধ করা। তোমাদের কাছে আমার হুকুম স্মাগলিং বন্ধ করতে হবে। আমি বিশ্বাস করি তোমরা পারবা। এ বিশ্বাস তোমাদের ওপর আমার আছে। মনে রাখতে হবে স্মাগলারের কোনো জাত নাই, ধর্ম নাই। তারা মানুষ নামের নরপশু। তারা এদেশের সম্পদকে বিদেশে চালান দেয় সামান্য অর্থের লোভে।’

জাতির পিতার দেয়া নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমি আশা করি, এই নির্দেশনাটাও আপনারা মেনে চলবেন। আমাদের যেমন সার্বভৌমত্ব রক্ষা, স্বাধীনতা রক্ষা পাশপাশি এই ধরনের অপকর্মগুলো রোধ করে আপনরা আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করবেন। কারণ এই কথাগুলো এখনও প্রাসঙ্গিক।

করোনা নেগেটিভ সনদ ছাড়া বাংলাদেশে প্রবেশ করা যাবে না
                                  

স্বাধীন বাংলা অনলাইন:
মহামারী করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ সামাল দিতে এবং প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে নতুন অনেক পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে বাংলাদেশে প্রবেশের ক্ষেত্রে করোনা নেগেটিভ সনদ বাধ্যতামূল করে নির্দেশনা জারি করেছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ(বেবিচক)। আগামী শনিবার থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হবে।

বিমানবন্দরে কর্মরতদের শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করা ছাড়াও যাত্রী, ক্রু, উড়োজাহাজ জীবাণুমুক্তকরণ প্রক্রিয়া যথাযথভাবে করতে নির্দেশ দিয়েছে বেবিচক। আগামীকাল শনিবার থেকেই বাহরাইন, চীন, সৌদি আরব, কুয়েত, মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ, ওমান, কাতার, শ্রীলঙ্কা, সিঙ্গাপুর, তুরস্ক, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও যুক্তরাজ্যে চলাচল করা ফ্লাইটের ক্ষেত্রে এ নির্দেশনা কার্যকর হবে।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ বেবিচকের সদস্য গ্রুপ ক্যাপ্টেন চৌধুরী মো. জিয়াউল কবীর স্বাক্ষরিত নির্দেশনায় বলা হয়েছে, বাংলাদেশে আসার আগে সব যাত্রীকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে পিসিআর ল্যাবে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করতে হবে। পরীক্ষায় তাদের করোনাভাইরাস ‘নেগেটিভ’ এলে তবেই তারা বাংলাদেশে আসার অনুমতি পাবেন। বিমানবন্দরে যাত্রীদেরকে সেই মেডিকেল সনদ দেখাতে হবে।

এতে জানানো হয়, বিমানবন্দরে আসা যাত্রীর সবার তাপমাত্রা পরীক্ষাসহ মেডিকেল স্ক্রিনিং হবে।  করোনা নেগেটিভ সনদ থাকলে কারো শরীরে যদি করোনাভাইরাসের লক্ষণ-উপসর্গ দেখা যায় তবে  তাকে সরাসরি নির্ধারিত হাসপাতালে নিয়ে পরীক্ষা করে চিকিৎসা দেওয়া হবে এবং আইসোলেশন সেন্টারে পাঠানো হবে। আর যাদের মধ্যে উপসর্গ থাকবে না, তাদের বাড়ি ফিরে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

বেবিচকের নির্দেশনায় বলা হয়েছে, বাংলাদেশি শ্রমিক, যাদের বিএমইটি কার্ড আছে, তারা যে দেশ থেকে আসবেন, সে দেশের পিসিআর ল্যাবে করোনাভাইরাস পরীক্ষার ব্যবস্থা সহজলভ্য না হলে, তারা অ্যান্টিজেন বা অন্য কোনো গ্রহণযোগ্য পরীক্ষার সনদ নিয়ে দেশে আসতে পারবেন। বাংলাদেশে অবস্থানরত কূটনৈতিক মিশনগুলোর কূটনীতিক এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের ক্ষেত্রেও পিসিআর ল্যাবে করোনাভাইরাস পরীক্ষার সনদ থাকতে হবে এবং সেই পরীক্ষা করাতে হবে যাত্রার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে।

বাংলাদেশ থেকে ইউরোপ ও যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্যান্য গন্তব্যে এখন সরাসরি ফ্লাইট নেই। সিঙ্গাপুর, তুরস্ক, দুবাই, আবুধাবি, মালয়েশিয়া, যুক্তরাজ্যে ট্রানজিট হয়ে যাত্রীরা এসব গন্তেব্যে যাওয়া-আসা করেন। ফলে এ নির্দেশনা ইউরোপ ও যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্যান্য গন্তেব্যে চলাচল করা ফ্লাইটের ক্ষেত্রেও কার্যকর হবে।

সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ করোনায় আক্রান্ত
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট:
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। নুরুল ইসলাম নাহিদের সাবেক সহকারী জাকির হোসেন শুক্রবার এ তথ্য জানান।

নুরুল ইসলাম নাহিদ বৃহস্পতিবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) করোনা পরীক্ষা করান। পরীক্ষায় তার করোনা পজিটিভ আসে।

জাকির হোসেন জানান, নুরুল ইসলাম নাহিদ বর্তমানে তার বাসা থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। চিকিৎসকরা সার্বক্ষণিক তার খোঁজ-খবর নিচ্ছেন। তিনি সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।

পদ্মা সেতুতে বসলো ৪০তম স্প্যান
                                  

নিজস্ব সংবাদদাতা:
স্বপ্নের পদ্মা সেতুতে মাওয়া প্রান্তে সেতুর ১১ ও ১২ নম্বর পিলারের ওপর বসানো হলো ৪০তম স্প্যান। আজ শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) সকাল ১০টা ৫৮ মিনিটের দিকে পদ্মা সেতুর ৪০তম স্প্যান ‘টু-ই’ সফলভাবে স্থাপন করা হয়েছে। এ স্প্যানটি বসনোর মধ্যদিয়ে পদ্মা সেতুর ৬ কিলোমিটার দৃশ্যমান হলো। এখন মাত্র একটি স্প্যান বসলেই পুরো পদ্মা সেতুই দৃশ্যমান হবে।

সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী ও প্রকল্প ব্যবস্থাপক (মূল সেতু) দেওয়ান আবদুল কাদের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মাত্র ৮ দিনের মাথায় বসানো হলো এ স্প্যানটি। ৮ দিন আগে ৩৯তম স্প্যান বসানো হয়েছিল। এখন ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের একটি স্প্যান বসানো হলেই ৬ হাজার ১৫০ মিটার পদ্মা সেতুর মূল অবকাঠামোর পুরোটাই দৃশ্যমান হবে। গেল দুই মাসে সেতুতে ৮টি স্প্যান বসিয়ে রেকর্ড তৈরি করেছেন দেশি-বিদেশি প্রকৌশলীরা। বিজয়ের মাসে ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে স্প্যান বসানোর কাজ সম্পন্ন করার ব্যাপারে আশাবাদী সংশ্লিষ্টরা।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর পিলারে প্রথম স্প্যান বসানো হয়। পদ্মা সেতু নির্মাণে প্রয়োজন হবে ২ হাজার ৯১৭টি রোডওয়ে স্ল্যাব। এছাড়া ২ হাজার ৯৫৯টি রেলওয়ে স্ল্যাব বসানো হবে। মাওয়া ও জাজিরা প্রান্তে বসানো স্প্যানগুলোতে এসব স্ল্যাব বসানো হচ্ছে।

৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে পদ্মা সেতুর কাঠামো। সেতুর ওপরের অংশে যানবাহন ও নিচ দিয়ে চলবে ট্রেন। মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) ও নদীশাসনের কাজ করছে দেশটির আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন।

বিএনপি নেতা রিজভীর স্ত্রী করোনায় আক্রান্ত
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট:
মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর স্ত্রী আরজুমান আরা আইভী। শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) রিজভীর একান্ত সহকারী আরিফুর রহমান তুষার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গত বুধবার (২ ডিসেম্বর) থেকে জ্বর ও শরীর ব্যথা অনুভব করায় করোনা টেস্ট করলে পজিটিভ রিপোর্ট আসে।

রিজভীর স্ত্রীর ছোট বোন তাহমিদা আক্তারও করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তিনিও একই বাসায় থাকেন। রিজভী তার স্ত্রীর সুস্থতা কামনায় দেশবাসীর দোয়া চেয়েছেন। রিজভী তার স্ত্রী বাসায় ডাক্তারের পরামর্শে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

করোনায় আক্রান্ত আসাদুজ্জামান নূর
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট:
অভিনেতা ও নীলফামারী-২ আসনের সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। শুক্রবার সকাল ১০টায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালটির ডেপুটি ডিরেক্টর ইখতিয়ার আহমেদ।

তিনি জানান, বৃহস্পতিবার রাতে আসাদুজ্জামান নূরের কোভিড-১৯ পরীক্ষা ফল পজিটিভ এসেছে। তার শারীরিক সমস্যা নেই। তিনি যাতে ঝুকিমুক্ত থাকেন, সে কারণে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আসাদুজ্জামান নূর নীলফামারী-২ আসনের সংসদ সদস্য। বর্তমানে তিনি সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য। চার বারের সংসদ সদস্য নূর ২০১৩ সালের শেখ হাসিনার সরকারে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বও পালন করেছিলেন।

১৯৭২ সাল থেকে নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়ের সঙ্গে সম্পৃক্ত থেকে বাংলাদেশের নাট্য আন্দোলনে সক্রিয় আসাদুজ্জামান নূর। এ পর্যন্ত দলের ১৫টি নাটকে ৬ শতাধিক বারেরও বেশি অভিনয় করেছেন তিনি; নির্দেশনা দিয়েছেন ‘দেওয়ান গাজীর কিসসা’ নাটকটি। টেলিভিশনে তাঁর উল্লেখযোগ্য কাজের মধ্যে রয়েছে ‘এইসব দিনরাত্রি’ (১৯৮৫), ‘অয়োময়’ (১৯৮৮), ‘কোথাও কেউ নেই’ (১৯৯০), ‘আজ রবিবার’ (১৯৯৯) ও ‘সমুদ্র বিলাস প্রাইভেট লিমিটেড’ (১৯৯৯)। রেডিওতে প্রচারিত তাঁর নাটকের সংখ্যা অর্ধশতাধিক। টেলিভিশনের পাশাপাশি তিনি চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন। তাঁর অভিনীত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র হলো ‘শঙ্খনীল কারাগার’ (১৯৯২) ও ‘আগুনের পরশমণি’ (১৯৯৪)।

একাত্তরে পাকিস্তানের নৃশংসতা ভুলে যাওয়া বা ক্ষমা করা যায় না: প্রধানমন্ত্রী
                                  

স্বাধীন বাংলা অনলাইন:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পাকিস্তান ১৯৭১ সালে যে নৃশংসতা চালিয়েছিল- তা বাংলাদেশ ভুলতে এবং ক্ষমা করতে পারবে না। ঢাকায় নিযুক্ত পাকিস্তানের নতুন হাইকমিশনার ইমরান আহমেদ সিদ্দিকী বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তার সরকারি বাসভবন গণভবনে সাক্ষাৎ করতে গেলে শেখ হাসিনা একথা বলেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, একাত্তরের ঘটনা ভুলে যাওয়া বা ক্ষমা করা যায় না। এ ব্যথা চিরদিন থাকবে।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং এ তথ্য জানায়।

‘সিক্রেট ডকুমেন্টস অব ইন্টেলিজেনস ব্রাঞ্চ অন ফাদার অব দ্য নেশন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’ গ্রন্থের প্রসঙ্গ টেনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এ বই থেকে সবাই ১৯৪৮-৭১ সময়ের অনেক ঐতিহাসিক ঘটনা জানতে পারবে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ উর্দু সংস্করণ পাকিস্তানে অন্যতম বেস্ট সেলার বই উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, অন্যান্য দেশের মতো পাকিস্তানেও এটি অধিক পঠিত বই।

হাইকমিশনার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের শুভ কামনা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পৌঁছে দিলে তিনিও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান।

হাইকমিশনার বলেন, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী তাদের উপদেশ দিয়েছেন বাংলাদেশের উন্নয়নের বিস্ময় সম্পর্কে জানতে।

বিভিন্ন দ্বিপক্ষীয় এবং আঞ্চলিক ফোরাম নিষ্ক্রিয় রয়েছে জানিয়ে হাইকমিশনার দুই দেশের মধ্যকার পররাষ্ট্র বিষয়ক পরামর্শক (এফওসি) কার্যক্রম সক্রিয় করতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সাহায্য কামনা করেন।

জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এটা নিয়মিতভাবে চালিয়ে যেতে এখানে কোনো বাধা নেই।

নতুন দূত বলেন, পাকিস্তান কোনো বাধা ছাড়াই বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়ন করতে চায়। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী জবাব দেন যে, তিনি আঞ্চলিক সহযোগিতায় বিশ্বাস করেন।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র নীতি ‘সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব, কারও সঙ্গে বৈরিতা নয়’ উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, তিনি অন্যান্য দেশের সঙ্গে বিভিন্ন পরিপ্রেক্ষিতের ভিত্তিতে সম্পর্ক বজায় রাখায় বিশ্বাস করেন।

এ সময় বিশ্ব মঞ্চে শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করেন হাইকমিশনার। প্রধানমন্ত্রী নতুন হাইকমিশনারকে স্বাগত জানান এবং দায়িত্ব পালনে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস এবং সামরিক সচিব মেজর জেনারেল নকিব আহমদ চৌধুরী এ সময় উপস্থিত ছিলেন বলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে।

আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধু ও ঢাকায় আতাতুর্কের ভাস্কর্য স্থাপন করবে তুরস্ক
                                  

স্টাফ রিপোর্টার : তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এবং ঢাকার কামাল আতাতুর্ক এভিনিউয়ে মোস্তফা কামাল আতাতুর্কের ভাস্কর্য নির্মাণ করবে তুরস্ক।

বুধবার সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মুস্তফা ওসমান তুরান এ তথ্য জানান।

তুরস্কের রাষ্ট্রদূত বলেন, বন্ধুত্বপূর্ণ দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। আশা করি আমরা মুজিববর্ষের সমাপনী অনুষ্ঠানে যোগ দেব। বঙ্গবন্ধু হচ্ছেন বাংলাদেশের প্রতীক আর কামাল আতাতুর্ক হচ্ছেন তুরস্কের প্রতীক। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, এই দুই নেতার ভাস্কর্য দুই দেশে স্থাপন করবো। আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এবং ঢাকায় কামাল আতাতুর্ক এভিনিউয়ে কামাল আতাতুর্কের। শিগগিরই এই ভাস্কর্য স্থাপন করা হবে।

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, তুরস্কের রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারাতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একটি ভাস্কর্য স্থাপন করবেন। একই সঙ্গে ঢাকায় আধুনিক তুস্কের প্রতিষ্ঠাতা কামাল আতাতুর্কের একটি ভাস্কর্য স্থাপন করবেন।

এছাড়া ইস্তানবুল ও চট্টগ্রামেও এ ধরনের কিছু করা যায় কি না সেটা নিয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়েছে।

মহান বিজয়ের মাস শুরু
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক : মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত বিজয়ের মাস ডিসেম্বর শুরু হলো আজ। ত্রিশ লাখ শহীদ আর দু’লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমহানির বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতার সাক্ষর এবারের বিজয়ের মাস বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার সঙ্গে নানা অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে পালিত হবে। বাংলাদেশের সুদীর্ঘ রাজনৈতিক ইতিহাসে শ্রেষ্ট্রতম ঘটনা হলো ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধ। সশস্ত্র স্বাধীনতা সংগ্রামের এক ঐতিহাসিক ঘটনার মধ্য দিয়ে বাঙ্গালি জাতির কয়েক হাজার বছরের সামাজিক, রাজনৈতিক,ও অর্থনৈতিক স্বপ্ন সাধ পূরন হয় এ মাসে। বাঙালি জাতির সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন মুক্তিযুদ্ধের অবিস্মরণীয় গৌরবদীপ্ত চূড়ান্ত বিজয় এ মাসের ১৬ ডিসেম্বর অর্জিত হয়। স্বাধীন জাঁতি হিসেবে সমগ্র বিশ্বে আত্মপরিচয় লাভ করে বাঙালিরা। অর্জন করে নিজস্ব ভূ-খন্ড। আর সবুজের বুকে লাল সূর্য খচিত জাতীয় পতাকা।

ভাষার ভিত্তিতে যে জাতীয়তাবাদ গড়ে উঠেছিল, এক রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পর বিজয়ের মাধ্যমে ঘোষিত স্বাধীনতা পূর্ণতা পায় এ দিনে। বাঙালির হাজার বছরের স্বপ্নপূরণ হবার পাশাপাশি বহু তরতাজা প্রাণ বিসর্জন আর মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে এই অর্জন হওয়ায় বেদনাবিঁধূর এক শোকগাঁথার মাসও এই ডিসেম্বর। এ মাসেই স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি তাদের এদেশীয় দোসর রাজাকার-আলবদর আল শামসদের সহযোগিতায় দেশের মেধা, শ্রেষ্ঠ সন্তান-বুদ্ধিজীবী হত্যার নৃশংস হত্যাযজ্ঞে মেতে ওঠে। সমগ্র জাতিকে মেধাহীন করে দেয়ার এধরনের ঘৃণ্য হত্যাযজ্ঞের দ্বিতীয় কোন নজীর বিশ্বে নেই।

১৯৭১ সালের ডিসেম্বর মাসের শুরু থেকেই মুক্তিযোদ্ধাদের গেরিলা আক্রমণ আর ভারতীয় মিত্রবাহিনীর সমন্বয়ে গঠিত যৌথবাহিনীর জল,স্থল আর আকাশপথে সাঁড়াশি আক্রমণের মুখে বর্বর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর পরাজয়ের খবর চারদিক থেকে ভেসে আসতে থাকে। এ বছরের ১৬ ডিসেম্বর ঢাকার ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) পাকিস্তানি বাহিনী আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য হয়।

যেখান থেকে ৭ মার্চ স্বাধীনতার স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম,’ বলে স্বাধীনতার ডাক দেন, সেখানেই পরাজয়ের দলিলে স্বাক্ষর করেন পাকিস্তানি জেনারেল নিয়াজী। ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত হয়। আর জাঁতি অর্জন করে হাজার বছরের স্বপ্নের স্বাধীনতা। ’৭১ এর ২৫ মার্চ কালরাতে পাকিস্তানী জল্লাদ বাহিনী নিরস্ত্র জনগণের উপর অতর্কিতে সশস্ত্র আক্রমণ চালিয়ে হাজার হাজার মানুষ হত্যা করে নিরস্র বাঙালির ওপর এক অসম যুদ্ধ চাপিয়ে দেয়।

বঙ্গবন্ধু একাত্তরের ২৫ মার্চ রাতে পাক বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হবার আগে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীনতার ঘোষণা দেন এবং তাঁর ডাকে সাড়া দিয়ে বাঙালি জাঁতি ঐক্যবদ্ধভাবে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে। ২৫ মার্চ রাতেই রাজারবাগ পুলিশ লাইনে সশস্র প্রতিরোধের সম্মুখীন হয় পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী। দীর্ঘ ৯ মাসের সশস্ত্র জনযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদ এবং ২ লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমহানির বিনিময়ে ১৬ ডিসেম্বর জাতির চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত হয়। মহান এ বিজয়ের মাস উদযাপনে জাতীয় কর্মসূচির পাশাপাশি বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের পক্ষ থেকে বিস্তারিত কর্মসূচি নেয়া হয়েছে।

স্বাধীন বাংলা/এআর

মাস্ক না পরলে সর্বোচ্চ জরিমানা, হতে পারে জেলও
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট : মহামারি নভেল করোনাভাইরাসের  সংক্রমণ রোধে কঠোর হচ্ছে সরকার। সবাইকে মাস্ক পরার ওপর আরও কড়াকড়ি আরোপ করা হবে। মাস্ক না পরলে সর্বোচ্চ জরিমানা করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এতেও কাজ না হলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জেল দেয়ার মতো কঠোর অবস্থানেও যেতে পারে সরকার।

সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠকের ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব এ কথা জানান। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল মন্ত্রিসভা বৈঠক হয়। গণভবন প্রান্ত থেকে প্রধানমন্ত্রী এবং সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মন্ত্রীরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকে যোগ দেন।

খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, সবার মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্টদের শক্ত অবস্থানে যাওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘আগেই আমরা বলেছি, এই সপ্তাহ থেকে আরেকটু স্ট্রং অ্যাকশনে যাব। আমার মনে হয়, ঢাকার বাইরে পজিটিভ; ডিসিরা বলছেন, জেলা সদরে মানুষ মোটামুটি কেয়ারফুল  হচ্ছে। ঢাকা শহরে বোধহয় এখনও পুরোপুরি কেয়ারফুল হয়নি; তবে মোটামুটি একটা বার্তা যাচ্ছে যে ফাইন হয়ে যাবে, ফাইন দিতে হবে ৫০০ টাকা। বলে দিয়েছি, এখন থেকে ম্যাক্সিমাম ফাইন কর, না হলে আমরা আরও ইনস্ট্রাকশন দেব। বলেছি সর্বোচ্চ জরিমানা করতে।

তারপরও মাস্ক না পরলে কী হবে- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, তারপরে জেলে যেতে হবে, আর কি করবে না যদি শোনে। আমরা তো ঝুঁকি নিতে পারি না, আমাদের যতটুকু সম্ভব করতে হবে, আমরা বলে দিয়েছি।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে সারাদেশে যেভাবে ভ্রাম্যমাণ আদালত চলছে, সেভাবে আরও ৭ থেকে ১০ দিন দেখব, তারপর ইনস্ট্রাকশন দিয়ে দেব- আরও কঠোর পানিশমেন্টে যাও। যথাসম্ভব বেশি করে ফাইন করা হবে এবং স্ট্রং পানিশমেন্ট দেয়া হবে।

স্বাধীন বাংলা/এআর

অক্সফোর্ডের তিন কোটি ভ্যাকসিন বিনামূল্যে দেবে সরকার
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট : অক্সফোর্ডের তৈরি করোনাভাইরাসের তিন কোটি ভ্যাকসিন বিনামূল্যে বিতরণ করা হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠকের ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব এ কথা জানান।

খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, গত ১৪ অক্টোবর অক্সফোর্ডের তৈরি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন সংগ্রহের জন্য ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট উৎপাদিত ভ্যাকসিন বাংলাদেশ সরকারের কাছে তিন কোটি ডোজ বিক্রির প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দিয়েছেন। গত ৫ নভেম্বর স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সঙ্গে সিরাম ইনস্টিটিউট ও বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের মধ্যে ত্রিপক্ষীয় সমঝোতা স্মারক সই হয়।  এরপর ১৬ নভেম্বর অর্থ বিভাগ ভ্যাকসিন কেনার জন্য স্বাস্থ্যসেবা বিভাগকে ৭৩৫ কোটি ৭৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। ভ্যাকসিন কেনার জন্য অর্থনৈতিক ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটিতে প্রস্তাব পাঠাবে। এ প্রস্তাব চলে এসেছে।

তিনি বলেন, এই ভ্যাকসিন বিনা পয়সায় দেওয়া হবে। টাকা সরকার পে করে দিচ্ছে। তিন কোটি ভ্যাকসিন  মানুষকে ফ্রি দেওয়া হবে।

স্বাধীন বাংলা/এআর

তিন মাসে সর্বোচ্চ ২৫২৫ জন শনাক্ত, মৃত্যু ৩৫
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট : দেশে মহামারি নভেল করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ৫২৫ জন; যা গত প্রায় তিন মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ সংক্রমণ। এনিয়ে দেশে করোনায় মোট ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৯৩২ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

এর আগে  গত ২ সেপ্টেম্বর ২ হাজার ৫৮২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন।

গত ২৪ ঘন্টায় কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত আরও ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৬৪৪ জনে। এছাড়া একদিনে ২ হাজার ৫৩৯ জন  সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তাতে মোট সুস্থ হয়েছেন ৩ লাখ ৮০ হাজার ৭১১ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ১১৮টি ল্যাবরেটরিতে ১৫ হাজার ৫৬৫টি নমুনা সংগ্রহ ও ১৫ হাজার ৩৭২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়াল ২৭ লাখ ৭২ হাজার ৭০১টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার হার ১৬ দশমিক শূন্য ৪৩ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৭৭ শতাংশ, শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮১ দশমিক ৮৯ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৩ শতাংশ।

স্বাধীন বাংলা/এআর

আয়কর রিটার্ন দাখিলের শেষ দিন আজ
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট : আয়কর রিটার্ন দাখিলের শেষ দিন আজ সোমবার। এ বছর সময় আর বাড়ছে না। সময় বাড়ানোর কোনো সুযোগ নেই জানিয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড চেয়ারম্যান আবু হেনা মো: রহমাতুল মুনিম বলেন, নির্ধারিত সময়ে যারা আয়কর রিটার্ন দিতে পারবেন না, তারা সংশ্লিষ্ট কর অফিসে আবেদন করতে পারবেন। নির্ধারিত সময়ে রিটার্ন জমা না দেয়ার যৌক্তিক কারণ দেখাতে পারলে তার জরিমানা মওকুফ করা হবে। কমিশনারের কাছে যদি কারণ যৌক্তিক মনে না হয়, তবে তাকে জরিমানা দিতে হবে।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড চেয়ারম্যান বলেন, রিটার্ন দাখিল বাড়লেও আয়কর কমেছে ১৯৩ কোটি টাকা। এবারের আয়কর দিবসের প্রতিপাদ্য ঠিক হয়েছে- উন্নত সেবার মাধ্যমে আয়করের আওতা বৃদ্ধি। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড সম্মেলন কক্ষে গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে এনবিআর চেয়ারম্যান এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, এনবিআর সদস্য মো: আলমগীর হোসেন, অপূর্ব কান্তি দাশ, হাফিজ মোর্শেদ।

আবু হেনা মো: রহমাতুল মুনিম বলেন, চেষ্টা সত্ত্বেও আয়করের ক্ষেত্র আমরা বাড়াতে পারিনি। আমাদের আয়কর বিভাগের প্রচেষ্টার পাশাপাশি জনগণের ভেতরেও সচেতনতা প্রয়োজন। ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত রিটার্ন দাখিলের পরিস্থিতি তুলে ধরে তিনি বলেন, ওই দিন পর্যন্ত হিসাব ধরলে রিটার্ন জমার পরিমাণ বেড়েছে গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৬৩ হাজার ১৯৯টি। তবে একই সময়ে আয়কর কমেছে ১৯৩ কোটি টাকা।

গত বছর একই সময়ে ১২ লাখ ৫৭ হাজার ৬২৬টি আয়কর রিটার্ন জমা পড়েছিল। আর কর বাবদ সরকারের খাতায় জমা পড়েছিল দুই হাজার ৫৮০ কোটি টাকা। সেখানে এবার ওই তারিখ পর্যন্ত ১৩ লাখ ২০ হাজার ৮২৫ জন তাদের রিটার্ন দাখিল করেছেন। তাতে আয়কর হিসেবে সরকার পেয়েছে দুই হাজার ৩৮৭ কোটি টাকা। বর্তমানে দেশে ৪৬ লাখ নাগরিকের কর শনাক্তকারী নম্বর (টিআইএন) রয়েছে। তাদের অর্ধেকও নিয়মিত রিটার্ন জমা দেন না।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, জনগণের জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য ২০০৮ সাল থেকে জাতীয় আয়কর দিবস পালন করা হচ্ছে, ২০১০ সাল থেকে আয়কর মেলা করা হচ্ছে। এবার করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি মাথায় রেখে কেন্দ্রীয়ভাবে আয়কর মেলা হয়নি। তবে আমরা প্রতিটি জোনে এবং সার্কেলে মেলার আবহ তৈরি করতে চেয়েছি। কর অঞ্চলে মেলার চেয়ে কম সুযোগ-সুবিধা থাকলেও এসব জোন ও সার্কেলে রিটার্ন দিতে করদাতাদের তেমন কোনো অভিযোগ ছিল না।

তিনি বলেন, আমরা এবার ব্যাংক সার্ভিসটা দিতে পারিনি। তবে সেটার জন্য করদাতাদের কোনো অভিযোগ ছিল না। এবার সরকার ই-চালান (ইলেকট্রনিক চালান) চালু করেছে। যার মাধ্যমে ব্যাংকেও করাদাতাদের যেতে হবে না। মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমেই সবকিছু করতে পারবেন। জনগণের স্বাস্থ্য সুরক্ষা এবং সচেতনতার বিষয়টি মাথায় রেখে আয়কর দিবসের আয়োজন করা হয়েছে। সাজসজ্জা ও অন্যান্য বিষয় এবার পরিহার করা হয়েছে।

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ


   Page 1 of 348
     জাতীয়
আল্লাহর ৯৯ নাম দিয়ে ‘মুজিব মিনার’ করার প্রস্তাব যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর কাছে
.............................................................................................
বিএমএসএফ’র ঢাকা জেলা আহ্বায়ক রেজা নওফল হায়দার
.............................................................................................
খাদ্য ও পুষ্টি নিরাপত্তা নিশ্চিতে মাটির গুরুত্ব অপরিসীম: কৃষিমন্ত্রী
.............................................................................................
দেশ ও জাতির প্রতি সেবার মনোভাব নিয়ে কাজ করতে বিজিবিকে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ
.............................................................................................
করোনা নেগেটিভ সনদ ছাড়া বাংলাদেশে প্রবেশ করা যাবে না
.............................................................................................
সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ করোনায় আক্রান্ত
.............................................................................................
পদ্মা সেতুতে বসলো ৪০তম স্প্যান
.............................................................................................
বিএনপি নেতা রিজভীর স্ত্রী করোনায় আক্রান্ত
.............................................................................................
করোনায় আক্রান্ত আসাদুজ্জামান নূর
.............................................................................................
একাত্তরে পাকিস্তানের নৃশংসতা ভুলে যাওয়া বা ক্ষমা করা যায় না: প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধু ও ঢাকায় আতাতুর্কের ভাস্কর্য স্থাপন করবে তুরস্ক
.............................................................................................
মহান বিজয়ের মাস শুরু
.............................................................................................
মাস্ক না পরলে সর্বোচ্চ জরিমানা, হতে পারে জেলও
.............................................................................................
অক্সফোর্ডের তিন কোটি ভ্যাকসিন বিনামূল্যে দেবে সরকার
.............................................................................................
তিন মাসে সর্বোচ্চ ২৫২৫ জন শনাক্ত, মৃত্যু ৩৫
.............................................................................................
আয়কর রিটার্ন দাখিলের শেষ দিন আজ
.............................................................................................
ইয়েমেনে হুতি বিদ্রোহীদের হাতে বন্দি ৫ বাংলাদেশি
.............................................................................................
‘ঢাকা সফরে আসছেন চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওয়ে ফেঙ্গি’
.............................................................................................
রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে ওআইসিভুক্ত দেশগুলোর সহায়তা চেয়েছে বাংলাদেশ
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধু রেলসেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর গেলেন অর্থমন্ত্রী
.............................................................................................
বেনাপোলে আটকা পড়েছে ভারত ফেরা ক্যান্সারের রোগীসহ প্রায় শতাধিক যাত্রী
.............................................................................................
করোনায় আরও ২০ জনের মৃ্ত্যু, শনাক্ত ২২৭৩
.............................................................................................
পদ্মাসেতুতে ৩৯তম স্প্যান বসেছে আজ, বাকি আর মাত্র দুটি
.............................................................................................
চার্টার্ড ফ্লাইটে লিবিয়া থেকে ফিরলেন ১৫৭ বাংলাদেশি
.............................................................................................
আলী যাকেরের মৃত্যুতে পরিকল্পনামন্ত্রীর শোক
.............................................................................................
আলী যাকেরের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক
.............................................................................................
পদ্মা সেতুর ৩৯তম স্প্যান বসছে আজ
.............................................................................................
গুজব-অস্থিরতা সৃষ্টিকারী অনলাইনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: তথ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
শহরের সব সুবিধা গ্রামে পৌঁছানো হবে : পরিকল্পনামন্ত্রী
.............................................................................................
সাপের বিষ পাচারের ট্রানজিট রুট বাংলাদেশ
.............................................................................................
দেশে করোনায় মৃত্যু সাড়ে ৬ হাজার ছাড়াল
.............................................................................................
কাল বসবে পদ্মাসেতুর ৩৯তম স্প্যান
.............................................................................................
হুমায়ুন রশীদ চৌধুরীর আদর্শ নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে হবে
.............................................................................................
একদিনে নতুন ডেঙ্গু রোগী ২২ জন
.............................................................................................
নতুন শনাক্ত ২১৫৬, মৃত্যু আরও ৩৯ জনের
.............................................................................................
২০২২ সালের মধ্যে এগার কোটি নাগরিকের হাতে আসছে স্মার্টকার্ড
.............................................................................................
কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনে বাংলাদেশ-ডোমিনিকা চুক্তি স্বাক্ষর
.............................................................................................
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী
.............................................................................................
ফ্রান্সবিরোধী পোস্ট : ১৫ বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠাল সিঙ্গাপুর
.............................................................................................
মুক্তিযুদ্ধের অস্ত্র বিক্রিতে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা
.............................................................................................
বৃদ্ধের সঙ্গে ১২ বছরের শিশুর বিয়ে: তদন্তের নির্দেশ হাইকোর্টের
.............................................................................................
উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘নিভার’
.............................................................................................
ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে আসছেন ফরিদুল হক খান, সন্ধ্যায় শপথ
.............................................................................................
করোনায় প্রাণ হারালেন সংবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুনীরুজ্জামান
.............................................................................................
চাকরিপ্রার্থীদের জন্য সুখবর জানাল জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়
.............................................................................................
একই ক্রমিক নিয়ে পরের শ্রেণিতে উঠবে প্রাথমিক শিক্ষার্থীরা
.............................................................................................
‘মুজিববর্ষ’ উদযাপনে সৌদি যুবরাজ সালমানকে আমন্ত্রণ
.............................................................................................
বিজয় দিবসে প্যারেড স্কয়ারের কুচকাওয়াজ হচ্ছে না এ বছর
.............................................................................................
জাবি অধ্যাপক কবি হিমেল বরকত আর নেই
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
যুগ্ম সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT