শনিবার, ১৬ অক্টোবর 2021 বাংলার জন্য ক্লিক করুন
  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   আন্তর্জাতিক -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
গণভোটে এগিয়ে মমতা

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
ভোট গণনা চলছে ভবানীপুর উপনির্বাচনের। ইভিএম গণনার দ্বিতীয় রাউন্ড শেষে প্রায় ২৫০০ ভোটের ব্যবধানে এগিয়ে মমতা ব্যানার্জী। মোট ২১ রাউন্ড গণনা হবে। এর পরই ফল প্রকাশ।

পোস্টাল ব্যালট গণনাও এগিয়ে আছেন মুখ্যমন্ত্রী। ৭৭৫ পোস্টাল ব্যালটের গণনা শেষ হয়েছে এরইমধ্যে। অন্যদিকে, মুর্শিদাবাদের দুই কেন্দ্রে চলছে পোস্টাল ব্যালট গণনা। দু’টি কেন্দ্রেই এগিয়ে রয়েছে তৃণমূল। শমসেরগঞ্জে ২৫০ ভোটে এগিয়ে তৃণমূল প্রার্থী আমিরুল ইসলাম। জঙ্গিপুরে ১৭১৭ ভোটে এগিয়ে আছেন তৃণমূল প্রার্থী জাকির হুসেন।

গণভোটে এগিয়ে মমতা
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
ভোট গণনা চলছে ভবানীপুর উপনির্বাচনের। ইভিএম গণনার দ্বিতীয় রাউন্ড শেষে প্রায় ২৫০০ ভোটের ব্যবধানে এগিয়ে মমতা ব্যানার্জী। মোট ২১ রাউন্ড গণনা হবে। এর পরই ফল প্রকাশ।

পোস্টাল ব্যালট গণনাও এগিয়ে আছেন মুখ্যমন্ত্রী। ৭৭৫ পোস্টাল ব্যালটের গণনা শেষ হয়েছে এরইমধ্যে। অন্যদিকে, মুর্শিদাবাদের দুই কেন্দ্রে চলছে পোস্টাল ব্যালট গণনা। দু’টি কেন্দ্রেই এগিয়ে রয়েছে তৃণমূল। শমসেরগঞ্জে ২৫০ ভোটে এগিয়ে তৃণমূল প্রার্থী আমিরুল ইসলাম। জঙ্গিপুরে ১৭১৭ ভোটে এগিয়ে আছেন তৃণমূল প্রার্থী জাকির হুসেন।

মধ্য আকাশে বিমান-হেলিকপ্টার সংঘর্ষ
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
মধ্য আকাশে পৃথক প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের হেলিকপ্টার ও বিমানের সংঘর্ষে ২ জন নিহত হয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনায় এই ঘটনা ঘটে বলে স্থানীয় দমকল বিভাগের মুখপাত্র কিথ ওয়েলচ জানিয়েছেন। দুর্ঘটনার ব্যাপারে ওই প্রশিক্ষণ কেন্দ্র দুটির কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

এই দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তারা দুর্ঘটনায় কোনো প্রত্যক্ষদর্শী ছিল কী না তা খতিয়ে দেখছে। পুলিশ দুর্ঘটনায় সময়ের ভিডিও খুঁজছে বলেও জানা গেছে।

বিমান ও হেলিকপ্টার দুইটি পৃথক প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের বলে স্থানীয় পুলিশের মুখপাত্র সার্জেন জনসন ম্যাক্লম্যানস জানিয়েছেন। আকাশে সংঘর্ষের পর বিমানটি নিরাপদে অবতরণ করে বলে জানা গেছে। তবে হেলিকপ্টারে থাকা দুজন নিহত হয়েছেন

দমকল বিভাগের মুখপাত্র কিথ ওয়েলচ জানান, স্থানীয় সময় শুক্রবার সকাল পৌনে আটটার দিকে ফোনে তাদের দুর্ঘটনার ব্যাপারে জানানো হয়। তারা গিয়ে নিচে হেলিকপ্টারটিকে বিধ্বস্ত অবস্থায় দেখতে পান। দমকল বাহিনীর কর্মীরা পৌঁছানোর পরও হেলিকপ্টারে আগুন জ্বলছিল বলে জানিয়েছেন কিথ।

হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে উ. কোরিয়া
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
হাওয়াসং-৮ নামে একটি নতুন হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া বলে দেশটির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার এ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায় দেশটি। নতুন ক্ষেপণাস্ত্রটিকে ‘কৌশলগত অস্ত্র’ হিসেবে অভিহিত করেছে উত্তর কোরিয়া। খবর বিবিসির।

দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, নতুন ক্ষেপণাস্ত্রটি পাঁচ বছরের সামরিক উন্নয়ন পরিকল্পনায় নির্ধারিত ‘পাঁচটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ’ নতুন অস্ত্রের একটি।

মঙ্গলবার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ঘটনা কঠোর নিষেধাজ্ঞার মধ্যে উত্তর কোরিয়ার অস্ত্র প্রযুক্তির ক্রমবর্ধমান উন্নতির ইঙ্গিত বহন করে।

উত্তর কোরিয়ার গণমাধ্যম কেসিএনএ জানায়, এ অস্ত্র সবক্ষেত্রে দেশের আত্মরক্ষার সক্ষমতাকে বাড়িয়ে তুলবে।

এর আগে মঙ্গলবার উত্তর কোরিয়া তার পূর্ব উপকূল থেকে সাগরে একটি স্বল্প-পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে বলে দাবি করেছিল দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনী। এ ছাড়া চলতি মাসের শুরুতে উত্তর কোরিয়া ব্যালাস্টিক ও ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রেরও পরীক্ষা চালায়।

করোনার মধ্যে তীব্র খাদ্য সংকট সত্ত্বেও অস্ত্র পরীক্ষা কমায়নি উত্তর কোরিয়া। একই সঙ্গে জাতিসংঘের অ্যাটমিক এজেন্সি জানায়, উত্তর কোরিয়া তাদের ইয়ংবেয়ন পারমাণবিক চুল্লি ফের চালু করেছে বলে মনে হচ্ছে। চুল্লিটিতে পারমাণবিক অস্ত্রে ব্যবহৃত প্লুটোনিয়াম উৎপাদন করা হতো।

আফগানিস্তানের জব্দকৃত অর্থ ছাড়ে আমেরিকার প্রতি আহ্বান জানালো পাকিস্তান
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
গত ১৫ আগস্ট তালেবান আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করে। দীর্ঘ ২০ বছরের দখলদারিত্বের অবসান ঘটিয়ে অত্যন্ত অপমানজনকভাবে আফগানিস্তান ত্যাগ করতে হয়েছে মার্কিন সেনাদের।

এরই মধ্যে আমেরিকার বিভিন্ন ব্যাংকে থাকা আফগানিস্তানের প্রায় ১ হাজার কোটি (১০ বিলিয়ন) ডলার জব্দ করে আমেরিকা। আফগানিস্তানের স্বর্ণের রিজার্ভও আটকে দেয় আমেরিকা। এরই প্রেক্ষিতে আফগানিস্তানের অর্থ ছেড়ে দেয়ার জন্য মার্কিন সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে পাকিস্তান। পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি এক বক্তব্যে বলেছেন, আফগানিস্তানের অর্থনীতি ভেঙে পরার দ্বারপ্রান্তে, এ অবস্থা থেকে উত্তোরণের জন্য আমেরিকায় আটকে পড়া অর্থ প্রয়োজন। খবর নিউজ উইকের।

পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওই অর্থের পরিমাণ ১০ বিলিয়ন ডলার বলে ঘোষণা করলেও প্রকৃতপক্ষে আফগানিস্তানের ঠিক কি পরিমাণ অর্থ আমেরিকায় আটকা পড়েছে সে সম্পর্কে সুস্পষ্ট কোনো পরিসংখ্যান পাওয়া যায়নি।

আফগানিস্তান সংকটে পশ্চিমা দেশগুলো পাকিস্তানকে বলির পাঠা বানানোর চেষ্টা করছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ইসলামাবাদের একার পক্ষে আফগান সংকটের সমাধান করা সম্ভব নয় এবং এটি পাকিস্তানের একার দায়িত্বও নয়।

এর আগে তালেবানের নেতৃত্বাধীন আফগানিস্তানের অন্তর্র্বতী সরকারও বহুবার দেশটির আটকে পড়া অর্থ ছেড়ে দিতে মার্কিন সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

দাড়ি কাটতে তালেবানের নিষেধাজ্ঞা জারি
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
আফগানিস্তানের হেলমান্দ প্রদেশে সেলুনে দাড়ি কাটার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তালেবান। তালেবানের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, দাড়ি কাটা ইসলামিক আইনের লঙ্ঘণ। যারা এই কাজ করবে তাদের কঠোর শাস্তি দেওয়া হবে বলেও সতর্ক করেছে তালেবানের ধর্মীয় পুলিশ।

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের কয়েকজন নাপিতও একই ধরনের নির্দেশ পেয়েছেন বলে দাবি করেছেন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানায়, গত মাসে আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর তালেবান উদার শাসন নীতির প্রতিশ্রুতি দেয়। তবে নতুন এই নির্দেশনায় তাদের শাসনামলের কঠোর নীতিরই ইঙ্গিত বলে মনে করছেন অনেকে।

ক্ষমতা দখলের পর বিরোধীদের ওপর কঠোর হয়েছে তালেবান। গত শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) হেরাত প্রদেশে অপহরণের অভিযোগে চার জনকে গুলি করে হত্যা করে তালেবান যোদ্ধারা। এরপর তাদের মরদেহ রাস্তায় ঝুলিয়ে দেন তারা।

এরপর নাপিতদের কারও দাড়ি কাটার ওপর কড়া নিষেধাজ্ঞা দিলো তালেবান। দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় হেরাত প্রদেশের সেলুনগুলোতে দেওয়া নোটিশে নাপিতদের সতর্ক করে বলা হয়েছে, চুল বা দাড়ি কাটার বিষয়ে শরিয়াহ আইন অনুসরণ করতে হবে। তালেবানের নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ‘এ বিষয়ে কারো অভিযোগ করার অধিকার নেই।’

কাবুলের এক নাপিত বলেন, ‘যোদ্ধারা প্রায়ই আসছেন এবং আমাদের দাড়ি কাটা বন্ধের নির্দেশ দিচ্ছেন। তাদের একজন আমাকে বলেছেন, আমাদের ধরার জন্য তারা ছদ্মবেশে আসতে পারেন।’

কাবুলের অন্যতম বড় একটি সেলুনের একজন কর্মী জানান, তাকে সরকারি কর্মকর্তা পরিচয়ে ফোন করে নির্দেশনা দিয়ে বলা হয়েছে, ‘আমেরিকান স্টাইল’ বন্ধ করো। কারো দাড়ি ছাটা বা শেভ করতেও নিষেধ করা হয়েছে আমাকে।

১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তালেবানের প্রথম সরকারের আমলে আফগানিস্তানে নানা ভঙ্গিতে চুল কাটা নিষিদ্ধ করা হয়। আর পুরুষদের দাড়ি রাখতে উৎসাহি করা হয়। তবে তালেবানের পতনের পর আফগানিস্তানে পুরুষের ক্লিন-শেভ জনপ্রিয় হয়ে ওঠে এবং অনেক আফগান পুরুষ সেলুনে গিয়ে পছন্দমতো ভঙ্গিতে চুল কাটিয়ে থাকেন।

তবে নতুন নির্দেশনার পর নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেক নাপিত জানিয়েছেন, তালেবানের নতুন নিয়মের কারণে তাদের জীবিকা হুমকির মুখে পড়বে।

আফগানিস্তানে বিস্ফোরণ-হামলায় ৫ জন নিহত
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলের নানগারহার প্রদেশের জালালাবাদ শহরে পাঁচটি পৃথক ঘটনায় পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার সকালে এসব ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণ ও বন্দুকধারীর হামলার ঘটনায় এখনও কেউ দায় স্বীকার করেনি। এর আগে নানগারহারে হামলার দায় স্বীকার করেছিল আইএস। আগস্টে কাবুল বিমানবন্দরে হামলার দায়ও স্বীকার করেছিল গোষ্ঠীটি। খবর তোলো নিউজের।

অন্তর্র্বতী সরকারের তথ্য ও সংস্কৃতি উপমন্ত্রী জাবিহুল্লা মুজাহিদ আফগানিস্তানে দায়েশ আর হুমকি নয়, তালেবান তাদের ঠেকাতে যথেষ্ট— এ মন্তব্য করার পর হামলার ঘটনা ঘটল।

শহরের বিভিন্ন অংশে চারটি বিস্ফোরণের ঘটনায় দুজনের মৃত্যু হয়। এসব ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও তিনজন। আহতদের দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া হয়।

অপরদিকে এদিন সকালে সীমান্তরক্ষীদের ঘাঁটির কাছাকাছি একটি এলাকায় এক বন্দুকধারীর হামলায় আরও তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এসব হামলার কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।

নানগারহারের তথ্য ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রধান জানান, হতাহত সবাই বেসামরিক নাগরিক। তালেবানের কেউ হতাহত হননি।

অংশগ্রহণমূলক সরকার না হলে আফগানিস্তানে গৃহযুদ্ধ অনিবার্য
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
তালেবানরা সবার অংশগ্রহণমূলক সরকার গঠনে ব্যর্থ হলে আফগানিস্তানে গৃহযুদ্ধ হবে। এ সতর্কতা দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তিনি তালেবানদেরকে প্রতিশ্রুতি রক্ষায় আরো সময় দেয়ার জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। বলেছেন, নারীদের শিক্ষাগ্রহণে বাধা দেয়া হলে তা হবে অনৈসলামিক। বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে ইমরান খান এসব কথা বলেন।

এতে তিনি বলেন, যদি আফগানিস্তানের সব পক্ষকে সরকারে অঙ্গীভূত করা না যায়, তাহলে সহসাই অথবা আরো পরে আফগানিস্তানে গৃহযুদ্ধ শুরু হতে পারে। এর অর্থ হবে এক অস্থিতিশীল এবং বিশৃংখল আফগানিস্তান। পক্ষান্তরে তা হবে সন্ত্রাসীদের জন্য একটি আদর্শ স্থান।

বিষয়টি উদ্বেগজনক। এ সময় ইমরান খান তালেবানদের নতুন সরকারকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দেয়ার জন্য পাকিস্তানের প্রয়োজনীয় শর্তের কথা তুলে ধরেন। এক্ষেত্রে তিনি বলেন, আফগানিস্তানের নতুন নেতৃত্বকে সবার অংশগ্রহণমূলক করতে হবে। মানবাধিকারের প্রতি সম্মান দেখাতে হবে। তালেবানদেরকে তিনি স্মরণ করিয়ে দেন যে, সন্ত্রাসীরা যেন আফগানিস্তানকে ব্যবহার করতে না পারে, যে সন্ত্রাসীরা পাকিস্তানের নিরাপত্তার প্রতি হুমকি হতে পারে।

সম্প্রতি তালেবানরা মেয়েদের জন্য মাধ্যমিক স্কুলের পড়ালেখা বাদ দিয়েছে। তারা শুধু ছেলে এবং পুরুষ শিক্ষকদের শিক্ষকতার অনুমোদন দিয়েছে। এর প্রেক্ষিতে ইমরান খান বিশ্বাস করেন, মেয়েরা সহসাই স্কুলে যোগ দিতে পারবে। তার মতে, মেয়েদেরকে পড়াশোনার বাইরে রাখা হলে তা হবে অনৈসলামিক। তারা ক্ষমতায় আসার পর যে বিবৃতি দিয়েছে, তা ছিল উৎসাহমূলক। আমি আশা করি, তারা মেয়েদেরকে স্কুলে যাওয়ার অনুমোদন দেবে। মেয়েদেরকে শিক্ষিত করা উচিত না বলে তারা যে ধারণা পোষণ করেন, তা ইসলামসম্মত নয়। ধর্মের সঙ্গে মেয়েদের শিক্ষিত হওয়ার কোনো সম্পর্ক নেই।

গত সপ্তাহে তালেবানরা সিদ্ধান্ত জানায় যে, মেয়েদেরকে স্কুলে পাঠানো থেকে বিরত রাখতে হবে। এতে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তীব্র সমালোচনা হয়। এর প্রেক্ষিতে তালেবান মুখপাত্র পরে ব্যাখ্যা দেন যে, মেয়েরা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ক্লাসরুমে ফিরবে। কিন্তু কবে নাগাদ তারা পড়াশোনা শুরু করতে পারবে, অথবা কি ধরণের শিক্ষা তারা গ্রহণ করতে পারবে তা নিশ্চিত নয়। তালেবানদেরকে স্বীকৃতি দেয়ার ক্ষেত্রে পাকিস্তান যে শর্ত আরোপ করেছে বাস্তবে তালেবানরা তা মেনে চলবে কিনা? এ প্রশ্নের উত্তরে ইমরান খান আবারো বলেন, তাদেরকে আরো সময় দেয়া উচিত আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের। এখনই এ বিষয়ে মন্তব্য করা ঠিক নয়। তিনি আশা করেন, আফগান নারীরা তাদের যথোপযুক্ত অধিকার বুঝে পাবেন। তিনি আরো বলেন, অন্য প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে তালেবান সরকারকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দেবে কিনা সে সিদ্ধান্ত নেবে।

পাচার হচ্ছে আফগান সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার ও সাঁজোয়াযান
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
আফগানিস্তানে তালেবান কর্তৃপক্ষের অন্তর্র্বতীকালীন সরকারের তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সাথে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সাবেক আফগান সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার, সাঁজোয়াযান ও অন্যান্য সামরিক সরঞ্জাম অন্যদেশে পাচার হচ্ছে। মঙ্গলবার এসব তথ্য জানানো হয় বলে জানিয়েছে আফগানিস্তানের তোলো নিউজ।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা গেছে, সাবেক আফগান বিমান বাহিনীর অনেক হেলিকপ্টার এখন উজবেকিস্তানে আছে। এছাড়া বহু হামভি (সামরিক বাহিনীর সাঁজোয়াযান) ও রেঞ্জার ট্রাক ইরানে পাচার করা হয়েছে বলেও ছবি প্রকাশিত হয়েছে।

এ বিষয়ে তালেবান কর্তৃপক্ষের অন্তর্র্বতীকালীন সরকারের তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সংস্কৃতি কমিশনের নূর মোহাম্মদ মুতাভাকিল বলেন, সাবেক আফগান সেনাবাহিনীর কিছু সামরিক সরঞ্জাম ইরানে পাচার হওয়ার পর তা আবার ফেরত আনা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, এসব সামরিক সরঞ্জাম ফেরত আনার বিষয়ে (সংশ্লিষ্ট দেশগুলোকে) অনুরোধ করা হবে। কারণ, এগুলো আফগান জনগণের সম্পদ। এখন কিছু ট্যাংক, হেলিকপ্টার ও অন্যান্য সামরিক সরঞ্জাম ইরান থেকে ফেরত আনা হয়েছে।

এদিকে অনেক আফগান এমপি ও সাবেক সেনা কর্মকর্তারা বলেন, এসব সামরিক সরঞ্জাম আফগান জনগণের সম্পদ। এসব সামরিক সরঞ্জাম দেশের বাইরে পাচার হতে দেয়া যাবে না।

সাইয়েদ আহমদ সিলাব নামের এক এমপি বলেন, আশরাফ গনি পালিয়ে যাওয়ার পরে আফগান সরকার ভেঙে পড়ে। ওই সময় (আশরাফ গনি সরকারের সামরিক কর্মকর্তারা) বেশ কয়েকটি হেলিকপ্টার আর শত শত হামভি (সামরিক বাহিনীর সাঁজোয়াযান) প্রতিবেশী দেশগুলোতে পাচার করে। আফগানিস্তানের তালেবান সরকারের উচিৎ ওই সামরিক সরঞ্জামগুলো দেশে ফিরিয়ে আনা।

আব্দুল হাদি কুরাইশি নামের সাবেক এক সেনা কর্মকর্তা বলেন, তৃতীয়বারের মতো আফগানিস্তানের সেনাবাহিনী ও বিমান বাহিনী ভেঙে পড়েছে। এটা বিশাল এক ক্ষতি। আমি এ বিষয়টা নিয়ে উদ্বিগ্ন।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, সাবেক আফগান সরকারে সময় দেশটিতে যুদ্ধের জন্য ১৬০ হেলিকপ্টার ছিল। এছাড়া ২২ হাজার ১৭৬ হামভি সাঁজোয়াযান ছিল। এখন এটা নিশ্চিত করে জানা যাচ্ছে না যে দেশটিতে কতগুলো সামরিক সরঞ্জাম আছে আর কতগুলো প্রতিবেশী দেশগুলোতে পাচার হয়েছে।

সূত্র : তোলো নিউজ

অস্ট্রেলিয়ায় ৫.৮ ত্রামার ভূমিকম্প
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
অস্ট্রেলিয়ার দক্ষিণ-পূর্বের মেলবোর্ন শহর ভূমিকম্পে কেঁপে উঠে। এতে বেশ কয়েকটি ভবন ক্ষতিগ্রস্থ হয়। তবে তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতের কোন খবর পাওয়া যায়নি।

আজ বুধবার স্থানীয় সময় সকাল সোয়া ৯টায় ভিক্টোরিয়া রাজ্যের রাজধানীর কাছে ম্যানসফিল্ডে ৫.৮ মাত্রার এ ভূমিকম্প অনুভূত হয়।

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন বলেছেন, আমরা গুরুতর আঘাতের কোনো খবর পাইনি এবং এটা একটি ভালো সংবাদ।

এদিন দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়া এবং নিউ সাউথ ওয়েলসেও (এনএসডব্লিউ) ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে।   ভূমিকম্পের পর ৪ এবং ৩.১ মাত্রার দু’টি আফটার শক অনুভূত হয়। ভিক্টোরিয়ার জরুরি সেবাদানকারী সংস্থা বাসিন্দাদের পরবর্তী পরাঘাতের জন্য সতর্ক থাকতে বলেছে।

কর্তৃপক্ষ বলেছে, যারা ভিক্টোরিয়ায় রয়েছেন তারা বিপদে আছেন। আফটার শকের শঙ্কা রয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত ভবন এবং অন্যান্য বিপদ থেকে দূরে থাকুন। জরুরি অবস্থা ছাড়া গাড়ি চালানো থেকেও বিরত থাকতে বলা হয়েছে বাসিন্দাদের।

স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ভূমিকম্পের কারণে বেশ কয়েকটি উঁচু টাওয়ার এবং শহরের একটি হাসপাতাল খালি করা হয়েছে। ক্ষতির কারণে কিছু শহরের ট্রাম লাইন স্থগিত রয়েছে।

জিও সায়েন্স অস্ট্রেলিয়া জানিয়েছে, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এটি সবচেয়ে বড় ভূমিকম্পের ঘটনা। ভূমিকম্পের গভীরতা ছিল ১০ কিলোমিটার। অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মেলবোর্নে প্রায় ৫০ লাখ মানুষের বাস করে।

সূত্র: বিবিসি।

তালেবান সরকারের মন্ত্রিপরিষদে নিয়োগ পেলেন যারা
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
আফগানিস্তানে তালেবানের অন্তর্র্বতী সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে মঙ্গলবার মন্ত্রী-উপমন্ত্রী নিয়োগ দেয়া হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন দেশটির তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী জাবিউল্লাহ মুজাহিদ। খবর তোলো নিউজের।

মন্ত্রিপরিষদে যারা স্থান পেয়েছেন তারা হলেন- ভারপ্রাপ্ত বাণিজ্যমন্ত্রী হাজি নুরুদ্দিন আজিজি। হাজি মোহাম্মদ বশির ও হাজি মোহাম্মদ আজিম সুলতানজাদাকে করা হয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী। জনস্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন কালান্দার এবাদ। আব্দুল বারী ওমর ও মুহাম্মদ হাসান গায়ীসিকে একই মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী করা হয়েছে।

মোল্লা মুহাম্মদ ইব্রাহীমকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী করা হয়েছে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী করা হয়েছে মোল্লা আব্দুল কাইয়ুম জাকিরকে। জ্বালানি এবং পানি মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী করা হয়েছে মুজিবুর রহমান ওমরকে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন গোলাম গাউস। জাতীয় পরিসংখ্যান কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান করা হয়েছে মুহাম্মদ ফকিরকে। হাজি গুল মুহাম্মদ ও গুল জারিন কোচাইকে সীমান্ত এবং উপজাতি বিষয়ক উপমন্ত্রী করা হয়েছে। শরণার্থী ও প্রত্যাবাসন বিষয়ক উপমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন আরসালা খরোটি। লুতফুল্লাহ খাইরখোয়াকে উচ্চশিক্ষা উপমন্ত্রী ও নাজিবুল্লাহকে পরমাণু শক্তি বিভাগের পরিচালক করা হয়েছে।

জাতীয় অলম্পিক কমিটির ভারপ্রাপ্ত হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন নাজার মুহাম্মদ মুতমাইন।


রাশিয়ার নির্বাচনে জয়ের পথে পুতিনের দল
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :

রাশিয়ার নির্বাচনে বড় ব্যবধানে জিততে চলেছে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সমর্থক ইউনাইটেড রাশিয়া পার্টি। তিনদিনের নির্বাচন শেষে আংশিক ভোট গণনায় দেখা গেছে, প্রতিদ্বন্দীদের চেয়ে বিপুল ব্যবধান এগিয়ে রয়েছে দলটি। অবশ্য আগের তুলনায় তাদের জনপ্রিয়তা অনেকটা কমে গেছে। খবর রয়টার্সের।

রাশিয়ার কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, এ পর্যন্ত ৩৩ শতাংশ ভোট গণনা হয়েছে। এর মধ্যে ৪৫ শতাংশের কিছু বেশি ভোট পেয়েছে ইউনাইটেড রাশিয়া। আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কমিউনিস্ট পার্টি পেয়েছে ২২ শতাংশ ভোট। এছাড়া, নয় শতাংশ ভোট পেয়েছে জাতীয়তাবাদী এলডিপিআর পার্টি।

আংশিক এ ফলাফলে পুতিনপন্থি দলটির বড় জয়ের লক্ষণ দেখা গেলেও গত নির্বাচনের তুলনায় তাদের এবারের পারফরমেন্স বেশ খারাপ। ২০১৬ সালের ওই নির্বাচনে ৫৪ শতাংশের বেশি ভোট পেয়েছেন ইউনাইটেড রাশিয়া।

জীবনযাত্রার মানে অবনতি ও ক্রেমলিন সমালোচক আলেক্সেই নাভালনির তোলা দুর্নীতির অভিযোগে ভোটব্যাংকে টান পড়েছে পুতিনপন্থিদের। নাভালনি-মিত্রদের পরিকল্পিত নির্বাচনী প্রচারণাতেও ক্ষতি হয়েছে বেশ।

ক্রেমলিন সমালোচকদের অভিযোগ, এবারের নির্বাচনও ছিল ভুয়া। তাদের দাবি, অবাধ নির্বাচন হলে ইউনাইটেড রাশিয়ার ফলাফল আরও বেশি খারাপ হতো।

তবে নির্বাচনের এমন ফলাফলে রাশিয়ার রাজনৈতিক দৃশ্যপটে বড় কোনো পরিবর্তন আসার সম্ভাবনা নেই। ১৯৯৯ সাল থেকে কখনো প্রধানমন্ত্রী কখনো প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতায় থাকা পুতিন আগামী নির্বাচনেও আধিপত্য ধরে রাখবেন বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

অবশ্য ২০২৪ সালে অনুষ্ঠিতব্য সেই নির্বাচনে রুশ প্রেসিডেন্ট লড়বেন কি না তা এখনো জানাননি। ৬৮ বছর বয়সী এ নেতা রাশিয়ায় আজও জনপ্রিয়। দেশটির জনগণ তাকে পশ্চিমাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো ও জাতীয় মর্যাদা পুনঃপ্রতিষ্ঠার কৃতিত্ব দিয়ে থাকে।

আফগানিস্তানে সিরিজ বিস্ফোরণে নিহত ৭
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক:
আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল এবং পূর্বাঞ্চলীয় শহর জালালাবাদে সিরিজ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে ৭ জন নিহত হয়েছেন। গতকাল শনিবারের এ হামলার জন্য তালেবান আইএসকে দায়ী করেছে। তবে, হামলার বিষয়ে এখন পর্যন্ত কেউ দায় স্বীকার করেনি।

গতকালের বিস্ফোরণে জালালাবাদের পাঁচজন এবং কাবুলে অন্তত দুজন নিহত হয়েছে। আর কাবুলের দাশত-ই-বারচি এলাকায় একটি গাড়ি বোমা বিস্ফোরিত হলে ওই দুজন নিহত হয়।

তালেবানের একটি সূত্র আল জাজিরাকে জানায়, জালালাবাদ ও কাবুলের বিস্ফোরণগুলো আইএসআইএল-কে-এর কাজ বলে মনে হচ্ছে। তদন্ত চলছে। অপরাধীদের বিচারের আওতায় আনা হবে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও নিরাপত্তা সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে সংবাদ সংস্থাগুলো জানিয়েছে, জালালাবাদে অন্তত চারটি বিস্ফোরণ ঘটে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এবং বিস্ফোরণের কারণ নির্ধারণের জন্য তদন্ত চলছে।

আফগানিস্তানে নানগারহারের রাজধানী জালালাবাদ হচ্ছে ইসলামিক স্টেট গ্রুপের প্রাণকেন্দ্র। এই দল আগস্টের শেষের দিকে কাবুল বিমানবন্দরে এক রক্তক্ষয়ী হামলার দায় স্বীকার করেছে। এই হামলায় ১০০’রও বেশি মানুষের প্রাণহানি হয়।

তালেবান আগস্টের মাঝামাঝি প্রাক্তন সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার পর ক্ষমতায় ফিরে আসে। তারা দেশে শান্তি ও নিরাপত্তা ফিরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

বিস্ফোরণের স্থানে তোলা ছবিতে দেখা যাচ্ছে একটি সবুজ পিক-আপ ট্রাক, যার উপর সাদা তালেবান পতাকা দেখা গেছে এবং চারপাশে ধ্বংসস্তূপ রয়েছে এবং সশস্ত্র যোদ্ধারা সেখানে দাঁড়িয়ে দেখছে।
সূত্র : আল জাজিরা ও ভয়েস অব আমেরিকা

যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে লেবাননে ইরানের তেল
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
মার্কিন নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ইরান থেকে পাঠানো জ্বালানি তেল লেবাননে পৌঁছেছে। বৃহস্পতিবার সিরিয়ার সমুদ্রবন্দর থেকে ট্যাংকারে করে স্থলপথে ৩৩ হাজার ম্যাট্রিক টন তেল লেবাননে নেয়া হয়। এ ঘটনাকে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে বিজয় বলছে হিজবুল্লাহ। খবর আরব নিউজের।

এর আগে, আগস্ট মাসের মাঝামাঝি সময়ে ইরান থেকে তেলবাহী জাহাজ লেবাননের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। হিজবুল্লাহ মহাসচিব হাসান নাসরুল্লাহ তেলবাহী জাহাজকে সমুদ্রে লেবাননের ভূখণ্ড বলে ঘোষণা করেছিলেন। তিনি এ বক্তব্যের মধ্যদিয়ে মূলত ইসরাইল ও আমেরিকাকে সতর্কবার্তা দিয়েছিলেন।

লেবাননের গণমাধ্যম জানিয়েছে, ইরানের তেল বহনকারী ট্যাংকারের বহর লেবাননের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় বালবেক-হারমেল প্রদেশের হাওয়াশ আল-সাইয়েদ আলী এলাকা দিয়ে লেবাননে প্রবেশ করে।

হিজবুল্লাহর মহাসচিব হাসান নাসরুল্লাহ বলেছেন, মার্কিন নিষেধাজ্ঞার মুখে ইরান থেকে তেল পাঠানোর ঘটনা রাজনৈতিক, সামাজিক ও নৈতিক দিক দিয়ে ইরান এবং হিজবুল্লাহর জন্য বিশাল অর্জন।

জনগণের প্রতি তেল বহনকারী ট্যাংকার বহরের কাছে ভিড় না করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। তিনি বলেন, লোকজনের নিরাপত্তা এবং ট্যাংকার বহরের স্বাভাবিক চলাচলে যাতে বিঘ্ন সৃষ্টি হয় এজন্য ভিড় এড়াতে হবে।

তালেবান সরকার নিয়ে যা বললেন মোদি
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
তালেবান ক্ষমতা নেওয়ার পর প্রথমবার বিশ্ব নেতাদের সামনে আফগান পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

শুক্রবার তাজিকিস্তানের রাজধানী দুশানবেতে সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশনের (এসসিও) শীর্ষ সম্মেলনে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে মোদি তালেবানের নতুন সরকার ক্ষমতায় আসা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, ভারতসহ প্রতিবেশী দেশগুলোতে সন্ত্রাসবাদ আরও মাথাচাড়া দিতে পারে। সন্ত্রাসবাদ রুখতে দেশটির পরিস্থিতিকে গুরুত্ব দিয়ে আঞ্চলিক সহযোগিতা বাড়াতে হবে।

মোদি বলেন, আফগানিস্তানে অস্থিরতার জেরে গোটা বিশ্বে সন্ত্রাসবাদ এবং চরমপন্থা বাড়তে পারে। অন্য সন্ত্রাসবাদী সংগঠনগুলোও এইভাবে সরকার গড়তে উৎসাহী হবে। আফগানিস্তান থেকে অন্য দেশে যাতে সন্ত্রাস না ছড়ায়, সেটা সবাই মিলে নিশ্চিত করতে হবে।

এই সম্মেলনে অংশ নিয়েছেন আটটি সদস্য দেশ ও পাঁচটি পর্যবেক্ষক রাষ্ট্রের প্রতিনিধিরা। সম্মেলনের ফাঁকে দ্বিপাক্ষিক বিভিন্ন বিষয়েও আলাপ সেরে নিচ্ছেন অংশগ্রহণকারী নেতারা।

তালেবানের কাবুল দখলের বিষয়টি টেনে মোদি বলেন, আফগানিস্তানে ক্ষমতার পরিবর্তন অন্তর্ভুক্তিমূলক হয়নি, বরং আলোচনা ছাড়াই হয়েছে। আমাদের মতো প্রতিবেশী দেশগুলোর ওপর এর বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে।  এ ব্যাপারে জাতিসংঘ এবং এসসিও পদক্ষেপ গ্রহণ করুক।

ব্রিটিশদের কাছে ক্ষমা চাইলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আইএস বধূ শামিমা
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
নিজের কৃতকর্মের জন্য ব্রিটিশদের কাছে ক্ষমা চাইলেন সন্ত্রাসী গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বধূ, বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত শামিমা বেগম। ব্রিটেনের জনগণের কাছে ক্ষমাপ্রার্থনা করে তিনি বলেন, “আমি জানি ব্রিটিশদের জন্য আমাকে ক্ষমার চেষ্টা বা ক্ষমা করা কঠিন। তারা অনেকেই আইএস-এর হাতে প্রিয়জন হারিয়েছেন। কিন্তু আমি নিজেও আইএস-এর ভয়ে দিন কাটিয়েছি, প্রিয়জন হারিয়েছি। এ কারণে আমি তাদের দিকটা বুঝতে পারছি।”

ব্রিটিশ টেলিভিশন চ্যানেল আইটিভির ‘গুড মর্নিং ব্রিটেন’ অনুষ্ঠানে তিনি বলেছেন, “যুক্তরাজ্যে ফিরে তিনি আদালতে যেতে চান এবং তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের মোকাবিলা করতে চান।”

আইটিভিকে শামিমা বলেন, “আমি আদালতে যেতে চাই এবং যারা এই দাবিগুলো করছে তার মোকাবিলা করতে চাই। আমি এগুলো মিথ্যা প্রমাণ করতে চাই। কারণ আমি জানি, আমি আইএস-এ কিছুই করিনি, শুধু মা ও স্ত্রী হওয়া ছাড়া। এই দাবিগুলো আমাকে খারাপ হিসেবে প্রতিপন্ন করতে তুলে ধরা হয়েছে। আমার ব্যাপারে সরকারের কাছে কোনও প্রমাণ নেই। কারণ এ ধরনের কিছুই ঘটেনি।”

উল্লেখ্য, আইএস-এ যোগ দিতে ১৫ বছর বয়সে লন্ডন থেকে সিরিয়ায় পালিয়ে যান শামিমা। ফলে ব্রিটিশ সরকার তার নাগিরকত্ব বাতিল করে। সিরিয়ার একটি আশ্রয় শিবিরে থাকা ২২ বছর বয়সী শামিমা ব্রিটেনে ফিরতে এবং নাগরিকত্ব টিকিয়ে রাখতে মামলার অনুমতি চেয়েছিলেন। তবে ব্রিটিশ সুপ্রিম কোর্ট তাকে অনুমতি দেয়নি।


সূত্র: বিবিসি, স্কাই নিউজ

চীনকে ঠেকাতে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন জোট গঠন
                                  

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
আনুষ্ঠানিকভাবে বলা না হলেও মূলত চীনকে ঠেকাতেই একটি ত্রিদেশীয় জোট গড়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি মূলত চীনের প্রভাববৃদ্ধি মোকাবিলা করতেই যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া ও যুক্তরাজ্যকে নিয়ে এ জোট গড়েছেন বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। নতুন জোটের নাম দেওয়া হয়েছে এইউকেইউএস।

জোটের চুক্তি অনুসারে, অস্ট্রেলিয়াকে নিউক্লিয়ার সাবমেরিন (পারমাণবিক শক্তি পরিচালিত ডুবোজাহাজ) তৈরিতে সাহায্য করবে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য। তবে সেই সাবমেরিনে কোনো পারমাণবিক অস্ত্র থাকবে না বলে নিশ্চয়তা দেওয়া হয়েছে। পরমাণু অস্ত্রের বিস্তার রোধ চুক্তিতে (এনপিটি) আগে থেকেই সই রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার।

বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে যৌথভাবে নতুন জোটের ঘোষণা দেন। বাইডেন বলেন, এর মাধ্যমে সহযোগিতা বৃদ্ধিতে ‘ঐতিহাসিক পদক্ষেপ’ নিলো দেশ তিনটি।

হোয়াইট হাউস থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, আমরা সবাই দীর্ঘমেয়াদে ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীলতা নিশ্চিত করার অপরিহার্যতা স্বীকার করছি। এ অঞ্চলের বর্তমান কৌশলগত পরিবেশ এবং এটি কীভাবে বিকশিত হতে পারে তা পরিচালনায় সক্ষম হতে হবে আমাদের। কারণ আগামীতে আমাদের প্রতিটি জাতির ভবিষ্যৎ, প্রকৃতপক্ষে গোটা বিশ্বের স্থায়ী সমৃদ্ধি নির্ভর করছে একটি মুক্ত ও উন্মুক্ত ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরের ওপর।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বরিস জনসন এবং স্কট মরিসনও। অবশ্য তিন নেতার কেউই সরাসরি চীনের নাম উল্লেখ করেননি।

তবে এই জোট ঘোষণার পরপরই ওয়াশিংটনে চীনে দূতাবাসের মুখপাত্র বলেছেন, ওই তিন দেশের উচিত ‘স্নায়ুযুদ্ধের মানসিকতা ও আদর্শগত কুসংস্কার’ ঝেড়ে ফেলা। এটি অন্য দেশের স্বার্থকে লক্ষ্য করে গড়া ‘বাধাদানকারী জোট’ উল্লেখ করে এর তীব্র নিন্দা জানান তিনি।

সূত্র: আল জাজিরা


   Page 1 of 268
     আন্তর্জাতিক
গণভোটে এগিয়ে মমতা
.............................................................................................
মধ্য আকাশে বিমান-হেলিকপ্টার সংঘর্ষ
.............................................................................................
হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে উ. কোরিয়া
.............................................................................................
আফগানিস্তানের জব্দকৃত অর্থ ছাড়ে আমেরিকার প্রতি আহ্বান জানালো পাকিস্তান
.............................................................................................
দাড়ি কাটতে তালেবানের নিষেধাজ্ঞা জারি
.............................................................................................
আফগানিস্তানে বিস্ফোরণ-হামলায় ৫ জন নিহত
.............................................................................................
অংশগ্রহণমূলক সরকার না হলে আফগানিস্তানে গৃহযুদ্ধ অনিবার্য
.............................................................................................
পাচার হচ্ছে আফগান সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার ও সাঁজোয়াযান
.............................................................................................
অস্ট্রেলিয়ায় ৫.৮ ত্রামার ভূমিকম্প
.............................................................................................
তালেবান সরকারের মন্ত্রিপরিষদে নিয়োগ পেলেন যারা
.............................................................................................
রাশিয়ার নির্বাচনে জয়ের পথে পুতিনের দল
.............................................................................................
আফগানিস্তানে সিরিজ বিস্ফোরণে নিহত ৭
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে লেবাননে ইরানের তেল
.............................................................................................
তালেবান সরকার নিয়ে যা বললেন মোদি
.............................................................................................
ব্রিটিশদের কাছে ক্ষমা চাইলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আইএস বধূ শামিমা
.............................................................................................
চীনকে ঠেকাতে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন জোট গঠন
.............................................................................................
চরম অর্থ সংকটে আফগানিস্তান; বিভিন্ন দেশের ১০০ কোটি ডলারের বেশি সহায়তার প্রতিশ্রুতি
.............................................................................................
পাঞ্জশিরে ২০ বেসামরিক লোককে হত্যার অভিযোগ তালেবানের বিরুদ্ধে
.............................................................................................
পদত্যাগ করেছেন গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
বিক্ষোভ দমনে তালেবানের কড়া পদক্ষেপের নিন্দা জানাল জাতিসংঘ
.............................................................................................
আবারো গাজায় ইসরাইলের বিমান হামলা
.............................................................................................
পালিয়ে যাওয়া কর্মকর্তাদের দেশে ফিরতে তালেবান সরকারের অনুরোধ
.............................................................................................
শরিয়া আইন প্রতিষ্ঠার নির্দেশ তালেবানের শীর্ষ নেতার
.............................................................................................
আবারো ভারতে করোনায় মৃত্যু বাড়ছে
.............................................................................................
মিয়ানমার জান্তার বিরুদ্ধে ‘প্রতিরোধ যুদ্ধ’ ঘোষণা ছায়া সরকারের
.............................................................................................
কেয়ারটেকার সরকার গঠনের দিকে যাচ্ছে তালেবান
.............................................................................................
কয়েকশ’ মার্কিন নাগরিককে আটকে রেখেছে তালেবান
.............................................................................................
কালিহাতীতে স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে প্রেমিকের বাড়ীতে অনশন
.............................................................................................
গিনিতে সামরিক অভ্যুত্থান, প্রেসিডেন্ট আটক
.............................................................................................
পাঞ্জশিরের পূর্ণাঙ্গ দখল নিয়েছে তালেবান
.............................................................................................
নকল ভ্যাকসিন চেনার উপায়
.............................................................................................
পাঞ্জশিরে মাসুদের যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করলো তালেবান
.............................................................................................
পাঞ্জশিরে হাজারের অধিক তালেবানকে আটকের দাবি বিরোধীদের
.............................................................................................
কাবুল সফরে আইএসআই প্রধান
.............................................................................................
পাঞ্জশিরে তুমুল যুদ্ধে তালেবান
.............................................................................................
পাঞ্জশিরে প্রতিরোধের মুখে তালেবান; সংঘর্ষে ৮ তালেবান যোদ্ধা নিহত
.............................................................................................
আফগানিস্তান স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র: তালেবানের ঘোষণা
.............................................................................................
পাক-ভারত বিরোধ নিয়ে নিজেদের অবস্থান জানালো তালেবান
.............................................................................................
আফগান সীমান্তে রাশিয়ার সামরিক মহড়া
.............................................................................................
পাক-আফগান সীমান্তে ২ পাকিস্তানী সেনা নিহত
.............................................................................................
পাক-আফগান সীমান্তে ২ পাকিস্তানী সেনা নিহত
.............................................................................................
আবারো কাবুলে হামলা
.............................................................................................
আফগানিস্তানে অভিযান চালাতে অনুমতি লাগবে: তালেবান
.............................................................................................
মার্কিন ডলারের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণের আহ্বান জানিয়েছে চিটাগাং চেম্বার
.............................................................................................
যোগি আদিথ্যনাতের উত্তরপ্রদেশে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে ওয়াইসির দল
.............................................................................................
আফগান নারী স্বাস্থ্যকর্মীদের কর্মস্থলে ফিরতে তালেবানের আহ্বান
.............................................................................................
আফগান নারী এমপি কারগারের কাছে ক্ষমা চেয়েছে মোদি সরকার
.............................................................................................
কাবুল বিমানবন্দরে হামলায় নিহত বেড়ে ৯০, নিহতদের মধ্যে ১৩ মার্কিন সৈন্য
.............................................................................................
পাঞ্জশির উপত্যকা ঘিরে রেখেছে তালেবান, অবরুদ্ধ মাসুদ বাহিনী
.............................................................................................
আফগানিস্তানে গান-বাজনা নিষিদ্ধ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ আখলাকুল আম্বিয়া
নির্বাহী সম্পাদক: মাে: মাহবুবুল আম্বিয়া
যুগ্ম সম্পাদক: প্রদ্যুৎ কুমার তালুকদার

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: স্বাধীনতা ভবন (৩য় তলা), ৮৮ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০। Editorial & Commercial Office: Swadhinota Bhaban (2nd Floor), 88 Motijheel, Dhaka-1000.
সম্পাদক কর্তৃক রঙতুলি প্রিন্টার্স ১৯৩/ডি, মমতাজ ম্যানশন, ফকিরাপুল কালভার্ট রোড, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত ।
ফোন : ০২-৯৫৫২২৯১ মোবাইল: ০১৬৭০৬৬১৩৭৭

Phone: 02-9552291 Mobile: +8801670 661377
ই-মেইল : dailyswadhinbangla@gmail.com , editor@dailyswadhinbangla.com, news@dailyswadhinbangla.com

 

    2015 @ All Right Reserved By dailyswadhinbangla.com

Developed By: Dynamic Solution IT