রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি 2021 বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
আজ মধ্যরাত থেকে ২ মাস ইলিশ ধরা বন্ধ

চাঁদপুর প্রতিনিধি : বাংলাদেশের জাতীয় মাছ ইলিশ রক্ষায় চাঁদপুরের পদ্মা ও মেঘনায় আজ রোববার রাত ১২টা থেকে দুই মাস (মার্চ ও এপ্রিল) মাছ ধরা বন্ধ থাকবে। শনিবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত হাইমচর উপজেলার নৌ সীমানায় কাটাখালী, হাইমচর, চরভৈরবী ও মেঘ নদীর পশ্চিমে ভাসমান মৎস্য আড়ৎ এবং জেলেপাড়ায় মাইকিং করে জেলেদের জাটকাসহ সব ধরনের মাছ আহরণ থেকে বিরত থাকার জন্য সতর্ক করে দেওয়া হয়।

অভয়াশ্রম ও জাটকা রক্ষা কার্যক্রম উপলক্ষ্যে জেলেদের জন্য ওই দুই মাস ভিজিএফের চাল বরাদ্দ দেওয়া হবে বলে জানানো হয়। হাইমচর উপজেলা টাস্কফোর্সের উদ্যোগে প্রচারণা অভিযানে উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান, কোস্টগার্ড হাইমচর ইউনিটের সিনিয়র পেটি অফিসার মো. লুৎফুর রহমান, নৌপুলিশ চরভৈরবী ফাঁড়ি ইনচার্জ আবদুল জলিল, কোস্টগার্ড ও নৌপুলিশের সদস্যরা অংশগ্রহণ করেন। পরে উপজেলা টাস্কফোর্সের কর্মকর্তারা কাটাখালী মৎস্য আড়ৎ, হাইমচর মৎস্য আড়ৎ ও চরভৈরবী মৎস্য আড়ৎ এলাকায় মৎস্য ব্যবসায়ী ও জেলেদের উদ্দেশ্যে সচেতনতামূলক বক্তব্য রাখেন এবং লিফলেট বিতরণ করেন।

১ মার্চ থেকে আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত দুই মাস মেঘনা নদীর অভয়াশ্রম এলাকায় জালসহ যে কোনো সরঞ্জাম দিয়ে জাটকা এবং সব ধরনের মাছ আহরণ নিষিদ্ধ থাকবে। সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী, এ সময় কোনো মাছ ক্রয়-বিক্রয়, পরিবহন ও মজুদ সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ থাকবে। চাঁদপুর জেলার মতলব উত্তর উপজেলার ষাটনল থেকে হাইমচর উপজেলার চরভৈরবী পর্যন্ত প্রায় ৯০ কিলোমিটার এলাকায় সরকার অভয়াশ্রম ঘোষণা করেছে। ইলিশ নিরাপদ আশ্রয় হিসেবে মার্চ-এপ্রিল দুই মাস এ এলাকায় বিচরণ করে।

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ

আজ মধ্যরাত থেকে ২ মাস ইলিশ ধরা বন্ধ
                                  

চাঁদপুর প্রতিনিধি : বাংলাদেশের জাতীয় মাছ ইলিশ রক্ষায় চাঁদপুরের পদ্মা ও মেঘনায় আজ রোববার রাত ১২টা থেকে দুই মাস (মার্চ ও এপ্রিল) মাছ ধরা বন্ধ থাকবে। শনিবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত হাইমচর উপজেলার নৌ সীমানায় কাটাখালী, হাইমচর, চরভৈরবী ও মেঘ নদীর পশ্চিমে ভাসমান মৎস্য আড়ৎ এবং জেলেপাড়ায় মাইকিং করে জেলেদের জাটকাসহ সব ধরনের মাছ আহরণ থেকে বিরত থাকার জন্য সতর্ক করে দেওয়া হয়।

অভয়াশ্রম ও জাটকা রক্ষা কার্যক্রম উপলক্ষ্যে জেলেদের জন্য ওই দুই মাস ভিজিএফের চাল বরাদ্দ দেওয়া হবে বলে জানানো হয়। হাইমচর উপজেলা টাস্কফোর্সের উদ্যোগে প্রচারণা অভিযানে উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান, কোস্টগার্ড হাইমচর ইউনিটের সিনিয়র পেটি অফিসার মো. লুৎফুর রহমান, নৌপুলিশ চরভৈরবী ফাঁড়ি ইনচার্জ আবদুল জলিল, কোস্টগার্ড ও নৌপুলিশের সদস্যরা অংশগ্রহণ করেন। পরে উপজেলা টাস্কফোর্সের কর্মকর্তারা কাটাখালী মৎস্য আড়ৎ, হাইমচর মৎস্য আড়ৎ ও চরভৈরবী মৎস্য আড়ৎ এলাকায় মৎস্য ব্যবসায়ী ও জেলেদের উদ্দেশ্যে সচেতনতামূলক বক্তব্য রাখেন এবং লিফলেট বিতরণ করেন।

১ মার্চ থেকে আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত দুই মাস মেঘনা নদীর অভয়াশ্রম এলাকায় জালসহ যে কোনো সরঞ্জাম দিয়ে জাটকা এবং সব ধরনের মাছ আহরণ নিষিদ্ধ থাকবে। সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী, এ সময় কোনো মাছ ক্রয়-বিক্রয়, পরিবহন ও মজুদ সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ থাকবে। চাঁদপুর জেলার মতলব উত্তর উপজেলার ষাটনল থেকে হাইমচর উপজেলার চরভৈরবী পর্যন্ত প্রায় ৯০ কিলোমিটার এলাকায় সরকার অভয়াশ্রম ঘোষণা করেছে। ইলিশ নিরাপদ আশ্রয় হিসেবে মার্চ-এপ্রিল দুই মাস এ এলাকায় বিচরণ করে।

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ

মানুষের নিরাপত্তার জন্যই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন : তথ্যমন্ত্রী
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন হয়েছে বাংলাদেশের মানুষকে ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা’ দেওয়ার জন্য। আর এ আইনের অপব্যবহার যাতে না হয়, সে বিষয়ে সরকার ‘সচেতন’ আছে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

শুক্রবার বিকেলে চট্টগ্রামের দেওয়ানজি পুকুর পাড়ে নিজের বাড়িতে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘মুশতাক আহমেদের মৃত্যুটা সত্যিই অনভিপ্রেত। আমিও তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করছি। সেখানে কারা কর্তৃপক্ষের কোনো গাফেলতি ছিল কিনা- সেটা খুঁজে দেখা যেতে পারে।‘

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, ‘ডিজিটাল বিষয়টা আজ থেকে ১০-১৫ বছর আগে ছিল না, সুতরাং ডিজিটাল নিরাপত্তার বিষয়টিও ছিল না। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ অনলাইনে যখন একজন সাংবাদিকের চরিত্র হনন করা হয়, একজন গৃহিনীকে যখন অপবাদ দেওয়া হয়, একজন সাধারণ মানুষ যখন ডিজিটাল আক্রমণের শিকার হন, তিনি কোন আইনে প্রতিকার পাবেন? তখন কোন আইনের বলে সে নিরাপত্তা পাবে? সেজন্য একটা আইনের দরকার। এই জন্যই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন।‘

তবে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপব্যবহার যাতে না হয়, সে বিষয়ে সরকার ‘সচেতন’ আছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘বিশেষ করে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে যাতে এই আইনের অপব্যবহার না হয়, সেজন্য তথ্য মন্ত্রণালয় ও আমি ব্যক্তিগতভাবে সবসময় সচেতন আছি এবং কোনোখানে এ ধরনের ঘটনা ঘটলে খোঁজখবর নিয়ে ব্যবস্থাও গ্রহণ করা হয়।`

স্বাধীন বাংলা/ন উ আহমাদ

১৭ বছরেও বিচার শেষ হয়নি ড. হুমায়ুন আজাদ হত্যা মামলার
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : বহুমাত্রিক লেখক ও অধ্যাপক ড. হুমায়ুন আজাদ হত্যা মামলার বিচার শেষ হয়নি ১৭ বছরেও। ২০১২ সালের ২০ এপ্রিল পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে ঢাকার আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দেয় সিআইডি। এরপর নয় বছরে ৫৮ সাক্ষীর মধ্যে ৪১ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। রাষ্ট্রপক্ষের আশা, এ বছরই রায় পাওয়া যাবে।

রাষ্ট্রপক্ষের ভাষ্য, আসামিপক্ষ নানাভাবে বিচার বিলম্বিত করে চলেছে। আগামী ৪ মার্চ ঢাকার চতুর্থ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ মাকছুদা পারভীনের আদালতে পলাতক আসামিদের পক্ষে রাষ্ট্র নিযুক্ত আইনজীবীদের যুক্তি উপস্থাপনের দিন ধার্য রয়েছে। এ প্রক্রিয়া শেষ হলেই মামলাটি রায়ের পর্যায়ে আসবে।

হুমায়ুন আজাদের বড় মেয়ে মৌলি আজাদ বলেন, `বাবার হত্যাকাণ্ডের অনেক পরে অভিজিৎ ও দীপন হত্যাকাণ্ড হলেও তার বিচার শেষ হয়েছে। এটি আমাদের আশাবাদী করেছে। আমাদের পরিবারের প্রত্যাশা, বাবার আগামী মৃত্যুবার্ষিকীর (১২ আগস্ট) আগে বিচার পাব। এবার যেন আমাদের বিচারের অপেক্ষা ফুরায়।`

২০০৪ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারির রাতে বাংলা একাডেমির উল্টো পাশের ফুটপাতে আক্রান্ত হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক হুমায়ুন আজাদ। তাকে চাপাতি ও কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়। পরদিন হুমায়ুন আজাদের ভাই মঞ্জুর কবির রমনা থানায় হত্যাচেষ্টা মামলা করেন।

হুমায়ুন আজাদ ২২ দিন ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে এবং ৪৮ দিন ব্যাংককে চিকিৎসা নেন। সবশেষ জার্মানির মিউনিখে যান এক আমন্ত্রণে। ওই বছরের ১২ আগস্ট সেখানে তিনি রহস্যজনকভাবে মারা যান। তার মৃত্যুর পর মামলাটি আদালতের নির্দেশে হত্যা মামলায় রূপান্তর হয়। একই ঘটনায় হত্যা মামলার পাশাপাশি বিস্ফোরকদ্রব্য আইনেও পৃথক মামলা হয়।

মামলার আসামিরা হলো- জেএমবির শূরা সদস্য মিজানুর রহমান ওরফে মিনহাজ ওরফে শফিক, আনোয়ার আলম ওরফে ভাগ্নে শহিদ, সালেহীন ওরফে সালাহউদ্দিন, হাফিজ মাহমুদ ও নুর মোহাম্মদ ওরফে সাবু। এর মধ্যে মিনহাজ ও আনোয়ার কারাগারে আছে। তারা দু`জনই ঘটনায় সম্পৃক্ততার বিষয়ে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

সালাহউদ্দিন ও নুর মোহাম্মদ পলাতক। সালাহউদ্দিন ও হাফিজ মাহমুদ গ্রেপ্তার হলেও ২০১৪ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি ত্রিশালে প্রিজন ভ্যানে হামলা চালিয়ে তাদের ছিনিয়ে নিয়েছিল জঙ্গিরা। সালেহীন পালিয়ে যেতে পারলেও হাফেজ মাহমুদ পুলিশের হাতে আটক হওয়ার পর বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়। আলোচিত এই মামলায় প্রথমে হুমায়ুন আজাদের বিরুদ্ধে ওয়াজ করা জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীকেও আসামি করা হয়। পরে তার নাম বাদ দেওয়া হয়।

ঢাকার মহানগর আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর আবদুল্লাহ আবু বলেন, আসামি পক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষ হলেই মামলাটি রায়ের পর্যায়ে চলে আসবে।

এ মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) সাইফুল ইসলাম হেলাল বলেন, সাক্ষীদের জবানবন্দি, মামলার আলামত এবং আসামির জবানবন্দির ভিত্তিতে রাষ্ট্রপক্ষ আসামিদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছে। তাই আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি দেওয়ার দাবি জানিয়েছি। এখন পলাতক আসামিদের পক্ষে রাষ্ট্র নিযুক্ত আইনজীবী যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করবেন। তার যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হলে আদালত রায় ঘোষণার দিন ঠিক করবেন।

বিস্ফোরক মামলার বিচারের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিস্ফোরক মামলায় ১৩ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে। সাক্ষীদের আদালতে আনতে আমরা কাজ করছি।

স্বাধীন বাংলা/ন উ আহমাদ

মেঘনার অভয়াশ্রমে দুই মাস মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা
                                  

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুরের কমলনগর ও রামগতি উপজেলায় মেঘনা নদীর অভয়াশ্রম এলাকায় ১ মার্চ থেকে আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত দুই মাস সকল প্রকার মাছ ধরা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। একই সময় মাছ ক্রয়-বিক্রয়, মজুদ ও পরিবহনেও জারি করা হয়েছে নিষেধাজ্ঞা।

মৎস্য সংরক্ষণ আইন ১৯৫০-এর ১৩ ধারা অনুযায়ী মৎস্য অধিদপ্তর ওই নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। ইতোমধ্যেই দুই উপজেলার নদী তীরবর্তী এলাকায় নিষেধাজ্ঞার কথা জানিয়ে প্রচার-প্রচারণা শুরু করা হয়েছে।

রামগতি উপজেলা মৎস্য দপ্তর জানায়, জাটকা রক্ষায় ও ইলিশ সম্পদ বৃদ্ধিতে চাঁদপুরের ষাটনল হতে লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলার আলেকজান্ডার পর্যন্ত মেঘনা নদীর নিম্ন অববাহিকার ১০০ কিলোমিটার নৌসীমাকে ইলিশের অভয়াশ্রম হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। ২০০৬ সাল থেকে ওই অভয়াশ্রম এলাকায় মার্চ-এপ্রিল দুই মাস সকল প্রকার জাল ফেলা নিষিদ্ধের কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে।

 কমলনগর উপজেলা মৎস্য অফিস জানায়, প্রতি বছরের মতো এবারও মেঘনা নদীর অভয়াশ্রমে মাছ ধরা বন্ধ রাখার জন্য জেলেপল্লিসহ মাছঘাট এলাকা এবং উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে নানান ধরনের সচেতনতামূলক কার্যক্রম চালানো হচ্ছে। লিফলেট, পোস্টার ও মাইকের মাধ্যমে সবাইকে সচেতন করা হচ্ছে। এছাড়া মাছধরা প্রতিরোধের জন্য মোবাইলকোর্টও পরিচালনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) আবদুল কুদ্দুস জানান, নিষিদ্ধ সময় জেলেদের মাছ ধরা থেকে বিরত রাখার জন্য প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। ওই সময় পুনর্বাসনের আওতায় জেলেরা খাদ্য সহায়তা পাবেন।

কোস্টগার্ডের কমলনগর কন্টিনজেন্ট কমান্ডার পেটি অফিসার খায়রুল বাসার জানান, সরকারি এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করতে তারা প্রস্তুত রয়েছেন। কর্মসূচি বাস্তবায়নে তাদের সর্বাত্মক চেষ্টা থাকবে।

রামগতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও মৎস্য সংরক্ষণ বিষয়ক উপজেলা টাস্কফোর্স কমিটির সভাপতি মো. আব্দুল মোমিন জানান, মাছ ধরা বন্ধ থাকার সময়ে জেলে পরিবারের মধ্যে চার মাসের জন্য ৪০ কেজি করে চাল সহায়তা হিসেবে দেওয়া হবে।

স্বাধীন বাংলা/ন উ আহমাদ

লেখক মুশতাকের মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন
                                  

গাজীপুর প্রতিনিধি : ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে গাজীপুরের কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে থাকা অবস্থায় লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর ঘটনায় দুই সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে গাজীপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) এস এম তরিকুল ইসলাম ওই কমিটি গঠন করেন।

ডিসি জানান, আগামী দুই কার্যদিবসের মধ্যে এই কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। কমিটির সদস্যরা হলেন- গাজীপুর জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ওয়াসিউজ্জামান চৌধুরী ও উম্মে হাবিবা ফারজানা।

উল্লেখ্য, কাশিমপুর কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার গিয়াস উদ্দিন জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে মুশতাক আহমেদ কারাগারে মাথা ঘুরে পড়ে যান। দ্রুত তাকে শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ৮টা ২০ মিনিটে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তবে হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে, কারাগার থেকে মৃত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে আনা হয়। তার মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যায়নি। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে সঠিক কারণ জানা সম্ভব হবে।

স্বাধীন বাংলা/ন উ আহমাদ

ধানমন্ডিতে ছাদ থেকে ফেলে তরুণীকে হত্যা
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : রাজধানীতে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ চেষ্টার পর (২০) ছয়তলা ভবনের ছাদ থেকে ফেলে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় (২৬ ফেব্রুয়ারি) ধানমন্ডি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, এ ঘটনার জন্য ভবনের পঞ্চম তলার এক ভাড়াটিয়ার ছেলেকে সন্দেহ করছেন তারা।

এ বিষয়ে কলাবাগান থানার উপ-পরিদর্শক জিয়াউর রহমান জানান, আমরা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে ছাদ থেকে ফেলে দিয়ে হত্যার একটা অভিযোগ পেয়েছি। ভিকটিম গ্রিন লাইফ হাসপাতালে আছে। সেখানে সুরতহালের কাজ চলছে, তদন্তও চলছে। বিস্তারিত পরে জানাতে পারবো।

শিক্ষার্থীর ফুফা জানান, আমার ভাগ্নি মালয়েশিয়ায় পড়াশোনা করত। করোনার মধ্যে সে দেশে আসে। এতদিন ধরে সে বাসায় অবস্থান করছিল। বিকেলে সে ছাদে যায়। সাড়ে ৪টার দিকে তাকে ফোন দিয়ে নিচে নামতে বলা হলে সে জানায় একটু পরে নামবো। সন্ধ্যায় জানতে পারি বিল্ডিংয়ের পেছন থেকে লোকজন তাকে উদ্ধার করে গ্রিন লাইফ হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছে। ডাক্তার সেখানে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও বলেন, আমার ভাগ্নি যে বাসায় থাকে সেই বাসার পাঁচতলায় একটি পরিবারের ছেলে আছে। ছেলেটি আমার ভাগ্নিকে ডিস্টার্ব করত। বিষয়টি তার পরিবারকে জানানো হলেও তারা গুরুত্ব দেয়নি।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী সুরতহাল শেষে মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

স্বাধীন বাংলা/ন উ আহমাদ

বিএনপির ৭ই মার্চের কর্মসূচিকে স্বাগত জানাচ্ছে আওয়ামী লীগ, তবে বিএনপির ব্যখ্যা ভিন্ন
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : বাংলাদেশের স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর পূর্তি উপলক্ষে ত্রিশে মার্চ ঢাকায় মহাসমাবেশসহ মার্চ মাস জুড়ে উনিশ দিনের যে কর্মসূচি ঘোষণা করেছে তার অংশ হিসেবে দলটি সাতই মার্চ আলোচনা সভার আয়োজন করতে যাচ্ছে।

তাদের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে আওয়াম লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বক্তব্য দেয়ার পর বিএনপি বলছে, তারা `আওয়ামী লীগের দৃষ্টিকোণ থেকে` দিবসটি পালন করছে না।

বৃহস্পতিবার ঢাকার একটি অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির সাতই মার্চ পালনের প্রচেষ্টা দেশের রাজনৈতিক পরিবেশে ইতিবাচক আবহ তৈরি করবে।

তিনি বলেন, "ঐতিহাসিক সাতই মার্চকে যারা এত দিন নিষিদ্ধ করে রেখেছিলো তারাই এখন সাতই মার্চ পালন করবে"।

১৯৭১ সালের সাতই মার্চ ঢাকায় তৎকালীন রেসকোর্স ময়দানে ঐতিহাসিক ভাষণ দিয়েছিলেন বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা রাষ্ট্রপতি শেখ মুজিবুর রহমান।

মুক্তিযুদ্ধের সময় ও তার পরও ভাষণটি অনেক মানুষকে অনুপ্রাণিত করেছে। এমন প্রেক্ষাপটে গত বছর ইউনেস্কো এটিকে বিশ্ব ঐতিহ্যের অমূল্য দলিল হিসেবেও স্বীকৃতি দেয়।

তবে প্রতি বছর সাতই মার্চে শুধুমাত্র আওয়ামী লীগ ও সমমনা দলগুলোকেই দিবসটি পালন করতে দেখা যেতো।

এবার স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর উদযাপনে বিএনপি যে কর্মসূচি ঘোষণা করেছে তাতে সাতই মার্চে আলোচনা সভার কর্মসূচি রাখা হয়েছে।

মূলত আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের এমন প্রতিক্রিয়ার পরই বিষয়টি নিয়ে কৌতূহল ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এবং অনেকেই প্রশ্ন তোলেন বিএনপি কি সাতই মার্চে শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষণের যে বার্ষিকী, সেই আঙ্গিকে পালন করতে যাচ্ছে কি-না।

দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বিবিসি বাংলাকে বলেন, "না, আমরা আওয়ামী লীগের দৃষ্টিকোণ থেকে কিছু করতে বা বলতে যাচ্ছিনা। স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে মাস ব্যাপী কর্মসূচি আমাদের। একটি আলোচনা সভা সাতই মার্চে আছে এবং সেখানে আমাদের কথা বলবো"।

কিন্তু শেখ মুজিবুর রহমানের সাতই মার্চের ভাষণের বার্ষিকী উপলক্ষেই বিএনপির আলোচনা সভার কর্মসূচি কি-না সেটি আসলে পরিষ্কারভাবে হ্যাঁ বা না বলেননি দলটির নেতাদের কেউ।

বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার ঘনিষ্ঠ হিসেবে সুপরিচিত অধ্যাপক ডঃ মাহবুব উল্লাহ বলছেন আওয়ামী লীগের নেতাদের প্রতিক্রিয়া তার চোখে পড়েছে কিন্তু এভাবে দেখার সুযোগ আছে বলে মনে করেন না তিনি।

"আমি জানিনা বিএনপি নতুন কিছু বলবে কি-না যা তারা ৭৭ সালের জন্মের পর থেকে বলেনি। তবে দলটি স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে তার দৃষ্টিভঙ্গির আলোকে আলোচনা করতেই পারে। হয়তো সাতই মার্চে হলেও সেটি শুধু সাতই মার্চে না থেকে সবকিছু নিয়েই আলোচনা হতে পারে"।

তিনি বলেন বিএনপি এখন হঠাৎ করে সাতই মার্চ নতুনভাবে পালন শুরু করলে তার কর্মীদের এর কারণও নিশ্চয় জানাবে।

"আওয়ামী লীগ ও বিএনপি অনেক বিষয়কেই আলাদা দৃষ্টিভঙ্গিতে দেখে এবং তার ঐতিহাসিক কারণও আছে। এখন স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছরে সবকিছু নিয়েই আলোচনা কিংবা মূল্যায়ন করা যেতেই পারে নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গির আলোকে," বিবিসিকে বলছিলেন তিনি।

তবে গত বুধবার স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর কর্মসূচি ঘোষণা করে বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন সবাইকে নিজ অবস্থান থেকে উৎসাহ ও গুরুত্বের সাথে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পালনের আহবান জানিয়েছেন।

দলটির এবারের কর্মসূচিতে প্রথম বারের মতো ২৫শে মার্চের কালো রাত্রি উপলক্ষেও আলোচনা সভার কর্মসূচি রাখা হয়েছে।

দলটির পরিকল্পনা অনুযায়ী পহেলা মার্চ সুবর্ণ জয়ন্তীর কর্মসূচির উদ্বোধন হবে ঢাকায় আর ৩১শে মার্চ মুক্তিযুদ্ধের বইমেলা ও চিত্রাঙ্কন প্রদর্শনীর মাধ্যমে এ কর্মসূচির সমাপ্তি হবে।  সূত্র: বিবিসি বাংলা

স্বাধীন বাংলা/ন উ আহমাদ

আজ সুসংবাদ দেবেন প্রধানমন্ত্রী
                                  

স্বাধীন বাংলা রিপোর্ট : দেশবাসীকে আজ সুসংবাদ দেবেন  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ হতে উন্নত দেশে উত্তরণের জন্য জাতিসংঘের চূড়ান্ত সুপারিশ লাভ করায় আজ তিনি শনিবার সংবাদ সম্মেলনে আসছেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রেস উইং থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। বিকেল ৪টায় গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় প্রান্তে ভার্চুয়ালি প্রেস কনফারেন্স যুক্ত হবেন প্রধানমন্ত্রী।

স্বল্পোন্নত দেশ (এলডিসি) থেকে বের হতে দ্বিতীয় দফায় জাতিসংঘের আনুষ্ঠানিক পর্যালোচনার মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ। ২২ থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি জাতিসংঘের কমিটি ফর ডেভেলপমেন্ট পলিসি (সিডিপি) এলডিসিগুলোর জন্য ত্রিবার্ষিক পর্যালোচনা বৈঠক করে। সিডিপি দ্বিতীয় দফায় এলডিসি থেকে বের হওয়ার প্রয়োজনীয় মানদণ্ড বাংলাদেশ পূরণ করতে পেরেছে কিনা তা নিয়ে পর্যালোচনা হয়। বাংলাদেশের পক্ষে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল অংশ নেন।

স্বাধীন বাংলা/জ উ আহমাদ

ঢাকা-শিলিগুড়ি রেল: নতুন সংযোগে ভারতীয়দের কী লাভ
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের আরও একটি নতুন রেল পথ চালু হওয়ার কথা রয়েছে ২৬শে মার্চ। পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চলীয় শিলিগুড়ি থেকে ঢাকা পর্যন্ত ওই ট্রেন সপ্তাহে দু`দিন করে চলবে বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

এই ট্রেনটি চালু হলে পশ্চিমবঙ্গ, সিকিমে যেমন বাংলাদেশী পর্যটকরা বড় সংখ্যায় অনায়াসে আসতে পারবেন, তেমনই সিকিম এবং পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চলের মানুষদেরও বাংলাদেশ যেতে সুবিধা হবে।

পর্যটন শিল্প এই ট্রেনটি নিয়ে আশাবাদী হলেও পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চলীয় অথবা সিকিমের মানুষ কতটা এই ট্রেনে চেপে বাংলাদেশে আসতে পারবে, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

কারণ, শিলিগুড়িতে বাংলাদেশের কোনও ভিসা কেন্দ্র নেই, তাই ভারতীয় পর্যটকদের এই ট্রেনে চাপতে গেলে কলকাতায় গিয়ে ভিসা করিয়ে তারপরে শিলিগুড়ি ফিরে এসে ট্রেন ধরতে হবে।

শিলিগুড়ির অ্যাসোসিয়েশন ফর কনজারভেশন অ্যান্ড ট্যুরিজমের আহ্বায়ক রাজ বসু বলছিলেন, "আমরা তো আশা করছি এই নতুন ট্রেনে দু`দেশ থেকেই বহু মানুষ যাতায়াত করবেন, কিন্তু একটা সমস্যা হচ্ছে যে ভিসা করাতে যেতে হবে কলকাতায়। তারপর এখানে এসে ট্রেন ধরা যাবে।"

কলকাতায় বাংলাদেশের উপ রাষ্ট্রদূত তৌফিক হাসান বিবিসিকে বলেছেন, "একবার শিলিগুড়িতে একটা ভিসা কেন্দ্র করার কথা উঠেছিল, কিন্তু তা নিয়ে আর এগুনো হয় নি। অতীতে কয়েকবার ভিসা শিবির সেখানে করা হয়েছিল - কিন্তু এখন মেশিন পাঠযোগ্য ভিসা হয়ে যাওয়ার ফলে বেশ ভারি যন্ত্র লাগে। সেগুলো বয়ে নিয়ে গিয়ে শিবির করা বোধহয় সম্ভব হবে না।"

কিন্তু ভবিষ্যতে যদি ভিসা আউটসোর্সিং করে দেওয়া হয়, তাহলে একটা সমাধানের পথ বেরতে পারে বলে মনে করেন মি. হাসান।

ভারত আর বাংলাদেশের রেল কর্মকর্তাদের মধ্যে এক বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে যে শিলিগুড়ি সংলগ্ন বড় স্টেশন নিউ জলপাইগুড়ি বা এনজেপি থেকে যাত্রা শুরু করে ট্রেনটি প্রথম ৮৪ কিলোমিটার পথ ভারতের মধ্যে দিয়ে আর বাকি ৪৪৬ কিলোমিটার পথ বাংলাদেশের ভেতর দিয়ে যাবে।

নিউ জলপাইগুড়ি থেকে হলদিবাড়ি হয়ে সীমান্ত পেরবে ট্রেনটি।

তারপর বাংলাদেশের চিলাহাটি, নীলফামারী, পার্বতীপুর, হিলি, নাটোর ঈশ্বরদী আর টাঙ্গাইল হয়ে ট্রেন পৌঁছবে ঢাকায়।

এনজেপি স্টেশন থেকে সোমবার আর বৃহস্পতিবার দুপুরে ছাড়বে এবং রাত ১১টায় ঢাকা পৌঁছবে। ওই দিনই রাতে ঢাকা থেকে ফিরতি পথে ট্রেনটি ভারতের দিকে রওনা হবে।

পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চল এবং সিকিমে যারা পর্যটন শিল্পে সঙ্গে জড়িত, তারা এই নতুন রেলপথ নিয়ে বেশ উচ্ছ্বসিত।

হিমালয়ান হসপিটালিটি এবং ট্যুরিজম ডেভেলপমেন্ট নেটওয়ার্কের সাধারণ সম্পাদক সম্রাট সান্যাল বলছিলেন, "আমরা দীর্ঘদিন ধরেই এই অঞ্চলের সার্ক দেশগুলোর মধ্যে পর্যটন আরও জনপ্রিয় করে তোলার কথা বলছিলাম নানা ফোরামে। এই ট্রেনটি সেই দিশাতেই এগোনর প্রথম ধাপ।

"এমনিতেই বাংলাদেশ থেকে প্রচুর পর্যটক সাম্প্রতিক কালে দার্জিলিং-ডুয়ার্স বেড়াতে আসেন। এর মধ্যে সিকিমেও বাংলাদেশী নাগরিকদের যাওয়ার ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এতদিন তাদের ফুলবাড়িতে আন্তর্জাতিক সীমান্ত পেরিয়ে আসতে হত। এখন তাদের অনেক সুবিধা হয়ে যাবে।"

"ওদিক থেকে যেমন পর্যটক আসবেন, এদিক থেকেও বহু মানুষ বাংলাদেশ যেতে চান। তারাও এখন সরাসরি ঢাকায় পৌঁছে যেতে পারবেন। এটা খুবই ভাল সিদ্ধান্ত," মন্তব্য মি. সান্যালের।

পরিচিত পর্যটন কেন্দ্রগুলি ছাড়াও এখন বহু নতুন পর্যটন কেন্দ্র গড়ে উঠছে দার্জিলিং পাহাড়ে এবং হোটেল ছাড়াও হোম-স্টে`র ব্যাপক প্রচলন হয়েছে।

তাই বহু বাংলাদেশী পর্যটক এই অঞ্চলে বেড়াতে আসছেন আজকাল - যদিও করোনা সংক্রমণের জন্য গতবছর প্রায় কেউই আসেন নি।

আবার দার্জিলিং পাহাড় এবং সিকিমের বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের কাছেও বাংলাদেশের সোমপুর মহাবিহার, মহাস্থানগড় এবং মুন্সিগঞ্জের বজ্রযোগিনী বিশেষভাবে আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে বলে মনে করেন রাজ বসু।

তার কথায়, "এই অঞ্চলের বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা যেভাবে বোধগয়া বা নালন্দায় যান, সহজেই এখন তারা সোমপুর মহাবিহার বা মহাস্থানগড় - এসব বৌদ্ধ তীর্থ ক্ষেত্রে যেতে পারবেন। আবার অনেকেরই ইচ্ছা থাকে ঢাকার কাছে বজ্রযোগিনী গ্রামে অতীশ দীপঙ্করের জন্মস্থান দেখে আসতে। এছাড়া ঢাকা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজারের মতো পরিচিত পর্যটন স্থানগুলো তো আছেই।"

পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চলের বহু মানুষের পূর্বপুরুষ পূর্ববাংলা থেকেই চলে এসেছিলেন - কেউ চা বাগান, কেউবা রেলে চাকরি করতে। তাদের উত্তরপুরুষদের মধ্যে নিজের শেকড়ের খোঁজে বাংলাদেশ যাওয়ার ভালোরকম উৎসাহ আছে বলে মনে করেন মি. বসু।

"এছাড়া যাকে কালিনারি ট্যুরিজম বলা হয়, বাংলাদেশের নামকরা সব খাবার চেখে দেখতে বা সেখানকার মানুষদের যে আতিথেয়তার কথা আমরা শুনেছি, তার আস্বাদ নিতেও অনেকে সেদেশে যেতে চান। তাদের পক্ষেও সরাসরি ট্রেন অনেকটাই সুবিধা করে দেবে," বলছিলেন রাজ বসু।

সম্রাট সান্যালের কথায়, "পর্যটন শিল্প তখনই সফল হয়, যখন দু`দিক থেকেই পর্যটক আসবেন বা যাবেন।"

তাই এই নতুন ট্রেনে যাতায়াত দু`দেশের মানুষের কাছেই সুবিধাজনক করতে শিলিগুড়িতে বাংলাদেশের ভিসা ব্যবস্থা করা আশু প্রয়োজন বলেই মনে করছেন পর্যটন শিল্পের সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিরা। সূত্র : বিবিসি বাংলা

স্বাধীন বাংলা/ন উ আহমাদ

করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রশংসা জাতিসংঘ মহাসচিবের
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : মহামারি করোনার কারণে সৃষ্ট স্বাস্থ্যগত ও আর্থ-সামাজিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বাংলাদেশের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে এক ভার্চ্যুয়াল বৈঠকে এ কথা বলেন তিনি। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বৈঠকে গুতেরেস বলেন, কোনো ঝুঁকি নিরসনের বৈশ্বিক নেতৃত্বে বাংলাদেশ সবসময়েই শীর্ষস্থানীয়। তাই করোনা মহামারি মোকাবিলায় বাংলাদেশের এ ধরণের সাফল্য দেখে আমি মোটেও অবাক হইনি।

বৈঠকে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়েও আলোচনা হয়েছে। ভাসানচরে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের জন্য জাতিসংঘের মানবিক সহায়তা চেয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

রোহিঙ্গা ইস্যুতেও বাংলাদেশের ভূমিকার প্রশংসা করে জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, আমাদের লক্ষ্য অভিন্ন, আর তা হলো রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন তিন দিনের সফরে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন।

স্বাধীন বাংলা/ন উ আহমাদ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার লেখক মুসতাকের কারাগারে মৃত্যু
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেপ্তার লেখক মুসতাক আহমেদ গাজীপুরের কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে মারা গেছেন।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে তার মৃত্যু হয়। `রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রে`র অভিযোগে গ্রেপ্তার মুসতাক আহমেদ গত বছরের মে মাস থেকে কারাবন্দি ছিলেন। তার বয়স হয়েছিল ৫৩ বছর। তার বাড়ি নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায়।

কাশিমপুর কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার গিয়াস উদ্দিন এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি জানান, সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে মুসতাক আহমেদ কারাগারে মাথা ঘুরে পড়ে যান। দ্রুত তাকে শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ৮টা ২০ মিনিটে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তবে হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে, কারাগার থেকে মৃত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে আনা হয়। তার মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যায়নি। ময়নাতদন্ত শেষে সঠিক কারণ জানা সম্ভব হবে।

গত ১১ জানুয়ারি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোর, লেখক মুসতাক আহমেদ ও রাষ্ট্রচিন্তার কর্মী দিদারুল ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয় পুলিশ।

২০২০ সালের মে মাসে রমনা থানায় মুসতাকসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে তিনটি মামলা করে র‌্যাব। তাদের বিরুদ্ধে পরস্পর যোগসাজশে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে জাতির পিতা, বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধ, মহামারি করোনাভাইরাস সম্পর্কে গুজব, রাষ্ট্র ও সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করতে অপপ্রচার ও বিভ্রান্তি ছড়ানোর অভিযোগ আনা হয়।

মামলার এজাহারে বলা হয়, তারা রাষ্ট্রের জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তি, অস্থিরতা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অপরাধ করেছেন।

গত সেপ্টেম্বরে এই মামলায় গ্রেপ্তার মিনহাজ মান্নান ও দিদারুল ভূঁইয়া জামিনে মুক্তি পান। তবে কার্টুনিস্ট কিশোর ও লেখক মুসতাকের জামিন হয়নি। ছয়বার মুসতাকের জামিন আবেদন নাকচ করেছেন আদালত।


স্বাধীন বাংলা/ন উ আহমাদ

‘ভাষা আন্দোলন ও সৈয়দ মুজতবা আলী’ শীর্ষক আলোচনা সভা
                                  

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলা সাহিত্যের অন্যতম ঔপন্যাসিক, প্রখ্যাত পন্ডিত, ছোটগল্পকার, অনুবাদক ও রম্যরচয়িতা এবং মাতৃভাষা আন্দোলনের অন্যতম অগ্রসৈনিক সিলেটের কৃতি সন্তান সৈয়দ মুজতবা আলীর স্মরণে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ‘ভাষা আন্দোলন ও সৈয়দ মুজতবা আলী’ শীর্ষক আলোচনা সভাটি বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫টায় রাজধানীর বিটাক এর সভা কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বিটাকের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) ও সৈয়দ মুজতবা আলী পরিষদের সভাপতি আনোয়ার চৌধুরী।

সৌমিত্র দেবের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন- প্রফেসর নিপেন্দ্র লাল দাস, ওবায়দুল্লাহ সাগর, জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক- এডভোকেট জসিম উদ্দিন, মোকাম্মেল চৌধুরী মেনন, আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, সৈয়দ মুজতবা আলীর গল্প বলার ভঙ্গি, তাঁর মেজাজ, তাঁর শৈলী, তাঁর ঐশ্বর্য অনুকরণীয়। তিনিই অবলীলায় বিচরণ করতেন কথ্য ভাষার অলিগলিতে, মৌখিক সাহিত্যের পথেপ্রান্তরে। ফলে তাঁর ‘বলা’ ছিল বৈশিষ্ট্যমন্ডিত।

বক্তারা বলেন, ১৯৪৭ সালে দ্বিজাতি তত্বের ভিত্তিতে দেশ ভাগের সময়ই রাষ্ট্র ভাষা ‘বাংলা’র প্রয়োজনীয়তা অনুধাবন করে বাংলাকে রাষ্ট্রীয় ভাষার দাবি তুলেন প্রথিতযশা লেখক সৈয়দ মুজতবা আলী। সর্বদা সদালাপী ও অত্যন্ত তীক্ষ্ণ বুদ্ধিসম্পন্ন ব্যক্তিত্ব ছিলেন সৈয়দ মুজতবা আলী। মাতৃভাষা বাংলাকেও রাষ্ট্রীয় ভাষা হিসেবে স্বীকৃতির জোরালো আওয়াজ তুললে তৎকালীন পাকিস্তান সরকারের কাছে তিনি ও তার পরিবার নিগৃহীত হয়। তার পরিবারের উপর দমনপীড়ন চালানো হয়। তিনি সর্বদা রাষ্ট্রীয় বঞ্চনার শিকার হয়েছেন। পাকিস্তান সরকার তাকে দেশদ্রোহী ও দালাল হিসেবে চিহ্নিত করে। প্রখর বুদ্ধিমত্তার অধিকারী সৈয়দ মুজতবা আলী বুঝতে পেরেছিলেন- মাতৃভাষা ‘বাংলা’র দাবি আদায় করতে না পারলে এদেশ স্বাধীন করা যাবে না। মাতৃভাষা ও মাতৃভূমির প্রতি নিখাদ ভালোবাসার টানে তিনি নিজেকে অকাতরে বিলিয়ে গেছেন।

বক্তারা আরও বলেন, দেশ স্বাধীনের সূচনা হয়েছিল মুজতবা আলীদের ভাষা আন্দোলনের মাধ্যমে। কিন্তু দেশ স্বাধীন হলেও যথাযথ মূল্যায়ন করা হয়নি আপাদমস্তক দেশপ্রেমিক সৈয়দ মুজতবা আলীকে। বাংলাদেশের কোথাও কোন রাস্তা বা স্থাপনার নামকরণ পর্যন্ত হয়নি সৈয়দ মুজতবা আলীর নামে। এভাবে চলতে পারে না।

সৈয়দ মুজতবা আলীর বাড়ি বৃহত্তর সিলেটের হবিগঞ্জের বাহুবলে। বক্তারা তাই দাবি জানান, অন্তত সিলেটের সর্ববৃহৎ সামাজিক সংগঠন জালালাবাদ এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে যেন কীর্তিমান এ সাহিত্যিকের প্রতি শ্রদ্ধার নিদর্শন স্বরূপ ‘সৈয়দ মুজতবা আলী সাহিত্য পুরস্কার’ প্রদানের ব্যবস্থা করা হয়।

সভাপতির বক্তব্যে আনোয়ার চৌধুরী বলেন, সৈয়দ মুজতবা আলী ছিলেন আন্তর্জাতিক ব্যক্তিত্ব। আমরা যা বলি, তা মনে প্রাণে বিশ্বাস করি না বলেই সৈয়দ মুজতবা আলীকে ধারণ করতে পারিনি। তাকে ধারণ করতে পারলে তার সাহিত্যকর্মকে ধারণ করতাম। তাকে পাকিস্তান ধারণ করতে পারেনি। ভারত গ্রহণ করতে পারেনি। বাংলাদেশ এখনও যথাযথভাবে তার মূল্যায়ন করতে পারেনি। আজকের বাস্তবতায় সৈয়দ মুজতবা আলীকে অনুসরণ করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। নতুন প্রজন্মের কাছে সৈয়দ মুজতবা আলীকে তুলে ধরতে হবে।

নাসির-তামিমা দম্পতির সংবাদ সম্মেলন
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : আইন অনুযায়ী বিবাহবিচ্ছেদ ছাড়াই একজনের স্ত্রীকে বিয়ে করার অভিযোগে ঢাকার সিএমএম আদালতে ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তার স্ত্রী তামিমা সুলতানার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হবার পর বিষয়টি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন এই দম্পতি।

সংবাদ সম্মেলনে ক্রিকেটার মি. হোসেন এবং তার স্ত্রী দুইজনই বক্তব্য দেন।

প্রায় আধা ঘণ্টা ধরে চলা ওই সংবাদ সম্মেলনে তারা দুইজনই তামিমা সুলতানার প্রথম স্বামী রাকিব হাসানের অভিযোগকে মিথ্যা বলে দাবি করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে নাসির হোসেন বলেছেন, নিয়ম অনুযায়ী তামিমার বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে, এবং তামিমার বিয়ে ও সন্তান সম্পর্কে সব কিছু জেনেই তিনি বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

তিনি বলেছেন "আমরা যা করেছি `লিগ্যাল ওয়ে`তে, বেআইনি কিছু করিনি। আমরা যথেষ্ট পরিনত, সুতরাং বুঝে শুনে আইনগতভাবে কাজ করেছি।"

গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তামিমাকে নিয়ে ভুল এবং `উল্টাপাল্টা` কিছু প্রচার করা হলে `আইনগত ব্যবস্থা` নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন নাসির হোসেন।

পুরো বিষয়টিতে তাদের দুইজনের পরিবারকে ভুগতে হচ্ছে বলে তারা উল্লেখ করেছেন।

তামিমার প্রথম স্বামী রাকিব হাসানের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করার কথাও বলেছেন নাসির হোসেন।

সংবাদ সম্মেলনে নাসির হোসেনের স্ত্রী তামিমা বলেছেন, রাকিব হাসানের সঙ্গে ২০১৭ সালে বিবাহবিচ্ছেদ হয় তার।

সংবাদ সম্মেলনে তারা তালাকের একটি কপি দেখান সাংবাদিকদের।

তামিমা বলেছেন, ২০১৯ সাল পর্যন্ত তাদের একমাত্র কন্যা তার কাছেই ছিল। এরপর ২০১৯ সালে রাকিব হাসানের পরিবার শিশুটিকে তাদের বাসায় নিয়ে যায়।

তিনি বলেন, "একমাত্র আমার একটি মেয়ে আছে, এইটা ছাড়া উনি (রাকিব) যা বলছেন, সবই মিথ্যা।"

এর আগে দুপুরে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তার স্ত্রী তামিমা সুলতানার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন তামিমার প্রথম স্বামী রাকিব হাসান।

মি. হাসান তামিমা সুলতানাকে নিজের স্ত্রী দাবি করে গত কয়েকদিন ধরে গণমাধ্যমে কথা বলে আসছেন। বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ব্যাপক আলোচনা চলছে।

সংবাদ সম্মেলনে এই মামলার ব্যাপারে এখনো কিছু জানেন না উল্লেখ করে নাসির হোসেন বলেছেন, মামলা হলে আইনগতভাবে বিষয়টি মোকাবেলা করবেন তারা।

গত ১৪ই ফেব্রুয়ারি ঢাকার একটি রেস্তোরাঁয় এক অনুষ্ঠানে তামিমা সুলতানা ও নাসির হোসেন বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।

মি. হাসানের আইনজীবী ইশরাত হাসান বিবিসি বাংলাকে বলেছেন, আদালত `তামিমা সুলতানার স্বামী` রাকিব হাসানের জবানবন্দী গ্রহণ করেছেন।

বিষয়টি তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন পিবিআইকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

মার্চের ৩০ তারিখের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে জমা দিতে বলা হয়েছে পিবিআইকে।

এর আগে থানায় একটি জিডি করেছিলেন রাকিব হাসান। সূত্র : বিবিসি বাংলা

স্বাধীন বাংলা/ন উ আহমাদ

নিহত সেনাদের কবরে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : পিলখানায় বিডিআর বিদ্রোহে নৃশংস হত্যাকাণ্ডের শিকার সেনা কর্মকর্তাদের কবরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল নয়টার দিকে রাজধানীর বনানীতে সামরিক কবরস্থানে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে তাদের প্রতি এই শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

প্রথমে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের পক্ষে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তার সামরিক সচিব। এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে তার সামরিক সচিব শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে শ্রদ্ধা জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান।

এরপর তিন বাহিনীর প্রধান, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) মহাপরিচালক, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
পর্যায়ক্রমে শ্রদ্ধা জানান নিহত সেনা কর্মকর্তাদের স্বজনেরা। এরপর বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

২০০৯ সালের ২৪ ও ২৫ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর পিলখানায় বিডিআর সদর দপ্তরকে (বর্তমানে বিজিবি) রক্তাক্ত করে বাহিনীর কিছু সদস্য। তাদের হাতে প্রাণ হারান ৫৭ সেনা কর্মকর্তাসহ ৭৪ জন। এ ঘটনায় হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে দুটি মামলা করা হয়। হত্যা মামলার দুই ধাপ বিচার শেষ হয়েছে। আর বিস্ফোরক মামলায় এখনও সাক্ষ্য গ্রহণ চলছে।

স্বাধীন বাংলা/ন উ আহমাদ

মোহাম্মদপুরে রাস্তা নারীর লাশ
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : রাজধানীর মোহাম্মদপুরে রাস্তা থেকে অজ্ঞাত এক নারীর (২৪) মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেন মোহাম্মদপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শফিকুল ইসলাম।

তিনি জানান, বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দিনগত রাত ১টার দিকে মোহাম্মদপুর তাজমহল রোড ১২/১২ বাড়ির সামনের রাস্তা থেকে অজ্ঞাত ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহতের শরীরে আঘাতের কোনো চিহ্ন পাওয়া যায়নি। মৃত্যুর কারণও এখনো জানা যায়নি। তবে দেখে মনে হচ্ছে নিহত নারী ভবঘুরে নয়।

মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

স্বাধীন বাংলা/ন উ আহমাদ

আজ পিলখানা হত্যা দিবস
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক : ২০০৯ সালের এই দিনে তৎকালীন বাংলাদেশ রাইফেলস বর্তমানে বিডিআর (বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ) সদর দফতর পিলখানায় বিপথগামী সৈনিকরা নির্মম হত্যাযজ্ঞ চালায়। ওই বছরের ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি বিপথগামী কিছু বিডিআর সদস্য ৫৭ জন সেনা কর্মকর্তা ছাড়াও নারী ও শিশুসহ আরও ১৭ জনকে নির্মমভাবে হত্যা করে। তাদের স্মরণে বৃহস্পতিবার শাহাদাতবার্ষিকী পালন করবে বিজিবি ও সেনাবাহিনী।

দিনটি পালনের উদ্দেশ্যে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও সেনা সদর নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। বিজিবি ও আন্তবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর) থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো পৃথক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তাদের কর্মসূচির কথা জানানো হয়।

আন্তবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর) জানায়, ২০০৯ সালের ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি পিলখানায় সংঘটিত বর্বরোচিত হত্যাকাণ্ডে সেনাবাহিনীর শহীদ সদস্যদের শাহাদাতবার্ষিকী পালন করা হবে। এ উপলক্ষে বনানী সামরিক কবরস্থানে শহীদ সেনা সদস্যদের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়েছে সকাল ৯টায়।

সেনাবাহিনীর ব্যবস্থাপনায় বনানী সামরিক কবরস্থানে রাষ্ট্রপতির প্রতিনিধি, প্রধানমন্ত্রীর প্রতিনিধি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, তিন বাহিনীর প্রধানগণ (সম্মিলিতভাবে), স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব এবং বিজিবি মহাপরিচালক (একত্রে) শহীদদের স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

অন্যদিকে, বিজিবি’র সদর দফতর পিলখানা থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ২০০৯ সালের ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি পিলখানা হত্যাকাণ্ডে শহীদদের স্মরণে কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে। দিনের কর্মসূচি অনুযায়ী শহীদদের রুহের মাগফিরাতের উদ্দেশ্যে পিলখানায় বিজিবির সদর দফতরসহ সব রিজিয়ন, সেক্টর, প্রতিষ্ঠান ও ইউনিটের ব্যবস্থাপনায় কোরআনখানি হবে। বিজিবি’র সব মসজিদে এবং বিওপি পর্যায়ে শহীদদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। দিনটি পালন উপলক্ষে বিজিবি’র যেসব স্থানে রেজিমেন্টাল পতাকা উত্তোলন হয়, সেসব স্থানে বিজিবি পতাকা অর্ধনমিত থাকবে এবং বিজিবি’র সব সদস্য কালো ব্যাজ পরিধান করবে।

পরদিন ২৬ ফেব্রুয়ারি (শুক্রবার) বাদ জুমা পিলখানায় বিজিবির কেন্দ্রীয় মসজিদ, ঢাকা সেক্টর মসজিদ এবং বর্ডার গার্ড হাসপাতাল মসজিদে শহীদ ব্যক্তিবর্গের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। ওই দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এছাড়াও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব, বিজিবি মহাপরিচালক, শহীদদের নিকটাত্মীয়, পিলখানায় কর্মরত সব অফিসার, জুনিয়র কর্মকর্তা, অন্যান্য পদবির সৈনিক এবং বেসামরিক কর্মচারীরা অংশ নেবেন।

স্বাধীন বাংলা/ন উ আহমাদ


   Page 1 of 369
     জাতীয়
আজ মধ্যরাত থেকে ২ মাস ইলিশ ধরা বন্ধ
.............................................................................................
মানুষের নিরাপত্তার জন্যই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন : তথ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
১৭ বছরেও বিচার শেষ হয়নি ড. হুমায়ুন আজাদ হত্যা মামলার
.............................................................................................
মেঘনার অভয়াশ্রমে দুই মাস মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা
.............................................................................................
লেখক মুশতাকের মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন
.............................................................................................
ধানমন্ডিতে ছাদ থেকে ফেলে তরুণীকে হত্যা
.............................................................................................
বিএনপির ৭ই মার্চের কর্মসূচিকে স্বাগত জানাচ্ছে আওয়ামী লীগ, তবে বিএনপির ব্যখ্যা ভিন্ন
.............................................................................................
আজ সুসংবাদ দেবেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
ঢাকা-শিলিগুড়ি রেল: নতুন সংযোগে ভারতীয়দের কী লাভ
.............................................................................................
করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রশংসা জাতিসংঘ মহাসচিবের
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার লেখক মুসতাকের কারাগারে মৃত্যু
.............................................................................................
‘ভাষা আন্দোলন ও সৈয়দ মুজতবা আলী’ শীর্ষক আলোচনা সভা
.............................................................................................
নাসির-তামিমা দম্পতির সংবাদ সম্মেলন
.............................................................................................
নিহত সেনাদের কবরে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
.............................................................................................
মোহাম্মদপুরে রাস্তা নারীর লাশ
.............................................................................................
আজ পিলখানা হত্যা দিবস
.............................................................................................
সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরে ৪০৫ জন পদ শূন্য
.............................................................................................
পানি উন্নয়ন বোর্ডে শূন্য পদ ৫৯৭৯
.............................................................................................
করোনায় ইবি অধ্যাপকের মৃত্যু
.............................................................................................
নতুন কীটনাশকে মশা নিধনের আশ্বাস ঢাকা দক্ষিণের মেয়রের
.............................................................................................
নাসিরের বিরুদ্ধে মামলা, পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ
.............................................................................................
ঠাকুরগাঁওয়ে থেকে বিলুপ্তপ্রায় নীলগাই উদ্ধার
.............................................................................................
সন্ধ্যায় সাত কলেজের বিষয়ে জরুরি সভায় সিদ্ধান্ত
.............................................................................................
খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদের মৃত্যুতে পরিকল্পনামন্ত্রীর শোক
.............................................................................................
ইকুয়েডরে কারা দাঙ্গা, নিহত ৬২
.............................................................................................
হল ছাড়ছেন জাবি শিক্ষার্থীরা
.............................................................................................
নীলক্ষেত মোড়ে আজও শিক্ষার্থীদের অবরোধ
.............................................................................................
ভাইয়ের ঘরে বোনের ঝুলন্ত লাশ
.............................................................................................
লিবিয়া থেকে ৭ মরদেহসহ দেশে ফিরলেন ১৪৮ বাংলাদেশি
.............................................................................................
ইব্রাহিম খালেদের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক
.............................................................................................
ইব্রাহিম খালেদের মৃত‍্যুতে পর্যটন প্রতিমন্ত্রীর শোক
.............................................................................................
নিজের সভামঞ্চ গুটালেন কাদের মির্জা
.............................................................................................
আবুল মকসুদ যে কারণে সাদা কাপড় পরতেন
.............................................................................................
খ্যাতিমান ব্যাংকার খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ আর নেই
.............................................................................................
মুজাক্কির হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি
.............................................................................................
দ্বিতীয় চালানে দেশে এলো ২০ লাখ টিকা
.............................................................................................
দেশেই যুদ্ধবিমান তৈরি করতে চাই : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
আইজিপির সঙ্গে বিএনপির বৈঠক
.............................................................................................
দশ হাজার বাংলাদেশি কর্মী নেবে সিঙ্গাপুর
.............................................................................................
ভারতে করোনার নতুন প্রজাতির খবরে নড়েচড়ে বসেছেন বাংলাদেশি বিশেষজ্ঞরা
.............................................................................................
আজ ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় চালান আসতে পারে
.............................................................................................
বাংলাবাজার ঘাটে ঢাকামুখো মানুষের ভিড়
.............................................................................................
বসুরহাটে ১৪৪ ধারা জারি
.............................................................................................
সুপ্রিম কোর্টের সব রায় অচিরেই বাংলায় হবে : প্রধান বিচারপতি
.............................................................................................
শহীদ মিনারের মর্যাদা রক্ষার দাবি
.............................................................................................
শহীদ মিনারে জবির শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন
.............................................................................................
বগুড়ায় বাস-ট্রাক সংঘর্ষে ৬ জন নিহত, আহত ১০
.............................................................................................
ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে মিনারে মানুষের ঢল
.............................................................................................
২১ গুণীজন পেলেন একুশে পদক
.............................................................................................
অটোরিকশা নিবন্ধনের আওতায় আনছে সরকার
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
যুগ্ম সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT